আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম
রংপুরে পেট্রল সংকট

চাহিদা পূরণে হিমশিম খাচ্ছে ফিলিং স্টেশনগুলো

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | ৪২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রেলপথনির্ভর জ্বালানি তেল পরিবহন দীর্ঘদিন ছুটির ফাঁদে পড়ায় রংপুর বিভাগে এখনো পেট্রলের চাহিদা পূরণে হিমশিম খাচ্ছে ফিলিং স্টেশনগুলো। আবার তেল পরিবহনে রেলের সীমাবদ্ধতা থাকায় ঈদ ঘিরে পেট্রলের বর্ধিত চাহিদার অনুপাতে পাম্পগুলো প্রয়োজনীয় তেল সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হচ্ছে। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছেন যানবহন মালিক ও যাত্রীরা।  রংপুর বিভাগীয় পেট্রল পাম্প ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন সূত্রে জানা গেছে, বিভাগে ফিলিং স্টেশনের সংখ্যা হচ্ছে ৩৫৪টি। প্রতিদিন পেট্রলের চাহিদা প্রায় ৩ লাখ লিটার। ঈদ ঘিরে এ চাহিদা অনেক বেড়ে যায়। কিন্তু পদ্মা, মেঘনা ও যমুনা অয়েল কোম্পানিগুলো সোমবার পর্যন্ত প্রয়োজনীয় পেট্রল সরবরাহ করতে পারেনি।

রংপুরের শাপলা ফিলিং স্টেশনের মালিক মো. আজিজুল ইসলাম মিন্টু বলেন, রংপুরে অবস্থিত অয়েল কোম্পানিগুলোয় চাহিদামতো তেল পাওয়া যাচ্ছে না। আবার দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুরে অবস্থিত ডিপো থেকে তেল পাওয়া কঠিন। রোববার কিছু পেট্রল বিক্রি করলেও সোমবার তার পাম্পে পেট্রল নেই। আবার কবে পেট্রল পাবেন তিনি তা জানেন না। একই অবস্থা অধিকাংশ পাম্পে।

পদ্মা, মেঘনা এবং যমুনা তেল কোম্পানিগুলোয় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রেলের দুটি র্যাকারের মাধ্যমে তাদের প্রয়োজনীয় জ্বালানি তেল পেট্রল, ডিজেল, অকটেন এবং কেরোসিন নিয়ে আসা হয়। চট্টগাম থেকে একটি র্যাকারে তেল নিয়ে আসতে ছয় থেকে সাতদিন সময় লাগে। মেঘনা তেল কোম্পানির সিনিয়র সেলস অফিসার মো. গোলাম ইয়াসিন বলেন, ঈদ উপলক্ষে দীর্ঘ ছুটি থাকায় তেল এনে বিতরণে বিলম্ব হয়েছে। এদিকে ঈদে পেট্রলের চাহিদা বৃদ্ধি পাওয়ায় সময়মতো পেট্রল পেতে সময় লাগছে।

এদিকে দিনাজপুরের পার্বতীপুরে অবস্থিত যমুনা তেল কোম্পানির এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা নাম না প্রকাশ করার শর্তে বলেন, ১-৫ মে পর্যন্ত সরকারি ছুটি থাকায় জ্বালানি তেল বিতরণে ব্যাঘাত ঘটে। আস্তে আস্তে স্বাভাবিক হচ্ছে। সিন্ডিকেটের কারণে রংপুরে পাম্পমালিকরা প্রয়োজনে পার্বতীপুর থেকে তেল সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে কোনো কিছু বলতে অপারগতা জানান।

রংপুর বিভাগীয় পেট্রল পাম্প ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং সাঈদ ফিলিং স্টেশনের প্রোপাইটার মো. রিয়াজ শহিদ শোভন বলেন, যদি এখানে অন্তত রেলের পাঁচটি র‌্যাকার নিরবচ্ছিন্নভাবে চলাচল করত তাহলে ঈদের এ চাহিদায়ও পাম্পমালিকদের বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হতো না বলে তিনি মনে করেন।

রংপুর বিভাগীয় পেট্রল পাম্প ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এবং রংপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি মোস্তফা সোহরাব চৌধুরী টিটু বলেন, যেকোনো সংকটে একটি অসাধু মহল সরকারকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলতে চায়। তাই প্রশাসনের তদারকি বৃদ্ধি করতে হবে। এছাড়াও তিনি বলেন, পাশের দেশে জ্বালানি তেলের দাম বেশি হওয়ায় সীমান্তসংলগ্ন জেলাগুলো দিয়ে যাতে তেল পাচার না হয় সেজন্য প্রশাসনিক নজরদারি বৃদ্ধি করা দরকার। রংপুর রেলের সুপারিনটেনডেন্ট শংকর গাঙ্গুলী বলেন, র‌্যাকার বৃদ্ধির বিষয়টি রেলের নীতিনির্ধারকদের সিদ্ধান্তের বিষয়। রেলের ইঞ্জিন সংকটের কারণে র‌্যাকার বহনে বিলম্ব হয় এ কথা সত্য বলে তিনি জানান।

নিউজ ট্যাগ: পেট্রল-ডিজেল

আরও খবর



সিপাহি বিদ্রোহে অংশ নেওয়া ২৮২ ভারতীয় সেনার দেহাবশেষের সন্ধান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

১৮৫৭ সালে ভারতের প্রথম স্বাধীনতা যুদ্ধে (সিপাহি বিদ্রোহে) অংশগ্রহণকারী ২৮২ সেনার দেহাবশেষের সন্ধান মিলেছে। পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. জেএস সেহরাওয়াত জানিয়েছেন, অমৃতসরের কাছে এক খননের সময় এসব দেহাবশেষ পাওয়া যায়।

ধারণা করা হয় এই সেনারা শুকর ও গরুর চর্বি মাখানো কার্তুজ ব্যবহারের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছিলেন। এই বিদ্রোহ ইতিহাসে সিপাহী বিদ্রোহ নামে পরিচিত।

ড. জেএস সেহরাওয়াত বলেন, এসব কঙ্কাল ২৮২ জন ভারতীয় সেনার। যারা ১৮৫৭ সালে ব্রিটিশের বিরুদ্ধে প্রথম স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় নিহত হয়েছিলেন। পাঞ্জাবের অমৃতসরের কাছে অজানালায় একটি ধর্মীয় অবকাঠামোর নিচে খনন চালিয়ে সেগুলো উদ্ধার করা হয়।

ওই সহযোগী অধ্যাপক আরও বলেন, এক গবেষণায় ইঙ্গিত পাওয়া যায় এই সেনারা শুকর ও গরুর চর্বি মাখানো কার্তুজ ব্যবহারের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছিলেন। কয়েন, মেডেল, ডিএনএ গবেষণা, বস্তুগত বিশ্লেষণ, নৃতাত্ত্বিক, রেডিও কার্বন বয়স বিশ্লেষণ, সব পয়েন্টই একই বিষয়ের দিকে ইঙ্গিত করছে।’

কিছু ঐতিহাসিক মনে করেন ১৮৫৭ সালের বিদ্রোহ ভারতের প্রথম স্বাধীনতা যুদ্ধ। ওই সময়ে ব্রিটিশ ভারতীয় সেনাবাহিনীতে নিয়োগ করা কিছু ভারতীয় সেনা ধর্মীয় বিশ্বাসের কারণে শুকর এবং গরুর চর্বি মাখানো কার্তুজ ব্যবহারের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করে।


আরও খবর



ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৩১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে মিতা খাতুন (৩৪) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন।

বুধবার বিকালে উপজেলার চন্ডিপুর এলাকায় খুলনা থেকে চিলাহাটিগামী রকেট ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দেন তিনি। মিতা খাতুন মিরপুর উপজেলার চক ধুবইল গ্রামের রিপন আলী প্রামাণিকের স্ত্রী।

পোড়াদহ রেলওয়ে থানার এসআই মোছা. নারগিস খাতুন বলেন, সম্প্রতি মিতা খাতুনের ফোনে মেসেজ আসে- ৫০ হাজার টাকা দিলে এক লাখ টাকা পাওয়া যাবে। এরপর তিনি তার স্বামীকে না জানিয়ে ৫০ হাজার টাকা দেন। এ নিয়ে তার স্বামীর সঙ্গে তার কলহের সৃষ্টি হয়। এর জেরেই তিনি আত্মহত্যা করেন।পোড়াদহ রেলওয়ে থানার ওসি মনজের আলী জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



যশোরে ইউপি মেম্বারসহ দুই খুনে ৩ চরমপন্থি গ্রেফতার

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | ৫১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

যশোরের অভয়নগরের সুন্দলী ইউনিয়নের নবনির্বাচিত মেম্বার উত্তম সরকার ও মণিরামপুরে প্রকাশ মল্লিক খুনে তিন চরমপন্থিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২২ এপ্রিল) মাদারীপুরের সদর থানার পুরাতন বাজার থেকে চরমপন্থি কিরণকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার তথ্য মতে আরও দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন, পটুয়াখালী সদরের পুরান বাজারের মৃত নারায়ন চন্দ্র সাহার ছেলে বাসুদেব সাহা ওরফে কিরন, যশোরের অভয়নগরের রামসরা গ্রামের নিখিল মন্ডলের ছেলে দিপংকর মন্ডল (৩৩) ও পঞ্চরাম মন্ডলের ছেলে কৃষ্ণপদ মন্ডল (৭০)।

শনিবার (২৩ এপ্রিল) পুলিশ প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, ২০২১ সালের ১৯ নভেম্বর মণিরামপুরের মনোহরপুর মাছের ঘেরের মধ্যে প্রকাশ মল্লিক ওরফে ব্রিটিশ নামক এক চরমপন্থি সদস্যকে খুন করা হয়। আর চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি অভয়নগরের সুন্দলী ইউনিয়নের হরিশপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এক নম্বর ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত মেম্বার উত্তম সরকারকে দুর্বৃত্তরা গুলি করে হত্যা করে। এই দুটি খুনে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা হয়। যশোরের পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার দ্রুত সময়ে রহস্য উদঘাটনের জন্য মামলাটি জেলা গোয়েন্দা শাখাকে (ডিবি) তদন্তের জন্য নির্দেশ দেন।

যশোর ডিবি’র এসআই শামীম হোসেন তথ্য প্রযুক্তি ও গোপন তথ্যের ভিত্তিতে একাধিক ছদ্মনামধারী কিরণকে গ্রেফতারের জন্য ১৯ এপ্রিল ময়মনসিংহ, ঢাকা, বরিশাল, পটুয়াখালী এলাকায় অভিযান চালায়। সবশেষ মাদারীপুর জেলার সদর থানা এলাকা থেকে ২২ এপ্রিল কিরণকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে দুটি হত্যার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকা এবং তার তথ্যের ভিত্তিতে দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করা হয়। অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়।


আরও খবর



নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ১৫

প্রকাশিত:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৩২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরকাঁকড়া ইউনিয়নে পূর্বের একটি ঘটনার জের ধরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদেরকে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন বেসরকারি ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

 রোববার দিবাগত রাত ৮টায় পেশকারহাট রাস্তার মাথায় চরকাঁকড়া ইউপি চেয়ারম্যান হানিফ সবুজের ব্যক্তিগত কার্যালয়ের সামনে ও একই এলাকার জিরো পয়েন্টে দুই দফায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতরা এবং সংঘর্ষে লিপ্ত সবাই স্থানীয় আওয়ামী লীগের বিবদমান দুগ্রুপের সমর্থক বলে জানা গেছে। 

আহতরা হলেন- আবদুল্লাহ আল মাসুদ (১৯), শাহনেওয়াজ (২২), আবদুর রহি রনি (২৬), দুলাল (২৭), চরকাঁকড়া ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি নবী সীমেন (৬৫), নিরব (২৪), শাকিল (১৮), শুভসহ (১৭) কমপক্ষে ১৫ জন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পূর্বের একটি নারী ঘটিত ঘটনা নিয়ে মারামারির ঘটনাকে কেন্দ্র করে চরকাঁকড়া ইউনিয়নের নতুন বাজার এলাকা থেকে ২০-৩০ জন পেশকারহাট রাস্তার মাথায় চরকাঁকড়া ইউপি চেয়ারম্যান হানিফ সবুজের ব্যক্তিগত কার্যালয়ে আসে।এরা সবাই চরকাঁকড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের সবুজ মেম্বারের ছোটভাই সাউথ আফ্রিকা প্রবাসী আবদুর রহি রনির নেতৃত্বে ওই কার্যালয়ে জড়ো হয়।

এ সময় চেয়ারম্যান হানিফ সবুজ বিবদমান দুপক্ষের অভিযোগ শোনার সময় উভয়পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এর একপর্যায়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে তারা।চেয়ারম্যান হানিফ সবুজ উভয়পক্ষকে শান্ত হয়ে পরবর্তিতে এ বিষয়টি নিয়ে বসবেন বলে সবাইকে ওই কার্যালয়ের সামনে থেকে চলে যেতে বলেন। এর কিছু সময় পরই পেশকারহাট রাস্তার মাথায় বিবদমান উভয়পক্ষ পুনরায় সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।এ সময় উভয়পক্ষের কমপক্ষে ১৫ জন আহত হওয়ার ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে সংঘর্ষে লিপ্তরা স্থান ত্যাগ করে চলে যায়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি এসএম মিজানুর রহমান জানান, সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



বাড়তি নিরাপত্তায় জাতীয় চিড়িয়াখানা

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ০২ মে 2০২2 | ৪৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঈদুল ফিতরের ছুটিতে বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে নেওয়া হয়েছে নানা ধরনের ব্যবস্থা। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, চিড়িয়াখানায় অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা। 

সোমবার দুপুরে জাতীয় চিড়িয়াখানার কিউরেটর (ভারপ্রাপ্ত পরিচালক) মো. মজিবুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, এবারের ঈদে দর্শনার্থী বেশি আসবে চিড়িয়াখানায়। বিষয়টি মাথায় রেখে দর্শনার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়ে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। এজন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানানো হয়েছে। চিড়িয়াখানায় টহলে থাকবে পুলিশ ও র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। ঈদকে সামনে রেখে চিড়িয়াখানায় চিন্তায় পকেটমার ও ইভটিজিংয়ের ঘটনা এড়াতে ২৮টি স্থানে লাগানো আছে সিসি ক্যামেরা। সার্বক্ষণিক মনিটরিং করা হবে।

তিনি বলেন, গরমে প্রাণীগুলোর পানিশূন্যতা এড়াতে ইলেক্ট্রোলাইয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ও স্ট্রেস বা চাপ কমাতে ভিটামিন সি'র ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রাণীগুলোর জন্য চৌবাচ্চায় পানি দিয়ে গোসলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এবারের গরমের মৌসুমে এখন পর্যন্ত চিড়িয়াখানার কোনো পশু-পাখির কোন সমস্যা হয়নি। ঈদে চিড়িয়াখানা খোলা থাকছে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৬টা পর্যন্ত।


আরও খবর