আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

‘বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিভিত্তিক প্রায়োগিক শিক্ষায় গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | ১৩৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিভিত্তিক প্রায়োগিক শিক্ষায় সরকার গুরুত্ব দিচ্ছে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি।

মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) পিরোজপুর সদর উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষে বিশ্ব শিক্ষক দিবস ২০২১ উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা জানান।

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমান সরকার কারিগরী শিক্ষাকে প্রাধান্য দিচ্ছে। দক্ষ জনশক্তি তৈরির শিক্ষাকে প্রাধান্য দিচ্ছে। যাতে শিক্ষার্থীরা প্রশিক্ষণ নিয়ে দেশে ও দেশের বাইরে দক্ষ জনশক্তি হিসেবে নিজের মেধাকে কাজে লাগাতে পারে। বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করতে পারে। অতীতে গবেষণার সীমিত সুযোগ ছিল। শেখ হাসিনা সরকার প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণার জন্য আলাদা অর্থ বরাদ্দ দিচ্ছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে গবেষণাগার তৈরি করে দিচ্ছে, বিষয়ভিত্তিক বিশেষজ্ঞদের নিয়োগ দিচ্ছে। গতানুগতিক শিক্ষার বাইরে যে আধুনিক শিক্ষাকে কাজে লাগানো যায় সে শিক্ষার প্রসার করাই বর্তমান সরকারের লক্ষ্য। কারণ সার্টিফিকেটভিত্তিক শিক্ষা কোন কাজে আসে না

বাংলাদেশের ৫০ বছরের ইতিহাসে শেখ হাসিনার মতো শিক্ষাবান্ধব প্রধানমন্ত্রী আর আসেনি উল্লেখ করে এ সময় মন্ত্রী আরো যোগ করেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সময়ে শিক্ষা খাতে বাজেট অনেক বৃদ্ধি করা হয়েছে। তবে এ বাজেট আরো বাড়ানো দরকার। শিক্ষকদের আবাসন ব্যবস্থা দরকার, বেসরকারি শিক্ষকদের চাকরি শেষে জীবনযাপনের একটা নিশ্চয়তা থাকা দরকার। পাশাপাশি শিক্ষকদের মর্যাদার ধাপ আরো উপরে নেওয়া দরকার

পিরোজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. বশির আহমেদ, পিরোজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খায়রুল হাসান, পিরোজপুর জেলা মুক্তিযুদ্ধ সংসদের সাবেক কমান্ডার গৌতম নারায়ণ রায় চৌধুরীসহ স্থানীয় বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

পরে জাতীয় মহিলা সংস্থা, পিরোজপুর জেলা শাখা আয়োজিত কৃতি ছাত্রীদের সনদপত্র বিতরণ ও সুধি সমাবেশে যোগ দেন মন্ত্রী।


আরও খবর



পুঁজিবাজারে সূচকের পতন

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১ | ৫৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শেষ দেড় ঘণ্টার শেয়ার বিক্রির চাপে টানা ছয় কার্যদিবস উত্থানের পর সোমবার (৪ অক্টোবর) পুঁজিবাজারে সূচক পতন হয়েছে। বেশিরভাগ শেয়ার ও সূচক পতন হলেও বেড়েছে লেনদেন।

ব্যাংক-বিমা এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ প্রায় সব খাতের শেয়ারের দাম কমায় এদিন দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক কমেছে ২৮ পয়েন্ট। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সূচক কমেছে ৩৭ পয়েন্ট।

ডিএসইর তথ্য মতে, সোমবার ডিএসইতে ৩৭৬টি কোম্পানির ৫৭ কোটি ৮৯ লাখ ৪১ হাজার ৬৬৯টি শেয়ার হাত বদল হয়েছে। এর মধ্যে ৪৮টি কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ২৯৭টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৩১টির।

দিনশেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ২৮ পয়েন্ট কমে ৭ হাজার ৩২৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রধান সূচকের পাশাপাশি ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক দশমিক ২২ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৫৯৩ পয়েন্টে ও ডিএসই-৩০ সূচক ২৩ দশমিক ৫৫ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ৭৬৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৭৫৫ কোটি ২০ লাখ ৫৯ হাজার টাকা। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ৪৩৯ কোটি ২৪ লাখ ৯৩ হাজার টাকা। অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে।

ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো লিমিটেডের শেয়ার। দ্বিতীয় স্থানে ছিল লর্ফাজহোলসিমের শেয়ার, তৃতীয় স্থানে ছিল ওরিয়ন ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের শেয়ার। এরপর যথাক্রমে ছিল বেক্সিমকো ফার্মা, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স লিমিটেড, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো, ইফাদ অটোস, জিপিএস ইস্পাত, শাইনপুকুর সিরামিক এবং পাওয়ার গ্রিড লিমিটেড।

অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৩৭ পয়েন্ট কমে ২১ হাজার ৪৭৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩২২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৬৬টির শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ২৪৮টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ১৮টি কোম্পানির শেয়ারের দাম।

 

নিউজ ট্যাগ: সূচকের পতন

আরও খবর
নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১




মাকে খুনের দায়ে ছেলের মৃত্যুদণ্ডাদেশ

প্রকাশিত:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | ১২৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ময়মনসিংহের ভালুকায় মাকে কুপিয়ে হত্যার দায়ে ছেলেকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ডও দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টায় জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. হেলাল উদ্দিন আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ময়মনসিংহ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট কবীর উদ্দিন ভূইয়া।

তিনি জানান, ভালুকা উপজেলার জামিরদিয়া এলাকার ডুগুলিয়া পাড়া এলাকায় জমি সংক্রান্ত ঘটনায় ২০১৮ সালের ২৩ ডিসেম্বর মা মরিয়ম বেগমকে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে ছেলে মো. মস্তুফা (৫০)। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় নিহতের অপর ছেলে মো. শাহ জালাল বাদি হয়ে ঘটনার দিনই ৫ জনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

ওই মামলার দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০১৯ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি পুলিশ আদালতে মো. মস্তুফাকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করে।


আরও খবর
ইকবালসহ ৪ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে ভর্তি আরও ১১২ ডেঙ্গুরোগী

প্রকাশিত:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | হালনাগাদ:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | ২২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সারাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ১১২ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে রাজধানীর হাসপাতালে ৯৯ জন ও ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ১৩ জন রোগী ভর্তি হন।

এ নিয়ে বর্তমানে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন এমন রোগীর সংখ্যা ৭৬৮ জন। চলতি বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেছেন ৮৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি থাকা ৭৬৮ জন ডেঙ্গু রোগীর মধ্যে রাজধানীর সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৫৯৩ জন ও ঢাকার বাইরের হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১৭৫ জন।

বুধবার (২০ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক ডা. মোহাম্মদ কামরুল কিবরিয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ভর্তি হওয়া ১১২ জন রোগীর মধ্য রাজধানীর সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত হাসপাতালে ৩৭ জন ও বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ৬২ জন রয়েছেন। এছাড়া ঢাকার বাইরে বিভিন্ন বিভাগের হাসপাতালে ভর্তি হন ১৩ জন।

সূত্র আরও জানায়, ১ জানুয়ারি থেকে আজ বুধবার (২০ অক্টোবর) পর্যন্ত দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া মোট রোগীর সংখ্যা ২১ হাজার ৮৩৭ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২০ হাজার ৯৮৬ জন।

চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি মোট রোগীদের মধ্যে জানুয়ারিতে ৩২ জন, ফেব্রুয়ারিতে ৯ জন, মার্চে ১৩ জন, এপ্রিলে তিনজন, মেতে ৪৩ জন, জুনে ২৭২ জন, জুলাইয়ে ২ হাজার ২৮৬ জন, আগস্টে ৭ হাজার ৬৯৮ জন, সেপ্টেম্বরে ৭ হাজার ৮৪১ জন এবং ২০ অক্টোবর পর্যন্ত ৩ হাজার ৬৪০ জন রোগী ভর্তি হন।

নিউজ ট্যাগ: ডেঙ্গু আক্রান্ত

আরও খবর



করোনায় এক দিনে শনাক্ত ২৭৮ জন, মৃত্যু ৯

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১ | ৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে গত এক দিনে মহামারি করোনাভাইরাসে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। উল্লেখিত সময়ে ২৭৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে, যাতে শনাক্তের হার ১.৮৫ শতাংশ।

শনিবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। এতে আরও বলা হয়, গত এক দিনে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৫ হাজার ৪২ জনের। এ পর্যন্ত ১ কোটি ২ লাখ ৩ হাজার ৬৬৫টি নমুনা পরীক্ষায় এ পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ৬৭ হাজার ৪১৭ জন, যাতে মোট শনাক্তের হার ১৫.৩৬ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত এক দিনে যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ৬ জন ও নারী ৩ জন। এদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ২ জন, রাজশাহী ২ জন, খুলনায় ২ জন, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিং বিভাগে ১ জন করে মারা গেছেন। বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগে কেউ মারা যায়নি। এছাড়া গত এক দিনে সুস্থ হয়েছেন ২৯৪ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ ১৫ লাখ ৩০ হাজার ৯৪১ জন।

২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। আর এর ১০ দিন পর প্রথম মৃত্যুর খবর আসে। এরপর কয়েক মাস মৃত্যু ও শনাক্ত ঊর্ধ্বগতিতে থাকার পর গত বছরের শেষ দিকে এসে তা অনেকটা কমে যায়। চলতি বছরের প্রথম তিন মাস অনেকটা নিয়ন্ত্রণে ছিল করোনা পরিস্থিতি। তবে মার্চের শেষ দিক থেকে দেশে বাড়তে থাকে করোনার প্রকোপ। এটাকে বিশেষজ্ঞরা করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা বলে জানান।

গত এপ্রিল মাস থেকে বাড়তে থাকা করোনার প্রকোপ চরম আকার ধারণ করে জুলাইয়ে। এই মাসে এক দিনে সর্বোচ্চ ২৬৪ জন মৃত্যুর খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এছাড়া দিনে শনাক্তের সংখ্যাও ১৫ হাজার ছাড়ায়। তবে আগস্টের শেষ দিক থেকে করোনার প্রকোপ কমতে থাকে। সেপ্টেম্বর মাস পুরোটাই করোনার প্রকোপ নিম্নমুখী ছিল। অক্টোবরেও তা অব্যাহত রয়েছে।

দেশে করোনা পরিস্থিতি মোটামুটি নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তবে সংস্থাটি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর জোর দিয়েছে। যেকোনো সময় করোনা আবার জটিল আকার ধারণ করতে পারে বলেও সতর্ক করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।



আরও খবর



ডিসেম্বরে চালু হচ্ছে ৫জি

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশে ৫জি চালুর প্রস্তুতি দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। ডিসেম্বরের মাঝামাঝিতে অর্থাৎ ১২ বা ১৬ ডিসেম্বর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হবে বলেও জানান তিনি।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ফাইভজি ইকোসিস্টেম ইন বাংলাদেশ অ্যান্ড আপকামিং টেকনোলজিস শীর্ষক একটি ওয়েবিনারে তিনি এ তথ্য জানান। টেলিকম এবং টেকনোলজি সাংবাদিকদের সংগঠন টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ (টিআরএনবি) এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী জানান, হুট করে বা খুব দ্রুত আমরা সিদ্ধান্ত নিয়ে ৫জি চালু করছি বিষয়টা এমন নয়। আমরা অনেক দিন থেকেই প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছি। কোন তারিখে ৫জি উদ্বোধন করা হবে তা এখন বলতে পারছি না, তবে ডিসেম্বর মাসে অনেকগুলো উৎসবের দিন রয়েছে, সেসব দিনের মধ্যে একটা দিনে উদ্বোধন করা হবে।

শিল্পপণ্য তৈরি প্রতিষ্ঠান যেন ফাইভজি সেবা ভালোভাবে পায় সেটা নিশ্চিতের প্রস্তুতি রয়েছে জানিয়েছে মন্ত্রী বলেন, ৫টি ইকোনমিক জোনে ৫জি নেটওয়ার্ক দেওয়ার কাজ চলছে। আমাদের অনেক পার্টনার রয়েছে তাদের কথাও আমরা চিন্তা করছি। সবকিছু মিলিয়ে আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। ৫জি কে ঘিরে জনগণের প্রয়োজন ও চাহিদাকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার বিভিন্ন প্রস্তুতি ও পরিকল্পনার তথ্য তুলে ধরে বলেন, ইতোমধ্যে মোবাইল প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। মোবাইল অপারেটর ও টাওয়ার অপারেটর বিটিআরসি সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে।

আলোচনায় অংশ নেন বিটিআরসির কমিশনার এ কে এম শহীদুজ্জামান, টেলিটক ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাহাব উদ্দীন, বাংলালিংক সিইও অ্যান্ড চেয়ারম্যান এমটব এরিক অস, গ্রামীনফোন সিইও ইয়াসির আজমান, রবি ভারপ্রাপ্ত সিইও, রিয়াজ রশীদসহ অনেকে।


আরও খবর