আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

দুই সন্তানসহ বিষপান, মায়ের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১ | ৬১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পারিবারিক কলহের জেরে সুনামগঞ্জের শাল্লায় দুই সন্তানসহ বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টায় এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। তবে দেরিতে বিষপান করায় প্রাণে বেঁচে গেছে তার দুই শিশু সন্তান।

আত্মহননকারী ওই নারী উপজেলা সদরের সুলতানপুর গ্রামের। সোমবার সকাল ৯ টার দিকে তার স্বামীর বসত বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়দের ধারণা, পারিবারিক কলহের জেরে এই ঘটনা ঘটেছে। প্রতিদিনের ন্যায় ওই নারী স্বামী সোমবার সকালে গ্রামের পাশের ছায়ার হাওরে মাছ ধরতে চলে যায়। ৯ টার দিকে বাড়িতে এসে দেখতে পান স্ত্রী ও তার দুই ছেলে ঘরের ভেতর মৃত্যু যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন।

ওই নারী স্বামী ছেলেদের নিকট কি হয়েছে জানতে চাইলে, বড় ছেলে তাকে জানিয়েছে, তার মা প্রথম বিষ খেয়েছে। পরে জোর করে তাদেরকে ও বিষপান করিয়েছে। এগুলে শুনে ওই নারী স্বামী দিলে আশপাশের লোকজন এসে দ্রুত তাদেরকে শাল্লা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদেরকে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

সিলেট নিয়ে যাবার পথে ওই নারী মারা যায়। অসুস্থ দুই শিশু সন্তানকে দিরাই ও শাল্লা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর

বিকেলে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

শাল্লা থানার অফিসার ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম জানিয়েছেন, স্থানীয়দের ধারণা পারিবারিক কলহের জের ধরেই দুই শিশু সন্তানসহ নিজে ইদুর মারার বিষপান করেছিল ওই নারী। দুই শিশু সন্তান প্রাণে বাঁচলেও মায়ের মৃত্যু হয়েছে।


আরও খবর



৪৩তম বিসিএস প্রিলির আসন বিন্যাস প্রকাশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ | ২৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

৪৩তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার আসন বিন্যাস প্রকাশ করেছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। সোমবার পিএসসির এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

আগামী ২৯ অক্টোবর সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৪৩তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। আটটি বিভাগীয় শহরের ৩৬৯ কেন্দ্রে একযোগে পরীক্ষা নেওয়া হবে। আসন বিন্যাস পিএসসির ওয়েবসাইটে (www.bpsc.gov.bd) প্রকাশ করা হয়েছে।

এমসিকিউ টাইপ প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় বই, ঘড়ি, মুঠোফোন, ব্যাগ, গয়না ও কোনো ধরনের ডিভাইস নিয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রে ঢোকা যাবে না। কানে কোনো ধরনের শ্রবণযন্ত্র ব্যবহারের প্রয়োজন হলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শসহ আগেই পিএসসির অনুমতি নিতে হবে। প্রার্থীকে ২০০ নম্বরের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হবে। সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ২ ঘণ্টার পরীক্ষা হবে।

প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় ২০০টি প্রশ্ন থাকবে। প্রার্থী প্রতিটি শুদ্ধ উত্তরের জন্য ১ নম্বর পাবেন। তবে প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য প্রাপ্ত নম্বর থেকে দশমিক ৫০ নম্বর কাটা যাবে। প্রিলিমিনারির বিষয়ভিত্তিক সিলেবাস পিএসসির ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। বাংলা ভাষা ও সাহিত্য ৩৫, ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য ৩৫, বাংলাদেশ বিষয়াবলি ৩০, আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি ২০, ভূগোল (বাংলাদেশ ও বিশ্ব), পরিবেশ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ১০, সাধারণ বিজ্ঞান ১৫, কম্পিউটার ও তথ্যপ্রযুক্তি ১৫, গাণিতিক যুক্তি ১৫, মানসিক দক্ষতা ১৫, নৈতিকতা, মূল্যবোধ ও সুশাসনের ওপর ১০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। প্রিলিমিনারি ও লিখিত পরীক্ষা ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে।

৪৩তম বিসিএসে বিভিন্ন ক্যাডারে ১ হাজার ৮১৪ জন কর্মকর্তা নেওয়া হবে। এর মধ্যে প্রশাসনে ৩০০, পুলিশে ১০০, পররাষ্ট্রে ২৫, শিক্ষায় ৮৪৩, অডিটে ৩৫, তথ্যে ২২, ট্যাক্সে ১৯, কাস্টমসে ১৪ ও সমবায়ে ১৯ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে।




আরও খবর



সিলেটে গ্যাসের চাপ কম থাকায় গ্রাহকদের ভোগান্তি

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ অক্টোবর ২০২১ | ৬৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সিলেট থেকে মুহাম্মদ আমজাদ হোসাইন:

সিলেট নগরীর কয়েকটি এলাকার মানুষ গ্যাস সংকটে ভুগছেন। এ সকল এলাকার গ্রাহকদের অভিযোগ ভোর, সকাল কিংবা দুপুরবেলা গ্যাস সংকট দেখা দেয়। রান্না-বান্নার কাজ শুরু করতে যাওয়া মাত্র গ্যাসের লুকোচুরি শুরু হয়ে যায়। গ্যাসের চাপ কম থাকায় এই সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে বলে তাদের ভাষ্য। তবে এ অভিযোগ আমলে নিচ্ছেন না গ্যাস কর্তৃপক্ষ।

গত একমাস ধরে সিলেট নগরীর কয়েকটি এলাকায় গ্যাস সংকট তীব্র আকার ধারণ করেছে। ভোর থেকে সকাল এগারোটা পর্যন্ত আবার কোথাও সকাল এগারোটা থেকে বেলা তিনটা পর্যন্ত এই সমস্যা স্থায়ী থাকছে। বিকেলে পর অবশ্য যথারীতি পর্যাপ্ত গ্যাস পাওয়া যাচ্ছে। এ অবস্থায় যারা ভোর কিংবা দুপুরবেলা রান্নাঘরে যান, তাদের রান্নার কাজ করতে ব্যাপক ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। বিশেষ করে এ সমস্যায় বেশি পড়তে হচ্ছে দরগা মহল্লা ঝর্ণারপার, দর্শনদেউড়ী এলাকার বাসিন্দাদের।

দর্শনদেউড়ী এলাকার গৃহিনী সাদিয়া আক্তার অভিযোগ করে বলেন, পরিবারের প্রয়োজনে ভোর থেকে তাদের রান্নার কাজ করতে হয়। কিন্তু তখন গ্যাসের চুলায় আগুন পাওয়া যায়না, কখনো পাওয়া গেলেও জ্বলছে নিভু নিভু করে। এতে রান্না করা কঠিন হয়ে পড়ে। ঝরনার পার পায়রা আবাসিক এলাকার বাসিন্দা রনি আক্তার বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে এই সমস্যায় ভুগছি। কবে যে মুক্তি পাবো জানি না। গ্যাস সংকট নিরসনে কর্তৃপক্ষের দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া উচিত। তিনি বলেন, বেশ কিছুদিন শুধু সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত গ্যাসের চাপ এতটাই কম থাকে যে সামান্য পরিমাণ চা বানাতেও ঘণ্টাখানেক সময় লেগে যায়। একই এলাকার সৈয়দা সালামা সুলতানা ও সালমা বেগম জানান, একই সমস্যায় ভুগছেন তারা। তবে সবসময় নয়। মাঝে মধ্যে দুপুরের দিকে রান্নার ব্যস্ত সময়ে প্রয়োজনীয় গ্যাস পাওয়া যায়না। ওই এলাকার সাব্বির আহমদ ও জুবের আহমদ অভিযোগ করে বলেন, বিষয়টি কয়েক দফায় কর্তৃপক্ষকে বলা হয়েছে, কিন্তু গুরুত্ব দেয়া হচ্ছেনা। ফলে সমস্যা দিনদিন প্রকট হচ্ছে।

যোগাযোগ করা হলে জালালাবাদ গ্যাসের প্রকৌশলী মো. মনজুর আহমদ চৌধুরী জানান, এ ধরণের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে এটা গ্যাসের সমস্যা নয়, পাইপ লাইনের সমস্যা। সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসী যদি নির্দিষ্টভাবে সীমানা উল্লেখ করে আবেদন করেন, তাহলে আমরা সমাধান করে দেবো।

পরিসংখ্যান বলছে, দেশে মোট গ্যাস মজুতের পরিমাণ ৪০ ট্রিলিয়ন ঘনফুট (টিসিএফ)। এরমধ্যে উত্তোলনযোগ্য মজুতের পরিমাণ ৩০ টিসিএফ। এখন পর্যন্ত উত্তোলন করা হয়েছে ১৮ দশমিক ৫৩ টিসিএফ। অবশিষ্ট আছে ১১ দশমিক ৫২ টিসিএফ। পেট্রোবাংলা সূত্র বলছে, এখন প্রতি বছর গড়ে এক টিসিএফ করে গ্যাস উত্তোলন হয়ে থাকে। অর্থাৎ অবশিষ্ট মজুদে আর ১০ বছর মতো চলবে। কিন্তু ক্রমান্বয়ে প্রতি বছরই গ্যাস উত্তোলন ক্ষমতা কমে আসবে। এতে করে শেষের বছরগুলাতে সংকট আরও প্রকট হবে। দেশীয় গ্যাসের উৎপাদন কমে আসলে আনুপাতিক হারে আমদানি বাড়াতে হবে।

জানা গেছে বাপেক্স-এর ৮টি গ্যাস ক্ষেত্রের মোট মজুত ১ দশমিক ৪৬ টিসিএফ থেকে ৪৭৩ বিসিএফ তোলা হয়েছে। অবশিষ্ট রয়েছে ৯৮৭ বিসিএফ। বাপেক্সের সিলেট অঞ্চলের খনিগুলোর মধ্যে ফেঞ্চুগঞ্জে ৩২৯ বিসিএফ মজুতের ১৬২ তোলা হয়েছে মজুত রয়েছে ১৬৬ বিসিএফ। বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ড কোম্পানির মোট মজুত ১২ দশমিক ২৫২ টিসিএফ, এরমধ্যে তোলা হয়েছে ৮ দশমিক ৭৬৮ টিসিএফ। বাকি রয়েছে ৩ দশমিক ৪৮৪ টিসিএফ। সিলেটের খনিগুলোর মধ্যে হবিগঞ্জে দুই দশমিক ৭৮৭ টিসিএফ মধ্যে ২ দশমিক ৫৮৮ টিসিএফ তোলা হয়েছে। বাকি রয়েছে ১৯২ বিসিএফ।

শেভরন বাংলাদেশের তিন ক্ষেত্রের মোট মজুত ৯ দশমিক ৭৪২ টিসিএফ। উত্তোলন করা হয়েছে ৬ দশমিক ৪৫৩ টিসিএফ। বাকি রয়েছে ৩ দশমিক ২৮৯ টিসিএফ। শেভরনের বিবিয়ানাতে এখনও ২ টিসিএফ এর একটু বেশি, মৌলভীবাজারে ১৫৮ বিসিএফ এবং জালালাবাদে এক দশমিক ২৬ টিসিএফ মজুত অবশিষ্ট রয়েছে। সিলেট গ্যাস ফিল্ডের মোট মজুতের পরিমাণ ৭ দশমিক ৩৩ টিসিএফ এরমধ্যে এক ১ দশমিক ৭৮৪ টিসিএফ তোলা হয়েছে। এখানের ৫টি খনিতে এখনও মজুত রয়েছে ৫ দশমিক ২৪৯ টিসিএফ। এখানের পাঁচটি খনি হচ্ছে কৈলাসটিলা, সিলেট, রশিদপুর, ছাতক এবং বিয়ানীবাজার।


আরও খবর



১৫৩ রানে অলআউট বাংলাদেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ | ৩৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে স্বাগতিক ওমানকে ১৫৪ রানের টার্গেট দিয়েছে বাংলাদেশ। আগে ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভারে সবকটি উইকেটের বিনিময়ে ১৫৩ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়েছে রিয়াদ বাহিনী। অর্থাৎ আরব দেশটির বিপক্ষে অলআউটের লজ্জাবরণ করলো ডমিঙ্গোর শীর্ষরা।

এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) ওমানের আল-আমিরাত স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিকদের মুখোমুখি হয়েছে টাইগাররা।

আজ বাংলাদেশ দলে একটি পরিবর্তন আনা হয়েছে। ওপেনিংয়ে সৌম্য সরকারের বদলি হিসেবে একাদশে ফিরেছেন নাইম শেখ। তিনি দারুণভাবে আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন। করেছেন দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৪ রান। ৫০ বলে সাজানো তার এই ইনিংসটিতে ছিল চারটি ৬ ও তিনটি ৪- এর মার।

শুরুর চাপ সামাল দিয়ে সাকিব আল হাসানের সঙ্গে তিনি দুর্দান্ত একটি জুটি গড়ে তোলেন। দু'জনের ব্যাট থেকে এসেছে ৮০ রান। এর মধ্যে ২৯ বলে ৪২ রান করেছেন সাকিব। এছাড়া শেষ দিকে অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের ১০ বলে ১৭ রানের ক্যামিও ইনিংসের ওপর ভর করে ১৫৩ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর দাঁড় করাতে সক্ষম হয় লাল-সবুজ বাহিনী।


আরও খবর
অজিদের কষ্টার্জিত জয়

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




যুক্তরাষ্ট্রে বিদ্যালয়ে বিমান বিধ্বস্তে নিহত ২

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | ৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রে একটি বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে দুজন নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় সোমবার (১১ অক্টোবর) দেশটির ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের সান দিয়াগোতে একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটে। এতে আহত হয়েছেন আরও দুজন। মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) স্থানীয় গণমাধ্যম ও কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

স্কুল ক্যাম্পাসে বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার পর আগুনে পুড়ে গেছে পার্শ্ববর্তী বেশ কয়েকটি বাড়ি ও বেশ কয়েকটি গাড়ি। পরবর্তীতে তা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন দমকল কর্মীরা। স্থানীয় এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ক্যালিফোর্নিয়ার সান্টি শহরের এই দুর্ঘটনার পর ছড়িয়ে পড়া আগুনে কমপক্ষে দুটি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সোমবার স্থানীয় সময় দুপুর ১২টার দিকে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়।

স্থানীয় একটি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, বিধ্বস্ত বিমানটি সি৩৪০ মডেলের দুই ইঞ্জিন বিশিষ্ট বিমান। সোমবার সান দিয়াগোর মন্টেগোমেরি ফিল্ড থেকে অ্যারিজোনা অঙ্গরাজ্যের ইউমাতে যাচ্ছিল বিমানটি। তবে বিমানটি উড্ডয়নের পরপরই সমস্যা দেখা দেয়। এরপর বিমানটিকে একটি মাধ্যমিক স্কুলের পাশে গিলেস্পি ফিল্ডে অবতরণের চেষ্টা করা হয়। তবে এর আগেই সেটি বিধ্বস্ত হয়।

দুর্ঘটনায় আহত দুজনকে চিকিৎসার জন্য স্থানীয় একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। তবে বিমানটিতে মোট কতজন আরোহী ছিলেন, সে ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি।



আরও খবর



ভাসানচরে জাতিসংঘ যুক্ত হওয়ায় রোহিঙ্গাদের আনন্দ মিছিল

প্রকাশিত:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | ৪৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রোহিঙ্গাদের জন্য ভাসানচরেও কাজ করবে জাতিসংঘ। বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে এ বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক হয়েছে সংস্থাটির। এই বার্তায় আনন্দ মিছিল করেছেন রোহিঙ্গারা।

রোববার বিকেলে ভাসানচরে ক্যাম্প হেড ফোকালদের নেতৃত্বে রোহিঙ্গারা একটি আনন্দ মিছিল বের করেন। মিছিলটি সিআইসি অফিস (শেল্টার-৯) থেকে হাসপাতাল রোড হয়ে ১নং রোহিঙ্গা বাজারের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

প্রায় এক হাজার রোহিঙ্গা মিছিলটিতে অংশ নেন। এ সসময় তারা বিভিন্ন স্লোগান সংবলিত প্ল্যাকার্ড ও ব্যানার প্রদর্শন করেন। তারা জাতিসংঘ ও জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআরকে ধন্যবাদ এবং ভাসানচরে স্বাগত জানান।

এর আগে শনিবার ভাসানচরের রোহিঙ্গাদের জন্য কাজ শুরু করতে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই করে জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক হাইকমিশনার (ইউএনএইচসিআর)।

সচিবালয়ে সরকারের পক্ষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোহসীন এবং ইউএনএইচসিআরের পক্ষে বাংলাদেশস্থ প্রতিনিধি উহানেন্স ভন ডার ক্লাও সমঝোতা স্মারকে সই করেন।

এ সমঝোতার ফলে বাংলাদেশ সরকার ও ইউএনএইচসিআর যৌথভাবে ভাসানচরে রোহিঙ্গা নাগরিকদের খাদ্য ও পুষ্টি, সুপেয় পানি, পয়ঃনিষ্কাশন, চিকিৎসা, দক্ষতা প্রশিক্ষণ, মিয়ানমারের ভাষায় পাঠক্রম ও অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা এবং জীবিকায়নের ব্যবস্থা করবে।

ইউএনএইচসিআর যুক্ত হওয়ায় ভাসানচর ও কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দারা উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন। সমঝোতা সই হওয়ার পর কক্সবাজারের অনেক রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করতে দেখা গেছে।


আরও খবর
মুনিয়া-শারুন আলাপ কী প্রমাণ করে?

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১