আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম

আসামি ধর‌তে গি‌য়ে হামলার শিকার দুই পু‌লিশ সদস্য

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ৪৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শেরপুরের শ্রীবরদীতে ওয়ারেন্টভুক্ত এক আসামিকে ধরতে গিয়ে হামলার শিকার হয়ে‌ছেন দুই পু‌লিশ সদস্য। মঙ্গলবার (১০ মে) রাত ১১টার দিকে উপজেলার ভেলুয়া ইউনিয়নের ঢনঢনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘ‌টে।

আহত পু‌লিশ সদস্যরা হলেন- শ্রীবরদী থানার এসআই সাইফুল মালেক ও পুলিশ সদস্য দেলোয়ার হোসেন। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার ক‌রে। এ ঘটনায় পু‌লিশ বাদী হ‌য়ে এক‌টি মামলা দা‌য়ের ক‌রেছে। পরে পু‌লিশ অ‌ভিযান চালি‌য়ে দুই নারীসহ তিনজন‌কে গ্রেপ্তার ক‌রেছে।

পুলিশ সূ‌ত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (১০ মে) রাতে এসআই সাইফুল মালেকের নেতৃত্বে ঢনঢনিয়া গ্রামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন মামলার আসামি আব্দুর রহমানের ছেলে রাসেলকে গ্রেফতার করতে তার বাড়িতে যায় পুলিশ। এসময় বাড়িতে থাকা নারী-পুরুষরা মি‌লে পুলিশের ওপর অতর্কিত হামলা ক‌রে। প‌রে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে আহত দুই পুলিশ সদস্যকে উদ্ধার করে শ্রীবরদী উপ‌জেলা স্বাস্থ্য কম‌প্লে‌ক্সে নিয়ে আসে। সেখানে তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় আহত এসআই সাইফুল মালেক বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে এবং ১৫/২০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। পরে পু‌লিশ অ‌ভিযান চা‌লি‌য়ে আব্দুর রহমান (৪৫), মমতা বেগম (২৮) ও মজিনা বেগমকে ( ২৫) গ্রেফতার করেছে।

শ্রীবরদী থানার অ‌ফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার বিশ্বাস ব‌লেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর হামলার ঘটনা দুঃখজনক। গ্রেফতার তিনজন‌কে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


আরও খবর



করোনা: বিশ্বে আরও দেড় হাজার মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | ৩৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলমান করোনা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে। একইসঙ্গে আগের দিনের তুলনায় কমেছে নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন প্রায় দেড় হাজার মানুষ। একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা নেমে এসেছে পৌনে ৬ লাখের নিচে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে জার্মানিতে। অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। প্রাণহানির তালিকায় এরপরই রয়েছে ব্রাজিল, ইতালি, রাশিয়া, ফ্রান্স ও জাপান। এতে বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৫১ কোটি ৯০ লাখের ঘর। অন্যদিকে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬২ লাখ ৮২ হাজার।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৪৯২ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে দুই শতাধিক। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৬২ লাখ ৮২ হাজার ৬২ জনে।

একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৭১ হাজার ১০২ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমেছে প্রায় ২০ হাজার। এতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫১ কোটি ৯০ লাখ ৪ হাজার ৭০৪ জনে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে জার্মানিতে। এই সময়ের মধ্যে দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৩ হাজার ১০২ জন এবং মারা গেছেন ২২৭ জন। করোনা মহামারির শুরু থেকে ইউরোপের এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২ কোটি ৫৫ লাখ ৮৩ হাজার ২৫৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ৩৭ হাজার ৪৪৯ জন মারা গেছেন।

অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৭ হাজার ৪৮৭ জন এবং মারা গেছেন ২২৬ জন। করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৮ কোটি ৩৯ লাখ ৫৩ হাজার ৩৭১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১০ লাখ ২৫ হাজার ৭৬৪ জন মারা গেছেন।

ফ্রান্সে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪০ হাজার ২৯৯ জন এবং মারা গেছেন ৯৬ জন। করোনা মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২ কোটি ৯০ লাখ ৬১ হাজার ৫২৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ৪৭ হাজার ৭৫ জন মারা গেছেন। একইসময়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১০ হাজার ১৭ জন এবং মারা গেছেন ৫০ জন।

রাশিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৯৮ জন এবং নতুন করে ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন ৪ হাজার ১০২ জন। এছাড়া মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৮২ লাখ ৪১ হাজার ৩২৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৭৭ হাজার ২৪৮ জনের। একইসময়ে থাইল্যান্ডে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৭ হাজার ৬৫০ জন এবং মারা গেছেন ৫৬ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় দক্ষিণ কোরিয়ায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৩ হাজার ৮৯৯ জন এবং মারা গেছেন ২৯ জন। করোনা মহামারির শুরু থেকে পূর্ব এশিয়ার এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৭৬ লাখ ৫৮ হাজার ৭৯৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ২৩ হাজার ৪৯১ জন মারা গেছেন। গত একদিনে অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৯৯১ জন এবং মারা গেছেন ৮ জন।

লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১২১ জন এবং নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ২৩ হাজার ৩৯৮ জন। অপরদিকে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৩ কোটি ৬ লাখ ১৭ হাজার ৭৮৬ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ৬৪ হাজার ৫৬৪ জনের।

করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যার তালিকায় দেশটির অবস্থান তৃতীয়। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ২ হাজার ২৭৫ জন। মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪ কোটি ৩১ লাখ ১২ হাজার ৮৬১ জন এবং মারা গেছেন ৫ লাখ ২৪ হাজার ১৫৭ জন।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় অস্ট্রেলিয়ায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৭ হাজার ৮৮ জন এবং মারা গেছেন ৫১ জন। একই সময়ে কানাডায় নতুন করে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ৯৬ জন এবং মারা গেছেন ৫২ জন। গ্রিসে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ৭৬১ জন এবং মারা গেছেন ২৭ জন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ২০২০ সালের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে। এর আগে একই বছরের ২০ জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে সংস্থাটি।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর



আশুলিয়ায় ঝুটের গুদামে আগুন

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ০২ মে 2০২2 | ৪১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাভারের আশুলিয়ায় একটি ঝুটের গোডাউনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (২ মে) দুপুর ১টার দিকে আশুলিয়ার বাইপাইল এলাকার আজমেরী প্লাজা সংলগ্ন মো. মুরাদের ঝুটের গোডাউনে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, বাইপাইল এলাকার একটি ঝুটের গোডাউনে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে। প্রায় দেড় ঘণ্টা চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। তবে প্রাথমিকভাবে আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে জানা যায়নি।

ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের ওয়্যারহাউস ইন্সপেক্টর রাইসুজ্জামান বলেন, আমাদের তিনটি ইউনিটের দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে প্রাথমিকভাবে আগুনের সূত্রপাত ও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সম্পর্কে জানা যায়নি। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।


আরও খবর



নাটোরে ট্রাক-মাইক্রোর মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ২৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নাটোরের বড়াইগ্রামে ট্রাক-মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে মাইক্রোবাসের চালক ও এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৩ জন। বুধবার ভোরে নাটোর-পাবনা মহাসড়কে উপজেলার নগর ইউনিয়নের কয়েন এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলার সদর উপজেলার গহরপাড়া গ্রামের মৃত আদম আলীর ছেলে আল-মাহবুব ও চালক একই উপজেলার তালতলা পশুরহাট এলাকার আছির উদ্দিনের ছেলে মনিরুজ্জামান।

বনপাড়া হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফিরোজ হোসেন বলেন, উপজেলার কয়েন এলাকায় চুয়াডাঙ্গা থেকে রাজশাহীগামী নোয়া মাইক্রোবাসের (ঢাকা মেট্রো-চ ১১-৭৫৮৬) সাথে পঞ্চগড় থেকে পাবনাগামী বালু বোঝাই ট্রাকের (ঢাকা মেট্রো-ট ২২-৪৮৬৭) মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মাইক্রোবাসটি দুমড়ে মুচড়ে যায়।

ঘটনাস্থলেই মাইক্রোবাসের চালক ও একযাত্রী নিহত হয়। আহত তিনজকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, দুর্ঘটানাকবলিত ট্রাক ও মাইক্রোবাসটি জব্দ করা হয়েছে। মরদেহ দুটি বনপাড়া হাইওয়ে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে। তবে ট্রাকের চালক ও সহকারী চালক পালিয়ে গেছে। এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান পুলিশের এই এসআই।


আরও খবর



নেত্রকোনায় প্রতিপক্ষের বল্লমের আঘাতে দর্জির মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | ৩৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নেত্রকোনায় দনাচাপুর গ্রামে বৃষ্টির সময় বাড়ির পানি ফিশারির পুকুরে নামার প্রতিবাদ করায় প্রতিপক্ষের বল্লমের আঘাতে বাবুল দত্ত (৫৫) নামে এক দর্জির মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ মে) সকালে নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলায় নওপাড়া ইউনিয়নের দনাচাপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত বাবুল দত্ত দনাচাপুর গ্রামের প্রবোদ দত্তের ছেলে। তিনি পেশায় একজন দর্জি। পাশাপাশি তিনি ফিসারিতে মাছ চাষও করেতেন।

পুলিশ জানায়, দনাচাপুর গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য সুবল দেব ও তাদের পরিবারের লোকজনের বাড়ির বৃষ্টির পানি প্রতিবেশী বাবুল দত্তদের ফিশারি পুকুরে যাওয়ার কারণে তারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছিলেন। বৃহস্পতিবার সকালে বৃষ্টির পানি ফিসারিতে যাওয়ার কারণে বাবুল দত্ত ৭টার দিকে সুবলদের বাড়িতে গিয়ে এর প্রতিবাদ জানায়। এ নিয়ে বাবুল দত্তের সঙ্গে সুবল দেবের ঝগড়া শুরু হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে সুবল দেব ও তাদের লোকজন দেশীয় অস্ত্রা নিয়ে বাবুল দত্তের ওপর হামলা করে। এ সময় প্রতিপক্ষের বল্লমের আঘাতে বাবুল দত্ত গুরুতর আহত হন। আশপাশের লোকজন মুমূর্ষ অবস্থায় বাবুলকে উদ্ধার করে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মীর মাহবুর রহমান বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্তদের আটকের চেষ্টা করা হচ্ছে।


আরও খবর



শেরপুরে ঝড়ো বাতাস আর বৃষ্টিতে ধানের ব্যাপক ক্ষতি

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | ৩৭৫জন দেখেছেন

Image

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি:

বৈশাখ মাসের শুরুতেই  কয়েকদিনের বাতাস ও বৃষ্টিতে ধানগাছ হেলে পড়ায় বগুড়ার শেরপুরে বোরো ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

শেরপুর উপজেলার মাঠে মাঠে কাঁচা, আধাপাকা ও পাকাধান নিয়ে উৎকন্ঠায় আতঙ্কে আছে কৃষকেরা। অনেক এলাকায় বৃষ্টি ও ঝড়ো বাতাসে মাটিতে হেলে পড়েছে ধানসহ গাছ। দেখা গেছে কেউ ধান কাটছেন, ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা কাঁদছে।

দেখা গেছে গাড়ীদহ, কুসুম্বী, খামারকান্দি, খানপুর, সুঘাট, বিশালপুর ইউনিয়নের নিম্নাঞ্চলে বৃষ্টির পানিতে ফসল তলিয়ে ফলন বিপর্যয়ের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

উপজেলা ঘুরে দেখা গেছে, কৃষকের স্বপ্ন যেন অনেকাংশেই গুড়েবালির কারণ হয়েছে কালবৈশাখের ঝড়-বৃষ্টি। ধান পরিপুষ্ট হয়ে পাকার আগেই মাটিতে পড়ে যাওয়ায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ফলে বাধ্য হয়েই ধান কাটতে হচ্ছে কৃষকদের।

সময়ের আগে ধান কাটার ফলে স্বাভাবিকভাবে ফলন কম হবে। বৈরী আবহাওয়ার কারণে মাঠে ধান কাটা শ্রমিকেরও সঙ্কট দেখা দিয়েছে। ফলে বাধ্য হয়ে বেশি দামে শ্রমিক দিয়ে ধান কাটতে হচ্ছে কৃষকদের।

উপজেলার বাংড়া গ্রামের কৃষক সাইদুল ইসলাম ও খামারকান্দি গ্রামের শাহাদত হোসেন জানান, এ এলাকার বেশির ভাগ জমিতে আগাম জাতের ধানের চাষ করা হয়েছে। ধান কাটতে এখনো ১০-১৫ দিন বাকি। বৃষ্টি ও বাতাসের কারণে ধানগাছ মাটিতে শুয়ে পড়েছে বহু জায়গায়। এতে ফলন বিপর্যয়সহ প্রতি বিঘায় প্রায় চার-পাঁচ মণ ধান কম হবে বলে তাদের ধারণা।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চলতি মৌসুমে ২০ হাজার ৭০০হেক্টর জমিতে বোরোর আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। অর্জিত হয়েছে ২০হাজার ৩শ'৮৫ হেক্টর। তবে বোরো মৌসুমের শেষ প্রান্তিকের টানা বর্ষণে জমির পাকা, আধাপাকা ধান গাছ পানির নিচে তলিয়ে গেছে। এছাড়া ঝড়ো বাতাসে বিভিন্ন এলাকায় ধান গাছ মাটির সাথে মিশে গেছে। ধান মাটিতে শুয়ে পড়ায় কৃষকরা হতাশ হয়ে পড়েছে। অনেকে আবার তড়িঘড়ি করে জমির কাঁচা-পাকা ধান কাটতে শুরু করেছে। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে উপজেলায় প্রায় ২হাজার হেক্টর ধানী জমি ক্ষতির মুখে।

উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা আব্দুর রহমান বলেন, ঝড়ো বাতাসের কারণে কিছু পরিমান জমিতে বোরো ধান হেলে পড়েছে। তবে এত আতঙ্কিত হবার কিছু নেই। আগাম সতর্কতা হিসেবে যেসব জমির ফসল শতকরা ৮০ ভাগ পেকে গেছে, সেগুলো কেটে নেয়ার জন্য কৃষকদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

এখন বোরো ধান পাকা ও শক্ত অবস্থায় আছে। সে কারণে গড়পড়তায় স্বাভাবিক ঝড় বৃষ্টিতে ফলনে তেমন হেরফের হবেনা।


আরও খবর