আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম

কিছুদিনের মধ্যে সব কিছুর দাম কমবে: বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কিছুদিনের মধ্যে সব কিছুর দাম কমে আসবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেন, তেল নিয়ে ব্যবসায়ীদের কারসাজি করতে দেওয়া হবে না। আমরা কঠোরভাবে বাজার মনিটরিং করছি।

শুক্রবার (১৩ মে) দুপুরে রংপুরের পীরগাছা উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

নম্র-ভদ্র নেতাকর্মীদের দলের জন্য এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, সৎ ও সততা নিয়ে আগামী দিনে পথ চলতে হবে। আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন শক্তিশালী করতে হবে। আগামী দিনের নেতৃত্বে প্রমাণিত হবে আসল নেতার পরিচয়।

এর আগে পীরগাছা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনের উদ্বোধন করেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম প্রামাণিক।

সম্মেলনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বাবু নির্মল রঞ্জন গুহ, সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু, সহ-সভাপতি কৃষিবিদ আব্দুস সালাম, সাংগঠনিক সম্পাদক নাফিউল করিম নাফা, আরিফুর রহমান টিটু, রংপুর জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ধনজিৎ ঘোষ তাপস, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



ঈদে ই-কমার্সে আড়াই হাজার কোটি টাকার কেনাকাটা

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | ৩৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রমজানের এক মাসে অনলাইনে কেনাকাটা গত বছরের চেয়ে বেড়েছে। কিছু ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিক্রি গত বছরের চেয়ে কমলেও সামগ্রিকভাবে এ বছর ডিজিটাল বাণিজ্যে বেচাকেনার পরিমাণ অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। দেশে ই-কমার্স ব্যবসায়ীদের সংগঠন ইক্যাব বলছে, এই ঈদে অনলাইনে সারা দেশে আড়াই হাজার কোটি টাকার বেশি পণ্য বিক্রি হয়েছে।

ই-ক্যাবের মহাব্যবস্থাপক জাহাঙ্গীর আলম শোভন বলেন, গত দু বছর দোকানপাট বন্ধ থাকায় এমনিতেই ই-কমার্স খাতে বিক্রি বেশি ছিল। এবার সবকিছু খুলে যাওয়ায় অনেকেই আশঙ্কা করেছিলেন, এ বছর ঈদে বেচাকেনা কমতে পারে। তবে এক মাসের হিসাব থেকে আমরা দেখলাম এবার সামগ্রিকভাবে বিক্রি বেড়েছে।

ই-ক্যাবের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, স্বাভাবিকভাবে দিনে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ও ফেসবুক পেজগুলোর মাধ্যমে দুই থেকে আড়াই লাখ ইউনিট পণ্য বিক্রি হয়। এবার রমজানের প্রথম তিন সপ্তাহে সেটা দৈনিক সাড়ে তিন লাখ ছাড়িয়ে যায়। আর শেষ ১০ দিনে সেটা সাড়ে চার লাখে পৌঁছায়। এসব পণ্যের গড় মূল্য দেড় হাজার থেকে ২ হাজার টাকা। সে হিসেবে এ বার ঈদে ডিজিটাল কমার্সে আড়াই হাজার কোটির বেশি বেচাকেনা হয়েছে। গত বছর এর পরিমাণ ছিল দেড় হাজার কোটি। সারা দেশের কুরিয়ার, লজিস্টিকস এবং ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ইক্যাব এই হিসাব করেছে বলে জানিয়েছে।

ই-ক্যাবের পরিচালক এবং উইএর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি নাসিমা আক্তার নিশা জানান, ই-কমার্স সেক্টরে ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তাদের পণ্যের বিক্রিও এবার বেড়েছে। ঈদকে কেন্দ্র করে গত এক মাসে নারী উদ্যোক্তাদের ৫ কোটি টাকার বেশি পণ্য বিক্রি হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। আজকের পত্রিকাকে নাসিমা আক্তার বলেন, আমরা যা আশা করেছিলাম ঈদের বেচাকেনা তার চেয়ে ভালো হয়েছে। আমাদের নারী উদ্যোক্তাদের কাঁচামাল সংগ্রহ করতে সমস্যার পড়তে হয়। এ বছর অনেক কাঁচামালের দামও বেড়েছে। তাই অনেক উদ্যোক্তাকে কিছুটা সমস্যায় পড়তে হয়েছে। তারপরও সামগ্রিকভাবে এবার বিক্রি ভালো।

গত দুবছর করোনার বিধিনিষেধের কারণে বড় সময় জুড়ে দোকানপাট বন্ধ থাকায় কেনাকাটার প্রধান মাধ্যম হয়ে পড়ে ই-কমার্স। করোনাকালে ৩০০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি দেখেছে এ খাত। তবে গত বছর ২০ টির বেশি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠায় এই খাতের টিকে থাকাই শঙ্কার মুখে পড়ে যায়। গত এক বছরে ১৫টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে প্রায় অর্ধশত মামলা হয়েছে। এসব মামলায় ইভ্যালি, কিউ কম, ই-অরেঞ্জের মালিকসহ বিভিন্ন সময় ৩৬ জন গ্রেপ্তার হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ছাড়া সিরাজগঞ্জ শপ, দালাল প্লাসসহ বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের মালিক এখনো পলাতক। ই-কমার্সে খাতে শৃঙ্খলা আনতে গত জুলাইয়ে ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা জারি করে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। কিন্তু এরপরেও গেটওয়েতে টাকা আটকে থাকা নিয়ে জটিলতায় পড়েন গ্রাহকেরা। এমন অবস্থায় এ বছর ই-কমার্সে কেনাকাটায় গ্রাহকেরা আগ্রহী হবে কি-না তা নিয়ে সংশয়ে ছিল প্রতিষ্ঠানগুলো। তা ছাড়া এবার দোকান পাট খোলা থাকার কারণেও ই-কমার্সে কেনাকাটা কমার আশঙ্কা ছিল ৷ কিন্তু ই-ক্যাব বলছে দোকান পাট খোলা থাকায় কিছু প্রতিষ্ঠানের বিক্রি কমলেও সামগ্রিকভাবে কোনো নেতিবাচক প্রভাব পড়েনি।

 ই-ক্যাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াহেদ তমাল বলেন, ঈদের সময় এবার ই-কমার্স সেক্টরে প্রায় ৪৫ থেকে ৫০ শতাংশের মতো কেনাকাটা বেড়েছে। রোজার শেষের দিনগুলোতে সাড়ে চার লাখ ইউনিটের বেশি বিক্রি হয়েছে। তবে ঈদে বিক্রি বৃদ্ধির কথা মানতে চাইলেন না ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আজকের ডিলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহিম মাশরুর। তিনি বলেন, গতবারের চেয়ে এবার ২০ থেকে ৩০ শতাংশ বিক্রি কমেছে। দোকান পাট খোলা থাকার কারণে এটা হতে পারে।

ই-ক্যাব মহাব্যবস্থাপক জাহাঙ্গীর আলম শোভন বলেন, কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের বিক্রি হয়তো কমেছে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে সামগ্রিক বিক্রি কমেছে। এমন অনেক ব্র্যান্ডই এবার অনলাইনে বেচাকেনা করেছে, যারা গত বছর এই খাতে ছিল না। ফেসবুক পেজও বেড়েছে। তাই সব মিলিয়ে এবার বিক্রিটা বেশি হয়েছে।


আরও খবর



৫ ভুল: পুশ আপ করার সময়ে এড়িয়ে চলুন

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | ৪৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জিমে গিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা ঘাম ঝরানোর জন্য সময় বার করতে পারছেন না? কর্মব্যস্ত জীবনে বাড়িতেই শরীরচর্চা করছেন? বিশেষজ্ঞদের মতে বাড়িতে বেশ কিছু নিয়ম মেনে শরীরচর্চা করলেও আপনি ওজন ঝরাতে পারেন। মেদ ঝরাতে অনেকে সময় পেলেই সব কিছু বাদ দিয়ে পুশ আপ করতে শুরু করে দেন। শরীরের ওজনের ভারসাম্য দুহাতের উপর রেখে পুরো শরীরকে উপর-নীচ করার এই কেরামতি খুব একটা সহজ কাজ নয়। কিন্তু নিয়মিত এই ব্যয়াম করতে পারলে শরীরের শক্তি বৃদ্ধি পায়, ক্যালোরি ঝরে, মানসিক শক্তি দৃঢ় হয় এবং আত্মবিশ্বাস বাড়ে। শরীরের মাংসপেশি শক্তিশালী করে তুলতেও এই ব্যয়াম দারুণ উপকরী।

দেখতে সহজ হলেও ব্যায়ামটি করা কিন্তু মোটেই সহজ নয়। সঠিক পদ্ধতি মেনে এই ব্যায়ামটি না করলে চোট লাগার আশঙ্কা থাকে। জেনে নিন পুশ আপ করার ক্ষেত্রে কোন ভুলগুলি এড়িয়ে চলবেন।

১) ভুল জায়গায় হাত রাখা: এই ব্যায়ামের ক্ষেত্রে একদম কাঁধ বরাবর সোজাসুজি হাত রাখতে হবে। হাতের তালু থাকবে মাটির উপরে। নইলে ব্যায়ামের পুরো উপকারিতা পাবেন না।

২) ঘাড় নিচু করা: এই ব্যায়াম করার সময়ে ঘাড় নিচু করে নীচের দিকে তাকালে হয়তো আপনার উপর-নীচ করতে সুবিধা হতে পারে। কিন্তু এতে ঘাড়ে ব্যথা হওয়া, চোট পাওয়ার আশঙ্কা অনেক বেড়ে যায়। উপরন্তু ব্যায়ামের কার্যকারিতাও অনেক কমে যায়। ঘাড় সব সময়ে সোজা রাখুন।

৩) নিতম্ব নামিয়ে ফেলা: পুশ আপ করার সময়ে গোটা শরীর একটি সমান রেখায় থাকা উচিত। কিন্তু বেশির ভাগ ক্ষেত্রে নীচে নামার সময়ে অনেকেই নিতম্ব ঝুঁকিয়ে ফেলেন। এতে কোমরে ব্যথা হতে পারে।

৪) শরীর মাটিতে স্পর্শ করানো: এই ব্যায়াম করার সময়ে শরীর যেন কখনও মাটিতে স্পর্শ না করে, সে দিকে নজর রাখতে হবে। খুব তাড়াতাড়ি করতে গেলে শরীরের ভঙ্গি ভুল হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। খুব তাড়াতাড়ি আপনি ৩০টি পুশ আপ করে নিলেন অথচ পদ্ধিতেই গলদ রয়ে গেল, সে ক্ষেত্রে কোনও লাভের লাভ হবে না। সময় নিয়ে সঠিক পদ্ধতি মেনে পুশ আপ করুন তবেই মিলবে সুফল।

৫) মুখ দিয়ে নিঃশ্বাস নেওয়া: পুশ আপ করার সময়ে সর্বদা নাক দিয়ে নিঃশ্বাস নিতে হবে, মুখ দিয়ে নিলে চলবে না। শরীর নীচে দিকে নামানোর সময় শ্বাস নিন এবং উপরে ওঠার সময়ে শ্বাস ছাড়ুন। শরীরচর্চার ক্ষেত্রে নিঃশ্বাস নেওয়ার পদ্ধতিও কিন্তু ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ।

নিউজ ট্যাগ: পুশ আপ

আরও খবর



করোনা: শনাক্ত ১০, মৃত্যূ শূন্য

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ১০ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৯ লাখ ৫২ হাজার ৭৪৩ জনে। শনাক্তের হার শূন্য দশমিক ৬০ শতাংশ।

এ ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে কারো মৃত্যু হয়নি। ফলে মোট মারা যাওয়ার সংখ্যা ২৯ হাজার ১২৭ জন অপরিবর্তিত থাকল।

বুধবার (৪ মে) স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ২৫২ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৮ লাখ ৯৬ হাজার ৫৩১ জন।

২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৬৬১টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১ হাজার ৬৫৩টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার শূন্য দশমিক ৬০ শতাংশ। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। গেল বছরের ৫ ও ১০ আগস্ট দুদিন সর্বাধিক ২৬৪ জন করে মারা যান।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর



ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে ইউপি চেয়ারম্যানের ওপর কিশোর গ্যাংয়ের হামলা

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ৪৭৫জন দেখেছেন

Image

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলায় ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে ৯নং নবীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো.বেলায়েত হোসেন সোহেলের ওপর হামলা চালিয়েছে কিশোর গ্যাং। এ ঘটনায় স্থানীয়রা কয়েকটি দেশীয় অস্ত্রসহ কিশোর গ্যাংয়ের চার সদস্যকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

গতকাল মঙ্গলবার ১০ মে সন্ধ্যা ৬টার দিকে ওই ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের গোপালপুর গ্রামের নূরানী মাদ্রাসা সংলগ্ন কালামিয়ার টেক এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আটককৃত কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা হলো, নবীপুর ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের অন্তর (১৯) ও বেগমগঞ্জ উপজেলার রফিকপুর গ্রামের টিপু (২৪) আবদুল গনি পারভেজ (২৫) ইমরান হোসেন ওরফে শান্ত (২০)।

নবীপুর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য (মেম্বার) আবদুল ছোবহান জানান, গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের দিকে নবীপুর ইউনিয়নের ২নম্বর ওয়ার্ডের গোপালপুর গ্রামের জসিমের নতুন বাড়িতে কিশোরী মেয়েরা বাড়ির পুকুরে গোসল করতে গেলে ইভটিজিং করে একই গ্রামের হারিস মোল্লা বাড়ির বাশারের ছেলে ইভটিজার রবি (২৩) ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা। সে দীর্ঘদিন থেকে ওই মেয়েদের উক্ত্যক্ত করে আসছে। পরে ভুক্তভোগী কিশোরীদের পরিবার বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্য ও চেয়ারম্যানকে জানায়। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের অবহিত করার অভিযোগে বিকেলের দিকে রবি ও কিশোর গ্যাংয়ের বহিরাগত সদস্যরা ইভটিজিংয়ের শিকার কিশোরীদের বসতঘরে হামলা চালায় এবং তাদেরকে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করে।

ইউপি সদস্য আরো জানায়,খবর পেয়ে চেয়ারম্যান আমাকে ঘটনাস্থলে পাঠালে বহিরাগত কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা চলে যায়। একপর্যায়ে কিশোর গ্যাং বাহিনীর প্রধান রবির মা ও ইভটিজিংয়ের শিকার কিশোরীদের মায়ের মধ্যে তুমুল বাকবিতন্ডা বেধে যায়। তখন আমি বিষয়টি চেয়ারম্যান কে জানাই। যে এ সমস্যা আমার পক্ষে সমাধান করা সম্ভব নয়। তখন চেয়ারম্যান আমাকে জানায় আপনি ঘটনাস্থলে থাকেন আমি আসছি।

ইউপি সদস্য জানায়,চেয়ারম্যান এসে দুই পক্ষকে নিবৃত করে। অভিযুক্ত রবিকে চেয়ারম্যানের প্রাইভেট কারে তুলে নেয়। একপর্যায়ে আসস্মিক রবির কিশোর গ্যাংয়ের ৩০-৩৫জন সদস্য চেয়ারম্যান ও তাঁর ভাগনে নজরুল ইসলামের (৩৫) ওপর হকিস্টিক,রড দিয়ে হামলা চালায়। এতে চেয়ারম্যান বাম চোখে ও কপালে গুরুত্বর আঘাত পায়। হামলাকারীরা চেয়ারম্যানের ব্যবহৃত প্রাইভেটকারও ভাংচুর করে। খবর পেয়ে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে হামলাকারীরা পালিয়ে যাওয়ার সময় চারজনকে আটক করে স্থানীয়রা। পরে চেয়ারম্যানকে উদ্ধার করে সেনবাগ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। সেখান থেকে রাত পৌনে ১টার দিকে তাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট নোয়াখালী জেনারেল  হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে  ৯নং নবীপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো.বেলায়েত হোসেন সোহেল বলেন, ইভটিজিং নিয়ে বিরোধের জের ধরে ইভটিজার কিশোর গ্যাং বাহিনীর সদস্যরা এ হামলা চালায়। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল হোসেন পাটোয়ারী। তিনি বলেন, ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে উদ্ভুত পরিস্থিতিতে চেয়ারম্যান সমস্যা সমাধানে গেলে তাঁর ওপর হামলার এ ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয় লোকজন চারজনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। আটককৃতদের থানায় এনে রাখা হয়েছে। ভুক্তভোগীদের লিখিত এজহার পেলে আটকৃতদের ওই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে নোয়াখালী চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।


আরও খবর



মহাকালের ‘শিখণ্ডী কথা’র ৩ মঞ্চায়ন

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | ৬৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশে প্রথম হিজড়া সমাজের মানুষের সুখ-দুঃখ কথামালায় গাঁথা গবেষণালব্ধ নাটক c। মহাকাল নাট্য সম্প্রদায়ের মানবিক জনপ্রিয় নাটকটির ৩টি মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। নাটকটির ১৭৯ ও ১৮০তম মঞ্চায়ন মহিলা সমিতির ড. নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তনে ১৩ ও ১৪ মে এবং ১৫ মে ১৮১তম মঞ্চায়ন শিল্পকলা একাডেমির স্টুডিও থিয়েটার হলে অনুষ্ঠিত হবে।  নাটকটির ২০০তম প্রদর্শনীকে দ্বারপ্রান্তে রেখে এই মঞ্চায়নগুলো করা হচ্ছে। আনন জামানের রচনায় এর নির্দেশক রশীদ হারুন। 

নাটকটিতে অভিনয় করবেন- পলি বিশ্বাস, রিপন রনি, সম্রাট, সুরেলা নাজিম, মো. শাহনেওয়াজ, কানিজ ফাতেমা লিসা, সৈয়দ ফেরদৌস ইকরাম, শিবলী সরকার, কামরুজ্জামান সবুজ, বাহার সরকার, আনন জামান, ফারুক আহমেদ সেন্টু, বিথুন আহমেদ, সামিউল জীবন, শাহরিয়ার পলিন, স্বপ্নীল, সোহেল আহমেদ, ইকবাল চৌধুরী, রাসেল আহমেদ, তারক দাস, মো. আহাদ, নাবিল হাসান, রাকিব হাসান, মায়া, কোনাল আলী সাথী, শান্ত, নওশাদ, মনিরুল আলম কাজল ও মীর জাহিদ হাসান।

নাটকটির প্রথম প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয় ২০০২ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর মহিলা সমিতি মঞ্চে। এ নাটকের শততম মঞ্চায়ন হয়েছে ১৩ মার্চ, ২০১০ সালে। নাকটি নিয়ে মহাকাল ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে ৩টি প্রদর্শনী এবং কলকাতায় ৩টি প্রদর্শনী করেছে।            

নাটকের কাহিনীতে দেখা যাবে, যাকে নিয়ে নাট্যকাহিনী, যার সুখ-দুঃখ কথা ফুল হয়ে ফুটে উঠে নটনটীদের অঙ্গে উপাঙ্গে শাখা প্রশাখায়, যার বেদনা গীত হয়, সে এখন মায়ের গর্ভে বাঁকানো ত্বকের ছইয়ের নীচে ছোট্ট ভ্রূণ। এই ভ্রূণ জানেনা কৈশোরে সে পরিবার থেকে বিতাড়িত হবে, যৌবনে তার কামনা বাসনা পচবে গলবে নিজের ভেতরে, এক ভয়ানক বেদনায় নিজেকেই নিজে খুন করবার জন্য উন্মাদ হয়ে উঠবে, জীবন যন্ত্রণায় দগ্ধ হয়ে এ ভ্রূণ একদিন ঈশ্বরের মুখোমুখি দাঁড়াবে। এছাড়া সে সমাজের সভ্যজনদের সমবেত করে পরনের কাপড় টুকরো টুকরো করে ছিঁড়বে এই জনমেই। এই লিঙ্গ বৈষম্য মানুষের সুখ দুঃখ নিয়েই নাটক শিখণ্ডী কথা। তারা নারী না হোক, পুরুষ না হোক একজন স্বাভাবিক মানুষের সম্মান যেন পায়, এই অভিপ্রায় সামনে রেখেই মহাকাল প্রযোজনা শিখণ্ডী কথা বলে জানান এর নির্দেশক।

নিউজ ট্যাগ: শিখণ্ডী কথা

আরও খবর