আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

২০ প্রতিষ্ঠানের কাছে জিম্মি সোনালী ব্যাংক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | ৬৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শীর্ষ ২০ খেলাপি প্রতিষ্ঠানের কাছে জিম্মি রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সোনালী ব্যাংক। ঋণের অর্থও আদায় হচ্ছে না, আবার অর্থ আদায়ে দৃশ্যমান কোনো ব্যবস্থাও নিতে দেখা যাচ্ছে না। ফলে মন্দ ঋণের বোঝা চেপে বসেছে ব্যাংকটির ঘাড়ে। দিনের পর দিন দুর্বল হয়ে পড়ছে আর্থিক প্রতিষ্ঠানটি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নানা অব্যবস্থাপনা ও অনিয়ম-দুর্নীতির মাধ্যমে দেওয়া এসব ঋণ ফেরত পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। তবে বিদ্যমান আইনের যথাযথ প্রয়োগ নিশ্চিত করতে পারলে অনিয়ম কিছুটা কমে আসবে। কিন্তু বাস্তবতা হলো, বিড়ালের গলায় ঘণ্টা বাঁধার লোক খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) সাবেক মহাপরিচালক ড. মইনুল ইসলাম বলেন, এটা অনেক পুরোনো এবং পাতানো খেলা। এর সঙ্গে ব্যাংকের পর্ষদ, ব্যাংকার ও সরকার জড়িত। সব জায়গায় একটা অসাধু চক্র থাকে। তারাই এই অপকর্ম করে। শুধু সোনালী ব্যাংক নয়, পুরো ব্যাংকিং খাতে এ চিত্র। ঋণ পুনঃতপশিলের পাশাপাশি অর্থঋণ আদালতেও আটকে আছে প্রায় ২ লাখ কোটি টাকার খেলাপি ঋণ। যদিও সব সময় বলে থাকি প্রকৃত খেলাপি ঋণ ৪ লাখ কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে। কিন্তু মামলা চলমান থাকায় এসব টাকাকে খেলাপি বলা যাচ্ছে না। পুরো টাকাই বিদেশে পাচার হয়ে গেছে। এ টাকা আদায়ের সম্ভাবনা নেই। তবুও বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে এসব টাকা আদায়ের চেষ্টা করতে হবে।

সোনালী ব্যাংকের হালনাগাদ এক প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০২০ সালের ডিসেম্বর শেষে ব্যাংকের খেলাপি ঋণের অঙ্ক দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৭২১ কোটি টাকা, যা বিতরণ করা ঋণের ২০ দশমিক ৪৮ শতাংশ। এর মধ্যে শীর্ষ ২০ খেলাপির কাছেই পাওনা ৪ হাজার ৮৩ কোটি টাকা, যা মোট খেলাপির ৩৮ শতাংশ। চলতি বছরে এসব বড় খেলাপির কাছ থেকে ঋণ আদায়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২ হাজার ২৩২ কোটি টাকা। কিন্তু জানুয়ারি থেকে আগস্ট পর্যন্ত শীর্ষ ১৬ খেলাপি প্রতিষ্ঠান থেকে এক টাকাও আদায় হয়নি। এর মধ্যে রয়েছে হলমার্ক গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান মেসার্স টি অ্যান্ড ব্রাদার্সের ৪৯০ কোটি টাকা, মেসার্স হলমার্ক গ্রুপের ৪৮৪ কোটি টাকা, তাইপে বাংলা ফেব্রিক্সের ৩৩২ কোটি টাকা, মেসার্স ফেয়ার অ্যান্ড ফেব্রিক্সের ৩১৬ কোটি টাকা, মেসার্স রহমান গ্রুপের ৩১৪ কোটি টাকা, মেসার্স লীনা গ্রুপের ২১৫ কোটি টাকা, রতনপুর স্টিল রিরোলিং মিলসের ১৮২ কোটি টাকা, মেসার্স মেঘনা কনডেন্স মিল্কের ১৩১ কোটি টাকা, মেসার্স সোনালী জুট মিলের ১২৭ কোটি টাকা, মেসার্স এ কে জুট ট্রেডিংয়ের ১১৭ কোটি টাকা, মেসার্স ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের ১১৬ কোটি টাকা, মেসার্স সুপ্রিম জুট অ্যান্ড নিটেক্সের ১০৬ কোটি টাকা, মেসার্স ইস্টার্ন ট্রেডার্স ৯৩ কোটি টাকা, ফারুক ডাইং নিটিং অ্যান্ড ম্যানুফেকচারিংয়ের ৯০ কোটি টাকা, মেসার্স সানবীম টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের ৮৬ কোটি টাকা এবং মেসার্স সাইয়ান করপোরেশনের ৭৬ কোটি টাকা। তবে এ সময়ে বাকি চার খেলাপি প্রতিষ্ঠান থেকে আদায় হয়েছে লক্ষ্যমাত্রার ০.৪৩ শতাংশ মাত্র।

এদিকে ঋণ অবলোপন থেকে আদায় পরিস্থিতি আরও খারাপ। সোনালী ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী শীর্ষ ২০ গ্রাহক প্রতিষ্ঠানের ঋণ অবলোপন করা হয়েছে ২ হাজার ৭২৯ কোটি টাকা। এর মধ্যে গত ৮ মাসে ১৮ প্রতিষ্ঠান এক টাকাও ফেরত দেয়নি। বাকি দুই প্রতিষ্ঠান থেকে আগস্ট পর্যন্ত আদায় হয়েছে মাত্র ১৮ কোটি টাকা, যা বার্ষিক লক্ষ্যমাত্রার ৬.৮৬ শতাংশ।

প্রতিবেদন পর্যালোচনায় দেখা যায়, বহুল আলোচিত হলমার্ক গ্রুপের ১ হাজার ২২৯ কোটি টাকা অবলোপন করেছে সোনালী ব্যাংক। তবে গত ৮ মাসে আদায় হয়নি এক টাকাও। হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল করপোরেট শাখা থেকে জালিয়াতি হওয়া এসব টাকার পুরোটাই এখন আদায় অনিশ্চিত। নারায়ণগঞ্জ করপোরেট শাখার গ্রাহক মেসার্স নিউ রাখী টেক্সটাইল মিলসের ১২৩ কোটি টাকা অবলোপন করা হয়েছে। এর বিপরীতে কোনো টাকাই ফেরত আসেনি। কাগজে-কলমে রয়ে গেছে নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা। চলতি বছরে এই গ্রাহক থেকে ১২ কোটি টাকা আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছিল সোনালী ব্যাংক। কিন্তু ৮ মাস পার হয়ে গেলেও আদায়ের তালিকা শূন্য। এছাড়া আগ্রাবাদ করপোরেট শাখার গ্রাহক মেসার্স জাসমির ভেজিটেবল অয়েলের অবলোপন ১০৬ কোটি টাকা। ১০ কোটি টাকা আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করলেও জানুয়ারি থেকে আগস্ট পর্যন্ত কোনো টাকা আদায় হয়নি। একই অবস্থা ৯৬ কোটি টাকা অবলোপন করা রমনা করপোরেট শাখার গ্রাহক মেসার্স ফেয়ার এক্সপোর। কোনো টাকা ফেরত নেই। অবলোপনের এক টাকাও ফেরত না দেওয়া গ্রাহকের তালিকায় আরও রয়েছে মেসার্স আলফা টোবাকো। যশোর করপোরেট শাখার এই গ্রাহকের অবলোপনের পরিমাণ ৯৬ কোটি টাকা। ঢাকার স্থানীয় কার্যালয়ের গ্রাহক মেসার্স ওয়ান স্পিনিং মিলসের অবলোপন করা হয়েছে ৯৪ কোটি টাকা। কিন্তু ফেরত আসেনি এক টাকাও। ফরিদপুর শাখা মেসার্স রোকেয়া টেক্সটাইল মিলসের ৮৩ কোটি টাকা অবলোপন করা হলেও তিনি কোনো টাকা ফেরত দেননি গত ৮ মাসে। নারায়ণগঞ্জ করপোরেট শাখার গ্রাহক মেসার্স সাহিল ফ্যাশন লিমিটেড। ১৮ কোটি টাকা অবলোপনের বিপরীতে ৮ কোটি টাকা আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও জানুয়ারি থেকে আগস্ট পর্যন্ত কোনো টাকা আদায় নেই। আগ্রাবাদ করপোরেট শাখার অপর গ্রাহক মেসার্স ইমাম ট্রেডার্স। ৮০ কোটি টাকা অবলোপন করা হয়েছে এই গ্রাহকের। তবে আদায় হয়নি কোনো টাকা। এছাড়া মেসার্স সুমিস সোয়েটার, মেসার্স ইউনিটি নিটওয়্যার, মেসার্স সিদ্দিক ট্রেডার্স, মেসার্স কেপিএফ টেক্সটাইল, মেসার্স মুন নিটওয়্যার, মেসার্স এআর খান সাইজিং অ্যান্ড ফেব্রিক্স, মেসার্স সাহিল নিটওয়্যার, যাদু স্পিনিং মিলস এবং মাস্ক সোয়েটার অবলোপন করা ঋণের কোনো টাকা ফেরত দেয়নি। তবে মেসার্স ইম্পেরিয়াল ডাইয়িং অ্যান্ড হোসিয়ারি লিমিটেড এবং মেসার্স রিভারসাইড লেদার অ্যান্ড ফুটওয়্যার লিমিটেড ফেরত দিয়েছে ১৮ কোটি ৭১ লাখ টাকা।

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. আতাউর রহমান প্রধান বলেন, ছোট গ্রাহকের ঋণ ফেরত আসছে। এছাড়া বড়দের মধ্যে একটি অংশ ভালো। এর বাইরে নতুন ঋণও নিয়মিত আছে। কিন্তু পুরোনো এবং ইচ্ছাকৃত ঋণখেলাপিরা সবচেয়ে বিপজ্জনক। এটি সবাই জানেন। তবে ঋণ আদায়ে সব ধরনের চেষ্টা অব্যাহত আছে। ইচ্ছাকৃত ঋণখেলাপির সংজ্ঞা নির্ধারণ নিয়ে কাজ করছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এরপর হয়তো কোনো একটা সমাধান বেরিয়ে আসবে।


আরও খবর
নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১




১৮ বছরের কম বয়সীদের টিকায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সম্মতি

প্রকাশিত:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | ৫৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশে ১৮ বছরের নিচে স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা দিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সম্মতি দিয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। তিনি বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালকের সঙ্গে আমার সাক্ষাৎ হয়েছে, স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকার বিষয়ে তিনি আমাদের অনুমোদন দিয়েছেন। রোববার (১০ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর বিসিপিএস মিলনায়তনে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন বিষয়ক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

জাহিদ মালেক বলেন, ১২ থেকে ১৭ বছরের শিশুদের শিগগিরই টিকার আওতায় আনা হবে। এ লক্ষ্যে আমাদের প্রস্তুতি চলছে। তাদের ফাইজারের টিকা দেওয়া হবে। আমাদের কাছে ৬০ লাখ ফাইজারের টিকা মজুদ আছে, আরও ৪০ লাখ ডোজ টিকা শিগগিরই পাব। টিকার কোনো সংকট নেই।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ডিসেম্বর ও জানুয়ারির মধ্যে আমরা আট কোটি লোককে ডাবল ডোজ এবং মার্চ থেকে এপ্রিলের মধ্যে আরও চার কোটি ডাবল ডোজ টিকা দিতে সক্ষম হব। মোট ১২ কোটি লোককে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া যাবে আগামী এপ্রিলের মধ্যে, এতে সত্তর শতাংশ মানুষ টিকার আওতায় আসবে।

তিনি আরও বলেন, অক্টোবরে তিন কোটি, নভেম্বরে পৌনে চার কোটি, ডিসেম্বরে পাঁচ কোটি ও জানুয়ারিতে পৌনে চার কোটি ডোজ টিকা আসবে। সবমিলিয়ে আগামী বছরের জানুয়ারির মধ্যে ক্রয় ও বিভিন্ন উৎস থেকে প্রায় ১৬ কোটি টিকা হাতে থাকবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, স্বাস্থ্য অধিদফতরে মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম, অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা, লাইন ডিরেক্টর ও টিকা কর্মসূচির পরিচালক ডা. শামসুল হক প্রমুখ


আরও খবর



শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সাফে শুভসূচনা বাংলাদেশের

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ অক্টোবর ২০২১ | ৫৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে শুরুটা জয় দিয়ে করতে চেয়েছিল বাংলাদেশ। চাওয়ার সঙ্গে বাস্তবে তার প্রয়োগ করে দেখিয়েছে জামাল ভূঁইয়ারা। অস্কার ব্রুজনের অধীনে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেই তারা শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছে ১-০ গোলে।

প্রথমার্ধে বল দখলে এগিয়ে থাকলেও লক্ষ্যভেদ করতে পারেনি লাল-সবুজ দল। স্কোরলাইন ছিল গোলশূন্য। ম্যাচের প্রথম ৫ মিনিট-ই দাপট দেখানোর চেষ্টা করেছে শ্রীলঙ্কা। কিন্তু গোলকিপার আনিসুর রহমান জিকোর পরীক্ষা নিতে পারেনি। বাংলাদেশ কিছুটা গুছিয়ে খেলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ অনেকটাই নিয়ে নেয়। আক্রমণও হয়েছে অনেক। তবে অন টার্গেটে শট নিতে ব্যর্থ ছিল।

ম্যাচ ঘড়ির ৮ মিনিটে ইয়াসিন আরাফাতের লম্বা থ্রো-ইন থেকে তপু বর্মণের প্রচেষ্টা বাধাপ্রাপ্ত হয় লঙ্কান রক্ষণে। পেনাল্টির আবেদন করলেও রেফারি তাতে সায় দেননি।

বাংলাদেশের আক্রমণের জবাবে লঙ্কানরা মাঝে-মধ্যেই চেষ্টা করেছে। কিন্তু সফল হতে পারেনি। ২০ মিনিটে লঙ্কানদের হারাশা ফার্নান্দোর জোরালো শট ক্রস বারের অনেক ওপর দিয়ে গেছে।

দুই মিনিট পর জামাল ভূঁইয়ার শটও ক্রস বারের অনেক ওপর দিয়ে যায়। ২৯ মিনিটে রাকিবের জোরালো শট হয় লক্ষ্যভ্রষ্ট। যোগ করা সময়ে সবচেয়ে ভালো সুযোগ ছিল বাংলাদেশের সামনে। ইয়াসিন আরাফাতের ক্রসে তপু বর্মণের হেড গোলকিপার সুজন পেরারা কোনও মতে প্রতিহত করলে কাঙ্ক্ষিত গোল পাওয়া হয়নি।

বিরতির পর জুয়েল রানার জায়গায় একাদশে আসেন সাদ উদ্দিন। এছাড়া মতিন ও সুফিলও নেমেছেন। ৫০ মিনিটে শ্রীলঙ্কা সুযোগ পেয়ে লক্ষ্যভেদ করতে না পারলেও বাংলাদেশ পেয়ে যায় পেনাল্টি।

৫৪ মিনিটে বিপলু আহমেদের শট ডিফেন্ডার ডাকসন পুসলাস হাত দিয়ে প্রতিহত করার চেষ্টা করেছিলেন। সঙ্গে সঙ্গে স্পট কিকের বাঁশি বাজান রেফারি। পাশাপাশি দুই হলুদে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে হয়েছে পুসলাসকে। স্পট কিক থেকে তপু বর্মণ গোলকিপারের বিপরীত দিক দিয়ে লক্ষ্যভেদ হাজারো প্রবাসীদের আনন্দে ভাসিয়েছেন।

১০ জনের দল নিয়ে লঙ্কানরা ৭৭ মিনিটে গোল শোধ দেওয়ার সুযোগ পেয়েছিল। কিন্তু রাজিকের শট গোলকিপার আনিসুর তালুবন্দী করলে তারা ব্যর্থ হয়েছে। এর পর জামালের ফ্রিকিকে মতিনের হেড লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে ব্যবধান বাড়াতে পারেনি জামালরা।

তাতে তপুর গোল পুঁজি করেই সাফে প্রথম ম্যাচে তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছেড়েছে বাংলাদেশ। আগামী ৪ অক্টোবর ফেভারিট ভারতের মুখোমুখি হবে জামাল-সুফিলরা।


আরও খবর
অজিদের কষ্টার্জিত জয়

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




কুমিল্লায় সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার ট্রাইব্যুনালে: আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১ | ১৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ভিডিও দেখে আসামি শনাক্ত করা হয়েছে। ভিডিও এভিডেন্স গ্রহণ করার একটা ধারা আছে। সে ধারায় কোনো অসুবিধা হবে না। মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে যাবে

কুমিল্লায় সাম্প্রদায়িক হামলার বিচার প্রসঙ্গে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, পূজামণ্ডপে হামলা মামলার যখন প্রতিবেদন পাওয়া যাবে তখন দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে বিচার করা হবে।

আজ শনিবার (২৩ অক্টোবর) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের কার্নিভাল হলে নবাগত সাব-রেজিস্ট্রারদের বরণ এবং রেজিস্ট্রার সার্ভিসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ভিডিও দেখে আসামি শনাক্ত করা হয়েছে। ভিডিও এভিডেন্স গ্রহণ করার একটা ধারা আছে। সে ধারায় কোনো অসুবিধা হবে না। মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে যাবে।

নারায়ণগঞ্জের জেলা রেজিস্ট্রার মো. জিয়াউল হকের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দেন লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সচিব মো. মইনুল কবির, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোলাম সারওয়ার, নিবন্ধন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক শহীদুল আলম ঝিনুক প্রমুখ।


আরও খবর
ইকবালসহ ৪ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




আয়ারল্যান্ডের কাছে হেরে গেল বাংলাদেশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৪ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৪ অক্টোবর ২০২১ | ৫২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

উইকেটকিপার ব্যাটার নুরুল হাসান সোহানের ব্যাটে ভর করে এগিয়ে যাচ্ছিল বাংলাদেশ। আইরিশ বোলারদের তোপে সৌম্য সরকারের পর বল দেখছিলেন সোহানই।

একের পর এক ব্যাটার উইকেট বিলিয়ে দিয়ে এসেছেন। ৩, ১, ৮ ও ১ রান করেছেন যথাক্রমে নাঈম, লিটন, মুশফিক ও শামীম।

ব্যাটারদের এমন দৈন্যতায় আয়ারল্যান্ডের কাছে ৩৩ রানে হারল বাংলাদেশ। আইরিশদের ছোড়া ১৭৮ রানের লক্ষ্যে ১৪৪ রানে থামে বাংলাদেশের ইনিংস।

বাংলাদেশ দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান এসেছে সোহানের ব্যাট থেকে। ২৩ বলে ৬ বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ৩৮ রান করেছেন এ উইকেটকিপার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান এসেছে সৌম্য সরকারের ব্যাট থেকে। ১ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় ৩০ বলে ৩৭ রান করেছেন সৌম্য।

এছাড়া সৌম্যর সাথে জুটি বেঁধে আফিফ করেছেন ১৬ বলে ১ বাউন্ডারিতে ১৭ রান।

১৭তম ওভারে সোহান আউট হয়ে গেলে জয়ের আশা হারিয়ে ফেলে টাইগার সমর্থকরা। শেষ তিন ওভারে জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন পড়ে ৫৯ রান। যা টেলএন্ডার তাসকিস ও মোস্তাফিজকে দিয়ে প্রায় অসম্ভব।

নাসুম আহমেদকে শূন্য রানে ফিরিয়ে দিলে পরাজয়ের শঙ্কা আরো বাড়ে। মোস্তাফিজকে নিয়ে শেষ ওভার পর্যন্ত ব্যাট চালিয়ে যান তাসকিন।

১২ বলে প্রয়োজন পড়ে ৫৪ রানের। ১৯তম ওভারে ১০ রান নেন তাসকিন-মোস্তাফিজ। শেষ ৬ বলে জয়ের জন্য রান দরকার পড়ে ৪৪। প্রতি বলে ছক্কা হাঁকালেও যেতা অসম্ভব।

তবু হারের ব্যবধান কমিয়ে আনার চেষ্টা করে গেছেন তাসকিন। শেষ ওভারে আরো ১০ রান যোগ করতে পারেন তাসকিন-মোস্তাফিজ জুটি।

এক বল বাকি থাকতে আউট হয়ে যান তাসকিন। ১৪৪ রানে থেমে যায় বাংলাদেশের ইনিংস। ৩৩ রানে বাংলাদেশকে হারাল আয়ারল্যান্ড।

তাসকিন করেছেন ১১ বলে ১৪ রান। ৬ বলে ৭ রানে অপরাজিত ছিলেন মোস্তাফিজ।

এর আগে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশি বোলারদের বিপক্ষে তাণ্ডব চালান ওয়ানডাউনে নামা আইরিশ অলরাউন্ডার গ্যারেথ ডিলানি। ১৭৭ রানের মধ্যে ডিলানি একাই করেছেন ৮৮ রান, তাও মাত্র ৫০ বলে। হাঁকিয়েছেন ৩ বাউন্ডারি ও ৮ ছক্কা।

শেষদিকে হ্যারি ট্যাক্টরকে সঙ্গে নিয়ে চমৎকার পার্টনারশিপ গড়েন ডিলানি। ৬২ বলে ৯৯ রান সংগ্রহ করে ডিলানি-ট্যাক্টর জুটি।

শেষ ৫ ওভারে ৬০ রান যোগ করেন এ দুই ব্যাটার।

বাংলাদেশি বোলাররা আইরিশদের উইকেট শিকার করেছেন মাত্র তিনটি। দুটি পেয়েছেন পেসার তাসকিন। ৪ ওভারে ২৫ রান দিয়ে ২ উইকেট শিকার করেছেন তাসকিন।

আইপিএলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখানো মোস্তাফিজুর জাতীয় দলে ফিরে ফ্লপ হয়েছেন। ৪ ওভার করে ৪০ রান দিয়ে কোনো উইকেট পাননি।

ফ্লপ হয়েছেন আরেক পেসার শরিফুল ইসলামও। ৪ ওভার করে দিয়েছেন ৪১ রান। কোনো উইকেট পাননি।

 


আরও খবর
অজিদের কষ্টার্জিত জয়

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




নালায় পড়ে নিখোঁজ কলেজছাত্রীর লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ এলাকায় নালায় পড়ে নিখোঁজ কলেজছাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার রাত ৩টার দিকে ঘটনাস্থলের কাছে নালার অবর্জনার স্তূপে আটকে থাকাবস্থায় লাশটি পাওয়া যায়। ফায়ার সার্ভিস চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক শামীম আহসান চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

মারা যাওয়া ওই কলেজছাত্রীর নাম সেহেরীন মাহবুব সাদিয়া। সোমবার রাতে শেখ মুজিব সড়কসংলগ্ন নবী টাওয়ারের পাশে ফুটপাত ধরে হেঁটে যাওয়ার সময় তিনি নালায় পড়ে যান। এর আগে ভারি বৃষ্টিতে বন্দরনগরীতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হলে ২৫ আগস্ট সকালে মুরাদপুর এলাকায় খালে পড়ে তলিয়ে যান সালেহ আহমদ নামে এক সবজি ব্যবসায়ী।

চলতি বছরের ৩০ জুন নগরীর ষোলশহর চশমা হিল এলাকাতেও এমন দুর্ঘটনা ঘটে। সেখানে একটি অটোরিকশা খালে পড়ে গেলে মারা যান চালক সুলতান (৩৫) ও যাত্রী খাদিজা বেগম (৬৫)।


আরও খবর