আজঃ মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১
শিরোনাম

চালকদের কমিশন ১০ শতাংশে কমিয়ে আনল পাঠাও

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | ৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশীয় বাইক রাইড শেয়ারিং সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান পাঠাও তার চালকদের কমিশন ১০ শতাংশে কমিয়ে এনেছে। এই সিদ্ধান্তের ফলে চালকরা ট্রিপের ভাড়া থেকে সর্বোচ্চ ৯০ শতাংশ আয় করতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) থেকে নতুন এই নীতি কার্যকর হচ্ছে। এদিন থেকে পিক আওয়ারে (সকাল ৮টা থেকে সকাল ১১টা এবং বিকেল ৫টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত) পাঠাও বাইকে ১০ শতাংশ করে কমিশন নেবে। এছাড়া, অফ-পিক আওয়ারে নেবে সর্বোচ্চ ১৫ শতাংশ কমিশন। এটি বাংলাদেশের সকল রাইড শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মের মধ্যে সর্বনিম্ন কমিশন।

এর আগে, পাঠাও বাইকে ঢাকায় ১৫শতাংশ এবং চট্টগ্রাম ও সিলেটে ২৫ শতাংশ কমিশন প্রযোজ্য ছিলো। নতুন নির্ধারিত এই কমিশন সারাদেশের জন্য প্রযোজ্য হবে।

পাঠাওয়ের এই পদক্ষেপের ফলে যাত্রীদের জন্য পাঠাও বাইক আরো বেশি নির্ভরযোগ্য ও সহজলভ্য হবে। বিশেষ করে পিক আওয়ারে যখন রাইড শেয়ারিং সার্ভিসের চাহিদা তুলনামূলকভাবে অনেক বেড়ে যায় তখন যাত্রীরা আরো সহজে সেবা পাবেন এবং চালকরাও নিজেদের আয় বাড়াতে সক্ষম হবেন।

এ প্রসঙ্গে পাঠাও এর সিইও অ্যান্ড ম্যানেজিং ডিরেক্টর ফাহিম আহমেদ বলেন, 'চালকদের আয় বৃদ্ধি এবং তাদের জীবনমানের উন্নয়নে পাঠাও সুযোগ তৈরি করেছে। এরি ফলশ্রুতিতে পাঠাও এর সাথে থাকা বিশাল রাইডার কমিউনিটির ইনকাম আরো বাড়াতে এবং তাদের নিরাপদ ও নির্ভরযোগ্য রাইড শেয়ারিং সেবা প্রদানের স্বীকৃতি স্বরূপ পাঠাও বাইকে কমিশন কমিয়ে আনা হয়েছে।'


আরও খবর
আগামীকাল জাতীয় আয়কর দিবস

সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১




৫ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১১ নভেম্বর ২০২১ | ৩৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
সরকারি পাঁচ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রাষ্ট্রায়ত্ত জনতা ও রূপালী ব্যাংকের চার কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে

পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার ঘটনায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাঁচটি ব্যাংকের অফিসার (ক্যাশ) পদের নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। গত ৬ নভেম্বর এ নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক ও ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্য মো. আজিজুল হকের সই করা বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্যভুক্ত পাঁচটি ব্যাংকে (সোনালী, জনতা, অগ্রণী, রূপালী ও বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক) ২০১৮ সালভিত্তিক অফিসার ক্যাশ এর ১ হাজার ৫১১টি শূন্যপদে সরাসরি নিয়োগের লক্ষ্যে গত ৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ১ ঘণ্টাব্যাপী ১০০ নম্বরের পরীক্ষাটি অনিবার্য কারণবশত বাতিল করা হলো। পরীক্ষার পরবর্তী তারিখ ও সময়সূচি বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইট ও জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশ করা হবে।

সম্প্রতি ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির আওতায় সরকারি বিভিন্ন ব্যাংকের একাধিক পদে নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁসসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। পাঁচ ব্যাংকের অফিসার (ক্যাশ) পদের প‌রীক্ষা বা‌তি‌লের দা‌বি‌তে ৭ ন‌ভেম্বর বাংলা‌দেশ ব্যাং‌কের গভর্নর ফজ‌লে ক‌বি‌রের কা‌ছে স্মারকলি‌পি দেন পরীক্ষার্থীরা।

এদিকে, সরকারি পাঁচ ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রাষ্ট্রায়ত্ত জনতা ও রূপালী ব্যাংকের চার কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। বৃহস্প‌তিবার ব্যাংক দু‌টির সংশ্লিষ্ট বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বরখাস্ত হওয়া কর্মকর্তারা হ‌লেন, রূপালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার জানে আলম মিলন, জনতা ব্যাংকের গুলশান শাখার কর্মকর্তা শামসুল হক শ্যামল, জনতা ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার এমদাদুল হক খোকন ও সোহেল রানা।

প্রশ্নফাঁসের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে গত ৬ নভেম্বর থেকে আজ পর্যন্ত (১১ নভেম্বর) বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে রাষ্ট্রায়ত্ত জনতা ব্যাংকের তিন কর্মকর্তা এবং রূপালী ব্যাংকের এক কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের তেজগাঁও জোনাল টিম।

বাংলাদেশ ব্যাংক এসব পরীক্ষার দায়িত্ব দিয়েছিল বেসরকারি আহছানউল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর। প্রশ্নফাঁসের অভিযোগে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি টেকনিশিয়ান মোক্তারুজ্জামান রয়েলকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। তার কাছ থেকে পাওয়া তথ্যে, রাজধানীর লালবাগ থেকে গ্রেফতার করা হয় প্রশ্নপত্র ও উত্তরপত্র ফাঁস চক্রের অন্যতম হোতা পূবালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার মোস্তাফিজুর রহমান মিলনকে।

নিউজ ট্যাগ: বাংলাদেশ ব্যাংক

আরও খবর



পিকে হালদারসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে সাত মামলা অনুমোদন

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ নভেম্বর ২০২১ | ৪৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
১২০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের নামে এ পর্যন্ত মোট মামলা হয়েছে ১৫টি। যেখানে মোট আসামি করা হয়েছে ৩৭ জনকে

ইন্টারন্যাশনাল লিজিং থেকে সাতটি কাগুজে প্রতিষ্ঠানের নামে ৩২০ কোটি টাকা ঋণ জালিয়াতি ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে পিকে হালদার (প্রশান্ত কুমার হালদার) ও তার ২৯ সহযোগীর বিরুদ্ধে পৃথক সাতটি মামলার অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

রোববার (১৪ নভেম্বর) দুদকের প্রধান কার্যালয়ে মামলার অনুমোদন দেওয়া হয় বলে সংস্থাটির জনসংযোগ সূত্র নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, পিকে হালদার ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে আরও ৫টা মামলা রুজু ও ২টি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের সাবেক চেয়ারম্যান এম এ হাশেম, সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. রাশেদুল হক, নয়জন বোর্ড মেম্বার, পি কে হালদারের আত্মীয়সহ মোট ২৯ জনকে এসব মামলার আসামি করা হয়েছে।

দুদক সূত্রে জানা যায়, ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, বোর্ডের সদস্যরা প্রতারণার মাধ্যমে জাল কাগজপত্র তৈরি করে অস্তিত্বহীন প্রতিষ্ঠানের মালিকদের ঋণ পেতে প্রত্যক্ষভাবে সহযোগিতা করেন এবং সংশ্লিষ্ট ঋণের বেনিফিশিয়ারি কর্তৃক ইন্টারন্যাশনাল লিজিং থেকে ৩০০ কোটির বেশি টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেন। পরে বিভিন্ন লেয়ারিংয়ের মাধ্যমে ওই অর্থ বিভিন্ন কোম্পানি ও ব্যক্তির হিসাবে স্থানান্তর ও রূপান্তরের মাধ্যমে অবস্থান গোপন করে পাচার করেছেন।

দণ্ডবিধি ১৮৬০-এর ৪০৯, ৪২০, ৪৬৭, ৪৬৮, ৪৭১, ১০৯ ধারা এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫ (২) ধারা ও মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২-এর ৪ (২), (৩) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করায় আসামিদের বিরুদ্ধে মামলাগুলো অনুমোদন দেওয়া হয়।

দুদক জানায়, ১২০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ইন্টারন্যাশনাল লিজিংয়ের নামে এ পর্যন্ত মোট মামলা হয়েছে ১৫টি। যেখানে মোট আসামি করা হয়েছে ৩৭ জনকে। এ পর্যন্ত গ্রেফতার হয়েছেন ১১ জনকে আর বিদেশ গমনে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে ৬৯ জনের।

এর আগে, গত ১০ নভেম্বর ৪২৬ কোটি টাকার জ্ঞাত আয়-বহির্ভূত সম্পদ অর্জন, ১ কোটি ১৭ লাখ কানাডিয়ান ডলার পাচার ও ১২ হাজার কোটি টাকা লেনদেনের অভিযোগে পিকে হালদারসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে দুদকে অভিযোগপত্র দেন উপ-পরিচালক মো. সালাউদ্দিন।

নিউজ ট্যাগ: পিকে হালদার

আরও খবর



রংপুরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হবে : শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:শনিবার ২০ নভেম্বর ২০21 | ৪৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
২০০১ সালে রংপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আইন পাস করা হয়। সেই আইন মোতাবেক তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রংপুরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন

রংপুরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন সরকারের শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শনিবার (২০ নভেম্বর) সকালে রংপুর সার্কিট হাউস প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

দুপুরে তিনি রংপুর পুলিশ লাইন্স স্কুল এন্ড কলেজ অডিটোরিয়ামে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত রংপুর বিভাগীয় অঞ্চলের শিক্ষকদের নিয়ে ‌শিক্ষা ব্যবস্থাপনা ও শিক্ষার মানোন্নয়ন বিষয়ক কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নেন।

২০০১ সালে রংপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আইন পাস করা হয়। সেই আইন মোতাবেক তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রংপুরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। ক্ষমতার পালাবাবদলের পর সেই বিশ্ববিদ্যালয়টি রংপুর থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়।

আওয়ামী লীগ টানা তিনবারের মতো সরকারে রয়েছে, এ অবস্থায় রাজনৈতিক প্রতিশ্রুত রংপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার সম্ভাবনা সম্পর্কে জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি সাংবাদিকদের বলেন, রংপুরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হবে। তবে এখন সেটি কি অবস্থায় আছে জানি না। ঢাকায় গিয়ে বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখব।

তিনি আরও বলেন, বেসরকারি অনার্স-মাস্টার্স কলেজগুলো এমপিওর ব্যাপারে কথা হচ্ছে। এনটিআরসির মাধ্যমে আগে কিছু নিয়োগ হয়েছিল সেগুলো নিয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত প্রয়োজন। আরও কিছু এমপিওভুক্ত করেছি। যারা বাকি রয়েছে তাদের বিষয়েও সিদ্ধান্ত হবে। কিন্তু নতুন করে নেওয়ার ব্যাপারে একেবারেই নিষেধ রয়েছে।

দেশে শিক্ষিত বেকার কমাতে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কারিকুলাম পরিবর্তনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের কর্ম উপযোগী শিক্ষা প্রদানের পরিকল্পনার কথা জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজগুলোতে শিক্ষার মান উন্নয়ন করা, ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ড ও চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য কীভাবে শিক্ষার্থীদের প্রস্তুত করা যায়, এ নিয়ে শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনা করা হচ্ছে। আমরা চাই একজন শিক্ষার্থী অনেক বেশি উপযোগী হয়ে কর্মজীবনে প্রবেশ করুক। এ লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- রংপুর জেলার পুলিশ সুপার ফেরদৌস আলী চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক গোলাম রব্বানী, মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার আবু মারুফ হোসেন, রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিউর রহমান সফি, সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডল প্রমুখ।


আরও খবর



আফগানিস্তানে আইএস নিয়ন্ত্রণে: তালেবান

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১১ নভেম্বর ২০২১ | ৪২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আফগানিস্তানে আইএস বড় কোনো হুমকি নয় বলে দাবি করেছেন তালেবানের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ। একইসঙ্গে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) কমবেশি নিয়ন্ত্রণে আছে বলেও দাবি করেছেন তিনি।

বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে তালেবান মুখপাত্র এসব কথা বলেন বলে এএফপির খবরে বলা হয়েছে। জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেন, আফগানিস্তানে আইএসের সদস্য সংখ্যা বেশি নয়। কারণ, তাদের জনগণের সমর্থন নেই।

আইএসের বিরুদ্ধে তালেবানের অভিযান অব্যাহত রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আফগানিস্তানে আইএসের উপস্থিতি অন্য দেশের জন্য হুমকি নয়। সাম্প্রতিক সময়ে আফগানিস্তানে আইএসের রক্তক্ষয়ী একাধিক হামলায় অনেক মানুষ হতাহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

সম্প্রতি তালেবানকে লক্ষ্য করে একাধিক হামলা চালিয়েছে আইএস। একই সঙ্গে তারা দেশটির সংখ্যালঘু শিয়াদের নিশানা করেও হামলা চালিয়েছে।

২০১৪ সালে 'ইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড দ্য লেভান্ট' বা 'আইএসআইএস' ইরাক ও সিরিয়ায় খিলাফত ঘোষণা করে। তার কয়েক মাস পরেই পাকিস্তানি তালেবানদের থেকে বিচ্ছিন্ন সদস্যরা আফগানিস্তানের সদস্যদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে একটি নতুন আঞ্চলিক সংগঠন শুরু করে।

ওই সংগঠনই ২০১৪ সালে স্বঘোষিত ইসলামিক স্টেটের শাখা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। নাম হয় আইএসআইএস-খোরাসান বা আইএস-কে। আফগানিস্তান ও পাকিস্তানেই মূলত কার্যক্রম চালায় এই গোষ্ঠী।

আইএস-কে সংগঠনকে আবার যুক্তরাষ্ট্রও নিজেদের শত্রু হিসেবে বিবেচনা করে। একটি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলে মোটেও খুশি হয়নি আইএস-কে।

যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সমঝোতা করেই তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করেছে বলে মনে করে  আইএস-কে।  তাই এক সাথে যুক্তরাষ্ট্র আর তালেবান-দুই শত্রুকে শায়েস্তা করতে এই আইএস-কে এই হামলা চালিয়ে থাকতে পারে বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সদ্য ক্ষমতা দখলের পর হামলার মাধ্যমে যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশটিতে তালেবানকে বিব্রত অবস্থায় ফেলাই সংগঠনটির উদ্দেশ্য। 


আরও খবর



সিরিয়ায় ইসরায়েলের ক্ষেপনাস্ত্র হামলা

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | ২৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মধ্যপ্রাচ্যের যুদ্ধবিধ্বস্ত রাষ্ট্র সিরিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। একটি খালি বাড়ি লক্ষ্য করে পরপর দুইটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়। যদিও এতে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। খবর আল জাজিরার।

দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সানার খবরে বলা হয়, ইসরায়েলের দখলকৃত উপত্যকা গোলান থেকে বুধবার (১৭ নভেম্বর) ভোরে ক্ষেপণাস্ত্রগুলো ছোড়া হয়। এর মধ্যে সিরিয়ার আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা একটি ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিহত করে।

সানা জানিয়েছে, মধ্যরাতের কিছু পর আনুমানিক ১২টা ৪৫ মিনিটের দিকে ইসরায়েলি ভূখণ্ড থেকে ক্ষেপণাস্ত্রগুলো নিক্ষেপ করা হয়। যদিও এতে কোনো ধরনের ক্ষয়ক্ষতি কিংবা হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

বিশ্লেষকদের মতে, গেল কয়েক বছর যাবত সিরিয়ায় শত শত আক্রমণ চালানো রাষ্ট্র ইসরায়েল তাৎক্ষণিকভাবে ওই খবরের কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

চলতি মাসের শুরুর দিকে সিরিয়ার হোমস ও উপকূলীয় তার্তুস শহরে ইসরায়েলি বিমান হামলায় দুই সিরীয় সৈন্য নিহত হয়। এ ছাড়া গত মাসে পালমিরা এবং হোমস শহরে দখলদার সেনাবাহিনীর চালানো আক্রমণে এক সিরীয় সেনা নিহত ও অপর তিনজন আহত হন।


আরও খবর