আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

ইউপি নির্বাচন : দ্বিতীয় ধাপে ৩ বিভাগে আ.লীগের প্রার্থী যারা

প্রকাশিত:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | ১৩৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আগামী ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে সিলেট বিভাগ, রাজশাহী বিভাগের একটি ইউনিয়ন ও ঢাকা বিভাগের আটটি জেলায় মনোনীত প্রার্থীদের নামের তালিকা ঘোষণা করেছে আওয়ামী লীগ।

রোববার (১০ অক্টোবর) বিকেল ৪টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের মুলতবি সভায় এ নামের তালিকা ঘোষণা করা হয়।

পরে রাতে আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের মুলতবি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি শেখ হাসিনা। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে সিলেট বিভাগ, রাজশাহী বিভাগের একটি ইউনিয়ন ও ঢাকা বিভাগের আটটি জেলার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোনীত প্রার্থীদের নামের তালিকা নিম্নে দেওয়া হলো।

ঢাকা বিভাগ

ঢাকা জেলার ধামরাই উপজেলার কুশুরা ইউপিতে নূরুজ্জামান আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন। টাঙ্গাইল জেলার ধনবাড়ী উপজেলার বীরতারাতে আহাম্মদ আল ফরিদ, বানিয়াজানে রফিকুল ইসলাম তালুকদার, যদুনাথপুরে মীর ফিরোজ আহমেদ, পাইস্কাতে মুহাম্মদ আব্দুল মান্নান, ধোপাখালীতে আকবর হোসেন, মুশুদ্দিতে আবুল কায়ছার, বলিভদ্রে রফিকুল ইসলাম তালুকদার। সখিপুর উপজেলার যাদবপুরে এ, কে, এম আতিকুর রহমান, বহরিয়াতে গোলাম কিবরিয়া, বহেরাতৈলতে ওয়াদুদ হোসেন, কাকড়াজানে তারিকুল ইসলাম। দেলদুয়ার উপজেলার আটিয়াতে মাসুদুল হাসান তালুকদার, দেউলীতে দেঃ তাহ্ মিনা, পাথরাইলে রামপ্রসাদ সরকার, লাউহাটিতে হাবিবুর রহমান, দেলদুয়ারে মাসুদ-উজ্জামান খান, ডুবাইলে ইলিয়াছ মিয়া, এলাসিনে বেলায়েত হোসেন, ফাজিলহাটিতে শওকত আলী আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রীনগর উপজেলার বাঘড়াতে নূরুল ইসলাম, ভাগ্যকুলে কাজী মনোয়ার হোসেন, রাড়িখালে বারী (বারেক), বারৈই খালীতে ফারুক হোসেন, কুকুটিয়াতে আক্তার হোসেন মিন্টু, তন্তরে জাকির হোসেন, আটপাড়াতে রকিবুল ইসলাম মাসুদ, পাটাভোগে মুন খান, বীরতারাতে আজিম খান, শ্যামসিন্ধিতে শফিকুল ইসলাম মামুন, ষোলঘরে আজিজুল ইসলাম, হাঁসাড়াতে আহসান হাবীব, শ্রীনগরে মোখলেছুর রহমান।

নরসিংদী সদর উপজেলার আলোকবালি ইউপিতে দেলোয়ার হোসেন সরকার, চরদিঘলীতে দেলোয়ার হোসাইন। রায়পুরা উপজেলার আমিরগঞ্জে শাহানা বেগম, বাঁশগাড়ীতে আশরাফুল হক, চরসুবুদ্ধিতে নাসির উদ্দিন, চরমধুয়াতে নূর আলম ফকির, হাইরমারাতে কবির হোসেন, মির্জানগরে হুমায়ুন কবির সরকার, মির্জারচরে ফিরুজ মিয়া, নিলক্ষাতে তাজুল ইসলাম, পাড়াতলীতে ফেরদৌস কামাল, শ্রীনগরে রিয়াজ মোর্শেদ খান।

রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউপিতে আমজাদ হোসেন, উজানচরে গোলজার হোসেন মৃধা।

ফরিদপুর জেলার সালথা উপজেলার রামকান্তপুর ইউপিতে আশরাফ আলী, যদুনন্দীতে আবদুর রব মোল্যা, গট্টিতে হাবিবুর রহমান লাবলু, ভাওয়ালে ফারুকউজ্জামান, সোনাপুরে খায়রুজ্জামান, আঠঘরে শহীদুল হাসান খান, মাঝারদিয়াতে আফছারউদ্দীন মাতুব্বর, বল্লভদীতে নুরুল ইসলাম। নগরকান্দা উপজেলার চরযশোরদীতে কামরুজ্জামান, পুরাপাড়ায় বেলায়েত হোসেন মিয়া, কোদালিয়া শহীদনগরে খোন্দকার জাকির হোসেন (নিলু), ফুলসুতীতে আরিফ হোসেন, কাইচাইলে মোস্তফা খাঁন, তালমাতে রনজিৎ কুমার মন্ডল, রামনগরে মান্দার ফকির, ডাঙ্গীতে কাজী আবুল কালাম, লস্করদিয়াতে এসকেন্দার মাতুব্বর।

গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার মহেশপুরে লুৎফর রহমান মিয়া, পারুলিয়াতে মকিমুল ইসলাম, মাহমুদপুরে মাসুদ রানা, সাজাইলে কাজী জাহাঙ্গীর আলম, কাশিয়ানীতে মশিউর রহমান খান, রাতইল বিতে এম হারুন অর রশিদ পিনু, রাজপটে মিল্টন মিয়া।

মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলার বাঁশগাড়ীতে আবদুল্লাহ আল মামুন, লক্ষ্মীপুরে মজিবর রহমান মোল্যা, চর দৌলতখানে চাঁন মিয়া সিকদার, শিকারমঙ্গলে সিরাজুল আলম মৃধা, কয়ারিয়াতে জাকির হোসেন, সাহেবরামপুরে কামরুল আহ্সান সেলিম, রমজানপুরে বি এম মিল্টন ইব্রাহীম, আলীনগরে সাহীদ পারভেজ, বালিগ্রামে ইসতিয়াক হোসেন খান, নবগ্রামে বিভূতি ভূষণ বাড়ৈ, কাজীবাকাইতে সাইদুল ইসলাম, ডাসারে রেজাউল করিম শিকদার, গোপালপুরে দেলোয়ার হোসেন।

শরীয়তপুর সদর উপজেলার চন্দ্রপুরে আবদুস সালাম খান, চিতলিয়াতে হারুন-অর-রশিদ, আংগারিয়াতে আসমা আক্তার, ডোমসারে মিজান মোহাম্মদ খান, পালংএ আবুল হোসেন দেওয়ান, তুলাসারে জামাল হোসাইন, রুদ্রকরে সিরাজুল ইসলাম, বিনোদপুরে আব্দুল হামিদ সাকিদার, শৌলপাড়াতে আলমগীর হোসেন খান, মাহমুদপুরে শাহ আলম।

সিলেট বিভাগ

হবিগঞ্জ জেলার আজমিরীগঞ্জ উপজেলার আজমিরীগঞ্জ ইউপিতে মোবারুল হোসেন, বদলপুরে সুষেনজিৎ চৌধুরী, জলসুখাতে শাজাহান মিয়া, কাকাইলছেওতে মিসবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া, শিবপাশাতে তফছির মিয়া।

মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলার জায়ফরনগরে মোহাম্মদ জায়েদ আনোয়ার চৌধুরী, পশ্চিম জুড়ীতে শ্রীকান্ত দাশ, পূর্ব জুড়ীতে আবদুল কাদির, গোয়ালবাড়ীতে শাহাব উদ্দিন আহমদ, সাগরনালে আবদুল নূর।

সিলেট সদর উপজেলার জালালাবাদ ইউপিতে মোহাম্মদ ওবায়দুল্লাহ ইছাহাক, হাটখোলাতে মুশাহিদ আলী, মোগলগাঁওতে হিরন মিয়া, কান্দিগাঁওতে নিজাম উদ্দিন। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর পূর্ব ইউপিতে মুল্লুক হোসেন, তেলিখালে নুর মিয়া (চেয়ারম্যান), ইছাকলসে এখলাসুর রহমান, উত্তর রণিখাইতে ফয়জুর রহমান, দক্ষিণ রণিখাইতে ইকবাল হুসেন ইমাদ। বালাগঞ্জ উপজেলার পূর্ব পৈলনপুরে শিহাব উদ্দিন, বোয়ালজুড়ে আনহার মিয়া, দেওয়ানবাজারে ছহুল আবদুল মুনিম, পশ্চিম গৌরিপুরে হাজী আমিরুল ইসলাম (মধু), বালাগঞ্জে জুনেদ মিয়া, পূর্ব গৌরিপুরে হিমাংশু রঞ্জন দাস।

সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার ইসলামপুরে আব্দুল হেকিম, ছাতকে রঞ্জন কুমার দাস, কালারুকতে অদুদ আলম, খুরমা উত্তরে বিল্লাল আহমদ, চরমহল্লাতে কদর মিয়া, খুরমা দক্ষিণে আবদুল মছব্বির, জাউয়াবাজারে নুরুল ইসলাম, দোলারবাজারে সায়েস্তা মিয়া, গোবিন্দগঞ্জ সৈদেরগাওতে সুন্দর আলী, ছৈলা আফজালাবাদে গয়াছ আহমদ। দোয়ারাবাজার উপজেলার মান্নারগাঁওতে অসিত কুমার দাস, পান্ডার গাঁওতে আবদুল ওয়াহিদ, দোহালিয়াতে আনোয়ার মিয়া আনু, লক্ষ্মীপুরে আবদুল কাদির, বোগলাবাজারে মোহাম্মদ মিলন খান, সুরমাতে এম এ হালিম বীর প্রতীক, বাংলাবাজারে মানিক মিয়া, নরসিংপুরে নুর উদ্দিন আহমদ, দোয়ারাবাজারে আবদুল হামিদ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।


আরও খবর



ইভ্যালির ১০ জনের জামিন নামঞ্জুর

প্রকাশিত:শনিবার ০২ অক্টোবর 2০২1 | হালনাগাদ:শনিবার ০২ অক্টোবর 2০২1 | ৫০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইভ্যালির সেলিম রেজাসহ ১০ জনের জামিন আবদেন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। রাজধানীর ধানমন্ডি থানায় দায়ের হওয়া মামলায় জামিন আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ হয়েছে। শনিবার তাদের আইনজীবী মনিরুজ্জামান আসাদ গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

অ্যাডভোকেট মনিরুজ্জামান আসাদ জানান, হাইকোর্টের বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারওয়ার কাজলের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল বেঞ্চ তাদের জামিন আবেদন উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে আদেশ দেন। আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনিরুজ্জামান আসাদ। অন্যদিকে, রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আবু ইয়াহিয়া দুলাল ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মিজানুর রহমান।

এর আগে গত ১৯ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির এমডি ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রাসেল ও চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিনসহ ২০ জনের বিরুদ্ধে ধানমন্ডি থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী গ্রাহক কামরুল ইসলাম চোকদার।


আরও খবর
ইকবালসহ ৪ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




সড়ক দুর্ঘটনায় বাগেরহাটে দুই অধ্যাপক নিহত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৪ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৪ অক্টোবর ২০২১ | ৬৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

খুলনা-মাওয়া মহাসড়কের ফকিরহাটের বৈলতলী নামক স্থানে দুই মোটরসাইকেল আরোহী একটি ট্রাকের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত দুই ব্যক্তি হলেন সাতক্ষীরার কাশেমপুর এলাকার আব্দুস ছাত্তার (৬৫) এবং সাতক্ষীরা সদরের রসুলপুর এলাকার আব্দুল কাদের (৬০)। তাঁদের একজন খুলনা সিটি কলেজের অধ্যাপক এবং অপরজন সাতক্ষীরা সিটি কলেজের অধ্যাপক বলে জানা গেছে।

সড়ক দুর্ঘটনার পর কিছু সময় রাস্তাটি বন্ধ ছিল। মোল্লাহাট হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আবুল হাসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর
মোরেলগঞ্জে অহিংস দিবস পালন

সোমবার ০৪ অক্টোবর ২০২১




কুমিল্লায় কোরআন অবমাননা, সারা দেশে গ্রেপ্তার শতাধিক

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৫ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৫ অক্টোবর ২০২১ | ৬০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত বুধবার কুমিল্লায় পবিত্র কোরআন অবমাননার খবরে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। পরে সেখানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বিজিবি মোতায়েন করা হয়। এরপর রাতে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

বিভিন্ন জেলায় সংঘর্ষ ও হামলার ঘটনায় এ পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে শতাধিক ব্যক্তিকে। চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে গত বুধবার রাতে সংঘর্ষের ঘটনায় সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। ওই সংঘর্ষে নিহত চারজনের মরদেহ গতকাল পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘটনা তদন্তে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন। কুমিল্লায়ও একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কুমিল্লায় ঘটে যাওয়া ঘটনার তদন্ত চলছে। এই ঘটনার পেছনে যারাই জড়িত থাকুক তাদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হবে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, কুমিল্লার ঘটনাটি স্বার্থান্বেষী মহল ও চক্রান্তকারীদের উদ্দেশ্যমূলক কাজ বলে মনে করছে সরকার। যারা এই ঘটনায় জড়িত, তাদের শিগগিরই ধরা হবে। ইতোমধ্যেই কয়েকজনকে চিহ্নিত করা হয়েছে এবং সন্দেহভাজন কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

দুর্গাপূজা উপলক্ষে নিরাপত্তার স্বার্থে কুমিল্লা, ঢাকা বিভাগের নরসিংদী, মুন্সিগঞ্জসহ ২২টি জেলায় বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিজিবির পরিচালক (অপারেশন) লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফয়জুর রহমান।

কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান গণমাধ্যমকে বলেন, ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটি তিন দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দেবে। ঘটনার পর চার প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাব, আনসার ও অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। গতকাল সকালে শতাধিক আলেমের সঙ্গে প্রশাসনের বৈঠক হয়েছে। শুক্রবার জুমার নামাজের খুতবায় ইমামরা সম্প্রীতি নিয়ে বয়ান করবেন।

কুমিল্লার পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ বলেন, বুধবারের ঘটনায় পুলিশ চারটি মামলা করেছে। এরমধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ফয়েজ আহমেদকে (২৮) বুধবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ফয়েজের করা ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। তিনিই প্রথম উসকানি দেন। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। অপর তিন মামলায় ৪০ জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। রাতে র‍্যাব একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।


আরও খবর



তাস খেলাকে কেন্দ্র করে লক্ষ্মীপুরে জেলেকে পিটিয়ে হত্যা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১২ অক্টোবর ২০২১ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

লক্ষ্মীপুরে তাস খেলার জন্য ডেকে নিয়ে শরীফ বেপারী (৩৫) নামের এক জেলেকে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। আজ মঙ্গলবার ভোরে আহত অবস্থায় তাকে সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে।

এর আগে গতকাল সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে শরিফকে পেটানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শরীফ সদর উপজেলার চররমনী মোহন ইউনিয়নের পশ্চিম চর রমনীমোহন গ্রামের আবদুল বেপারীর ছেলে। নিহত ব্যক্তি মেঘনা নদীতে মাছ শিকার করতেন। তার মরদেহ সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

নিহতের বাবার আবদুল ব্যাপারীর অভিযোগ, স্থানীয় নাছির মোল্লা, জাহাঙ্গীর মোল্লা, আলমগীর মোল্লা, কাশেম ছৈয়াল ও হযরত আলী মাঝিরা তার ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে পিটিয়েছে। তিনি এ হত্যার বিচার চান।

এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান বলেন, নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



বিশ্বে মোবাইল ইন্টারনেটের গতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ১০৩

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্বের ১১০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশে মোবাইল ইন্টারনেটের গতি সবচেয়ে কম। সদ্য প্রকাশিত ডিজিটাল কোয়ালিটি অব লাইফ (ডিকিউএল) সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান একেবারে তলানিতে। তবে সামগ্রিক ডিজিটাল মান বিবেচনায় বাংলাদেশের অবস্থান ১০৩। আগের বছরের চেয়ে বাংলাদেশ এ ক্ষেত্রে ২৫ ধাপ নেমে গেছে।

ডিকিউএল সূচক অনুযায়ী, বিশ্বের ১১০টি দেশের মধ্যে সামগ্রিক ডিজিটাল মান বিবেচনায় বাংলাদেশের অবস্থান ১০৩। এ অবস্থান এমনকি প্রতিবেশী সবগুলো দেশেরও পেছনে। সূচকে বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে ভারত, শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান। এই তিন দেশের অবস্থান যথাক্রমে ৫৯,৮৮ ও ৯৭ তম।

প্রতি বছর বৈশ্বিক ভিপিএন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান সার্ফশার্ক এই ডিকিউএল সূচক প্রকাশ করে। এবারও তারা এই সূচক প্রকাশ করেছে। মূলত ডিজিটাল জীবনমানের ক্ষেত্রে পাঁচটি মূল ভিতকে বিবেচনায় নিয়ে বিশ্বের ১১০টি দেশের জন্য তারা এই সূচক তৈরি করে। এই পাঁচ ভিত হলোইন্টারনেট সেবা গ্রহণের সামর্থ্য, ইন্টারনেটের মান, ইলেকট্রনিক অবকাঠামো, ইলেকট্রনিক নিরাপত্তা ও ই-সরকার।

ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের চেষ্টায় অনেক আগে থেকেই সরকার কাজ করলেও নিরবচ্ছিন্ন ইন্টারনেট সেবার প্রাপ্যতা, এর গতিসহ সামগ্রিক ডিজিটাল মানে এখনো অনেক পিছিয়ে বাংলাদেশ। ডিকিউএল সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান বেশ হতাশাজনক। এমনকি দক্ষিণ এশিয়ার ৩২ দেশের মধ্যে বাংলাদেশ সামগ্রিকভাবে ৩০ তম অবস্থানে রয়েছে।

ডিকিউএল-এর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এ সম্পর্কিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইন্টারনেট সেবার প্রাপ্যতা, এর স্থায়ীত্ব, নিরবচ্ছিন্নতা, মোবাইল ইন্টারনেটের গতি, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহারে প্রস্তুতি, নেটওয়ার্ক, ব্রডব্যান্ড সংযোগের গতি ও স্থায়ীত্ব, ইলেকট্রনিক অবকাঠামো, ইলেকট্রনিক নিরাপত্তা ইত্যাদি বিবেচনায় সার্বিকভাবে ০ থেকে ১ মানদণ্ডে বাংলাদেশ পেয়েছে মাত্র দশমিক ৩৪ পয়েন্ট।

ইন্টারনেট সেবা গ্রহণের জন্য সর্বনিম্ন ইন্টারনেট প্যাকেজ কিনতে একজন লোককে কতক্ষণ কাজ করতে হয়, তা দিয়ে নির্ধারণ করা হয়েছে একটি দেশের মানুষের ইন্টারনেট সেবার প্রাপ্যতার বিষয়টি। এই সূচকে বাংলাদেশ মাত্র দশমিক শূন্য ২ পয়েন্ট পেয়েছে। এ ক্ষেত্রে বিশ্বের ১১০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৮৪ তম।

তবে মোবাইল ইন্টারনেটের ক্ষেত্রে কিছুটা এগিয়ে। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান ৫৬ তম। ইন্টারনেট সংযোগের মান ও ইলেকট্রনিক অবকাঠামোউভয় ক্ষেত্রেই বাংলাদেশের অবস্থান ৮৯ তম। আর ইলেকট্রনিক নিরাপত্তায় অনুমিতভাবেই পিছিয়ে বাংলাদেশ। এ ক্ষেত্রে অবস্থান ১০৩ তম। আর ই-সরকার ব্যবস্থা বিবেচনায় বাংলাদেশের অবস্থান ৮৬ তম। 


আরও খবর