আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম

হাসপাতাল বেডে ভিক্ষুক নির্যাতন: ৪ এসআই বরখাস্ত

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ৫১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বেডে চিকিৎসাধীন এক ভিক্ষুক ও তার পরিবারের সদস্যদের শারীরিক নির্যাতন ও গ্রেফতারের ঘটনায় ৪ এসআইকে সাময়িক বরখাস্ত এবং ২ কনস্টেবলকে  প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বুধবার (১১ মে) জামালপুরের পুলিশ সুপার মো. নাছির উদ্দীন আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। 

সাময়িক বরখাস্তরা হলেন-সরিষাবাড়ী থানার এসআই আলতাব হোসেন, এসআই সাইফুল ইসলাম, এসআই ওয়াজেদ আলী ও এসআই মুন্তাজ। এছাড়া কনস্টেবল মোজাম্মেল হক ও নারী কনস্টেবল সাথী আক্তারকে পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

জানা গেছে, সরিষাবাড়ী পৌরসভার বাউসি বাজার এলাকার মৃত মহির উদ্দিনের ছেলে ভিক্ষুক আব্দুল জলিল (৬৫) বিশ শতক জমিতে বসতভিটা বানিয়ে দীর্ঘদিন বসবাস করে আসছিলেন। সম্প্রতি ওই জমি একই এলাকার প্রভাবশালী মুজিবুর রহমান দাবি করায় দুপক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। পরবর্তীতে ঐ জমি নিয়ে জজ আদালতে মামলা হলে আদালত ভিক্ষুক আব্দুল জলিলের পক্ষে ডিক্রি প্রদান করেন। আদালতের আদেশ অমান্য করে সোমবার (৯ মে) সকালে প্রতিপক্ষ মুজিবুর রহমান তার সহযোগীদের নিয়ে আব্দুল জলিলের পরিবারের ওপর হামলা চালায়। হামলায় আব্দুল জলিল (৬৫), তার স্ত্রী লাইলী বেগম, বড় ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক, মেজো ছেলে ওয়ায়েজ করোনি, ছোট ছেলে হামদাদুল হকসহ পরিবারের অন্য সদস্য জসিম মিয়া আহত হন। পরে এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।  হামলার পর উল্টো মুজিবুর রহমান বাদী হয়ে চিকিৎসাধীন ৪ জনসহ ১৫ জনকে আসামি করে সরিষাবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে মঙ্গলবার দুপুরে চিকিৎসাধীন ভিক্ষুক আব্দুল জলিলসহ ৪ জনকে হাসপাতালের বেডে শারীরিক নির্যাতন ও গ্রেফতার করে নিয়ে যায় সরিষাবাড়ী থানার পুলিশ। পরে তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়।

পুলিশ সুপার মো. নাছির উদ্দীন আহমেদ জানান, এ ঘটনায় ৪ এইআইকে বরখাস্ত ও ২ কনস্টেবলকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে সরিষাবাড়ী থানার ওসি মীর রকিবুল হাসানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



৪৪তম বিসিএসের প্রিলি পরীক্ষা ২৭ মে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | ৪২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

৪৪তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ২৭ মে (শুক্রবার) হবে বলে জানিয়েছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। হাতঘড়ি, অলঙ্কার ও কোনো ধরনের ডিভাইস নিয়ে পরীক্ষার কেন্দ্রে প্রবেশ নিষিদ্ধ করেছে কমিশন।

মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) এ সংক্রান্ত নির্দেশনায় পিএসসি বলেছে, পরীক্ষার হলে যদি নিষিদ্ধ সামগ্রী পাওয়া যায়, তাহলে সংশ্লিষ্ট পরীক্ষার্থীর প্রার্থিতা বাতিলসহ ভবিষ্যতে পিএসসির সব নিয়োগ পরীক্ষায় তাকে অযোগ্য ঘোষণা করা হবে।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়, ৪৪তম বিসিএস পরীক্ষা-২০২১ এর বিজ্ঞপ্তির শর্ত অনুযায়ী, আগামী ২৭ মে অনুষ্ঠেয় প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় বই-পুস্তক, সব রকম ঘড়ি, মুঠোফোন, ক্যালকুলেটর, সব ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস, ব্যাংক/ক্রেডিট কার্ডসদৃশ কোনো ডিভাইস, গহনা, ব্যাগসহ পরীক্ষা হলে প্রবেশ করা নিষেধ এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

পরীক্ষার হলের গেটে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশের উপস্থিতিতে প্রবেশপত্র এবং মেটাল ডিটেক্টরের সাহায্যে মুঠোফোন, ঘড়ি, ইলেকট্রনিক ডিভাইসসহ নিষিদ্ধ সামগ্রী তল্লাশির মধ্য দিয়ে পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা হলে প্রবেশ করতে হবে।

পরীক্ষার দিন উল্লিখিত নিষিদ্ধ সামগ্রী সঙ্গে না আনার জন্য সব পরীক্ষার্থীর মুঠোফোনে এসএমএস পাঠানো হবে। এসএমএসের নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে।

পরীক্ষার সময় পরীক্ষার্থীরা কানের ওপর কোনো আবরণ রাখবেন না, কান খোলা রাখতে হবে। কানে কোনো ধরনের হিয়ারিং এইড ব্যবহারের প্রয়োজন হলে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শপত্রসহ পূর্বেই কমিশনের অনুমোদন নিতে হবে।


আরও খবর



বাংলাদেশ থেকে ২৬ লাখ ভিডিও অপসারণ করেছে টিকটক

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | ৪৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভিডিও প্ল্যাটফর্ম টিকটক ২০২১ সালের চতুর্থ প্রান্তিকের (অক্টোবর-ডিসেম্বর) রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০২১ সালের চতুর্থ প্রান্তিকে বিশ্বব্যাপী ৮ কোটি ৫৭ লাখ ৯৪ হাজার ২২২টি ভিডিও অপসারণ করা হয়েছে, যা টিকটকে এ সময়ের মধ্যে আপলোড করা ভিডিও’র প্রায় এক শতাংশ।

কমিউনিটি গাইডলাইন লঙ্ঘনের অভিযোগে বাংলাদেশ থেকে এ সময়ে ভিডিও সরানো হয়েছে ২৬ লাখ ৩৬ হাজার ৩৭২টি। ২০২১ সালের চতুর্থ প্রান্তিকে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ভিডিও সরানো হয়েছে বাংলাদেশ থেকে, যা বিশ্বে সপ্তম।

কমিউনিটি গাইডলাইন লঙ্ঘনের কারণে প্রায় ৯৪ দশমিক ১ শতাংশ ভিডিও পোস্ট করার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মুছে ফেলা হয়েছে। কোনও ব্যবহারকারী রিপোর্ট করার আগেই সরানো সম্ভব হয়েছে ৯৫ দশমিক ২ শতাংশ এবং ৯০ দশমিক ১ শতাংশ ভিডিও কোনও ভিউ পাওয়ার আগে সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ওই সময়ের মধ্যে বাংলাদেশে থেকে সরানো কনটেন্টের মধ্যে হয়রানি এবং বুলিং কনটেন্ট সরানো হয়েছে ১৪.৭ শতাংশ, ঘৃণ্য আচরণের জন্য ১০.১ শতাংশ, সহিংস চরমপন্থার জন্য ১৬.২ শতাংশ এবং বিপজ্জনক কাজের জন্য ৭.৭ শতাংশ কনটেন্ট অপসারণ করা হয়েছে। এমন কনটেন্টও অপসারণ করা হয়েছে, যেখানে একটি ভিউ হওয়ারও সুযোগ পায়নি।

টিকটক এক বিবৃতিতে বলেছে, মানুষকে ইতিবাচক ডিজিটাল সংযোগ তৈরিতে সহায়তার জন্য আমরা বদ্ধ পরিকর। আমরা চাই, আমাদের ব্যবহারকারী নিজেদের মধ্যে সদাচার ও সম্প্রীতি বজায় রাখুক।

বিল্ট-ইন সেফটি টুলগুলো ব্যবহার করে টিকটক সেফটি রিমাইন্ডার পরীক্ষা করছে, যা নির্মাতাদের মন্তব্য ফিল্টারিং, বাল্ক ব্লক এবং অপশন ডিলিট ইত্যাদিতে গাইড করবে। রিমাইন্ডারগুলো এমন নির্মাতাদের কাছে দেখাবে, যাদের ভিডিওগুলো আনুপাতিক হারে বেশি নেতিবাচক কমেন্ট পাবে। পাশাপাশি প্ল্যাটফর্মটি স্ট্রিক্ট কমিউনিটি গাইডলাইন লঙ্ঘন করে এমন কমেন্ট অপসারণ করা অব্যাহত রাখবে। সঙ্গে কনটেন্ট ফিল্টার করার ক্ষমতা এবং একবারে একাধিক কমেন্ট মুছে ফেলা এবং রিপোর্ট করার ক্ষমতা তো রয়েছেই। 


আরও খবর



ইউক্রেন সফরে যাচ্ছেন মার্কিন পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | ৪৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেন ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন রবিবার ইউক্রেন সফরে যাচ্ছেন। এ খবর জানিয়েছেন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি ছাড়াও দুই মার্কিন কর্মকর্তার ইউক্রেন সফরের খবর নিশ্চিত করেছে ওয়াশিংটন। সম্প্রতি ইউরোপীয় কর্মকর্তারাও কিয়েভ সফরে এসে, রুশ বাহিনী যে তাণ্ডব চালিয়েছে তার ক্ষয়ক্ষতি প্রত্যক্ষ করেন। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিসন জনসনও গত ৯ এপ্রিল কিয়েভ সফর করেন। জেলেনস্কির সঙ্গে বেশ কিছু জায়গায় ঘুরে দেখেন তিনি। রাজধানী কিয়েভের পরিস্থিতি আগের চেয়ে কিছুটা স্বাভাবিক। ইউক্রেনের প্রতি সমর্থন জানাতে অনেকেই দেশটিতে সফর করেন। অ্যান্টনি ব্লিনকেন ও  লয়েড অস্টিনের এই সফরকে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে ইউক্রেন সরকার।

এদিকে, রুশ প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আবারও সরাসরি শান্তি আলোচনার প্রস্তাব দিলেন জেলেনস্কি। তিনি বলেন, তুরস্কে রাশিয়ার সঙ্গে শান্তি আলোচনার সম্ভাবনা নির্ভর করছে পুতিনের ওপর।


আরও খবর



২৩ বছরের সর্বনিম্নে শ্রীলংকার চা রফতানি

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | ৩৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শ্রীলংকার অন্যতম প্রধান রফতানি পণ্য চা। অর্থনৈতিকভাবে বিপর্যয়ের মুখে থাকা দেশটির চা রফতানি গত ২৩ বছরের সর্বনিম্নে নেমেছে। প্রধানত সার আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা এবং রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাতকে এর পেছনে দায়ী করছেন বিশ্লেষকরা। সম্প্রতি দেশটির সরকারি এক প্রতিবেদনে এমন মন্দা পরিস্থিতির চিত্র উঠে এসেছে। ২০২১-২২ অর্থবছরে দ্বীপরাষ্ট্রটি সব মিলিয়ে প্রায় ১৩০ কোটি ডলারের চা রফতানি করেছে। ১৯৪৮ সালে স্বাধীনতা লাভের পর দেশটির চা রফতানি খাত এবারই প্রথম এমন মন্দা পরিস্থিতির মধ্যে পড়ল।

গত বছর শ্রীলংকার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে সার আমদানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। এর বিপরীতে অর্গানিক উপায়ে চাসহ অন্যান্য কৃষিপণ্য উৎপাদনে জোর দেয়া হয়। সার আমদানি বন্ধের পেছনে প্রধান কারণ ছিল বৈদেশিক মুদ্রা সঞ্চয় করার মাধ্যমে ঋণের বোঝা লাঘব করা। কিন্তু সরকারের এ সিদ্ধান্ত দেশটির জন্য ভালো ফল বয়ে আনেনি। বিশেষ করে চা খাত সরকারের এমন অপরিণামদর্শী সিদ্ধান্তের বলি হয়। গত বছরের নভেম্বর থেকে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চা উৎপাদন এক বছরের ব্যবধানে ১৮ শতাংশ কমে যায়।

শ্রীলংকার শুল্ক বিভাগের তথ্য বলছে, চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) দেশটির চা রফতানি গত বছরের একই সময়ের তুলনায় কমে ৬ কোটি ৩৭ লাখ কেজিতে নেমেছে। গত বছরের প্রথম প্রান্তিকে রফতানির পরিমাণ ছিল ৬ কোটি ৯৮ লাখ কেজি। শুধু তাই নয়, ১৯৯৯ সালের প্রথম প্রান্তিকের পর এটি ছিল সর্বনিম্ন রফতানির রেকর্ড। ওই সময় দেশটি ৬ কোটি ৩ লাখ কেজি চা রফতানি করেছিল। রফতানির পাশাপাশি রফতানি আয়ও কমেছে। জানুয়ারি-মার্চ পর্যন্ত তিন মাসে শ্রীলংকা চা রফতানি করে ২৮ কোটি ৭০ লাখ ডলার আয় করে। অথচ গত বছরের একই সময় আয়ের পরিমাণ ছিল ৩৩ কোটি ৮০ লাখ ডলার।

চা ব্রোকারেজ প্রতিষ্ঠান এশিয়া সিয়াকা রফতানি ও আয় কমে যাওয়ার পেছনে কৃষি রাসায়নিক আমদানি বন্ধ করে দেয়াকেই দায়ী করেছে। দেশটির সরকার শতভাগ অর্গানিক কৃষি উৎপাদনের লক্ষ্যে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

তথ্য বলছে, সার আমদানি বন্ধ ঘোষণার পর থেকেই চা শিল্পসহ কৃষি খাতে এর নেতিবাচক প্রভাব স্পষ্ট হয়ে উঠতে শুরু করে। ফলে গত বছরের অক্টোবরে দেশটির সরকার নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নিতে বাধ্য হয়। কিন্তু ডলারের মজুদ কমে তলানিতে নেমে আসায় সার আমদানি বাড়াতে ব্যর্থ হয় দেশটি। ফলে নিষেধাজ্ঞা উঠলেও সার সংকট থেকে মুক্তি মেলেনি।

চা শিল্পসংশ্লিষ্টরা জানান, রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে চলমান যুদ্ধের কারণে শ্রীলংকার প্রায় ১০ শতাংশ চা রফতানি ব্যাহত হয়েছে। যুদ্ধে লিপ্ত দেশ দুটি শ্রীলংকার সুগন্ধিযুক্ত ব্ল্যাক টির প্রধান ক্রেতা। ২ কোটি ২০ লাখ জনসংখ্যার দেশটি পর্যাপ্ত বৈদেশিক মুদ্রার অভাবে খাদ্য, জ্বালানি ও ওষুধের মতো জরুরি পণ্য আমদানিতেও হিমশিম খাচ্ছে।

নিউজ ট্যাগ: শ্রীলংকা

আরও খবর



সাবিলা নূরের নায়ক হিসেবে ইমরান যেমন

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | ৩৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এ পর্যন্ত অনেক নায়কের নায়িকা হয়েছেন সাবিলা নূর। তবে সেটি নাটকে। এবার তিনি নায়িকারূপে হাজির হলেন নতুন একটি মাধ্যমে। জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী প্রথমবার কাজ করলেন মিউজিক ভিডিওতে। আর তাতে নায়ক হিসেবে পেয়েছেন সংগীতশিল্পী ইমরান মাহমুদুলকে। দুজনের পর্দার রসায়নে মুগ্ধতা ছড়াচ্ছে নেট দুনিয়ায়। প্রকাশ হলো তাদের প্রথম গানচিত্র তুমি আমি। কবির বকুলের কথায় এটির সুর-সংগীত করেছেন ইমরান নিজেই। আর কণ্ঠ দিয়েছেন যৌথভাবে ইমরান ও লাবিবা। ঈদের গান হিসেবে ২৩ এপ্রিল এটি প্রকাশ হয়েছে সিএমভির ইউটিউব চ্যানেলে। গল্প নির্ভর রোম্যান্টিক আঙ্গিকে গানটির ভিডিওটি নির্মাণ করেছেন সৈকত রেজা।

কাজটি প্রসঙ্গে ইমরান বলেন, ঈদের জন্য এটা আমার সবচেয়ে বড় প্রজেক্ট। আমি মনে করি ঈদ উপহার হিসেবে ভক্তরা এমন কিছুই আশা করে আমাদের কাছে। জনপ্রিয় টিভি অভিনেত্রী সাবিলা নূরের প্রথম মিউজিক ভিডিও এটি। ভিডিওতে সহশিল্পী হিসেবে তাকে পেয়ে বেশ ভালো লাগছে। আশা করছি দর্শক-শ্রোতারা আমাদের ক্যামেস্ট্রিটা পছন্দ করছেন। কারণ গানটি রিলিজের পর থেকে দারুণ সাড়া পাচ্ছি।

সাবিলা নূর বলেন, অসংখ্য অফার এলেও আগে কখনও মিউজিক ভিডিওর মডেল হইনি। কিন্তু এই গানটি শুনে ভালো লাগলো। আরও ভরসা পেলাম ভিডিওর গল্পটা শুনে। ভাবলাম, এবার নতুন কিছু করা যেতেই পারে। সবকিছু ব্যাটে-বলে মিলে যাওয়ায় কাজটি করেছি। আশা করছি সবার ভালো লাগবে।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৯ সালে সিএমভি থেকে প্রকাশিত ইমরান-লাবিবার গাওয়া কেন এত চাই তোকে গানটি দারুণ জনপ্রিয়তা পায়। গানটির ভিউয়ার বর্তমানে ৩ কোটির বেশি।

নিউজ ট্যাগ: সাবিলা নূর

আরও খবর