আজঃ শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

বিপৎসীমার ১৫ সেন্টিমিটার উপরে তিস্তার পানি

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৩ আগস্ট ২০২১ | ৯৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

উজানে ভারত থেকে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে লালমনিরহাটে তিস্তার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নদী তীরবর্তী কয়েকটি গ্রামের পাঁচ হাজারের বেশি মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।

আজ শুক্রবার লালমনিরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ড এ তথ্য জানিয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্য মতে, আজ সকাল ছয়টা থেকে লালমনিরহাটে কাউনিয়া পয়েন্টে তিস্তা নদীর পানি বিপৎসীমার ১৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে তিস্তার পানি বাড়তে থাকে। নদীতে পানি বেড়ে যাওয়ায় প্লাবিত হয়েছে চর ও নদী অববাহিকার গ্রামগুলো।

গতকাল রাত নয়টা থেকে ১২টা পর্যন্ত তিস্তার পানি ব্যারেজ পয়েন্টে বিপৎসীমার ৩০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। উজান থেকে পাহাড়ি ঢলের পানি আসা বন্ধ হওয়ায় তিস্তা ব্যারেজ পয়েন্টে পানি কমতে শুরু করলেও ভাটিতে বাড়ছে তিস্তার পানি।

লালমনিরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান বলেন, তিস্তার বেডে পলি ও বালু জমে ভরাট হওয়ায় অল্প পানিতে নদী অববাহিকা প্লাবিত হয়ে থাকে। এতে চর ও নদী তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলগুলোতে তিস্তার পানি ঢুকে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

উজানে পানির চাপ থাকায় তিস্তা ব্যারেজের ৪৪টি গেটের সবগুলো খোলা রাখা হয়েছে। উজান থেকে পানি আসলেই তিস্তার পানি বেড়ে গিয়ে বিপৎসীমা অতিক্রম করে থাকে। কোনো বৃষ্টিপাত না থাকায় আগামী ১২ ঘণ্টার মধ্যে তিস্তার পানি কমে যেতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

লালমনিরহাট সদর উপজেলার রাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন বলেন, গতকাল রাতে তিস্তায় আকস্মিক পানি বেড়ে যাওয়ায় আমার ইউনিয়নের ছয়টি গ্রামে পানি ঢুকেছে। পানিবন্দি হয়েছেন দুই হাজারের বেশি মানুষ। চর ও নদী তীরবর্তী এলাকাগুলোর রাস্তা-ঘাট ও ফসলের জমি পানির নিচে তলিয়ে গেছে।


আরও খবর



৯৩ রানেই অলআউট কিউইরা

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শুরুতে ব্যাটিং করতে নেমে বাংলাদেশের স্পিনার নাসুম আহমেদ ও মেহেদী হাসানের ঘূর্ণিঝরের মুখে পড়ে নিউজিল্যান্ড। এরপর তোপ দাগেন মোস্তাফিজুর রহমানও।

তবে চারে নামা উইল ইয়াংয়ের ধৈর্যশীল ব্যাটিংয়ে ৯০ ছাড়ানো সংগ্রহ পায় কিউইরা।

সিরিজের চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে বুধবার টসে জিতে ব্যাটিং বেছে নেন নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক টম ল্যাথাম। শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ইয়াংয়ের ৪৬ রানের ইনিংসে ভর করে বাংলাদেশের সামনে ৯৪ রানের লক্ষ্য দেয় সফরকারীরা।

ফিল্ডিংয়ে নেমে নাসুম আহমেদকে দিয়ে বোলিং আক্রমণ শুরু করে বাংলাদেশ। ওভারের পঞ্চম বলেই আসে সাফল্য। পাঁচ বল খেলে কোনো রান না করা রাচিন রবীন্দ্রর তুলে দেওয়া ক্যাচ মিডউইকেটে দারুণ দক্ষতায় তালুবন্দি করেন সাইফউদ্দিন। ওই ওভারে আর কোনো রান আসেনি। মেডেন উইকেট তুলে নেন নাসুম। 

দ্বিতীয় ওভারে বল হতে আসেন সাকিব। পঞ্চম বলে রিভার্স সুইপে ছক্কা হাঁকান ফিন অ্যালেন। ওভার থেকে আসে ১০ রান। ফিরতি ওভারে এসেই ৮ বলে ১ ছক্কায় ১২ রান করা ফিন অ্যালেনকে তুলে নেন নাসুম। ক্যাচ নেন সেই সাইফউদ্দিন। ১৬ রানে কিউইদের দ্বিতীয় উইকেটের পতন।

ল্যাথাম আর ইয়ং জুটিতে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে কিউইরা। প্রথম এবং ৭ম ওভারের মাঝেই দুটি রিভিউ শেষ করে ফেলে বাংলাদেশ। দুটিই ছিল লেগ বিফোরের আবেদন। একাদশ ওভারে টাইগারদের ব্রেক থ্রু দেন স্পিনার শেখ মেহেদি আর নুরুল হাসান সোহান। মেহেদির বলে ২৬ বলে ২১ করা ল্যাথামকে স্টাম্পড করে দেন সোহান। ভাঙে ৪৭ বলে ৩৫ রানের জুটি। 

পরের ওভারেই জোড়া আঘাত হানেন নাসুম আহমেদ। তার বলে বোল্ড হয়ে হেনরি নিকোলাস (১)। পরের বলেই কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম (০) ক্যাচ দেন নুরুল হাসান সোহানের হাতে। হ্যাটট্রিকের সুযোগ ছিল। ওভারের চতুর্থ বলটি টম ব্লান্ডেলের ব্যাটের খুব কাছ দিয়ে গেলেও স্পর্শ করেনি। 

তবে ১৬তম ওভারে আক্রমণে এসে ব্লান্ডেলকে (৪) মোহাম্মদ নাঈমের ক্যাচ বানিয়ে ফেরান মোস্তাফিজ। একই ওভারে ফিজ নিজের বলেই কোল ম্যাকনচির ক্যাচ নেন। এরপর এজাজ প্যাটেলকে (৪) বোল্ড করে ফেরান সাইফউদ্দিন। 

বল হাতে ৪ ওভারে দুই মেডেনসহ ১০ রান খরচে ৪ উইকেট নিয়েছেন নাসুম। সমান উইকেট পেতে ৩.৩ ওভারে মাত্র ১২ রান খরচ করেছেন মোস্তাফিজ। ১টি করে উইকেট গেছে সাইফউদ্দিন ও মেহেদীর দখলে।


আরও খবর
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের থিম সং প্রকাশ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

মেসিকে পেছনে ফেললেন সিআর সেভেন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




সাকিবের চোখ এখন আইপিএলে

প্রকাশিত:রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশ ক্রিকেট দল সামনে টানা তিন টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের পর এবারের বিশ্বকাপ মিশন । তবে তার আগে দলের সেরা তারকা সাকিবের চোখ আইপিএলে।

কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে আইপিএলের বাকি অংশে যোগ দিতে কয়েক দিনের মধ্যেই দেশ ছাড়বেন তিনি।

বিশ্বকাপের ভেন্যুগুলোতেই চলবে আইপিএল যুদ্ধ। কন্ডিশন, উইকেট সবই এক। তাই বিশ্বকাপের আগে আইপিএল কেমন কাজে লাগবে সে প্রশ্ন উঠতেই পারে। শনিবার রাতে ঢাকায় একটি টাইলস প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার সময় সাকিব জবাব দিলেন সেই প্রশ্নের।

বললেন, আশা করি আইপিএলে খেলা বিশ্বকাপে সাহায্য করবে। সেই অভিজ্ঞতা আমরা দলের সবার সঙ্গে ভাগাভাগি করতে পারব; আমি পারব, মোস্তাফিজ পারবে। আটটি আইপিএল দলে আমরা দু'জন বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করছি, খেলোয়াড়দের ভাবনা কেমন, বিশ্বকাপ নিয়ে কীভাবে ভাবছে অন্য দেশের খেলোয়াড়রা এসব সম্পর্কে ধারণা হবে, যা সতীর্থদের সঙ্গে ভাগাভাগি করে নেব।

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সম্ভাবনা নিয়ে সাকিব বললেন,  আমাদের প্রস্তুতি খুবই ভালো হয়েছে। গত তিনটি সিরিজ আমরা জিতেছি। উইকেট নিয়ে সমালোচনা হয়েছে। কিন্তু জয়ের কোনো বিকল্প নেই। একটা দল যখন জিততে থাকে, জয়ের মানসিকতা থাকে, তা অন্য পর্যায়ের আত্মবিশ্বাস জোগায়। অনেক ভালো খেলেও ম্যাচ হারলে আত্মবিশ্বাস থাকে না। এই আত্মবিশ্বাস নিয়ে আমরা বিশ্বকাপে যেতে চাই। এখানকার উইকেট-কন্ডিশন ওখানে খুব বেশি প্রভাব ফেলবে না। আমাদের জয়ের মানসিকতা তৈরি হয়েছে। 


আরও খবর
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের থিম সং প্রকাশ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

মেসিকে পেছনে ফেললেন সিআর সেভেন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




টেকসই ভবিষ্যৎ নিশ্চিতে প্রধানমন্ত্রীর ছয় দফা প্রস্তাব

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আগামী প্রজন্মের জন্য টেকসই ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করতে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে সব অংশীজনের সঙ্গে কাজ করার জন্য বিশ্বের প্রধান অর্থনীতির দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার ওয়াশিংটন ডিসিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ডাকা মেজর ইকোনমিজ ফোরাম অন এনার্জি অ্যান্ড ক্লাইমেট শীর্ষক উচ্চ পর্যায়ের অনুষ্ঠানে পূর্বে ধারণ করা ভাষণে প্রধানমন্ত্রী ফোরামের বিবেচনার জন্য ছয় দফা প্রস্তাব তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রী তার প্রথম প্রস্তাবে প্রধান কার্বন নির্গমনকারী দেশগুলোকে বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধি ১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে সীমিত রাখার লক্ষ্যে তাদের কার্বন নির্গমণ হ্রাস করার জন্য পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানান।

শেখ হাসিনা তার দ্বিতীয় প্রস্তাবে বলেন, জলবায়ু তহবিলের জন্য উন্নত দেশগুলোর বার্ষিক ১০০ বিলিয়ন ডলারের অঙ্গীকার পূরণ করতে হবে এবং অভিযোজন ও প্রশমনের মধ্যে ৫০:৫০ বিতরণ করতে হবে।

তৃতীয় প্রস্তাবে প্রধানমন্ত্রী উন্নয়নশীল দেশগুলোতে প্রযুক্তি হস্তান্তরের পাশাপাশি সবচেয়ে কার্যকর জ্বালানি সমাধান নিয়ে এগিয়ে আসার জন্য উন্নত দেশগুলোর প্রতি তার আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করেন।

তার চতুর্থ প্রস্তাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহারে উত্তরণের ক্ষেত্রে, জাতি-রাষ্ট্রগুলোর সংশ্লিষ্ট উন্নয়ন অগ্রাধিকারগুলোর হিসাব নেওয়া এবং তাদের অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে লোকসান ও ক্ষতির বিষয়গুলো বিবেচনা করা উচিত।

প্রধানমন্ত্রী তার পঞ্চম প্রস্তাবে বলেছেন, সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি, লবণাক্ততা বৃদ্ধি, নদীর ভাঙন, বন্যা ও খরার কারণে বাস্তুচ্যুত মানুষদের পুনর্বাসনের দায়িত্ব সকল দেশের ভাগ করে নেওয়া দরকার।

তিনি আগামী নভেম্বরে গ্লাসগোতে অনুষ্ঠিতব্য কপ২৬ সম্মেলনে দৃঢ় ও তাৎপর্যপূর্ণ ফলাফল কামনা করেন এবং এ লক্ষ্যে সেখানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের জন্য বিশ্বের প্রধান অর্থনীতিগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি জলবায়ু ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম। তিনি বলেন, সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বৃদ্ধি, লবণাক্ততা বৃদ্ধি, নদী ভাঙন, বন্যা ও খরার প্রভাব ছাড়াও ১১ লাখ রোহিঙ্গা জোরপূর্বক মিয়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত হওয়ার কারণে বাংলাদেশ গুরুতর জলবায়ু প্রভাবের সম্মুখীন হচ্ছে।

জলবায়ু পরিবর্তন অভিযোজন ও প্রশমন প্রচেষ্টায় তার সরকার অগ্রণী হিসেবে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ সম্প্রতি একটি উচ্চাকাঙক্ষী ও হালনাগাদকৃত এনডিসি জমা দিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের সর্বাধিক বিস্তৃত অভ্যন্তরীণ সৌরশক্তি কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ মুজিব জলবায়ু সমৃদ্ধি পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে যা জলবায়ু ঝুঁকি থেকে জলবায়ু সহিষ্ণুতা এবং তা থেকে জলবায়ু সমৃদ্ধি পর্যন্ত একটি যাত্রা।

জলবায়ু ঝুঁকি ফোরাম (সিভিএফ) এবং ভি-২০র সভাপতি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মূল লক্ষ্য হচ্ছে জলবায়ু ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর স্বার্থ তুলে ধরা।

তিনি আরও বলেন, ঢাকায় গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডাপ্টেশনের দক্ষিণ এশিয়া আঞ্চলিক কার্যালয়ের মাধ্যমেও বাংলাদেশ সেরা অনুশীলন ভাগ করে নেয়।


আরও খবর
কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নতুনভাবে ভাবতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




মিরপুরে বাসায় আগুন, শিশুসহ ৭ জন দগ্ধ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৬ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৬ আগস্ট ২০২১ | ৫৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ওই বাসায় কয়েকদিন গ্যাস ছিল না। রাতে হঠাৎ গ্যাসের চাপ বেড়ে যায়। এ সময় বাড়ি লোকজন গ্যাস রাইজার পরিষ্কার করছিল

রাজধানীর মিরপুরে একটি বাসায় গ্যাস লাইনের গোলযোগের থেকে অগ্নিকাণ্ডে শিশুসহ সাত জন দগ্ধ হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) সকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ(ঢামেক) হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বুধবার (২৫ আগস্ট) দিনগত রাত ১২টার দিকে মিরপুর-১১ নম্বরের সি ব্লকে একটি বাসায় অগ্নিকাণ্ড হয়। এ সময় ৭ জন দগ্ধ হয়। তাদেরকে উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে।

দগ্ধ সাত জন হচ্ছে- ওই বাড়ির মালিক রফিকুল ইসলামের মা রওশন আরা বেগম (৭০), ভাই শফিকুল ইসলাম (৩৫) ছোট বোন রিনা বেগম (৫০) বাসার নিচতলার ভাড়াটিয়া নাজনীন আক্তার (২৫) তার মেয়ে নওশীন (৫) পাশের বাসার ভাড়াটিয়া রেনু বেগম (৩৫) ও পথচারী সাজ্জাদ হোসেন (৩০)।

ওই বাড়ির মালিক রফিকুল ইসলাম জানান, তাদের বাড়ির নিচতলায় তিতাস গ্যাসের লাইন লিকেজ ছিল, দুই দিন আগে লিকেজ মেরামত করা হয়েছে। কিন্তু আজ রাত ১২টার দিকে হঠাৎ বিকট শব্দ হয়ে আগুন ধরে যায় নিচতলায়। এতে সাত জন দগ্ধ হয়। পরে তাদেরকে উদ্ধার করে বার্ন ইনস্টিটিউটে নিয়ে আসা হয়েছে।

এদিকে পল্লবী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. নাসির উদ্দিন জানান, ওই বাসায় কয়েকদিন গ্যাস ছিল না। রাতে হঠাৎ গ্যাসের চাপ বেড়ে যায়। এ সময় বাড়ি লোকজন গ্যাস রাইজার পরিষ্কার করছিল। হঠাৎ করে সেটা বিস্ফোরিত হয়ে আগুন ধরে যায়। এতে সাত জন দগ্ধ হয়। পরে ফায়ার সার্ভিসে দেওয়া হলে তিনটি ইউনিট এসে আগুন নেভায়।

ফায়ার সার্ভিসের সদরদপ্তর থেকে কামরুল আহসান জানান, মিরপুরের চারতলা বাড়ির নিচতলায় অগ্নিকাণ্ডের সংবাদে তিনটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। রাত ১১টা ২০ মিনিটে আগুন লাগলেও ১২টা ২০ মিনিটে তা নেভানো হয়। ধারণা করা হচ্ছে গ্যাসের লাইনের জয়েন্ট খুলে এ ঘটনা ঘটতে পারে। আগুনে ৭ জন দগ্ধ হয়েছে।

এদিকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. এস এম আইয়ুব হোসেন জানান, দগ্ধ সবাইকে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

শেখ হাসিনা ইনস্টিটিউট থেকে একটি সূত্র জানান, শিশু নওশীনের ১৫, শতাংশ, শফিকুল ইসলামের ৮৫, সুমন ৪৫, রওশন আরা ৮০, রিনা ৭০ নাসরিন ২৭ ও রেনু ৩৮  শতাংশ  শরীরে পোড়া আছে।


আরও খবর
ই-অরেঞ্জ গ্রাহকদের পুলিশের লাঠিপেটা

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে চলচ্চিত্র ‘চরিত্র’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৯৪০জন দেখেছেন
এস এম মনির

Image

ডি.এন.বাংলা প্রযোজিত মোঃদ্বীন ইসলাম এর কাহিনী, সংলাপ, চিত্রনাট্য ও পরিচালনায়চরিত্রচলচ্চিত্রটি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সনদ পত্র পেয়েছে গত ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১তারিখে।চরিত্রচলচ্চিত্রটি আগামী অক্টোবর ২০২১ এ, প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

এটি আমাদের দেশীয় মৌলিক গল্পের চলচ্চিত্র, এই চলচ্চিত্রটিতে আবহমান গ্রামবাংলা ও সমাজের প্রতিচ্ছবি তুলে ধরা হয়েছে। চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন, ফরহাদ হোসেন, কান্তানুর, মিষ্টিমারিয়া, সমুচৌধুরী, ফারুক আহমেদ, মাহমুদুর রহমান মিঠু(বড়দামিঠু), মাসুম আজিজ, আমির সিরাজী, গুলশানারা পপি, শম্পানিজামসহ সুনামধন্য অনেক শিল্পী।


চরিত্রচলচ্চিত্রটির চিত্রধরণ করেছেন, শ্রাবণ চৌধুরী সুমন, এস এম রনি, সোহাগ।

প্রধান সহকারী পরিচালক মোঃশফিউল্লা । সহকারী পরিচালক নয়ন মাহমুদ ও রাশেদ। শিল্প নির্দেশক আরিফুল ইসলাম। পোশাক সানোয়ার। সঙ্গীত পরিচালক চঞ্চল। কন্ঠ শিল্পী ফজলুররহমান বাবু, রিংকু, চঞ্চল। আবহ সঙ্গীত আশরাফুল।

 

নিউজ ট্যাগ: চলচ্চিত্র

আরও খবর
হাইকোর্টে জামিন পেলেন মডেল মৌ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আমার পছন্দের পুরুষকে একটু রাফ হতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১