আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম

জাফলংয়ে পর্যটকদের উপর হামলার ঘটনায় আটক ২

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | ৪৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সিলেটের গোয়াইনঘাট পর্যটন এলাকা জাফলংয়ে পর্যটকদের উপর হামলা চালিয়েছে উপজেলা প্রশাসনের নিযুক্ত স্বেচ্ছাসেবকরা। এতে নারী শিশুসহ কয়েকজন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ।

আটককৃতরা হলেন, গোয়াইনঘাটের পন্নগ্রামের মৃত রাখালচন্দ্রের পুত্র লক্ষ্মণচন্দ্র দাস (২১) ও ইসলামপুর গ্রামের বাবুল মিয়ার পুত্র মো. সেলিম আহমেদ (২১)। আটক অন্য তিনজনের ক্ষেত্রে এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট কিনা যাচাই করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (৫ এপ্রিল) দুপুর দেড়টার দিকে জাফলং পর্যটন কেন্দ্রে টিকিট কেনাকে কেন্দ্র করে পর্যটকদের সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবকদের বাকবিতন্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে স্বেচ্ছাসেবকরা পর্যটকদের ওপর চড়াও হলে এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, টিকিট কেনার সময় পর্যটকদের সঙ্গে টিকিট কাউন্টারে কর্তব্যরতদের বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে কাউন্টারে থাকা স্বেচ্ছাসেবকরা লাঠি দিয়ে পর্যটকদের পেটাতে শুরু করে। তখন সেখানে থাকা একজন তরুণী ও শিশু হামলার শিকার হন। এ ঘটনায় ৫ জন আহত হয়েছেন। ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ পেলে তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।

ভিডিওতে দেখা যায়, স্বেচ্ছাসেবক লেখা নীল ইউনিফর্ম পরা ৩ জন হাতে লাঠি নিয়ে একদল পর্যটককে বেধড়ক পেটাচ্ছেন। এ সময় কয়েকজন নারী পর্যটক তাদের থামাতে গিয়ে লাঞ্ছিত হন।

জানা যায়, ২০২১ সাল থেকে পর্যটন কেন্দ্রে সুবিধা বৃদ্ধির লক্ষ্যে জাফলংয়ে প্রবেশের ক্ষেত্রে পর্যটকদের ১০ টাকা প্রবেশ ফি নির্ধারণ করে দেয় প্রশাসন। এর আগে পর্যটকদের সেখানে টিকিট কেটে প্রবেশ করতে হতো না। যে কারণে পর্যটকরা জাফলং বেড়াতে এসে টিকিট কাটতে হবে শুনে বিভিন্ন প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করছেন।

গোয়াইনঘাটের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তাহমিলুর রহমান বলেন, টিকিট কাউন্টারের দায়িত্বে থাকা স্বেচ্ছাসেবকদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি থেকে এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সূত্রপাত। যেহেতু হামলাকারীরা আমাদের নিয়োজিত স্বেচ্ছাসেবক, তাই আমি দায় নিচ্ছি।

ট্যুরিস্ট পুলিশের জাফলং-এর ইনচার্জ মো. রতন শেখ বলেন, জাফলং-এ পানিতে পড়ে একজন পর্যটক নিখোঁজ হয়েছেন, এমন সংবাদে আমরা অন্যদিকে ব্যস্ত ছিলাম। এই সুযোগে পর্যটকদের উপর হামলার ঘটনাটি ঘটেছে। ঘটনা যাই হোক আমরা ব্যবস্থা নেব।

সিলেট জেলা পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন পিপিএম বলেন, জাফলং পর্যটনকেন্দ্রে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ডিবি পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকেও পুলিশ রয়েছে। যে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশ তৎপর রয়েছে। এ ঘটনায় ২ জনকে আটক করে থানায় আনা হয়েছে বলেও জানান তিনি। 


আরও খবর



যুদ্ধের মধ্যেই ইউক্রেনীয় ব্যান্ডের ইউরোভিশন জয়

প্রকাশিত:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ২৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের যুদ্ধ-বিধ্বস্ত অবস্থার মধ্যেও প্রতিযোগিতামূলক শো ইউরোভিশন জয় করেছে ইউক্রেনীয় ব্যান্ড দল কালুশ অর্কেস্ট্রা। জাতির জন্য সমর্থন আদায়ের জন্য করা সংগীতের কারণে ইতালির তুরিনে আয়োজিত প্রতিযোগীতায় জয় পায় র‌্যাপ-ফোক ব্যান্ড দলটি। বার্তা সংস্থা এপির খবরে বলা হয়েছে, ঐতিহ্যবাহী লোক সঙ্গীতের সঙ্গে র‌্যাপের মিশ্রনে ইউক্রেনীয় ভাষায় গান পরিবেশন করে কালুশ অর্কেস্ট্রা। স্টেফানিয়া নামে গানটি মূলত ব্যান্ডের প্রধান শিল্পী ওলেহ সিউকের মায়ের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে লেখা হয়েছিল। কিন্তু যুদ্ধের মধ্যেই দেশের জন্য জনসমর্থন আদায়ে আর্তি হিসেবে গানটি পরিবেশন করা হয়। এ গানটি দিয়ে প্রথমবারের মতো ইউরোভিশন জয় করে ব্যান্ড দলটি।

টেলিভিশনে প্রচারিত গানটি প্রায় ২ লাখ মানুষ দেখেছে। প্রতিযোগীতায় ৪০টি দেশের ভোটে ২৪ প্রতিযোগীকে হারিয়ে প্রথম হয় কালুশ অর্কেস্ট্রা। জয়ের যাত্রায় তারা সংগ্রহ করে ৬৩১ পয়েন্ট। এপি জানিয়েছে, ইউরোপের জনপ্রিয় গানের আসর ইউরোভিশনে বাড়ি বসে দর্শকরা তাদের পছন্দের প্রতিযোগীকে ভোট দেয়। কালুশ অর্কেস্ট্রা বিপুল পরিমান ভোট আদায়ে সক্ষম হয়, যা অল্পক্ষণেই ব্রিটিশ টিকটক স্টার স্যাম রাইডারকে ছাড়িয়ে যায়।

রবিবার (১৫ মে) ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি কালুশ অর্কেস্ট্রার এ বিজয়কে স্বাগত জানিয়েছেন। তিনি বলেন, আমাদের সাহস বিশ্বকে মুগ্ধ করে। আমাদের সংগীত ইউরোপকে জয় করেছে। যারা ইউরোভিশন জয় করে, নতুন বছরে তারাই এ আয়োজন করে থাকে। ফলে আগামী আসরটি আযোজন করতে হবে ইউক্রেনকে। কিন্তু বর্তমানে দেশটি যুদ্ধ পরিস্থিতি এমন পরিস্থিতে পৌঁছেছে, ইউরোভিশন আয়োজন সম্ভব হবে কিনা বোঝা যাচ্ছে না। কিন্তু জেলেনস্কি জানিয়েছেন, আগামী বছর বন্দর শহর মারিউপোলে প্রতিযোগিতাটি তারা আয়োজন করবেন। এ ব্যাপারে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা আমাদের যথাসাধ্য চেষ্টা করব। আমি নিশ্চিত শত্রুর বিরুদ্ধে যুদ্ধে বিজয় বেশি দূরে নয়।

খবরে আরও বলা হয়, লাইভ পারফরম্যান্সের শেষে মারিউপোল শহর ও আজভস্টাল প্ল্যান্টের জন্য বিশ্ববাসীর প্রতি আবেদন জানান ওলেহ সিউক। ইংরেজিতে তিনি বলেন, অনুগ্রহ করে ইউক্রেনকে, মারিউপোলকে সাহায্য করুন। অ্যাজোভস্টালকে এখনই সাহায্য করুন। ফলাফল ঘোষণার পর পুরষ্কার হাতে নেওয়ার সময় ইউক্রেনীয় প্রবাসী ও বিশ্বজুড়ে যারা ইউক্রেনের পক্ষে ভোট দিয়েছেন তাদের ধন্যবাদ জানান। এ সময় তিনি আরো বলেন, জয় ইউক্রেনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে এ বছর। প্রতিযোগীতায় স্যাম রাইডার দ্বিতীয় ও চ্যানেল অব স্পেন তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে।


আরও খবর



ঈদে ই-কমার্সে আড়াই হাজার কোটি টাকার কেনাকাটা

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রমজানের এক মাসে অনলাইনে কেনাকাটা গত বছরের চেয়ে বেড়েছে। কিছু ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিক্রি গত বছরের চেয়ে কমলেও সামগ্রিকভাবে এ বছর ডিজিটাল বাণিজ্যে বেচাকেনার পরিমাণ অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। দেশে ই-কমার্স ব্যবসায়ীদের সংগঠন ইক্যাব বলছে, এই ঈদে অনলাইনে সারা দেশে আড়াই হাজার কোটি টাকার বেশি পণ্য বিক্রি হয়েছে।

ই-ক্যাবের মহাব্যবস্থাপক জাহাঙ্গীর আলম শোভন বলেন, গত দু বছর দোকানপাট বন্ধ থাকায় এমনিতেই ই-কমার্স খাতে বিক্রি বেশি ছিল। এবার সবকিছু খুলে যাওয়ায় অনেকেই আশঙ্কা করেছিলেন, এ বছর ঈদে বেচাকেনা কমতে পারে। তবে এক মাসের হিসাব থেকে আমরা দেখলাম এবার সামগ্রিকভাবে বিক্রি বেড়েছে।

ই-ক্যাবের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, স্বাভাবিকভাবে দিনে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ও ফেসবুক পেজগুলোর মাধ্যমে দুই থেকে আড়াই লাখ ইউনিট পণ্য বিক্রি হয়। এবার রমজানের প্রথম তিন সপ্তাহে সেটা দৈনিক সাড়ে তিন লাখ ছাড়িয়ে যায়। আর শেষ ১০ দিনে সেটা সাড়ে চার লাখে পৌঁছায়। এসব পণ্যের গড় মূল্য দেড় হাজার থেকে ২ হাজার টাকা। সে হিসেবে এ বার ঈদে ডিজিটাল কমার্সে আড়াই হাজার কোটির বেশি বেচাকেনা হয়েছে। গত বছর এর পরিমাণ ছিল দেড় হাজার কোটি। সারা দেশের কুরিয়ার, লজিস্টিকস এবং ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ইক্যাব এই হিসাব করেছে বলে জানিয়েছে।

ই-ক্যাবের পরিচালক এবং উইএর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নাসিমা আক্তার নিশা জানান, ই-কমার্স সেক্টরে ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের পণ্যের বিক্রিও এবার বেড়েছে। ঈদকে কেন্দ্র করে গত এক মাসে নারী উদ্যোক্তাদের ৫ কোটি টাকার বেশি পণ্য বিক্রি হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। আজকের পত্রিকাকে নাসিমা আক্তার বলেন, আমরা যা আশা করেছিলাম ঈদের বেচাকেনা তার চেয়ে ভালো হয়েছে। আমাদের নারী উদ্যোক্তাদের কাঁচামাল সংগ্রহ করতে সমস্যার পড়তে হয়। এ বছর অনেক কাঁচামালের দামও বেড়েছে। তাই অনেক উদ্যোক্তাকে কিছুটা সমস্যায় পড়তে হয়েছে। তারপরও সামগ্রিকভাবে এবার বিক্রি ভালো।

গত দুবছর করোনার বিধিনিষেধের কারণে বড় সময় জুড়ে দোকানপাট বন্ধ থাকায় কেনাকাটার প্রধান মাধ্যম হয়ে পড়ে ই-কমার্স। করোনাকালে ৩০০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি দেখেছে এ খাত। তবে গত বছর ২০ টির বেশি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠায় এই খাতের টিকে থাকাই শঙ্কার মুখে পড়ে যায়। গত এক বছরে ১৫টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে প্রায় অর্ধশত মামলা হয়েছে। এসব মামলায় ইভ্যালি, কিউ কম, ই-অরেঞ্জের মালিকসহ বিভিন্ন সময় ৩৬ জন গ্রেপ্তার হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ছাড়া সিরাজগঞ্জ শপ, দালাল প্লাসসহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের মালিক এখনো পলাতক। ই-কমার্সে খাতে শৃঙ্খলা আনতে গত জুলাইয়ে ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা জারি করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। কিন্তু এরপরেও গেটওয়েতে টাকা আটকে থাকা নিয়ে জটিলতায় পড়েন গ্রাহকেরা। এমন অবস্থায় এ বছর ই-কমার্সে কেনাকাটায় গ্রাহকেরা আগ্রহী হবে কি-না তা নিয়ে সংশয়ে ছিল প্রতিষ্ঠানগুলো। তা ছাড়া এবার দোকান পাট খোলা থাকার কারণেও ই-কমার্সে কেনাকাটা কমার আশঙ্কা ছিল ৷ কিন্তু ই-ক্যাব বলছে দোকান পাট খোলা থাকায় কিছু প্রতিষ্ঠানের বিক্রি কমলেও সামগ্রিকভাবে কোনো নেতিবাচক প্রভাব পড়েনি।

 ই-ক্যাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াহেদ তমাল বলেন, ঈদের সময় এবার ই-কমার্স সেক্টরে প্রায় ৪৫ থেকে ৫০ শতাংশের মতো কেনাকাটা বেড়েছে। রোজার শেষের দিনগুলোতে সাড়ে চার লাখ ইউনিটের বেশি বিক্রি হয়েছে। তবে ঈদে বিক্রি বৃদ্ধির কথা মানতে চাইলেন না ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আজকের ডিলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহিম মাশরুর। তিনি বলেন, গতবারের চেয়ে এবার ২০ থেকে ৩০ শতাংশ বিক্রি কমেছে। দোকান পাট খোলা থাকার কারণে এটা হতে পারে।

ই-ক্যাব মহাব্যবস্থাপক জাহাঙ্গীর আলম শোভন বলেন, কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের বিক্রি হয়তো কমেছে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে সামগ্রিক বিক্রি কমেছে। এমন অনেক ব্র্যান্ডই এবার অনলাইনে বেচাকেনা করেছে, যারা গত বছর এই খাতে ছিল না। ফেসবুক পেজও বেড়েছে। তাই সব মিলিয়ে এবার বিক্রিটা বেশি হয়েছে।


আরও খবর



মৌলভীবাজারে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মৌলভীবাজার বড়লেখায় শ্যামলী পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাস চাপায় ফখরুল ইসলাম (২৮) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (৯ মে) রাত ৮ টায় কুলাউড়া-চান্দগ্রাম আঞ্চলিক মহাসড়কের বড়লেখার কাঠালতলী ব্র্যাক অফিসের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করেছে। এদিকে চালকসহ যাত্রীবাহী বাসকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত ফখরুল উপজেলার উত্তর গাংকুল গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় ফখরুল ইসলাম বড়লেখা থেকে মোটরসাইকেলে করে রতুলি বাজারে ফিরছিলেন। কাঠালতলী ব্র্যাক অফিসের সামনের রাস্তায় আসা মাত্র বিপরীত দিক ঢাকা থেকে বিয়ানীবাজারগামী শ্যামলী পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস তাকে চাপা দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা গুরুতর অবস্থায় আহত ফখরুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বড়লেখা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার জানান, শ্যামলী পরিবহনের বাস ও চালককে আটক করা হয়েছে।


আরও খবর



কৃষ্ণ সাগরে রাশিয়ার দুই জাহাজে ইউক্রেনের ড্রোন হামলা

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ০২ মে 2০২2 | ৫৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইউক্রেনের সেনাবাহিনী প্রধান জানিয়েছেন, ড্রোন হামলা চালিয়ে কৃষ্ণ সাগরে রাশিয়ার দুটি টহল জাহাজ ধ্বংস করেছে ইউক্রেনীয় বাহিনী।

সেনাপ্রধান চিফ অব জেনারেল স্টাফ ভেলারি জুলুঝিনি এমন দাবি করে বলেন, রাশিয়ার দুটি র‌্যাপ্টোর ক্লাস জাহাজ আজ (সোমবার) ভোরে স্ন্যাক আইল্যান্ডের কাছে ধ্বংস করা হয়েছে। এই ড্রোন হামলার একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনী। তবে ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি গণমাধ্যমগুলো।

ইউক্রেনের প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, কৃষ্ণ সাগরে টহলরত রাশিয়ার দুটি টহল জাহাজ লক্ষ্য করে আকাশ থেকে হামলা চালানো হচ্ছে। এই হামলায় ড্রোনের মাধ্যমে মিসাইল ছুড়তে দেখা যায়।এদিকে ইউক্রেনের হামলায় নিজেদের জাহাজ ধ্বংস হওয়ার বিষয়টি নিয়ে এখনো কোনো কিছু জানায়নি রাশিয়া।

এর আগে ইউক্রেনের ছোড়া নেপচুন মিসাইলে রাশিয়ার বিশাল যুদ্ধ জাহাজ মস্কভা কৃষ্ণ সাগরের অতল গভীরে তলিয়ে গিয়েছিল। যদিও রাশিয়ার পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল জাহাজে আগুন লাগে। এরফলে সেখানে বিস্ফোরণ হয়ে জাহাজটি ক্ষতিগস্ত হয়ে ডুবে যায়।


আরও খবর



জিআই সনদ পেল বাংলাদেশের বাগদা চিংড়ি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জিআই সনদ (ভৌগলিক নির্দেশক পণ্যের স্বীকৃতি) পেয়েছে বাংলাদেশের বাগদা চিংড়ি। শিল্প মন্ত্রণালয়ের পেটেন্ট, ডিজাইন ও ট্রেডমার্কস অধিদপ্তরের রেজিস্ট্রার জনেন্দ্র নাথ সরকার স্বাক্ষরিত ভৌগলিক নির্দেশক নিবন্ধন সনদে ‌বাংলাদেশের বাগদা চিংড়িকে এ স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

সম্প্রতি দেওয়া এই স্বীকৃতি সনদে বলা হয়েছে, প্রত্যায়ন করা যাচ্ছে যে, ভৌগলিক নির্দেশক নিবন্ধন বইতে মৎস্য অধিদপ্তরের নামে ২৯ ও ৩১ শ্রেণিতে জিআই-১১ নম্বরে বাংলাদেশের বাগদা চিংড়ি পণ্যের জন্য ০৪.০৭.২০১৯ থেকে নিবন্ধিত হলো।

জানা গেছে, ২০১৯ সালের মে মাসে বাগদা চিংড়ির জিআই সনদ পেতে আবেদন করেছিল বাংলাদেশ। গত বছরের ৬ অক্টোবর গেজেট এবং আন্তর্জাতিক জার্নালে বিষয়টি প্রকাশ করে ডিজাইন ও ট্রেডমার্কস বিভাগ। নিয়ম অনুযায়ী, জার্নালে প্রকাশের দুই মাসের মধ্যে কেউ আপত্তি না করলে সেই পণ্যের জিআই সনদ পেতে আর কোনো বাধা থাকে না। গত বছরের ৬ ডিসেম্বর ছিল এ বিষয়ে আপত্তি দেওয়ার শেষ দিন। এই সময়ের মধ্যে অন্য কোনো দেশ এতে আপত্তি না করায় প্রথম আবেদনকারী হিসেবে বাংলাদেশ জিআই সনদ পেয়ে যায়। ফলে বাগদা চিংড়ির একক স্বত্ব এখন শুধুই বাংলাদেশের।

উল্লেখ্য, কোনো একটি স্থানের মাটি, পানি, আবহাওয়া, জলবায়ু এবং ওই স্থানের জনগোষ্ঠীর সংস্কৃতি যদি কোনো একটি অনন্য গুণমানসম্পন্ন পণ্য উৎপাদনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে, তাহলে সেটিকে জিআই হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়। একই গুণমানসম্পন্ন সেই পণ্য ওই এলাকা ছাড়া অন্য কোথাও উৎপাদন করা সম্ভব নয়।

দেশে প্রথম জিআই সনদ পায় জামদানি। পরে ঢাকাই মসলিন, রাজশাহীর সিল্ক, রংপুরের শতরঞ্জি, নেত্রকোনার সাদামাটি, দিনাজপুরের কাটারিভোগ, কালিজিরা চাল, ইলিশ ও চাঁপাইনবাবগঞ্জের খিরসাপাত আম জিআই পণ্যের স্বীকৃতি পায়। এসব পণ্য বাংলাদেশের নিজস্ব পণ্য হিসেবে সারা বিশ্বে পরিচিতি পেয়েছে।


আরও খবর