আজঃ শুক্রবার ২১ জানুয়ারী ২০২২
শিরোনাম

২০২০ সালের আঁতকে ওঠা ৪ হত্যাকাণ্ড

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ ডিসেম্বর ২০২০ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ২৬১০জন দেখেছেন
এস এম মনির

২০২০ সালের আঁতকে ওঠা ৪ হত্যাকাণ্ড


আরও খবর



ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ৩০ কিলোমিটার দীর্ঘ যানজট

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22 | ১৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশের প্রায় ৩০ কিলোমিটার দীর্ঘ এলাকাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। মহাসড়কের একাংশ বন্ধ করে বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) বিকালে সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদফতর রাস্তার মেরামত কাজ করার কারণে এ যানজট বেঁধেছে।

এদিকে, সওজ কুমিল্লার নির্বাহী প্রকৌশলী রেজা-ই-রাব্বি জানিয়েছেন, মহাসড়কের নিমসারে দুর্ঘটনা এবং সড়ক মেরামতের কারণে মানুষকে কিছুটা ভোগান্তির মধ্যে পড়তে হচ্ছে।

জানা গেছে, মহাসড়কের চান্দিনা অংশে রাস্তার একপাশ বন্ধ রেখে মেরামত কাজ করা হচ্ছে। সড়কের একই অংশে দুই দিকের গাড়ি চলাচল করছে। এতে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। তাছাড়া সড়কের নিমসারে উল্টোপথে সড়ক বিভাজকের ওপর দুর্ঘটনাকবলিত একটি ট্রাকটি পড়ে আছে। রাস্তা বন্ধ ও সড়কে দুর্ঘটনা দুটি কারণেই যানজট ব্যাপক আকার ধারণ করেছে।

ব্যক্তিগত কাজে ঢাকার উদ্দেশে বিকাল ৩টায় রওনা হয়েছেন স্থানীয় সাংবাদিক জহিরুল হক বাবু। তিনি বলেন রাত ৮টার মধ্যে আমাকে ঢাকায় পৌঁছাতে হবে। কিন্তু মহাসড়কের বুড়িচং অংশের কাবিলাতেই আটকে আছি। দিন গড়িয়ে রাত হয়েছে তবু যানজট ছাড়ছে না।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা এমরান হোসেনের। তিনি জানান, দুপুর ২টায় কুমিল্লা থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টাতেও চান্দিনাতেই আটকে আছেন। গাড়ি স্থির হয়ে আছে।

ময়নামতি হাইওয়ে থানার ওসি বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, এক লেন বন্ধ করে মহাসড়ক মেরামতের কাজ করার কারণে যানজট সৃষ্টি হয়েছে। বৃহস্পতিবার এ সময়ে যানবাহনের চাপ থাকে, তাই সওজকে আপাতত কাজ বন্ধ রাখতে বলেছি। আমাদের দুটি টিম যানজট নিরসনে কাজ করছে।

সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী রেজা-ই-রাব্বি জানান, এখন শুষ্ক মৌসুম হওয়ায় মেরামত কাজ এগিয়ে নিতে হচ্ছে। এক লেনে গাড়ি চলছে। নিমসারে দুর্ঘটনাও ঘটেছে। তাই যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। 


আরও খবর



পাঞ্জাবে জেলা আদালতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ ডিসেম্বর ২০২১ | ৪৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশের লুধিয়ানা জেলা আদালতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে অন্তত দুইজন নিহত হয়েছেন। ওই ঘটনায় আরও চারজন গুরুতর জখম হয়েছেন বলে ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে নিশ্চিত করা হয়।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (২৩ ডিসেম্বর) বেলা ১২টা ২২ মিনিটে আদালতের তৃতীয় তলার একটি শৌচালয়ে ওই বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে, এতে শৌচালয়ের দেয়াল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং আশেপাশের বিভিন্ন কক্ষের কাচ ভেঙে পড়েছে।

বিস্ফোরণের সময় জেলা আদালতের কার্যক্রম চলছিল। বিস্ফোরণের পর ওই এলাকা ঘিরে রেখেছে পুলিশ। এরই মধ্যে দমকলের বেশ কয়েকটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।

লুধিয়ানা শহরের কেন্দ্রস্থলে জেলা কমিশনারের অফিসের কাছেই অবস্থিত জেলা আদালত। পাঞ্জাবের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং এই ঘটনায় নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। এক টুইট বার্তায় তিনি পাঞ্জাব পুলিশকে এই ঘটনার পুঙ্খানুপুঙ্খ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন।


আরও খবর
লাইবেরিয়ায় পদদলিত হয়ে ২৯ জনের মৃত্যু

বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22




বরখাস্তকৃত ডিআইজি পার্থ গোপালের মামলার রায় ৯ জানুয়ারি

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৭ ডিসেম্বর ২০২১ | ৫০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঘুষ গ্রহণ ও অর্থপাচার আইনে করা মামলায় বরখাস্তকৃত সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি প্রিজনস) পার্থ গোপালের বিরুদ্ধে দুদকের করা মামলার রায় ঘোষণার জন্য ৯ জানুয়ারি দিন ধার্য করেছেন আদালত।

সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তিউপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য এ দিন ধার্য করেন।

২০১৯ সালের ২৮ জুলাই কারাগারের অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে দুদকের প্রধান কার্যালয়ে পার্থ গোপাল বণিককে জিজ্ঞাসাবাদ করার এক পর্যায়ে অভিযানে যায় দুদক। বিকেলে ধানমন্ডির ভূতের গলিতে পার্থ গোপালের ফ্ল্যাট থেকে ৮০ লাখ টাকা উদ্ধার করে দুদক। এর পরেই আটক করা হয়। পরদিন ২৯ জুলাই তার বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ১৬১ ধারাসহ ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫ (২) ধারা এবং মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ২০১২-এর ৪ (২) ধারায় দুদকের ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ মামলা দায়ের করে দুদক।

অভিযোগপত্রে বলা হয়, বরখাস্তকৃত কারা উপমহাপরিদর্শক পার্থ গোপাল বণিক সরকারি চাকরিতে দায়িত্ব পালনকালে ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিভিন্ন অনিয়ম, দুর্নীতি ও ঘুষের মাধ্যমে ৮০ লাখ টাকা অবৈধভাবে অর্জন করেন। এসব টাকা গোপন করে তার নামীয় কোনো ব্যাংক হিসাবে জমা না রেখে বিদেশে পাচারের উদ্দেশে নিজ বাসস্থানে লুকিয়ে রেখে দণ্ডবিধির ১৬১ ধারা, দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪ এর ২৭(১) ধারা, দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন, ১৯৪৭ এর ৫(২) ধারা এবং মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২ এর ৪(২) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন।


আরও খবর
রিফাত হত্যা: খালাস চেয়ে মিন্নির জেল আপিল

বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22




বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় হবিগঞ্জ ও ময়মনসিংহে শুভসংঘের শীতবস্ত্র বিতরণ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৩২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আমার স্বামীও নাই। সন্তানরা থেকেও নাই। শীতের কষ্টে একখান কম্বল কিনার টাকা না থাকায় বাবা কষ্টকইরা রাত কাটাই। আপনাদের কম্বলটা পাওয়ায় এখন রাতের বেলা একটু আরামের ঘুম হইব।কথাগুলো বলছিলেন হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বহুলা গ্রামের মৃত আলাই মিয়ার স্ত্রী মালিক চান (৬৮)।

শুক্রবার বিকেলে বহুলা ঈদগাহমাঠে দেশের শীর্ষ শিল্প প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় দেশের বৃহত্তম সামাজিত সংগঠন শুভসংঘের শীতবস্ত্র বিতরণকালে মালিক চান কম্বল হাতে পেয়ে এই অনুভূতি প্রকাশ করেন। তার সঙ্গে আসা আরেক বৃদ্ধ জবেদা খাতুনের চোখে মুখেও ছিল তৃপ্তির ছাপ। শীতবস্ত্র নিতে আসা শাহানা আক্তার বলেন, তার পরিবারে সদস্য সংখ্যা ৬ জন। পর্যাপ্ত শীতবস্ত্র না থাকায় তারা শীতে কষ্ট করতেন। বসুন্ধরা গ্রুপের শীতবস্ত্র পেয়ে সেই কষ্ট অনেকটাই কমে যাবে।

শুক্রবার হালকা বৃষ্টি আর কনকনে শীতের মাঝে এমনই এক আনন্দের আবহ তৈরি করে এই শীত বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠান। শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামানের সভাপতিত্বে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. জহিরুল হক শাকিল। তিনি বলেন, শীত মৌসুম চলছে, শুরুও হয়েছে শৈত্য প্রবাহও, সঙ্গে করোনা মহামারী। সব মিলিয়ে জাতির ক্রান্তিকালে স্বল্প আয়ের মানুষদের পাশে দাঁড়ানো বড় প্রয়োজন। এ সময়ে দেশজুড়ে মানুষের হাতে শীতবস্ত্র তুলে দেওয়া বৃহৎ শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের এক অনন্য উদ্যোগ। এটি দৃষ্টান্ত ও অনুকরণীয় হয়ে থাকবে সমাজে।

অনুষ্ঠানে নানা শ্রেণি-পেশার ৫ শ নারী-পুরুষ ও শিশুদের হাতে একটি করে কম্বল তুলে দেওয়া হয়। এ সময় অতিথিবৃন্দ ও এলাকাবাসী বসুন্ধরা গ্রুপের প্রসংশা করেন এবং বৃহৎ এই শিল্প প্রতিষ্ঠানটির উত্তরোত্তর সফলতা কামনা করেন। পরে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার পৌর এলাকার জহুর চান বিবি মহিলা কলেজে ২শ দরিদ্র শীতার্থদের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়। জহুর চান বিবি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল্লা আল মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. জহিরুল হক শাকিল। বিশেষ অতিথি ছিলেন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিনহাজুল ইসলাম, কালের কণ্ঠের হবিগঞ্জ প্রতিনিধি শাহ ফখরুজ্জামান, শুভ সংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান ও শায়েস্তাগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক মঈনুল ইসলাম রতন।

কালেরকণ্ঠের জেলা প্রতিনিধি শাহ ফখরুজ্জামান জানান, হবিগঞ্জ জেলার সদর ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় ৭০০ জন অস্বচ্ছল মানুষকে বসুন্ধরা গ্রুপের কম্বল দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে চুনারুঘাট নবীগঞ্জ ও বানিয়াচং উপজেলায় আরও ৭০০ জনকে একইভাবে শীতবস্ত্র দেওয়া হবে।

দেশের স্বনামধন্য বসুন্ধরা গ্রুপের পক্ষ থেকে কম্বল উপহার পেলেন ময়মনসিংহের হোটেল কর্মচারিরা। শুক্রবার দুপুরে ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব মিলনায়তনের এসব কম্বল তাদের হাতে তুলে দেয়া হয়।

প্রাথমিক ভাবে ৫০ জনের হাতে এ কম্বল তুলে দেয়া হয়। কম্বল বিতরণে সহায়তা করেন কালের কণ্ঠ শুভসংঘের ময়মনসিংহের বন্ধুরা। কম্বল পেয়ে হোটেল কর্মচারিরা আপ্লুত হয়ে পড়েন।

কর্মচারিদের পক্ষ থেকে শামছুর ইসলাম বলেন, আমরা এই কম্বল পাইয়া খুব খুশি হইছি। আল্লাহ বসুন্ধরার ভালো করুন।

নিউজ ট্যাগ: বসুন্ধরা গ্রুপ

আরও খবর



সোশ্যাল মিডিয়া সাংবাদিকদের চ্যালেঞ্জের মুখে ঠেলে দিয়েছে: আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ ডিসেম্বর ২০২১ | ৫৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সোশ্যাল মিডিয়া এখন সাংবাদিকদের চ্যালেঞ্জের মুখে ঠেলে দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্রসারের কারণে এখন সবাই সাংবাদিক হয়ে গেছেন। সবাই সাংবাদিক হয়ে যাওয়ার কারণে প্রকৃত সাংবাদিকরা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছেন।  যারা পড়ালেখা করে, কাজ করে এই পেশায় আছেন তারা এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের কারণে কোণঠাসা অবস্থায়। 

আপনারা যারা লেখাপড়া করে সাংবাদিক হয়েছেন তারা মানসিকভাবে নিজেকে যেভাবে তৈরি করেছেন।  কিন্তু ফেসবুক ব্যবহারকারীরা ঘরের মধ্যে বসেই সাংবাদিকতা করছেন। এই যে পার্থক্য, এই পার্থক্যের জন্য আপনাদেরকে লড়াই করে বেঁচে থাকতে হবে। বুধবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, আপনারাই কিন্তু আসল সাংবাদিকতা করার জন্য শিক্ষিত-প্রশিক্ষিত।  এজন্য আপনাদের যে জায়গা তথা পেশাদারিত্বের জায়গাটায় যেন অ্যামেচারিজম না আসে সেদিকে সজাগ করতে হবে।  সেই দায়িত্বও আপনাদের।  সেই জায়গায় সরকার আপনাদের সব রকম সহায়তা করবে।


আরও খবর