আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম

জামিনে কারামুক্ত সম্রাট

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ৫৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট জামিনে মুক্ত হয়েছেন। এসময় তার পাহারায় থাকা কারারক্ষীদের সরিয়ে নেওয়া হয়। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তাকে জামিনে মুক্ত করা হয়।

বুধবার (১১ মে) বিকেলে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের (কেরানীগঞ্জ) জেলার মাহবুবুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে কারা কর্মকর্তা জামিনের কাগজ নিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সিসিইউতে চিকিৎসাধীন থাকা সম্রাটের কাছে নিয়ম-কানুন মেনে তাকে জামিনে মুক্ত করেন।

এর আগে আজই অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলায় ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬-এর বিচারক আল আসাদ মো. আসিফুজ্জামান শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করেন।

তার আইনজীবী মাহবুবুল আলম দুলাল গণমাধ্যমকে জানান, সম্রাটের বিরুদ্ধে মোট চারটি মামলা করা হয়। অস্ত্র, মাদক ও অর্থপাচারের মামলায় ইতোমধ্যে জামিন পেয়েছেন তিনি। কারাগারে ছিলেন দুদকের মামলায়।

১৯৫ কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে সম্রাটের বিরুদ্ধে মানিলন্ডারিং আইনে একটি মামলা করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি। সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম বিভাগের উপপরিদর্শক রাশেদুর রহমান বাদী হয়ে রাজধানীর রমনা থানায় এই মামলা (মামলা নম্বর ১৪) করেন। সম্রাট তার সহযোগী এনামুল হক আরমানের মাধ্যমে ১৯৫ কোটি টাকা সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ায় পাচার করেছেন বলে মামলায় অভিযোগ আনা হয়েছে। সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার জিসানুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সিআইডি কর্মকর্তারা জানান, ২০১১ সালের ২৭ ডিসেম্বর থেকে ২০১৯ সালের ৯ আগস্ট পর্যন্ত সম্রাট সিঙ্গাপুরে ৩৫ বার, মালয়েশিয়ায় তিনবার, দুবাইতে দুবার এবং হংকংয়ে একবার ভ্রমণ করেছেন। এছাড়া তার সহযোগী এনামুল হক আরমান ২০১১ সালের ১২ ডিসেম্বর থেকে ২০১৯ সালের ১৮ মে পর্যন্ত সিঙ্গাপুরে ২৩ বার ভ্রমণ করেছেন। সম্রাট ও আরমান অবৈধ অর্থ দিয়ে যৌথভাবে সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন।

৬ অক্টোবর ভোরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রামে আত্মগোপনে থাকা সম্রাটকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার সঙ্গে আরমানকেও গ্রেপ্তার করা হয়। পরে ঢাকায় এনে তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদও করে র‌্যাব।

৬ অক্টোবর দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্ব একটি দল কাকরাইলে ভূঁইয়া ট্রেড সেন্টারে সম্রাটের কার্যালয়ে অভিযান শুরু করে। এদিন নিজ কার্যালয়ে পশুর চামড়া রাখার দায়ে তার ছয় মাসের জেল দিয়ে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম। এরপর সম্রাটকে কারাগারে পাঠানো হয়।


আরও খবর



প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান, ছাত্রীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ | ৪০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেওয়ায় পাবনার সুজানগর উপজেলার সাতবাড়িয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে প্রকাশ্যে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম করেছে এক বখাটে। বুধবার বিকাল ৪টার দিকে মেয়েটি স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে সাতবাড়িয়া কলেজের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলাউদ্দিন বাদী হয়ে বখাটে মো.ফাহাদ মোল্লাকে আসামি করে সুজানগর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। অভিযুক্ত বখাটে মো. ফাহাদ মোল্লা (১৭) সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের ফকিৎপুর গ্রামের মো. ফারুক মোল্লার ছেলে। 

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত ওই স্কুলছাত্রী জানায়, বখাটে মো. ফাহাদ মোল্লা প্রায়ই প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে তাকে উত্ত্যক্ত করে আসছিলো।  ওই প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় বখাটে ফাহাদ তার প্রতি ক্ষিপ্ত ছিল। 

বুধবার ওই ছাত্রী বান্ধবীদের সঙ্গে বিদ্যালয় ছুটির পর বাড়ি যাওয়ার পথে সাতবাড়িয়া কলেজের সামনে বখাটে মো. ফাহাদ মোল্লা তার গতিরোধ করে আবারও প্রেমের প্রস্তাব দেয়। 

এতে সাড়া না দেওয়ায় তাকে টেনে-হিঁচড়ে হাতুড়ি দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে পিটিয়ে জখম করে। এ সময় তার চিৎকারে বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে   আহত স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে সুজানগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।  

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. ফারজানা আক্তার বলেন, আঘাত গুরুতর হওয়ায় স্কুলছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। 

সুজানগর থানার ওসি আব্দুল হাননান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় মামলা হওয়ার পরপরই অভিযুক্ত বখাটে মো.ফাহাদ মোল্লাকে গ্রেফতার করতে পুলিশ  অভিযান শুরু করেছে।


আরও খবর



৪৬৫ রানে থামল বাংলাদেশ, বড় করতে পারেনি লিড

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ২৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কাসুন রাজিথার বাউন্সারে দশ নম্বর ব্যাটার শরিফুল ইসলাম মাটিতে পড়ে গেলেন। আহত হয়ে অবসরে গেলেন তিনি। তাতেই শেষ হলো বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস। ৪৬৫ রানে থামলো টাইগাররা। চট্টগ্রাম টেস্টে প্রথম ইনিংসে ৩৯৭ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। ফলে বাংলাদেশের লিড দাঁড়িয়েছে ৬৮ রানের। পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিনের তৃতীয় সেশনে দ্বিতীয়বার ব্যাটিংয়ে নেমেছে লঙ্কানরা।

এর আগে বাংলাদেশের ইনিংসকে টেনে নিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। ভীষণ ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছেন তিনি। তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের ধীরতম সেঞ্চুরি। তিন অংকের ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করতে মুশফিকুর রহিম বাউন্ডারি হাঁকান মাত্র চারটি।

অবশেষে মুশফিকের ধৈর্যচ্যুতি ঘটে ২৮২ বল খেলে। ব্যক্তিগত ১০৫ রানে এম্বুলদেনিয়াকে সুইপ করতে গিয়ে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন ডানহাতি এই ব্যাটার।

তার আগে খুব কাছে এসে সেঞ্চুরি মিস করেন লিটন দাস। মধ্যাহ্ন বিরতির পর কাসুন রাজিথার প্রথম বলেই শরীরের বাইরে খেলতে গিয়ে উইকেটরক্ষকের ক্যাচ হন তিনি। ১৮৯ বলে ১০ বাউন্ডারিতে ৮৮ রান করে সাজঘরের পথ ধরেন উইকেটরক্ষক এই ব্যাটার।

এরপর ক্রিজে আসেন আগের দিন ১৩৩ রানে আহত অবসরে যাওয়া তামিম ইকবাল। সুযোগ ছিল তারও ইনিংসটা বড় করার। কিন্তু রাজিথার পরের বলেই বোল্ড হয়ে যান তামিম। টানা দুই বলে দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বাংলাদেশ। সেখান থেকে ১২ ওভারের মতো কাটিয়ে ৩৬ রান যোগ করেন সাকিব-মুশফিক।

সাকিব স্বাচ্ছন্দ্যেই এগিয়ে যাচ্ছিলেন। ইনিংসের ১৪৫তম ওভারে আসিথা ফার্নান্ডোর একটি বাউন্সার আঘাত করে তার হেলমেটে। ফার্নান্ডোর পরের ওভারেই আউট হয়ে যান সাকিব।

ফার্নান্ডোর আরেকটি বাউন্সার কাঁধ সমান উচ্চতায় উঠলে ব্যাট চালিয়ে দেন সাকিব (২৫)। লেগ সাইড দিয়ে বেরিয়ে যাওয়া বলে ক্যাচটি গ্লাভসবন্দী করেন লঙ্কান উইকেটরক্ষক ডিকভেলা।

এর আগে পাঁচ হাজার রানের মাইলফলক ছুঁতে বেশি সময় নেননি মুশফিকুর রহিম। দিনের ১৬তম ওভারেই দেশের প্রথম ব্যাটার হিসেবে করে ফেলেছেন টেস্ট ক্রিকেটে ৫ হাজার রান।

আগেরদিন করা ৩ উইকেটে ৩১৮ রান নিয়ে আজকের খেলা শুরু করেছিল বাংলাদেশ। প্রথম সেশনে ২৭ ওভার খেলে অবিচ্ছিন্ন থেকেই মুশফিক-লিটন যোগ করেছেন ৬৭ রান। এ দুজনের চতুর্থ উইকেট জুটির সংগ্রহ ১৬৫ রান। যা টেস্ট ক্রিকেটে চতুর্থ উইকেটে বাংলাদেশের পঞ্চম সর্বোচ্চ।

পাঁচ হাজারি ক্লাবের সামনে দাঁড়িয়ে মুশফিক আজ দিনের শুরুতে খানিক সময় নেন। অন্য প্রান্তে লিটন ছিলেন সাবলীল। দিনের দ্বিতীয় বলে তার ব্যাট থেকে আসে প্রথম চার। মুশফিককে প্রথম বাউন্ডারির জন্য সপ্তম ওভার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়। নিয়ন্ত্রিত সুইপে চার মেরে মাইলফলকের কাছাকাছি পৌঁছান তিনি।

পরে কাসুন রাজিথার করা দিনের ১৬তম ও ইনিংসের ১২৩তম ওভারে ফাইন লেগ থেকে দুই রান নিয়ে মুশফিক প্রবেশ করেন পাঁচ হাজারি ক্লাবে। যা করতে তার লাগলো ৮১ টেস্টের ১৪৯ ইনিংস। বিশ্বের ৯৯তম ব্যাটার হিসেবে মুশফিক এই ফরম্যাটে পাঁচ হাজার রান করলেন।

মাইলফলক ছোঁয়ার পরেও হাত খুলে খেলার চেষ্টা দেখা যায়নি মুশফিকের মধ্যে, লিটনও খেলতে থাকেন দেখেশুনে। যে কারণে প্রথম সেশনে বাংলাদেশ ওভারপ্রতি আড়াই রানের বেশি করতে পারেনি।


আরও খবর



রাজধানীতে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় যুবক নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | ৩৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী শনিরআখড়া পেট্রোল পাম্পের পাশে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় আনোয়ারুল আলম অভি (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (১২ মে) রাত সাড়ে ১০টার দিকে শনিরআখড়া পেট্রোল পাম্পের পাশের রাস্তায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত অভির গ্রামের বাড়ি নারায়নগঞ্জের বন্দর থানায়। বাবার নাম আবুল কালাম আজাদ। বর্তমানে তিনি যাত্রাবাড়ি শনিরআখড়া পলাশপুরে পরিবার নিয়ে থাকতেন। তিনি একটি ইন্সুরেন্স কোম্পানিতে চাকরি করতেন।

নিহতের বন্ধু রাশিদুর রহমান পাপ্পু জানান, অফিস থেকে রাতে অভির কক্সবাজার যাওয়ার কথা ছিলো। বাসা থেকে বের হয়ে তিনি শনিরআখড়া পেট্রোল পাম্পের সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি প্রাইভেটকার তাকে ধাক্কা মেরে পালিয়ে যায়। এতে অভি গুরুতর আহত হন। পরে আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক রাত সাড়ে ১১টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।


আরও খবর



রাশিয়ার হুমকি উপেক্ষা করে নেটোতে ফিনল্যান্ড, সুইডেন

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ২২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাশিয়ার হুমকি উপেক্ষা করে নেটোতে যোগ দিল ইউরোপের দুই দেশ ফিনল্যান্ড এবং সুইডেন। নেটো প্রধান জেন্স স্টোল্টেনবার্গের হাতে বুধবার আবেদনপত্র তুলে দেন দুই দেশের রাষ্ট্রদূত। এই সিদ্ধান্তকে ঐতিহাসিক পদক্ষেপ বলে বর্ণনা করেন নেটো প্রধান।

তবে নেটো সদস্য তুরস্ক এই যোগদানের বিরোধিতা করেছে। তাদের অভিযোগ প্রতিবেশী এই দুই দেশ তুরস্কের বিদ্রোহী গোষ্ঠীকে আশ্রয় দিচ্ছে। যদিও নেটো প্রধান বলেছেন, সদস্য দেশগুলির নিরাপত্তার স্বার্থে আমাদের এক সঙ্গে কাজ করতে হবে এবং এই কাজ করতে গিয়ে অনেক সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে। তবে সেগুলিও সমাধান করতে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

নেটোর বহর বাড়ার আত্মবিশ্বাসী স্টোল্টেনবার্গ জানিয়েছেন, নেটোকে আরও মজবুত করতে সব সদস্য দেশই সহমত পোষণ করেছে। তবে তুরস্কের আপত্তির বিষয়টি নিয়ে সদস্য দেশগুলি আশাপ্রকাশ করেছে যে, খুব দ্রুত এই সমস্যাও কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হবে।

ইউক্রেনের পর পরই যখন ফিনল্যান্ড এবং সুইডেন নেটোতে যোগদানের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছিল, মস্কো হুমকি দিয়েছিল এর ফল ভুগতে হবে। ইউক্রেনের মতো পরিস্থিতি হতে পারে বলেও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সানা মারিন জানিয়ে দিয়েছিলেন, রাশিয়ার হুমকিতে তাঁরা ভয় পান না। এমনকি পরমাণু হুমকিতেও নয়।

গত ৯ মে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন হুমকি দিয়েছিলেন, সদস্য বাড়ানোর কাজ বন্ধ করুক নেটো। এমনকি হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, এই দুই দেশ যদি নেটোতে যোগ দেয়, তা হলে সামরিক এবং প্রযুক্তিগত দিক থেকে উপযুক্ত জবাব দেওয়া হবে। তার মধ্যেই ফিনল্যান্ড এবং সুইডেনের আকাশসীমায় রুশ সামরিক বিমান উড়তে দেখা যায়। তার পরই জল্পনা শুরু হয়, তা হলে কি এ বার ফিনল্যান্ড এবং সুইডেনেও সামরিক অভিযানেকর ছক কষছে রাশিয়া।


আরও খবর



দুর্ঘটনা নয়, গুলিতে বেশি মারা যাচ্ছে মার্কিন শিশুরা

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | ৪৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

যুক্তরাষ্ট্রে শিশু ও কিশোরীদের মৃত্যুর প্রধান কারণ হয়ে উঠেছে আগ্নেয়াস্ত্র। এ নিয়ে ২০২০ সালে প্রথমবারের মতো মৃত্যুর শীর্ষ কারণ হিসেবে গোলাগুলি গাড়ি দুর্ঘটনাকে ছাড়িয়ে গেছে। নতুন একটি গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে। খবর বিবিসি।

ইউএস সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) থেকে পাওয়া তথ্য অনুসারে, ২০২০ সালে ৪ হাজার ৩০০ জনেরও বেশি তরুণ আগ্নেয়াস্ত্র-সংক্রান্ত আঘাতে মারা গেছে। যদিও আত্মহত্যা এ সংখ্যা বাড়িয়ে তুলতে অবদান রেখেছে। তবে বন্দুক-সংক্রান্ত মৃত্যুর ঘটনাগুলোর মধ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠ হলো হত্যাকাণ্ড। যুক্তরাষ্ট্রের বেসামরিক নাগরিকদের মালিকানায় ৩৯ কোটিরও বেশি আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে।

সম্প্রতি নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল মেডিসিনে প্রকাশিত গবেষণা অনুসারে, ১ থেকে ১৯ বছর বয়সী মার্কিন নাগরিকদের মধ্যে বন্দুক-সংক্রান্ত মৃত্যু দেশব্যাপী মোট আগ্নেয়াস্ত্র হত্যার ৩৩ দশমিক ৪ শতাংশ ছিল। উল্লিখিত সময়ে আগ্নেয়াস্ত্র-সংক্রান্ত আত্মহত্যার হার ১ দশমিক ১ শতাংশ বেড়েছে। এ সময়ে শিশু ও কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে আত্মহত্যা, খুন, অনিচ্ছাকৃত, অনির্ধারিত হত্যাসহ সামগ্রিক বন্দুক-সংক্রান্ত মৃত্যুহার ২৯ দশমিক ৫ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। এ হার পুরো জনসংখ্যার বন্দুক-সংক্রান্ত মৃত্যুর দ্বিগুণেরও বেশি।

গবেষণাপত্রটিতে বলা হয়েছে, আমরা আমাদের শিশু-কিশোরদের মৃত্যুর প্রতিরোধযোগ্য কারণ থেকে রক্ষা করতে ব্যর্থ হচ্ছি। ২০২০ সালে আগের বছরের তুলনায় প্রতি এক লাখ বাসিন্দার মধ্যে বন্দুকজনিত মৃত্যুর হার পুরুষ ও নারী এবং জতিগত গোষ্ঠীগুলোর মধ্যে বেড়েছে। কৃষ্ণাঙ্গদের মধ্যে এ হার সবচেয়ে বেশি বেড়েছে। বিগত বছরগুলোয় তরুণ মার্কিন নাগরিকদের মধ্যে মৃত্যুর প্রধান কারণ ছিল গাড়ি দুর্ঘটনা। দ্বিতীয় শীর্ষ কারণ ছিল বন্দুকজনিত মৃত্যু। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে গাড়ি দুর্ঘটনা-সংক্রান্ত মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে। ২০২০ সালে ১৯ বছরের কম বয়সী প্রায় ৩ হাজার ৯০০ জন মার্কিন নাগরিক গাড়ি দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে।

২০২০ সালে অতিরিক্ত মাত্রায় মাদক ও বিষক্রিয়ার মৃত্যুর ঘটনা আগের বছরের তুলনায় ৮৩ দশমিক ৬ শতাংশ বেড়েছে। এটি এখন ১৯ বছরের কম বয়সীদের মৃত্যুর তৃতীয় প্রধান কারণ। চলতি মাসের শুরুতে প্রকাশিত পৃথক একটি গবেষণায় দেখা গেছে, ২০২০ সালে মাদকের মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহারে ৯৫৪ জন যুবক মারা গিয়েছে। ২০১৯ সালে এ সংখ্যা ছিল ৪৯২। ২০২০ সালের প্রথম দিকে কভিড-১৯ মহামারী শুরুর পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুক-সংক্রান্ত সহিংসতা বেড়েছে।

নিউজ ট্যাগ: যুক্তরাষ্ট্র

আরও খবর