আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

জাতীয় প্রেসক্লাবে রাজনৈতিক সমাবেশ-কর্মসূচি বন্ধ

প্রকাশিত:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | ৪৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জাতীয় প্রেসক্লাবে রাজনৈতিক সমাবেশ ও কর্মসূচির বন্ধ ঘোষণা করেছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। বুধবার (১৩ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিনের সভাপতিত্ব ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় গত ১০ অক্টোবর ক্লাব প্রাঙ্গণে সংগঠিত বিশৃঙ্খল ও অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাবলি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক মঈনুল আলমের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

এতে বলা হয়, কমিটি ক্লাব ও সদস্যদের স্বার্থে ক্লাবে শৃঙ্খলা ও নিয়মানুবর্তিতা বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর। যেকোনো মূল্যে ক্লাবের স্বার্থ, মর্যাদা সমুন্নত রাখা হবে। ক্লাবের বিভিন্ন হল ও মিলনায়তন ভাড়া প্রদানের ক্ষেত্রে নির্ধারিত নিয়মাবলী ও শর্ত আবশ্যিকভাবে পালন করা হবে।

আলোচনা সভা, সেমিনারের নামে কোনো দলের রাজনৈতিক কর্মসূচি, সমাবেশ করতে দেওয়া হবে না। সভায় জেহাদ স্মৃতি পরিষদ, জিয়া পরিষদসহ যেকোনো দলের রাজনৈতিক সমাবেশ ও কর্মসূচি ভবিষ্যতে বন্ধ থাকবে বলে সর্বসম্মতভাবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

আরও বলা হয়, ইতোপূর্বে এসব সংগঠনের কর্মসূচির ফলে ক্লাবে বিশৃঙ্খলা ও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। যার ফলে ঐতিহ্যবাহী প্রেস ক্লাবের সুনাম ও মর্যাদা ক্ষুণ্ন হয়। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে অবহিত করা হচ্ছে এবং সার্বিক সহযোগিতা কামনা করা হচ্ছে।


আরও খবর
বিএফইউজে নির্বাচন আজ

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলায় রেলওয়ের কর্মচারী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | ৬২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কিশোরগঞ্জ রেলস্টেশনের রেস্টহাউসে পঞ্চম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় একমাত্র অভিযুক্ত মাহমুদুল হাসান সাগরকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব।

শুক্রবার (৮ অক্টোবর) ভোরে নেত্রকোনার বারহাট্টা উপজেলার ঝাউয়াইল গ্রামে রাতভর অভিযান চালিয়ে সাগরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অভিযুক্ত সাগর শহরের পূর্ব তারাপাশা এলাকার আবদুল জলিলের ছেলে। তিনি কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের দ্বিতীয় তলায় রেলওয়ে রেস্টহাউজের কেয়ারটেকার ছিলেন।

র‌্যাব-১৪ কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের অধিনায়ক লে. কমান্ডার এম শোভন খান জানান, গত ২০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যার পর বন্ধুর জন্মদিনের কথা বলে পঞ্চম শ্রেণির ওই স্কুলছাত্রীকে রেলওয়ের প্রথম শ্রেণির রেস্টহাউজে নিয়ে যায় রেলওয়ের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী সাগর। এরপর জোরপূর্বক ওই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়। তার চিৎকার শুনে পুলিশ ও আশপাশের লোকজন ছুটে গেলে কক্ষের জানলার গ্লাস খুলে পালিয়ে যায় সাগর।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় মেয়েটির বড় ভাই বাদী হয়ে ওই দিনই কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে থানায় একটি মামলা করেন। গ্রেপ্তার সাগরকে জিআরপি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।


আরও খবর



অভিনেতা ড. ইনামুল হক আর নেই

প্রকাশিত:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | ৩৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

একুশে পদক ও স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্ত প্রখ্যাত নাট্যকার, অভিনেতা, লেখক, শিক্ষক ড. ইনামুল হক (৭৮) আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

আজ সোমবার বিকেল আনুমানিক সোয়া ৩টার দিকে রাজধানীর বেইলি রোডের বাসভবনে ড. ইনামুল হকের মৃত্যু হয়। এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন তাঁর মেয়ে অভিনেত্রী-পরিচালক হৃদি হক।

পরে হৃদি হকের বন্ধু তানজিকা আমিন বলেন, উনি সুস্থ ছিলেন; বাসায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। উনাকে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছিল।

ইনামুল হকের জন্ম ফেনীর এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি রসায়নে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। দীর্ঘকাল বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে রসায়ন বিভাগের শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছেন।

১৯৬৯ সালের গণঅভ্যুত্থানে জনগণকে উদ্ধুদ্ধ করার প্রয়াসে বিভিন্ন আন্দোলনমুখী নাটকে অংশগ্রহণ করেন। ১৯৭০ সালে আইয়ুব খানের রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে তৎকালীন অসহযোগ আন্দোলনে অংশ নেন নাট্যচর্চাকে হাতিয়ার করে। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ সৃজনীর ব্যানারে পাকিস্তান সরকারের বিরুদ্ধে ট্রাকে ট্রাকে ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থানে পথনাটক করেন।

ব্যক্তিজীবনে ড. ইনামুল হকের দাম্পত্য সঙ্গী বরেণ্য নাট্যজন লাকী ইনাম। তাঁদের সংসারে দুই মেয়ে হৃদি হক (স্বামী লিটু আনাম) ও প্রৈতি হক (স্বামী সাজু খাদেম)।

ড. ইনামুল হক ২০০২ সালে একুশে পদক এবং ২০১৭ সালে স্বাধীনতা পুরস্কার লাভ করেন।


আরও খবর
গাছের সঙ্গে বিয়ে হবে নয়নতারার

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




১৬ বছরের হোল্ডিং ট্যাক্স বাকি বাফুফের

প্রকাশিত:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | ৪৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বকেয়া গৃহকর (হোল্ডিং ট্যাক্স) আদায়ে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ভবনে অভিযান চালিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ভ্রাম্যমাণ আদালত। সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে বাফুফে ভবনে এ অভিযান শুরু হয়ে চলে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

রাজস্ব আদায়ে পরিচালিত এ অভিযানের নেতৃত্ব দেন করপোরেশনের সম্পত্তি কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মুনিরুজ্জামান।

অভিযান চালিয়েও বকেয়া আদায় করতে পারেনি ডিএসসিসি। বাফুফে আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সময় নিয়েছে। এ জন্য তারা ভ্রাম্যমাণ আদালতের কাছে লিখিত অঙ্গীকার করেছে।

বাফুফে আবেদনে বলেছে, ডিএসসিসির প্রাপ্য বকেয়া গৃহকরের মধ্যে ১০ লাখ টাকা পরিশোধ করা হবে। অভিযানের শুরু থেকে দেনদরবার করতে থাকা বাফুফে কর্তারা দক্ষিণ সিটির ভ্রাম্যমাণ আদালতের অনড় মনোভাবে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে লিখিত এই প্রতিশ্রুতি দেন।

সেখানে উপস্থিত বাফুফে কর্তারা জানান, বাফুফের ব্যয়িত সব অর্থের দস্তখতকারী (সিগনেটরি) তিনজন। এর মধ্যে একজন দস্তখতকারী ঢাকার বাইরে অবস্থান করায় এই মুহূর্তে বকেয়া পরিশোধ করা সম্ভব হচ্ছে না। আমরা আগামী বৃহস্পতিবার ১০ লাখ টাকা দেবো। বাকি টাকা মেয়রের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে কিস্তি হিসেবে পরিশোধের সুযোগ চাইবো।

২০০৫-০৬ অর্থবছরের তৃতীয় কিস্তি থেকে ২০২১-২২ অর্থবছরের চতুর্থ কিস্তি পর্যন্ত বাফুফের কাছে গৃহকর বাবদ দক্ষিণ সিটির ১ কোটি ৫৩ লাখ টাকার বেশি পাওনা রয়েছে।

অভিযান প্রসঙ্গে করপোরেশনের সম্পত্তি কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মুনিরুজ্জামান বলেন, করপোরেশনের বকেয়া আদায়ের লক্ষ্যে পরিচালিত অভিযানের অংশ হিসেবে আজ আমরা বাফুফে ভবনে অভিযান পরিচালনা করেছি।

বাফুফের কাছে বিগত ১৬ বছরের গৃহকর বাবদ ১ কোটি ৫৩ লাখ ৯০৪ টাকা বকেয়া পাওনা রয়েছে। অভিযানকালে বাফুফে তাৎক্ষণিকভাবে সমুদয় বকেয়া পরিশোধ না করলেও আংশিক অর্থ এই সপ্তাহে পরিশোধ করা হবে মর্মে লিখিতভাবে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। বাকি অর্থ মেয়র মহোদয়ের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে পরিশোধ করা হবে বলে অবগত করেছেন।

করপোরেশনের প্রাপ্য বকেয়া পরিশোধ করতে গত ৬ জুন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রকে ক্রোকের নোটিশ প্রদান করা হয় এবং গত ১৩ সেপ্টেম্বর তাগিদ পত্র দেওয়া হয়।

অভিযানকালে অন্যান্যের মধ্যে করপোরেশনের অঞ্চল-২ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা সোয়ে মেন জো, করপোরেশনের উপ-প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা শাহজাহান আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



রিয়া চক্রবর্তীর ক্যারিয়ারে সাফল্যের নতুন অধ্যায় শুরু

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বলিউড অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর ক্যারিয়ারে সাফল্য নেই বললেই চলে। তিনি পরিচিতি পেয়েছেন মূলত অকাল প্রয়াত তারকা সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে প্রেমের সুবাদে। সুশান্তের রহস্যজনক মৃত্যুর পর অভিযোগের তীর যায় রিয়ার দিকেই। এরপর মাদক মামলায় জেলও খেটেছেন।

এসব কারণে রিয়াকে ঘিরে মানুষের মনে এখন বেশ আগ্রহ। তাই নতুন নতুন বিভিন্ন প্রজেক্টে কাজের প্রস্তাব পাচ্ছেন। সম্প্রতি তাকে জনপ্রিয় টিভি রিয়্যালিটি শো বিগ বসের জন্য প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। তবে তাকে যে পরিমাণ পারিশ্রমিক দেওয়ার কথা শোনা যাচ্ছে, তা রীতিমতো  এক ধরনের চমক ।

জানা গেছে, বিগ বস থেকে প্রতি সপ্তাহে ৩৫ লাখ রুপি দেওয়া হবে রিয়াকে। সম্প্রতি তিনি বিগ বসের সেট থেকেও নাকি ঘুরে এসেছেন। যদিও তিনি এখনো বিষয়টি নিয়ে কিছুই বলেননি। তবে সকলের ধারণা, এমন লোভনীয় প্রস্তাব কোনোভাবেই ফেরাবেন না রিয়া। তাই এবারের বিগ বসে তাকে দেখা যাবে, এটা প্রায় নিশ্চিত।

যাদের ঘিরে জনমনে চর্চা রয়েছে, বিগ বসে বিতর্কিত এমন তারকাদের অংশ নেয়ার জন্য প্রস্তাব দেওয়া হয়। রিয়ার আগে সুশান্তের প্রাক্তন প্রেমিকা অঙ্কিতা লোখান্ডেকেও প্রস্তাব দিয়েছিল বিগ বস কর্তৃপক্ষ। তার অংশগ্রহণ নিয়েও গুঞ্জন ছড়ায়। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে সেই গুঞ্জনের ইতি টানেন তিনি।

নিউজ ট্যাগ: রিয়া চক্রবর্তী

আরও খবর
গাছের সঙ্গে বিয়ে হবে নয়নতারার

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




দাম একটু বেশি তবে খাদ্য সংকট নেই : কৃষিমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৫ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৫ অক্টোবর ২০২১ | ৩৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, খাদ্যের দামের বিষয়টা আন্তর্জাতিক বাজারের ওপর নির্ভরশীল। খাদ্যের আন্তর্জাতিক বাজারমূল্য স্থানীয় বাজারের ওপর প্রভাব বিস্তার করে। এখন আশ্বিন কার্তিক মাস, এই সময়ে দেশে মঙ্গা শুরু হতো, কিন্তু আমরা মঙ্গা নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছি। খাদ্যের জন্য দেশে এখন আর হাহাকার নেই, খাদ্যের সংকট নেই, তবে খাবারের দাম একটু বেশি।

আজ শুক্রবার রাজধানীর খামারবাড়িতে বিশ্বখাদ্য দিবস উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ব খাদ্য সংস্থার বাংলাদেশে প্রতিনিধি মি. রবার্ট ডি. সিম্পসন। এতে সভাপতিত্ব করেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মেসবাহুল ইসলাম।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সময়ে একজন শ্রমিক কিংবা রিকশাওয়ালা একদিনের আয় দিয়ে ১০ থেকে ১২ কেজি চাল কিনতে পারেন। সেটা কিনতে পারেন বলেই দেশের মানুষের মধ্যে খাদ্য নিয়ে হাহাকার নেই, মানুষ না খেয়ে নেই। কুড়িগ্রাম নীলফামারী অঞ্চলের মানুষ এখন বলে, দেশে মঙ্গা নেই, আমরা ভালো আছি

তিনি বলেন, খাদ্যে বাংলাদেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ কিনা সেটা আমরা বলছি না, কিন্তু আমাদের দেশে খাদ্যের উৎপাদন বাড়ছে। চালের দাম একটু বেশি হলেও, চাল নিয়ে দেশে অস্থিরতা নেই।

পণ্যের দাম বাড়া নিয়ে মন্ত্রী বলেন, পণ্যের চাহিদা যদি বেশি হয় এবং সেই তুলনায় যদি সরবরাহ কম থাকে তাহলে পণ্যের দাম কিছুটা বাড়বেই। হাজার চেষ্টা করেও তখন দাম কমানো সম্ভব নয়। যেমন বর্তমানে আলুর দাম কম, এখন কি সিন্ডিকেট করে দাম বাড়ানো সম্ভব? তারপরও আমরা সরবরাহ বৃদ্ধি এবং মনিটরিংয়ের মাধ্যমে চেষ্টা করি বাজার নিয়ন্ত্রণ করতে। যারা ব্যবসা করেন তারা আরও বেশি মুনাফা করতে চাইবেন এটাই স্বাভাবিক। সারা পৃথিবীতেই এমন হয়।

একটা জিনিস আমাদের সবাইকে বিবেচনায় নিতে হবে, প্রতিবছর ২৪ লাখ জনসংখ্যা বাড়ছে। পৃথিবীর বহু দেশে ২৪ লাখ মানুষ নেই। আবার আমাদের কৃষি জমির পরিমাণ কমে যাচ্ছে। একই জমিতে শিল্প কলকারখানাও গড়ে তোলা হচ্ছে। দেশের উন্নয়নের ফলে মানুষের আয় বাড়ছে। জমি কমে যাওয়ার পরেও আমরা কিন্তু উৎপাদন বাড়িয়েছি। হাঁস-মুরগি-পশু পালন, মৎস্য চাষের ফলে খাদ্যের ব্যবহার ও চাহিদা বেড়েছে,- বলেন ড. আব্দুর রাজ্জাক।


আরও খবর