আজঃ শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

২০২০ সালের আঁতকে ওঠা ৪ হত্যাকাণ্ড

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ ডিসেম্বর ২০২০ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ | ১৯১৫জন দেখেছেন
এস এম মনির

২০২০ সালের আঁতকে ওঠা ৪ হত্যাকাণ্ড


আরও খবর



মধ্য আফ্রিকায় বিদ্রোহী হামলায় ১৫ সেনা নিহত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর 20২১ | ৩৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ক্যামেরুনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অ্যাংলোফোন এলাকার বুইয়া'র কাছে লিসোকায় টহলরত পুলিশ। ২০১৮ সালের ছবি

মধ্য আফ্রিকার দেশ ক্যামেরুনে বিদ্রোহীদের হামলায় দেশটির ১৫ সরকারি সেনা নিহত হয়েছেন। এছাড়া পৃথক আরেকটি হামলায় নিহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন বেসামরিক মানুষও। দেশটির ইংরেজিভাষী পশ্চিমাঞ্চলীয় এলাকায় এই হামলা ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা।

সোমবার এক বিবৃতিতে ক্যামেরুনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, ভারী অস্ত্র-শস্ত্রে সজ্জিত সন্ত্রাসীরা গত ১৬ সেপ্টেম্বর দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় ব্যামেসিং শহরে এলিট র‌্যাপিড ইন্টারভেনশন ফোর্সের কনভয়ে হামলা করে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, বিদ্রোহীরা আইইডি এবং অ্যান্টি-ট্যাংক রকেট লঞ্চার ব্যবহার করে সেনা কনভয়ের গাড়িগুলো ধ্বংস করে দেয় এবং এরপরই প্রবল গুলিবর্ষণ শুরু করে। এতেই সেনা নিহতের ওই ঘটনা ঘটে। এছাড়া গত ১২ সেপ্টেম্বর ওই একই অঞ্চলের কুমবো এলাকায় অবস্থিত সামরিক ঘাঁটিতেও আইইডি দিয়ে হামলা করা হয়।

ক্যামেরুনে চার বছরেরও বেশি সময় ধরে অস্থিরতা চলছে। দেশটির আইনজীবী ও শিক্ষকদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে সরকার প্রাণঘাতী অস্ত্র ব্যবহার করে দমন-পীড়ন চালানোর পর থেকেই এই সংকটের সূচনা হয়।

মূলত সরকারের সেই পদক্ষেপের পর থেকেই দেশটির বিচ্ছিন্নতাবাদী বিভিন্ন গ্রুপ এক হয়ে সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই শুরু করে। তারা ক্যামেরুন থেকে আলাদা হয়ে অ্যাম্বাজোনিয়া নামে একটি স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র গঠন করতে চায়।

জাতিসংঘের তথ্য জনুযায়ী, সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত প্রায় চার হাজার মানুষ নিহত হয়েছেন। অন্যদিকে প্রাণ বাঁচাতে বাড়ি-ঘর ছেড়ে পালিয়ে গেছেন ৭ লাখেরও বেশি মানুষ।

নিউজ ট্যাগ: বিদ্রোহী হামলা

আরও খবর



গুচ্ছভুক্ত ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির চূড়ান্ত আবেদন শুরু

প্রকাশিত:বুধবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষার চূড়ান্ত আবেদন শুরু হয়েছে। প্রাথমিক ফলাফলের তালিকায় যাদের নাম এসেছে তারা ৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে চূড়ান্ত ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ও সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক টেকনিক্যাল সাব-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর বলেন, তালিকাভুক্ত শিক্ষার্থীরা আজ দুপুর ১২টা থেকে ৭ সেপ্টেম্বর রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত চূড়ান্ত আবেদন করতে পারবেন। আবেদন ফি ১২০০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড দেওয়া হয়েছে। কোনো শিক্ষার্থী যদি ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড না পেয়ে থাকে তাহলে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে পুনরায় তাকে ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড দেওয়া হবে।

জানা যায়, প্রথম বর্ষে গুচ্ছভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে মোট ৩ লাখ ৬১ হাজার ৪০৬ শিক্ষার্থী প্রাথমিক আবেদন করেন। এতে বিজ্ঞান বিভাগে ১ লাখ ৯৪ হাজার ৮৪১ জন, মানবিক বিভাগে ১ লাখ ৭ হাজার ৯৩৩ এবং বাণিজ্য বিভাগে আবেদন করেন ৫৮ হাজার ৬৩২ শিক্ষার্থী।

গুচ্ছভুক্ত ২০ বিশ্ববিদ্যালয় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি, শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।


আরও খবর
১৪ নভেম্বর থেকে দাখিল পরীক্ষা শুরু

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




কাবুলে মার্কিন বাহিনীর পাল্টা হামলা

প্রকাশিত:রবিবার ২৯ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৯ আগস্ট ২০২১ | ৭১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
কাবুল বিমানবন্দরে হামলা করতে চাওয়া এক আত্মঘাতী বোমা হামলাকারীর গাড়ি লক্ষ্য করে এই বিমান হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

যুক্তরাষ্ট্র ও তার পশ্চিমা মিত্রদের উদ্ধার কার্যক্রম চলাকালীন রবিবার কাবুল বিমানবন্দরের বাইরে দ্বিতীয়বার রকেট বিস্ফোরণ হয়েছে। রকেট বিস্ফোরণের পর মার্কিন সেনারা কাবুলে সামরিক অভিযান শুরু করেছে বলে সূত্রের বরাতে জানিয়েছে রয়টার্স।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে দুজন মার্কিন কর্মকর্তা রয়টার্সকে বলেছেন, মার্কিন বাহিনী ইসলামিক স্টেট অব খোরাশান (আইএস-কে) জঙ্গিকে লক্ষ্য করে এ হামলা করেছে। এসব প্রাথমিক তথ্য এবং বিস্তারিত তথ্য আসলে এর পরিবর্তন হতে পারে।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার প্রতিবেদন অনুযায়ী তালেবানের এক মুখপাত্র বলেছেন, কাবুল বিমানবন্দরে হামলা করতে চাওয়া এক আত্মঘাতী বোমা হামলাকারীর গাড়ি লক্ষ্য করে এই বিমান হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এদিকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কাবুল বিমানবন্দরের কাছে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। আফগানিস্তানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, বিমানবন্দরের পাশের একটি বাড়িতে রকেট হামলা হয়েছে। তবে বিমানবন্দরের ভেতরে হামলা হয়নি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে, বিস্ফোরণ হয়েছে বিমানবন্দরের পাশের একটি বাড়িতে। সেখানে প্রচুর ধোঁয়া উড়ছে। বিস্ফোরণে তাৎক্ষণিকভাবে এক শিশু নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন আফগানিস্তানের পুলিশপ্রধান।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন অবশ্য শনিবার কাবুল বিমানবন্দরে সম্ভাব্য হামলার শঙ্কার কথা জানিয়ে বলেছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক কমান্ডাররা কাবুল বিমানবন্দরে আরেকটি হামলার আশঙ্কা করছেন। ২৪ থেকে ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে এ হামলা হতে পারে।


আরও খবর



বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করলো ছেলে

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় পারিবারিক কলহের জেরে মিন্টু মিয়াকে (৫২) কুপিয়ে হত্যা করেছে ছেলে জনি মিয়া (২৩)। শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে দীঘিনালার মেরুং ইউনিয়নের জামতলী বাঙ্গালীপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে মিন্টু মদ্যপ অবস্থায় নিজ বাড়িতে আসলে ছেলে জনির সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ছেলে বাবাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। প্রতিবেশীরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মিন্টুকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

দীঘিনালা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শেখ মিল্টন খন্দকার জানান, নিহতের ঘাড়ে ও বুকে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। ঘটনার পরপর ছেলে পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


আরও খবর



করোনার টিকাকে ‘বৈশ্বিক জনস্বার্থ সামগ্রী’ ঘোষণার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ২৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্বব্যাপী টিকাদান কর্মসূচি পরিচালনার জন্য কোভিড-১৯ এর টিকাগুলোকে বৈশ্বিক জনস্বার্থ সামগ্রী হিসেবে ঘোষণা করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আয়োজনে গ্লোবাল কোভিড-১৯ সামিট: এন্ডিং দ্যা প্যানডেমিক অ্যান্ড বিল্ডিং ব্যাক বেটার হেলথ সিকিউরিটি শীর্ষক শীর্ষ সম্মেলনে প্রচারিত ভিডিও বার্তায় প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। তিনি বলেন, কার্যকরভাবে বিশ্বব্যাপী টিকা দেওয়ার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য কোভিড ভ্যাকসিনগুলোকে বৈশ্বিক জনস্বার্থ সামগ্রী হিসেবে ঘোষণা করা দরকার।

যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় ভার্চুয়াল এ শীর্ষ সম্মেলনে দেওয়া ভাষণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কোভিড-১৯ মহামারী অবসানে ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসার জন্য রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান, আন্তর্জাতিক সংস্থা, ব্যবসায়ী এবং বেসরকারি নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইডোডো, আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাপোসা এবং জাতিসংঘ মহাসচিব এন্তোনিও গুতেরেস বক্তৃতা করে ন।

ধারণকৃত বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, টিকা লাভের সার্বজনীন অধিকার নিশ্চিত করা লক্ষ্যে সক্ষমতা রয়েছে এমন উন্নয়নশীল ও স্বল্পোন্নত দেশগুলোর মাধ্যমে টিকার স্থানীয় উৎপাদনের সুযোগ দেওয়া উচিত।

হোয়াইট হাউজ আমন্ত্রিতদের জানিয়েছে, এ বছরের শেষের দিকে এবং ২০২২ সালের শুরুতে ফলো-আপ ইভেন্টগুলো অংশগ্রহণকারীদের তাদের প্রতিশ্রুতির জন্য দায়বদ্ধ রাখার উদ্দেশ্যে আয়োজন করা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার সরকার কোভিড-১৯ মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য তিনটি ধাপে পন্থা অবলম্বন করেছে। প্রথমত, জীবন বাঁচানোর লক্ষ্যে পর্যাপ্ত চিকিৎসা সুবিধা, যন্ত্রপাতি, জীবনরক্ষাকারী ওষুধ এবং সম্পদ বরাদ্দ করা হয়েছে। এই পদক্ষেপের মধ্যে রয়েছে আমাদের নাগরিকদের, বিশেষ করে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীর জীবিকা সুরক্ষায় সহায়তা প্রদান করা এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপ পুনরুদ্ধার করা।

তিনি বলেন, আমরা প্রথমে উন্নত স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থা এবং সামাজিক সুরক্ষা নেট কর্মসূচির উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করে অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রবৃদ্ধি নীতির দিকে মনোনিবেশ করছি।

দ্বিতীয় ধাপের বর্ণনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার টেকসই অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের জন্য কাজ করছে, যাতে উদ্ভাবন, কর্মসংস্থান এবং বিনিয়োগের ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে। তৃতীয়ত তিনি বলেন, জলবায়ু স্থিতিস্থাপকতা এবং কম কার্বণ নিঃসরণের দিকে মনোনিবেশ করা হচ্ছে।

কোভিড-১৯ মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সরকারি উদ্যোগ সম্পর্কে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা ১৫ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলারের প্রণোদনা প্যাকেজ বরাদ্দ করেছি, দরিদ্র, বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি এবং অনানুষ্ঠানিক খাতের কর্মীসহ ৪ দশমিক ৪ মিলিয়ন সুবিধাভোগীদের ১৬৬ মিলিয়ন ডলার বিতরণ করেছি।

১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৩৫ মিলিয়নের বেশি টিকা দেওয়া হয়েছে বলেও সম্মেলনে জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ২০২২ সালের আগস্ট মাসের মধ্যে আমাদের জনসংখ্যার ৮০ শতাংশ লোককে টিকা না দেওয়া পর্যন্ত আমরা প্রতি মাসে ২০ মিলিয়ন মানুষকে টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা করেছি।



আরও খবর