আজঃ শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

এইচএসসি ফরম পূরণের সময় আবারও বাড়লো

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় ফের বাড়িয়েছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড। নতুন সময়সূচি অনুযায়ী ফরম পূরণ চলবে ২২ সেপ্টেম্বর। আর ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ফি পরিশোধ করা যাবে। বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক এস এম আমিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০২১ সালের এইচএসসি পরীক্ষার শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণের জন্য প্রতিষ্ঠান হতে এসএমএস পাঠানোর সময় ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ২২ সেপ্টেম্বর করা হয়েছে। এসএমএস প্রাপ্তির পর শিক্ষার্থীদের ফি পরিশোধের সময় ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হলো।

এতে আরও বলা হয়, উল্লেখিত সময়ের মধ্যে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণে ব্যর্থ হলে দায়ভার ওই প্রতিষ্ঠান প্রধানকে বহন করতে হবে। গত ১২ আগস্ট থেকে এইচএসসি ও আলিম পরীক্ষার ফরম পূরণ শুরু হয়।

পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে ১১৬০ টাকা, মানবিক ও ব্যবসা শিক্ষা বিভাগে ১০৭০ টাকা ফি ধরা হয়েছে। নির্ধারিত ফির বাইরে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করা যাবে না। এসংক্রান্ত কোনো তথ্য দৃষ্টিগোচর হলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ফরম পূরণ প্যানেল বন্ধ করাসহ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এইচএসসির ফরম পূরণসংক্রান্ত কোনো সমস্যা বা অতিরিক্ত অর্থ আদায় করলে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। যোগাযোগের ফোন নম্বরগুলো হলো০২-৯৬৬৯৮১৫, ০২-৫৬৬১১০১৮১, ০২-৫৮৬১০২৪৮, ০১৬১০৭১১৩০৭, ০১৬২৫৬৩৮৫০৮ এবং ০১৭২২৭৯৭৯৬৩।


আরও খবর
১৪ নভেম্বর থেকে দাখিল পরীক্ষা শুরু

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুতে আরও ২৩৪ জন আক্রান্ত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ২৩৪ জন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকার বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ১৮২ জন এবং ঢাকার বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ৫২ জন।

আজ বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের নিয়মিত ডেঙ্গুবিষয়ক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে নতুন ২৩৪ জন ভর্তি হয়েছে। এ নিয়ে বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ভর্তি থাকা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক হাজার ২৪৭ জন।

এর মধ্যে ঢাকার ৪১টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছে এক হাজার ৪৭ জন এবং অন্যান্য বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি আছে ২০০ জন।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, গত ১ জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ১৫ হাজার ৬৫ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছে ১৩ হাজার ৭৬১ জন রোগী। ডেঙ্গুতে এ সময়ে ৫৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।


আরও খবর
করোনায় আরও ৩১ জনের মৃত্যু

শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১




গাজায় মেয়াদোত্তীর্ণ করোনার ভ্যাকসিন পাঠিয়েছে ইসরাইল

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ৫০ হাজার ডোজ মেয়াদোত্তীর্ণ করোনার ভ্যাকসিন পাঠিয়েছে ইসরাইল। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ খবর জানিয়েছে। মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, গাজা উপত্যকায় পাঠানোর জন্য রাশিয়ায় তৈরি ভ্যাকসিনগুলো ইহুদিবাদী ইসরাইলকে দেওয়া হলেও তেলআবিব এগুলো অনুপযুক্ত পরিবেশে রেখে দিয়েছিল।

এ ছাড়া ভ্যাকসিনের চালানটি ঠিক সময়ে গাজায় পৌঁছাতে বাধা দেয় ইসরাইল।  সম্প্রতি গাজার কারেম আবু সালেম ক্রসিং দিয়ে রাশিয়ার তৈরি স্পুৎটনিক লাইট টাইপের ভ্যাকসিনের চালানটি অবরুদ্ধ এ উপত্যকায় পাঠানো হয়। কিন্তু সেফটি টেস্টে দেখা যায়, ভ্যাকসিনগুলোর মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে।

এর আগে ইসরাইলি গণমাধ্যম খবর দিয়েছিল— মেয়াদোত্তীর্ণ হতে যাওয়া ভ্যাকসিনগুলো প্রথমে তেলআবিব পশ্চিমতীরের স্বশাসন কর্তৃপক্ষকে দিতে চেয়েছিল। কিন্তু মাহমুদ আব্বাসের নেতৃত্বাধীন ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষ ওই চুক্তি বাতিল করে দেয়। এর পরই চালানটি গাজা উপত্যকায় পাঠায় দখলদার ইসরাইল।

সর্বশেষ পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গাজা উপত্যকায় এখন পর্যন্ত এক লাখ ৪৭ হাজার ৩৬৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, যাদের মধ্যে এক হাজার ২২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এ ছাড়া অবরুদ্ধ এই উপত্যকায় প্রায় ২০ লাখ মানুষ বসবাস করলেও এ পর্যন্ত মাত্র তিন লাখ ৫৪ হাজার মানুষ করোনাভাইরাসের টিকা নিতে পেরেছেন। পশ্চিমতীর ও গাজা উপত্যকায় বসবাসরত ফিলিস্তিনি নাগরিকদের জন্য করোনাভাইরাসের টিকা সরবরাহ করার প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে ইহুদিবাদী ইসরাইল চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে।

অথচ ইসরাইল তার প্রাপ্তবয়স্ক প্রায় সব নাগরিককে টিকার আওতায় এনেছে এবং অনেকে এরই মধ্যে তৃতীয় অর্থাৎ বুস্টার ডোজও নিয়ে ফেলেছে।


আরও খবর
বিশ্বে করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত কমেছে

শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১




৩-০ গোলের জয় দিয়ে মৌসুম শুরু জুভেন্টাসের

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এই মৌসুমেই দলের অন্যতম তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে ছেড়ে দিয়েছে জুভেন্টাস। পর্তুগিজ তারকাকে ছাড়াই ইউরোপসেরা প্রতিযোগিতার শুরুটা দারুণ করেছে তুরিনের ক্লাবটি। চ্যাম্পিয়নস লিগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মালবোকে উড়িয়ে দিয়েছে মাস্সিমিলিয়ানো আল্লেগ্রির দল।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে এইচ গ্রুপের ম্যাচে মালবোকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে জুভেন্টাস।দলের জয়ে একটি করে গোল করেছেন পাওলো দিবালা, আলভারো মোরাতা ও আলেক্স সান্দ্রো।

এদিন মালবোর মাঠে ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত দাপট ছিল জুভেন্টাসের। ম্যাচের ৬১ ভাগ সময় বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষ শিবিরে ১৬বার আক্রমণ করেছে তারা। যার মধ্যে আটটিই ছিল অনটার্গেট শট। বিপরীতে ৯ শট নেওয়া মালবোর একটি ছিল অনটার্গেটে যাওয়ার মতো। কিন্তু, সেটি লক্ষ্য পাঠাতে পারেনি মালবো।

জুভেন্টাস তিন গোলই পায় বিরতির আগে। প্রথম গোলটি করেন সান্দ্রো। ২৩ মিনিটে ডান দিক থেকে রদ্রিগো বেন্তাকুরের ক্রসে এক সতীর্থ মাথা ছোঁয়াতে পারেননি। তবে, গোলমুখে থাকা সান্দ্রো ভুল করেননি, ডাইভিং হেডে ঠিকানা খুঁজে নেন তিনি।

৪৫তম মিনিটে নিখুঁত স্পট কিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন দিবালা। এর পরের মিনিটেই ব্যবধান আরও বাড়ান মোরাতা। বক্সে এক ডিফেন্ডার বল বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হলে দ্রুত চিপ শটে গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন স্পেনের এই ফরোয়ার্ড। এরপর রক্ষণ ধরে রেখে বড় জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে জুভেন্টাস।

এই গ্রুপের আরেক ম্যাচে জেনিথকে ১-০ গোলে হারিয়েছে চেলসি। দলের পক্ষে ব্যবধান গড়ে দেওয়া গোলটি করেন দ্বিতীয় মেয়াদে দলটিতে ফেরা রোমেলু লুকাকু।

ব্যবধান গড়া গোলটি আসে দ্বিতীয়ার্ধে। ৬৯তম মিনিটে সেসার আসপিলিকুয়েতার ক্রসে ডি-বক্সে লাফিয়ে হেডে ঠিকানা খুঁজে নেন লুকাকু। দলটির হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এটাই তাঁর প্রথম গোল। এরপর শেষ দিকে কয়েক বার সুযোগ তৈরি করেও জালের দেখা পায়নি চেলসি। শেষ পর্যন্ত এক গোলের ব্যবধানেই গোটা তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়নএরা।

গেল আসরে কোচ টমাস তুখেলের অধীনে অনেকটা চমকে দিয়েই চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা ঘরে তুলেছিল চেলসি। এবার নতুন মৌসুমের শুরুর দিনও জয় তুলে নিয়ে শিরোপা ধরে রাখার মিশন শুরু করল ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবটি।

নিউজ ট্যাগ: জুভেন্টাস

আরও খবর
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের থিম সং প্রকাশ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

মেসিকে পেছনে ফেললেন সিআর সেভেন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




১২ বছর বয়সী শিক্ষার্থীরা টিকার আওতায় আসছে

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

১২ বছর ও এর বেশি বয়সী শিক্ষার্থীদের করোনা ভাইরাসের টিকার আওতায় আনার কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) একাদশ জাতীয় সংসদের চতুর্দশ অধিবেশনে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজীর প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপিত হয়।

সরকারের টিকা কর্মসূচির লক্ষ্যমাত্রার কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ক্রমান্বয়ে দেশের ৮০ শতাংশ জনগোষ্ঠীকে টিকার আওতায় আনার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে লক্ষ্যমাত্রার ৫০ শতাংশ জনগোষ্ঠীকে টিকার আওতায় আনতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন অনুসরণের ব্যবস্থা নেওয়া; ১২ বছর ও এর বেশি বয়সী সব ছাত্র-ছাত্রীদের টিকার আওতায় নিয়ে আসা; মন্ত্রণালয়ের দেওয়া প্রতিবন্ধীদের সুবর্ণকার্ডের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা; অগ্রাধিকারভিত্তিকে শ্রমিকদের টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকারের পদক্ষেপে ১২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ২৪ কোটি ৬৫ লাখ ১৩ হাজার ৬৬০ ডোজ টিকা সংগ্রহের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর মধ্যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তির আওতায় চার কোটি ৪৪ লাখ ৩১ হাজার ৮৮০ ডোজ টিকা পাওয়া গেছে। প্রতিমাসে যাতে এক কোটি ডোজ বা তার বেশি টিকা পাওয়া যায় সেই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। সিনোফার্ম থেকে আগামী অক্টোবর মাস থেকে প্রতিমাসে দুই কোটি হিসেবে ডিসেম্বর পর্যন্ত মোট ৬ কোটি টিকা পাওয়া যাবে।

পরিকল্পনা অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের মধ্যে টিকা দেওয়া সম্ভব হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণ এখনো চলমান রয়েছে। আশা করি সবার সহযোগিতায় চলমান এই বৈশ্বিক মহামারিকে সফলভাবে মোকাবিলা করতে সক্ষম হব। পরিস্থিতি আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে। এজন্য টিকা গ্রহণের পাশাপাশি সবাইকে নির্ধারিত স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে।


আরও খবর



সূচকের বড় উত্থানে শেষ হয়েছে লেনদেন

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সপ্তাহে চতুর্থ দিন বুধবার সূচকের বড় উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে।

এদিন ডিএসইর ডিএসইএক্স, ডিএস-৩০ ও ডিএসইএস সূচক এবং সিএসইর সিএসইএক্স, সিএএসপিআই ও সিএসআই সূচক অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে গড়েছে নতুন রেকর্ড। এ নিয়ে টানা ছয় কার্যদিবস ধরে ডিএসই ও সিএসইতে সূচকের উত্থান হয়েছে। ফলে উভয় শেয়ারবাজারেই ধারাবাহিকভাবে সূচকে রেকর্ড গড়েছে।

আজ ডিএসই ও সিএসইতে টাকার পরিমাণে লেনদেন কমেছে। আর ডিএসই ও সিএসইতে লেনদেনে অংশ নেওয়া অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে।

বুধবার ডিএসইর প্রধান ডিএসইএক্স সূচক ৫৫.৪৫ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৭ হাজার ১৯৬.৩২ পয়েন্টে, যা ডিএসইর ইতিহাসে সূচকটির সর্বোচ্চ অবস্থান। এর আগে ৭ সেপ্টেম্বর ডিএসইএক্স সূচক ৭ হাজার ১৪০.৮১ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিল। আর গত ২৯ আগস্ট ডিএসইএক্স সূচক ছিল ৬ হাজার ৮২৯.৬০ পয়েন্টে। ফলে এ ছয় কার্যদিবস ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ৩৭২.৭২ পয়েন্ট।

একইভাবে ডিএসই-৩০ সূচক ২৯.৬০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২ হাজার ৬১৩.৫৪ পয়েন্টে, যা ডিএসইর ইতিহাসে সূচকটির সর্বোচ্চ অবস্থান। পাশাপাশি ডিএসইএস সূচক ২০.০৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ৫৭১.৯১ পয়েন্টে, এটিও ডিএসইর ইতিহাসে সূচকটির সর্বোচ্চ অবস্থান।

দিন শেষে ডিএসইতে ৩৭৪ কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৫২টির, কমেছে ১৮৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির। ডিএসইতে এদিন ২ হাজার ৫৪৫ কোটি ২৮ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে ৩০০ কোটি টাকার কম।

এদিকে, বুধবার অপর শেয়ারবাজার সিএসইর প্রধান সিএসইএক্স সূচক ১১৭.৬৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১২ হাজার ৫৮৬.৩৪ পয়েন্টে, যা সিএসই ইতিহাসে সূচকটির সর্বোচ্চ অবস্থান। এর আগে ৭ সেপ্টেম্বর সিএসইএক্স সূচক ১২ হাজার ৪৯২.৪৫ পয়েন্টে পৌঁছে নতুন রেকর্ড গড়েছিল। আর গত ২৯ আগস্ট সিএসইএক্স সূচক ছিল ১১ হাজার ৮৯৯.১৩ পয়েন্টে। ফলে এ ছয় কার্যদিবস সিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ৬৮৭.২১ পয়েন্ট।

আর সার্বিক সিএএসপিআই সূচক ১৯৫.০৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ২০ হাজার ৯৯২.২৫ পয়েন্টে, যা সিএসইর ইতিহাসে সূচকটির সর্বোচ্চ অবস্থান।

এছাড়া, সিএসআই সূচক ১৪.২০ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১ হাজার ৩৪৪.৮৬ পয়েন্টে, যা সিএসইর ইতিহাসে সূচকটির সর্বোচ্চ অবস্থান।

এদিন, সিএসইতে ৩২৯টি কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৯টির, কমেছে ১৫২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৮টির। দিন শেষে সিএসইতে ৮৪ কোটি ১৩ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে ২০ কোটি টাকার কম।


আরও খবর
পুঁজিবাজারে সূচকের মিশ্র প্রবণতা

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১