আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

ইভ্যালি পরিচালনা কমিটি: ২ সচিবসহ ৩ জনের নাম প্রস্তাব

প্রকাশিত:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | ৪২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি পরিচালনার জন্য হাইকোর্টের বোর্ড গঠনের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে দুই সচিবসহ তিনজনের নাম প্রস্তাব করেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। যাদের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে, তারা হলেন- স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব রেজাউল আহসান, সংস্কার বোর্ডের সচিব ইয়াকুব আলী পাটোয়ারী এবং সাবেক সচিব মাকছুদুর রহমান পাটোয়ারী।

নামের এ তালিকা ইতোমধ্যে আদালতে দাখিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ব্যাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আইনজীবী তাপস কান্তি বল। তাদের মধ্যে একজনকে রাখা হবে কমিটিতে।

এর আগে, মঙ্গলবার জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মসের পক্ষ থেকে ইভ্যালির যাবতীয় নথি হাইকোর্টে দাখিল করা হয়। এদিন ইভ্যালির দুই কর্ণধার কারাবন্দি থাকার প্রেক্ষাপটে নতুন একটি কমিটি গঠনের কথা বলেছে আদালত। আজ বুধবার বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের একক হাইকোর্ট বেঞ্চের এ বিষয়ে আদেশ দেওয়ার কথা রয়েছে।

আদালতে আবেদনের পক্ষে আইনজীবী এন এম মাছুম ও সৈয়দ মাহসিব হোসেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, রেজিস্ট্রার জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মস, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ও প্রতিযোগিতা কমিশনের পক্ষে আইনজীবী তাপস কান্তি বল শুনানি করেন।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর এক আদেশে ইভ্যালির নথিপত্র ১২ অক্টোবরের মধ্যে আদালতে দাখিল করতে রেজিস্ট্রার জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মসকে নির্দেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট। সেই অনুযায়ী গতকাল সব নথি দাখিল করা হয়। আইনজীবী তাপস কান্তি বল জানান, সব নথি দাখিল করা হয়েছে। যেহেতু এ কোম্পানিটির দুই জন মালিকই জেলে, তাই একটি কমিটি গঠনের অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছেন। যে কমিটিতে একজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারক, অবসরপ্রাপ্ত সচিব, চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট ও একজন আইনজীবী থাকতে পারেন। এ বিষয়ে বুধবার আদেশ দেবে হাইকোর্ট।

এর আগে এক গ্রাহকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ২২ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির সব ধরনের সম্পদ বিক্রি এবং হস্তান্তরে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল হাইকোর্ট।


আরও খবর
ইকবালসহ ৪ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




১২০ বাস নিয়ে ডিসেম্বরে চালু হচ্ছে ‘ঢাকা নগর পরিবহন’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৫ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৫ অক্টোবর ২০২১ | ৮৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

১২০টি নতুন বাস নিয়ে আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা নগর পরিবহন নামে শুরু হচ্ছে বাস রুট রেশনালাইজেশনের প্রথম ধাপ। কেরানীগঞ্জের ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত চলবে এ পরিবহন। প্রায় ২১ কিলোমিটারের এ রুটে প্রতি কিলোমিটার যাতায়াত ভাড়া পড়বে দুই টাকা ২০ পয়সা।

মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) দুপুরে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) নগর ভবনের বুড়িগঙ্গা হলে বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ১৮তম সভা শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান ডিএসসিসি মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। তিনি বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির সভাপতি।

শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, নগরের সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে গত এক বছর আমরা অক্লান্ত পরিশ্রম করেছি। বিষয়টি অত্যন্ত জটিল ও দুরূহ ছিল। এখন আমরা লক্ষ্য পূরণের কাছাকাছি আছি। ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর একটি পাইলটিং রুট নির্ধারণ করেছি। এ রুটে নতুন নিয়ম এবং পদ্ধতিতে বাস চলবে। সবার প্রচেষ্টায় আমরা এতদূর আসতে পেরেছি।

তিনি বলেন, আগামী ১ ডিসেম্বর এ রুটে বাস চলাচল শুরু হবে, এটা আমরা চূড়ান্ত করেছি। বাসগুলো জয়েন ভেঞ্চারের মাধ্যমে পরিচালিত হবে। পরে পুরো ঢাকায় কয়েকটি কোম্পানির মাধ্যমে বাস চলবে।

নতুন এ রুটে কোনো পুরোনো বাস থাকবে না জানিয়ে মেয়র তাপস বলেন, ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর রুটে পুরোনো বাস চলবে না। এখন এই রুটে যে বাসগুলো চলছে, সেগুলোর মধ্যে ২০১৯ সালের ১ জানুয়ারির পর কেনা বাস থাকবে। বাকি বাসগুলো উঠিয়ে নেওয়া হবে। এর সঙ্গে নতুন বাস যোগ হবে। তাতে পরিবহন মালিকরা সম্মতি দিয়েছেন।

এ সময় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ঢাকায় গণপরিবহনে নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হচ্ছে। এর মাধ্যমে নগরে গণপরিবহনে শৃঙ্খলা আসবে। চালকের মাঝে প্রতিযোগিতাপূর্ণ মনোভাব থাকবে না।

তিনি আরও বলেন, নতুন এই রুটে ৪০টির বেশি যাত্রী ছাউনি করা হবে। বাস বে হবে ১৬টি। জায়গা সংকটের কারণে বাস বের সংখ্যা বাড়ানো যাচ্ছে না। এছাড়া এ রুটের বাসগুলোর রং কী হবে, তা আগামী ১৪ অক্টোবরের মধ্যে জমা দিতে সংশ্লিষ্টদের বলা হয়েছে। পরে ২০ অক্টোবর বাসের রং নির্ধারণ করা হবে।


আরও খবর
ঢাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৭৩

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




করোনা: ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে বেড়েছে সংক্রমণ-মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | হালনাগাদ:বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21 | ২৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন মোট ২১ কোটি ৯৬ লাখ ৫৬ হাজার ৪৩৪ জন

শ্বাসতন্ত্রের প্রাণঘাতী রোগ করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণ-মৃত্যু বেড়েছে বিশ্বে, সেইসঙ্গে বেড়েছে এই রোগটি থেকে সুস্থতার হারও। মহামারি শুরুর পর থেকে এ রোগে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হালনাগাদ তথ্য প্রদানকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার্স এ তথ্য জানিয়েছে।

ওয়েবসাইটটির পরিসংখ্যান বলছে, মঙ্গলবার বিশ্বজুড়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ১০ হাজার ৬২৯ জন এবং এ রোগে মৃত্যু হয়েছে ৭ হাজার ১৪১ জনের। পাশপাশি, এই দিন করোনা থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ৪ লাখ ৫৪ হাজার ২৮৩ জন।

আগের দিন, সোমবার বিশ্বে করোনায় নতুন আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল ৩ লাখ ৫২ হাজার ৮৬৪ জন। ওইদিন এ রোগে মারা গিয়েছিলেন ৫ হাজার ১৬৮ জন এবং সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন ৪ লাখ ৪৩ হাজার ২১০ জন।

অর্থাৎ, ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ৫৭ হাজার ৭৬৫ জন এবং মৃতের সংখ্যা বেড়েছে ১ হাজার ৯৭৩ জন। এবং, এই সময়সীমার মধ্যে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা ব্যক্তির সংখ্যা বেড়েছে ১১ হাজার ৭৩ জন।

যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া অন্যান্য যেসব দেশে করোনায় সংক্রমণ-মৃত্যুর উচ্চহার দেখা গেছে সে দেশসমূহ হলো যুক্তরাজ্য (নতুন রোগী ৪৩ হাজার ৭৩৮, মৃত্যু ২২৩), রাশিয়া (নতুন রোগী ৩০ হাজার ৭৪০, মৃত্যু ১ হাজার ১৫) ও তুরস্ক (নতুন রোগী ৩০ হাজার ৮৬২, ‍মৃত্যু ১ হাজার ১৫)।

করোনায় বিপর্যস্ত দুই দেশ ভারত ও ব্রাজিলে কমে আসছে এ রোগের সংক্রমণ ও মৃত্যু। মঙ্গলবার ভারতে করোনায় নতুন আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল ১৪ হাজার ৯৩৬ জন এবং এ রোগে মারা গেছেন ১৯৯ জন। অন্যদিকে, এই দিন ব্রাজিলে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১২ হাজার ৯৬৯ জন এবং এ রোগে দেশটিতে মারা গেছেন ৩৮১ জন।

ওয়ার্ল্ডোমিটার্সের তথ্য অনুযায়ী, ২০২০ সালে করোনা মহামারি শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত করোনায় বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ২৪ কোটি ২৩ লাখ ৭ হাজার ৩৪৩ জন এবং এ রোগে মারা গেছেন মোট ৪৯ লাখ ২৮ হাজার ২৫৩ জন।

এছাড়া, মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন মোট ২১ কোটি ৯৬ লাখ ৫৬ হাজার ৪৩৪ জন।

বর্তমানে বিশ্বে সক্রিয় করোনারোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৭৭ লাখ ২২ হাজার ৬৫৬ জন। আক্রান্ত এই রোগীদের মধ্যে মধ্যে করোনার মৃদু উপসর্গ বহন করছেন ১ কোটি ৭৬ লাখ ৪৪ হাজার ৫৫৬ জন এবং গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় আছেন ৭৮ হাজার ১০৬ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে বিশ্বের প্রথম করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। করোনায় প্রথম মৃত্যুর ঘটনাটিও ঘটেছিল চীনে।

তারপর অত্যন্ত দ্রুতগতিতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটি। পরিস্থিতি সামাল দিতে ২০২০ সালের ২০ জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

কিন্তু তাতেও অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় অবশেষে ওই বছরের ১১ মার্চ করোনাকে মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর



তুরাগে নৌকাডুবি: শিশুসহ ৩ জনের লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | ১৩৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাভারের গাবতলী এলাকায় তুরাগ নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় ‍দুই শিশুসহ তিন জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার (৯ অক্টোবর) বেলা ১১টায় একটি বাল্কহেডের সঙ্গে সংঘর্ষ নৌকাটি ডুবে যায়। নিহতদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। এখনও নিখোঁজ চার জন। শনিবার দুপুরে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের মিডিয়া কর্মকর্তা মো. রায়হান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সাভার ফায়ার সার্ভিসের ওয়্যার হাউজ ইন্সপেক্টর মাহফুজুর রহমান জানান, শনিবার সকালে তুরাগ নদীর আমিনবাজার এলাকা থেকে প্রায় ১৮ জন যাত্রী নিয়ে একটি নৌকা গাবতলীর উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। মাঝ নদীতে পৌঁছালে একটি বালুভর্তি বাল্কহেডের সঙ্গে সংঘর্ষে শিশুসহ সাত যাত্রী নিয়ে নৌকাটি ডুবে যায়।

খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধারের অভিযান শুরু করে। এখন পর্যন্ত দুই শিশু ও এক নারীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। উদ্ধার অভিযান চলছে বলে জানান মাহফুজুর রহমান।


আরও খবর



এশিয়ার সেরা পারফরমারদের তালিকায় সাকিব-মুশফিক ও মোস্তাফিজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এশিয়ার সেরা পারফরমারদের নিয়ে একাদশ সাজিয়েছে উইজডেন। তাদের নির্বাচিত একাদশে জায়গা পেয়েছেন বাংলাদেশ সেরা তিন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম ও মোস্তাফিজুর রহমান।

উইজডেনের সেরা একাদশে ভারতের রয়েছেন তিন ক্রিকেটার। একই সঙ্গে জায়গা মিলেছে তিন পাকিস্তানি ও দুই আফগান ক্রিকেটারের।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) ওয়ানডে র‌্যাংকিং বিবেচনা করে এশিয়ার সেরা একাদশ প্রকাশ করেছে উইজডেন ইন্ডিয়া। সেরা ১১ ক্রিকেটারের ভেতর ঠাঁই পেয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের তিন ক্রিকেটার।

সেরা একাদশে ভারতের রয়েছেন তিনজন ক্রিকেটার। তারা হলেন- রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি ও জাসপ্রিত বুমরাহ।  একই সঙ্গে জায়গা মিলেছে পাকিস্তানের তিন ক্রিকেটারের। তারা হলেন- বাবর আজম, শাহিন শাহ আফ্রিদি ও ফখর জামান।

সেরা একাদশে রয়েছেন আফগানিস্তানের দুই তারকা ক্রিকেটার মোহাম্মদ নবি ও মুজিব উর রহমান।

উইজডেন ইন্ডিয়ার বাছাইকৃত এশিয়ার সেরা ওয়ানডে একাদশ : রোহিত শর্মা, ফখর জামান, বাবর আজম, বিরাট কোহলি, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ নবি, শাহিন আফ্রিদি, মুজিব উর রহমান, জাসপ্রিত বুমরাহ ও মুস্তাফিজুর রহমান।


আরও খবর
অজিদের কষ্টার্জিত জয়

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




দেশে দুর্নীতি রয়েছে, এটা অস্বীকার করার কিছু নেই : পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, দেশে দুর্নীতি রয়েছে, এটা অস্বীকার করার কিছু নেই। জলবায়ু সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ এবং এসডিজি বাস্তবায়ন সংক্রান্ত কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন মন্ত্রী।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বঙ্গবন্ধু আর্ন্তজাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) ন্যাশনাল রেচিলিয়েন্ট প্রোগাম (এনপিআর) কর্মসূচির আওতায় তিন দিনের এই প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন করা হয়।

দেশ থেকে দুর্নীতি তাড়াতে হবে হুঁশিয়ারি দিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, দুর্নীতি প্রতিরোধের চাপ অব্যাহত থাকবে। দেশে থেকে বিষঁফোড়া তাড়াতে হবে। কিন্তু কাউকে মারধর করে দুর্নীতি বন্ধ করা যাবে না। বিভিন্ন আইন কানুন দিয়ে প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

মন্ত্রী বলনে, মানের সঙ্গে আপস করা যাবে না।  মানসম্মতভাবে কাজ না করলে প্রকল্প বাস্তবায়ন করে লাভ নেই। আমাদের কাজ প্রকল্প আটকানো নয়। কিন্তু প্রকল্প অবশ্যই মানসম্মত হতে হবে। প্রকল্প মানুষের স্বার্থে নিতে হবে। আমরা চাই দ্রুত কাজ হোক। তবে আইন কানুনের মধ্য থেকে কাজ করতে হবে।

প্রশ্ন রেখে মন্ত্রী আরও বলেন, জরুরি অবস্থায় আমরা সবাই এক হয়ে কাজ করি। কিন্তু স্বাভাবিক সময়ে কেন সেটি করি না। একই হাত, একই মাথা, একই মানুষ। তাহলে স্বাভাবিক সময়ে কেন জরুরি অবস্থার মতো ভালো কাজ হবে না?

পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরীরর সভাপতিত্বে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক রাম চন্দ্র দাস, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আতিকুল হক এবং ইউএন ওমেন বাংলাদেশের প্রতিনিধি গীতাঞ্জলি সিং, বিবিএসের মহাপরিচালক মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ডিজাস্টার প্রকল্পের পরিচালক রফিকুল ইসলাম।

মূল প্রবন্ধে রফিকুল ইসলাম বলেন, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কাছে যেসব তথ্য আছে সেগুলো কাজে লাগতে হবে। এজন্য এই প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে দুটি প্রশ্নপত্র চূড়ান্ত করা হবে। যেমন কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও পরিবেশের নিরাপত্তা বিষয়ে প্রশ্নপত্র চূড়ান্ত করা হবে।

আতিকুল হক বলেন, সঠিক তথ্য সংগ্রহ, সক্ষমতা বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবে। আমরা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার জন্য রেসকিউ বোট তৈরি করেছি। নারায়ণগঞ্জে ডকইয়ার্ডে তা তৈরি হচ্ছে। এই বোটে প্রতিবন্ধী, শিশু ও নারীদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে।


আরও খবর
মুনিয়া-শারুন আলাপ কী প্রমাণ করে?

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১