আজঃ শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

কাঠগড়ায় বসে মুঠোফোনে কথা বলেছেন ওসি প্রদীপ

প্রকাশিত:বুধবার ২৫ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৫ আগস্ট ২০২১ | ৬৫৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে ঘুরছে (ভাইরাল) একটি ছবি। তাতে দেখা যাচ্ছে, আদালতের কাঠগড়ায় বসে মুঠোফোনে কথা বলেছেন কক্সবাজারের টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি ও আলোচিত সিনহা হত্যা মামলার প্রধান আসামি প্রদীপ কুমার দাশ।

গতকাল সোমবার কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে সিনহা হত্যা মামলার সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ চলছিল। এ সময় কাঠগড়ায় হাজির ছিলেন প্রদীপসহ মামলার ১৫ জন আসামি। প্রদীপের পরনে ছিল কালো রঙের জামা। ছড়িয়ে পড়া ছবিতে তাঁকে কালো রঙের জামা পরে থাকতে দেখা যায়। তবে আজ মঙ্গলবার সাক্ষ্য গ্রহণের দ্বিতীয় দিন প্রদীপ আদালতে আসেন লাল রঙের জামা পরে। এ সময় তাঁকে কড়া নজরদারিতে রাখা হয়।

আগের দিন সাক্ষ্য গ্রহণের কোনো এক ফাঁকে আদালতের কাঠগড়ায় বসে প্রদীপ মুঠোফোনে কথা বলেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এসংক্রান্ত ছবিটি সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। একটি টেলিভিশন চ্যানেলেও ওই ছবি প্রচার করা হচ্ছে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, আদালত কক্ষের কাঠগড়ার ভেতরে হাঁটু গেড়ে বসে আছেন প্রদীপ। হাতে থাকা মুঠোফোনে কারও সঙ্গে তিনি কথা বলছিলেন। তাঁর মাথায় চুল নেই। ফলে ছবিটি যে প্রদীপের, তা স্পষ্টভাবে শনাক্ত করা যায়। ঘটনার সময় কয়েকজন ব্যক্তি তাঁর পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, মুঠোফোনে ওসি প্রদীপ লম্বা সময় কথা বলেন। সম্ভবত তিনি বেশ কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলেছিলেন। কথা বলার জন্য মুঠোফোনটি ওসি প্রদীপকে সরবরাহ করেন দায়িত্বরত একজন পুলিশ সদস্য।

ছড়িয়ে পড়া ছবিটির বিষয়ে আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (পিপি) ফরিদুল আলম বলেন, মুঠোফোনে কথা বলার ছবিটি আজকের (মঙ্গলবারের) নয়। তবে সাক্ষ্য গ্রহণের প্রথম দিনের (সোমবারের) হতে পারে। কে বা কারা এই ছবি তুলেছেন, তাও অজানা। মুঠোফোনে ওসি প্রদীপ কার সঙ্গে কথা বলেছেন, তা অনুসন্ধান করা জরুরি বলে মনে করেন এই আইনজীবী।

বিচার বিভাগীয় বাতায়নের দেওয়া আদালতের আচরণবিধির কথা উল্লেখ করে পিপি ফরিদুল আলম বলেন, আদালত চলাকালে বিচারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ছাড়া বাইরের লোকজনের প্রবেশ বন্ধ রাখা হয়েছে। এমনকি গণমাধ্যমকর্মীরাও আদালতে ভেতরে থাকার সুযোগ পাচ্ছেন না। সেখানে মুঠোফোন বন্ধ রাখার নির্দেশনাও রয়েছে।


আরও খবর



বিদেশ যেতে চাইলে খালেদাকে কারাগারে গিয়ে আবেদন করতে হবে : আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ২৮ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৮ আগস্ট ২০২১ | ৭৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে হলে কারাগারে গিয়ে নতুন করে আবেদন করতে হবে বলে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

তিনি বলেন, ফৌজদারি কার্যবিধির ৪০১ ধারা অনুযায়ী সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়ার বিদেশে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। সেক্ষেত্রে তাকে আবার কারাগারে যেতে হবে। এরপর নতুন করে আবেদন করতে হবে।

মন্ত্রী শনিবার (২৮ আগস্ট) রাজধানীতে সাংবাদিকদের নিয়ে আয়োজিত এক কর্মশালায় এসব কথা বলেন। ল’ রিপোর্টার্স ফোরাম ও এমআরডিআই-এর যৌথ উদ্যোগে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, যে আবেদনের প্রেক্ষিতে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার দণ্ড স্থগিত করে মুক্তি দেওয়া হয়েছে, সেই আলোকে তাকে বিদেশ যাওয়ার অনুমতি দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। ওই আবেদন নিষ্পত্তি হয়ে গেছে।

এদিকে, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ডেথ রেফারেন্স ও আপিল আবেদনের বিষয়ে হাইকোর্টে শুনানির জন্যে বেঞ্চ গঠনে অ্যাটর্নি জেনারেলকে পরামর্শ দিয়েছেন আইনমন্ত্রী।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে গ্রেনেড হামলায় হত্যাচেষ্টার মামলায় উচ্চ আদালতে আসামিরা পারেন্টস। আমি অ্যাটর্নি জেনারেলকে বলেছি, আসামিদের করা আপিলের বিষয়ে ১৫ সেপ্টেম্বর আদালতের অবকাশের আগেই বেঞ্চ নির্ধারণের জন্য আবেদন করতে।

ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একজন আরেকজনকে হেয় করে, অপদস্ত করে ভিডিও, ছবি ও স্ট্যাটাস শেয়ার করে। কাজেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োজন আছে। কিন্তু এ আইনের অপব্যবহার বন্ধে পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। গত তিনমাস লক্ষ্য করে দেখবেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপব্যবহার অনেকটাই কমে এসেছে।

কর্মশালায় আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান শাহীন, বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম, এমআরডিআই-এর নির্বাহী পরিচালক হাসিবুর রহমান মুকুল, ল রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি মাশহুদুল হক বক্তৃতা করেন।



আরও খবর



জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ফল প্রকাশ

প্রকাশিত:বুধবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
প্রথম মেধা তালিকায় স্থানপ্রাপ্ত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষের কোনো শিক্ষা কার্যক্রমে ভর্তি হয়ে থাকলে তাকে অবশ্যই ৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখের মধ্যে পূর্ববর্তী

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে ভর্তির ফল প্রকাশ করেছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে এ ফল প্রকাশ করা হয়।

ভর্তির ফল জানতে মোবাইল এসএমএস গিয়ে (nuathnroll no ক্যাপিট্যাল অক্ষরে টাইপ করে) ১৬২২২ নম্বরে সেন্ড করতে হবে। এর মাধ্যমে ফল পাওয়া যাবে। ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইটে রাত ৯টা থেকে ফল পাওয়া যাবে।

প্রথম মেধা তালিকায় স্থানপ্রাপ্ত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষের কোনো শিক্ষা কার্যক্রমে ভর্তি হয়ে থাকলে তাকে অবশ্যই ৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখের মধ্যে পূর্ববর্তী শিক্ষাবর্ষের ভর্তি বাতিল করে চূড়ান্ত ভর্তি ফরম উত্তোলন করতে হবে। ভর্তিসংক্রান্ত তথ্য জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে Prospectus (Honours)/Important Notice অপশন থেকে জানা যাবে।


আরও খবর
১৪ নভেম্বর থেকে দাখিল পরীক্ষা শুরু

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




বিজয় উদযাপনে কাবুলে নিহত ১৭

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পাঞ্জশির উপত্যকা নিজেদের দখলে নেওয়ার আনন্দে কাবুলের আকাশে গুলি ছুড়ে উদযাপন করেছে তালেবান যোদ্ধারা। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে ১৭ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে, আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৪১ জন।

শনিবার আফগান স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের বরাতে আল জাজিরা এ খবর জানিয়েছে। এ ঘটনার পর বাতাসে গুলি ছুড়ে বিজয়োল্লাস না করতে আহ্বান জানিয়েছেন তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ।

শুক্রবার রাতে তালেবানবিরোধীদের শেষ ঘাঁটি পাঞ্জশির প্রদেশ নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার দাবি করে তালেবান। এ খবরে কাবুলের বিভিন্ন স্থানে আকাশের দিকে গুলি ছুড়ে বিজয়োল্লাস করে সংগঠনটির যোদ্ধারা। এর পরপরই শহরের হাসপাতালগুলোতে দলে দলে গুলিবিদ্ধ মানুষ আসতে শুরু করেন।

শুক্রবার রাতেই বেশ কিছু ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক মাধ্যমে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, অ্যাম্বুল্যান্সে করে অনেককে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

হাসপাতালগুলো জানিয়েছে, তাদের কাছে এ পর্যন্ত আহত ৪১ জন চিকিৎসা নিয়েছেন। এছাড়া মরদেহ এসেছে ১৭টি।

তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ এক টুইটে বলেন, বাতাসে গুলি করা এড়িয়ে চলুন এবং এর পরিবর্তে আল্লাহকে ধন্যবাদ দিন। অস্ত্র-গোলাবারুদ আপনাদের হাতে, সেগুলো নষ্ট করার অধিকার কারো নেই। গুলিতে সাধারণ মানুষের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা বেশি, তাই অযথা গুলি করবেন না।


আরও খবর



শরীয়তপুরে হত্যা মামলা: ৪ জনের ফাঁসি, ৯ আসামির যাবজ্জীবন

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন— নুরুজ্জামান খান, জাহাঙ্গীর মাতবর, জুলহাস মাতবর ও চান মিয়া। একইসঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে

শরীয়তপুর সদর উপজেলার চিকন্দি সরফ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস ছামাদ আজাদ হত্যা মামলায় ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ৯ আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এই মামলার ৫ আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে। আজ বুধবার ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৩ এর  বিচারক মো. মনির কামাল এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন নুরুজ্জামান খান, জাহাঙ্গীর মাতবর, জুলহাস মাতবর ও চান মিয়া। একইসঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন আব্দুল হালিম মোল্লা, আজিজুল মাতবর, ফারুক খান, আজাহার মাতবর, মীজান মীর, আকতার গাজী, জলিল মাতবর, এমদাদ মাতবর ও লাল মিয়া। তাদেরও প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে৷ অনাদায়ে আরও ৬ মাস কারাভোগ করতে হবে।

এই মামলায় খালাস পেয়েছেন আজিবর বালী, আব্দুল খন্দকার, খোকন বেপারী, আজাহার মোল্লা ও ছোরাব মোল্লা।

নিউজ ট্যাগ: শরীয়তপুর

আরও খবর



বাবা-মার নামে মামলা করলেন বিজয়

প্রকাশিত:সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০21 | ৩৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতের দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা থালাপাতি বিজয় ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। এতে তার বাবা এসএ চন্দ্রশেখর ও মা শোভা চন্দ্রশেখরের নামও রয়েছে।

তামিলনাড়ু রাজ্যের মাদ্রাজ সিটি কোর্টে এই মামলা করেছেন তেলেগু সুপারস্টার। খবর ইন্ডিয়া টুডে।

বাবা-মাসহ তার সাবেক কর্মকর্তা যেন বিজয়ের নাম অথবা তার ফ্যান ক্লাবের নাম রাজনৈতিক দলে ব্যবহার করতে না পারেন, সে বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা চেয়েছেন বিজয়।

কয়েক মাস আগে বিজয় ও তার বাবা-মায়ের সঙ্গে বিবাদ-সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছিল। এই বিবাদের কারণ বিজয় ফ্যান অ্যাসোসিয়েশন নামে যে ফ্যান ক্লাব রয়েছে, সেটিকে রাজনৈতিক দলে রূপান্তর করেছেন তার বাবা-মা। আর সেই কারণে বাবা-মাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তিনি।

বিজয়ের বাবা এসএ চন্দ্রশেখর অল ইন্ডিয়া থালাপাতি বিজয় মাকল আইয়াকাম নামে একটি রাজনৈতিক দল প্রতিষ্ঠা করেছেন।

ভারতের নির্বাচন কমিশনের তথ্যমতে, দলটির কোষাধ্যক্ষ বিজয়ের মা শোভা চন্দ্রশেখর এবং সাধারণ সম্পাদক তার বাবা এসএ চন্দ্রশেখর। সবার ধারণা ছিল খুব শিগগির এই দলে যোগ দেবেন বিজয়ও। কিন্তু তা করেননি এই অভিনেতা।

বিজয়ের বাবা এস এ চন্দ্রশেখরের ভাষ্য, বিজয় বর্তমানে একটি বিষাক্ত চক্রের মধ্যে আটকে আছেন এবং তার সঙ্গে যেসব ব্যক্তি আছেন তারা বিজয়ের জনপ্রিয়তাকে ব্যক্তিগত সুবিধার জন্য ব্যবহার করছেন। তারাই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে দেখিয়েছেন যে বিজয়ের বাবা যা করছেন, তা অভিনেতার বিরুদ্ধে।

এর আগে ২০২০ সালের নভেম্বরে বিজয় একটি লিখিত বিবৃতি প্রকাশ করেন। সেখানে অভিনেতা বলেছিলেন, আমার বাবার দেওয়া রাজনৈতিক বিবৃতির সঙ্গে আমার প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ কোনো সম্পর্ক নেই। আমি আমার ভক্তদের অনুরোধ করছি, আমার বাবা যে পার্টি শুরু করেছেন তাতে যোগ দেবেন না। যদি কেউ আমার রাজনৈতিক আকাঙ্ক্ষার জন্য আমার ছবি, নাম বা আমার ফ্যান ক্লাবের অপব্যবহার করার চেষ্টা করেন, তবে আমি তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

নিউজ ট্যাগ: থালাপাতি বিজয়

আরও খবর
আক্রমণাত্মক মন্তব্যের শিকার নুসরাত

শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

হাইকোর্টে জামিন পেলেন মডেল মৌ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১