আজঃ মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১
শিরোনাম

আজ শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা

প্রকাশিত:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | হালনাগাদ:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | ৬৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
মহামতি গৌতম বুদ্ধের শান্তির বাণী মানবজাতির কল্যাণ ও বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। তাঁর আদর্শ ত্যাগের মহিমায় সমুজ্জ্বল ও মানবিকতায় পরিপূর্ণ

শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা ও কঠিন চীবর দান উৎসব আজ বুধবার। বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তাদের দ্বিতীয় বৃহত্তম এ ধর্মীয় উৎসব উদযাপন করবে। এটি আশ্বিনী পূর্ণিমা নামেও পরিচিত।

বৌদ্ধদের মতে, এ পুণ্যময় পূর্ণিমা তিথিতে মহামানব তথাগত গৌতম বুদ্ধ তাবতিংস স্বর্গে মাতৃদেবীকে অভিধর্ম দেশনার পর ভারতের সাংকাশ্য নগরে অবতরণ করেন। মানবজাতির সুখ, শান্তি ও কল্যাণের লক্ষ্যে দিকে দিকে স্বধর্ম প্রচারের জন্য তিনি ভিক্ষু সংঘকে নির্দেশ দেন। একই দিনে তার তিন মাসের বর্ষাবাসের পরিসমাপ্তি ঘটে।

পূজনীয় ভিক্ষু সংঘের ত্রৈমাসিক বর্ষাব্রত শেষে আসে এ প্রবারণা তিথি। প্রবারণা হলো আত্মশুদ্ধি ও অশুভকে বর্জন করে সত্য ও সুন্দরকে বরণের অনুষ্ঠান। প্রবারণা পূর্ণিমার পরদিন থেকে এক মাস ধরে দেশের প্রতিটি বৌদ্ধ বিহারে হবে শুভ কঠিন চীবর দানোৎসব।

প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে বুধবার সারাদেশে নানা ধর্মীয় অনুষ্ঠানমালা হবে। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক পৃথক বাণীতে তাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ধারা অব্যাহত রেখে জাতীয় উন্নয়ন ও অগ্রগতিকে আরো ত্বরান্বিত করতে সকলকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে অবদান রাখার আহ্বান জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, মহামতি গৌতম বুদ্ধ একটি শান্তিপূর্ণ ও সৌহার্দ্যময় বিশ্ব গঠনে আজীবন সাম্য, মৈত্রী, মানবতা ও শান্তির অমীয় বাণী প্রচার করে গেছেন। তাঁর আদর্শ ত্যাগের মহিমায় সমুজ্জ্বল ও মানবিকতায় পরিপূর্ণ। বুদ্ধের অহিংস বাণী ও জীবপ্রেম আজও বিশ্বব্যাপী বিপুল সমাদৃত।

বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় বুদ্ধের শিক্ষা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সরকার দেশে বিরাজমান সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করে বাংলাদেশকে বিশ্ব সভায় একটি উন্নত ও শান্তিপূর্ণ দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে বদ্ধপরিকর।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা ও কঠিন চীবর দান’ উপলক্ষ্যে প্রজ্ঞালোক’ স্মরণিকা প্রকাশ হতে যাচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। আমি বাংলাদেশসহ বিশ্বের সকল বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, মহামতি গৌতম বুদ্ধের শান্তির বাণী মানবজাতির কল্যাণ ও বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। তাঁর আদর্শ ত্যাগের মহিমায় সমুজ্জ্বল ও মানবিকতায় পরিপূর্ণ। বুদ্ধের অহিংস বাণী ও জীবপ্রেম আজও বিশ্বব্যাপী সমভাবে সমাদৃত।

দিনটি উপলক্ষে বাংলাদেশ বুড্ডিস্ট ফেডারেশন রাজধানীর মেরুল বাড্ডার আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহার এবং বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘ রাজধানীর সবুজবাগ ধর্মরাজিক বৌদ্ধ মহাবিহারে দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।

অনুষ্ঠানমালায় রয়েছে- জাতীয় ও ধর্মীয় পতাকা উত্তোলন, ভিক্ষু সংঘের প্রাতঃরাশ, প্রভাতফেরি, মঙ্গলসূত্র পাঠ, বুদ্ধপূজা, পঞ্চশীল ও অষ্টাঙ্গ উপসথশীল গ্রহণ, মহাসংঘদান, ভিক্ষু সংঘকে পিণ্ডদান, অতিথি আপ্যায়ন, পবিত্র ত্রিপিটক থেকে পাঠ, আলোচনা সভা, প্রদীপপূজা, বিশ্বশান্তি কামনায় সম্মিলিত বুদ্ধোপাসনা, বুদ্ধকীর্তন, আলোকসজ্জা, ফানুস ওড়ানো প্রভৃতি।


আরও খবর



হাসপাতালে আগুন, আইসিইউতে থাকা ১০ রোগীর মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | ৪৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতের মহারাষ্ট্রের আহমেদনগরে একটি হাসপাতালের কোভিড ওয়ার্ডে আগুন লেগে ১০ জন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার বেলা ১১টার দিকে হাসপাতালটির আইসিইউতে অগ্নিকাণ্ডের এই ঘটনা ঘটে। সেখানে মোট ২৫ জন করোনা রোগী ভর্তি ছিলেন।

হিন্দুস্থান টাইমস এর খবর, ভয়ঙ্কর আগুনে কালো ধোঁয়ায় ভরে যায় হাসপাতাল চত্বর। যে ওয়ার্ডটিতে আগুন লাগে, সেখানে বেড থেকে শুরু করে কোনো সরঞ্জামই আস্ত নেই।

আহমেদনগরের জেলাশাসক ডা. রাজেন্দ্র ভোঁসলে জানিয়েছেন, হাসপাতালের অন্যান্য রোগীদের পাশের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঠিক কী কারণে আগুন লেগেছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে বিদ্যুতের শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মহারাষ্ট্রের মন্ত্রী নবাব মালিক সংবাদমাধ্যমে বলেছেন, করোনা রোগীদের চিকিত্সার জন্য সম্প্রতি ওই ওয়ার্ডটি তৈরি করা হয়েছিল। কিন্তু সেই ওয়ার্ডেই কীভাবে আগুন লাগল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। হাসপাতালে আগুন লাগার ঘটনাকে অত্যন্ত গুরুতর বিষয় বলে উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

এদিকে, আহমেদনগরের বিধায়ক সংগ্রাম জগতাপ বলেছেন, যাদের গাফিলতিতে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে তাদের কঠিন শাস্তি পেতে হবে। সরকার মৃত রোগীর আত্মীয়দের ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করবে বলেও তিনি জানান।



আরও খবর



শিক্ষার্থীদের ১০ দফা দাবি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর ২০২১ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গাড়ির ধাক্কায় নটরডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈম হাসানের মৃত্যুর বিচার চেয়ে ১০ দফা দাবি জানিয়েছে শিক্ষার্থীরা।দাবিগুলো মানতে সরকারকে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে তারা।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) দ্বিতীয় দিনের মতো আন্দোলনে নেমে এ ঘোষণা দেয় শিক্ষার্থীরা।

আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে দাবি আদায় না হলে রোববার (২৮ নভেম্বর) আবারও আন্দোলনে নামবেন তারা।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো:

১. যথাযথ তদন্ত করে নাঈমের হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি প্রদান।

২. জেলাশহরের বিভিন্ন রুটে শুধুমাত্র শিক্ষার্থীদের জন্য বাস সার্ভিস চালু

৩. স্কুল-কলেজের সামনে হর্ন ও ওভারস্পিডিং-এর জন্য স্টুডেন্ট ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রশাসনের কাছে জরিমানা অধিকার হস্তান্তর করা।

৪. সকল ছাত্রদের জন্য হাফ পাস নিশ্চিতকরণ

৫. প্রত্যেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সামনে একাধিক স্পিড ব্রেকার নির্মাণ

৬. শহরের প্রত্যকটি অচল ট্রাফিক লাইটের সংস্কার এবং সঠিক ব্যবহার করা।

৭. ট্রাফিক আইনের সঠিক প্রয়োগ

৮. জেব্রা ক্রসিংয়ের পূর্ণাঙ্গ ব্যবহার নিশ্চিতকরণ

৯. চলন্ত বাসে যাত্রী উঠানামা করালে প্রত্যেক বাসকে আইনের আওতায় আনা

১০. সর্বোপরি নিরাপদ সড়ক আইনের যথাযথ বাস্তবায়ন


আরও খবর



নির্বাচনে সহিংসতা বন্ধে তাৎক্ষণিক পদক্ষেপের নির্দেশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৪ নভেম্বর ২০২১ | ৩৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সহিংসতা বন্ধে তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ নিতে মাঠ প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) দুপুরে এক বৈঠকে এ নির্দেশনা দেন তিনি।

নূরুল হুদা বলেন, চলমান ইউপি নির্বাচনে সহিংসতা বন্ধে গোয়েন্দা তৎপরতা জোরদার করে মাঠ প্রশাসনকে তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ নিতে হবে। একই সঙ্গে প্রার্থিতা বাতিলের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাও নিতে হবে।

জানা গেছে, নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকারের সভাপতিত্বে বিভাগীয় কমিশনার, পুলিশের ডিআইজি, কমিশনার, ডিসি, এসপি, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সঙ্গে দুই ঘণ্টাব্যাপী ভার্চ্যুয়াল বৈঠক হয়।

বৈঠকে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মো. শাহাদাত হোসেন চৌধুরী। এছাড়াও নির্বাচন কমিশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বৈঠকে যুক্ত ছিলেন।


আরও খবর



আজ টিকা পাবে পাঁচ হাজার স্কুল শিক্ষার্থী

প্রকাশিত:সোমবার ০১ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০১ নভেম্বর ২০২১ | ৫৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আজ থেকে রাজধানীর স্কুলগুলোতে ১২-১৭ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকাদান কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। সোমবার (১ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল হাই স্কুলে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এ টিকাদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন।

রবিবার (৩১ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের লাইন ডিরেক্টর (এমএনসিঅ্যান্ডএইচ) ডা. মো. শামসুল হক এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, স্কুলশিক্ষার্থীদের বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুমোদিত ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা দেওয়া হবে। টিকা দেওয়ার জন্য প্রতিটি স্কুলে থাকবে ২৫টি বুথ। প্রাথমিক পর্যায়ে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের মাধ্যমে রাজধানীর আটটি স্কুলকে ক্লাস্টার হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। আট স্কুলের প্রতিটিতে গড়ে দৈনিক দুই হাজার ৫০০ থেকে তিন হাজার টিকা দেওয়া হবে।

স্কুলগুলো হলো- হার্ডকো ইন্টারন্যাশনাল স্কুল, সাউথপয়েন্ট ইন্টারন্যাশনাল স্কুল, চিটাগং গ্রামার স্কুল, আইডিয়াল স্কুল, মিরপুর কমার্স স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ধানমন্ডি কাকলি হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সাউথ ব্রিজ স্কুল ও মিরপুর স্কলাসটিকা স্কুল। এই আটটি কেন্দ্রে সংশ্লিষ্ট স্কুলের শিক্ষার্থী ছাড়াও আশপাশের স্কুলের শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া হবে।

তিনি জানান, ফাইজার-বায়োএনটেকের এই টিকাটি খুবই টেম্পারেচার সেনসিটিভ টিকা। যে কেন্দ্রে দেওয়া হয় সেটা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত হতে হয়। তাছাড়া টিকাটি তৈরি করতে যে ডায়োলেট লাগে সেটা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে রাখতে হয়। এ কারণে আটটি স্কুলকে নির্বাচিত করা হয়েছে।

এই কর্মকর্তা আরও জানান, রাজধানীর বাইরের ২২টি জেলায়ও টিকাদান কেন্দ্র প্রস্তুত করা হচ্ছে। রাজধানীসহ সারাদেশে টিকাদান শুরু হলে গড়ে প্রতিদিন ৩০ হাজার থেকে ৪০ হাজার শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া সম্ভব হবে।

স্কুলশিক্ষার্থীদের টিকা দিতে এরইমধ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর-মাউশি। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো সে তথ্য আইসিটি মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে টিকার তথ্য ভাণ্ডারে যোগ হওয়ায় শিক্ষার্থীরা এখন নিবন্ধন করতে পারছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, প্রতিটি জেলায় টিকা দেওয়ার কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে। যেখানে শীততাপ নিয়ন্ত্রিত ব্যবস্থা নেই, সেখানে শীততাপ নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা করা হবে।

দৈনিক কত সংখ্যক শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া হবে এমন প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা এখন যেটা হাতে নিয়েছি, তাতে প্রতিদিন প্রায় ৪০ হাজার টিকা দেওয়া যাবে। টিকা যতদিন মজুত থাকবে, এ কার্যক্রম চালু থাকবে। আমাদের কাছে যথেষ্ট টিকা মজুত আছে।


আরও খবর



‘ফ্রি প্রেস অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৩ নভেম্বর ২০২১ | ৬৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাহসী সাংবাদিকতার জন্য আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি হিসেবে ফ্রি প্রেস অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলাম। কোভিড-১৯ মহামারি চলাকালীন স্বাস্থ্য খাতের অনিয়ম নিয়ে অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের জন্য কারাবরণ করেন রোজিনা ইসলাম।

নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগে ফ্রি প্রেস আনলিমিটেড সেরা অদম্য সাংবাদিক বা মোস্ট রেজিলিয়েন্ট জার্নালিস্ট শ্রেণিতে রোজিনাকে এই পুরস্কার প্রদান করে।

রোজিনা ইসলাম ছাড়াও ভারতীয় সাংবাদিক ভাট বুরহান বছরের সেরা নবাগত সাংবাদিক হিসেবে একটি অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। গত বছর ফ্রি প্রেস অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিলেন ফিলিপিনো সাংবাদিক মারিয়া রেসাঁ, যিনি এ বছর শান্তিতে নোবেল পেয়েছেন।

নেদারল্যান্ডসভিত্তিক সংস্থা ফ্রি প্রেস আনলিমিটেড এই পুরস্কারটি প্রদান করে। বিশ্বের ৪০টিরও বেশি দেশে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা এবং সাংবাদিকতার বিকাশে কাজ করে যাচ্ছে এই সংস্থা। ফ্রি প্রেস আনলিমিটেড এক ঘোষণায় জানিয়েছে, পুরস্কারের জন্য অনেক মেধাবী ও সাহসী সাংবাদিকের নাম প্রস্তাব করা হয়েছিল।

সংস্থাটি আরও জানায়, আমরা দেখেছি, মুক্ত গণমাধ্যম এবং সাংবাদিকরা এখন অবিশ্বাস্য চাপের মুখোমুখি। বিশ্বব্যাপী সাংবাদিকদের সততা দেখে আমরা বিস্মিত, যারা চাপ সত্ত্বেও সাংবাদিকতা চালিয়ে যাচ্ছেন। আমরা আপনাকে (রোজিনা ইসলাম) ফ্রি প্রেস অ্যাওয়ার্ড দিতে পেরে গর্বিত।

রোজিনাকে কেন এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে তার ব্যাখ্যায় সংস্থাটি বলেছে, বিভিন্ন বাধা সত্ত্বেও তিনি জনগণের তথ্য অধিকার সমুন্নত রাখতে সাহসী ভূমিকা পালন করছেন।

পুরস্কারের জুরিরা বলেন, স্বাধীন সাংবাদিকরা কীভাবে জনগণের জন্য পর্যবেক্ষক হিসেবে কাজ করে এবং গণতন্ত্র রক্ষায় ও সমাজে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে অবদান রাখে তার একটি ভালো উদাহরণ রোজিনা।


আরও খবর