আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম

‘ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ বিনির্মানে শেখ হাসিনার বিকল্প নাই’

প্রকাশিত:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | ১১১০জন দেখেছেন
হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি

Image

ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ বিনির্মানে শেখ হাসিনার বিকল্প নাই বলে মন্তব্য করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম (এমপি)।

মন্ত্রী রবিবার সকালে পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত অসহায় ও দুঃস্থ পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উন্নতমানের শুকনো খাবার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন।

এসময় মন্ত্রী আরও বলেন, শেখ হাসিনার আমলে দেশে একটি লোকও না খেয়ে মারা যায়নি। করোনাকালীনসহ সকল দুঃসময়ে প্রধানমন্ত্রী এদেশের মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন যেটা এখনও অব্যহত আছে। এদেশের অসহায়, দুঃস্থ ও নীপিড়িত মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে তিনি সর্বদা কাজ করে যাচ্ছেন। গৃহহীন লোকদের জন্য জমিসহ ঘরের ব্যবস্থা করেছেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সুখি ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে শেখ হাসিনাকে আবারও রাষ্ট্র ক্ষমতায় আনতে হবে। শেখ হাসিনা রাষ্ট্র ক্ষমতায় না থাকলে এদেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রার চাকা থমকে যাবে।

উপজেলা হলরুমে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মোশারেফ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরও বক্তব্য রাখেন সাবেক এমপি অধ্যক্ষ মো. শাহ আলম, উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ, সাধারণ সম্পাদক এস এ ফুয়াদ, পৌর মেয়র গোলাম কবির, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম মুইদুল ইসলাম, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী সাখাওয়াত হোসেন, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শশাংঙ্ক রঞ্জন সমদ্দার, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ ও হুমায়ুন আহম্মেদ প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা চপল কৃষ্ণ নাথ ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মানষ কুমার দাস। সভাশেষে উপজেলা পাঁচ শত দুঃস্থ পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। পরে মন্ত্রী উপজেলার কৌরিখাড়া লঞ্চঘাটের নতুন পল্টুনের উদ্বোধন করেন। 


আরও খবর



ভাইরাল হওয়া সেই রোহিনীর ঘরে এখন এক বউ

প্রকাশিত:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ১৪ মে ২০২২ | ৬৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভাইরাল হওয়া সেই রোহিনীর ঘরে এখন এক বউ। গত ২০ এপ্রিল পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলায় দুই প্রেমিকা ইতি রানী (২০) এবং মমতা রানী (১৮) নামে দুই প্রেমিকাকে পাশাপাশি বসিয়ে সিঁথিতে সিঁদুর লাগিয়ে বিয়ে করে ভাইরাল হয়েছিলেন রোহিনী চন্দ্র বর্মন (২৫)। কিন্তু দুইজনকে একসঙ্গে নিয়ে সংসার সাজাতে ব্যর্থ হলেন এই পুরুষ। বিয়ের মাত্র ২২ দিনের মাথায় এ ঘটনা ঘটে।

দ্বিতীয় স্ত্রী মমতা রানীর সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটায় রোহিনীর ঘরে বর্তমানে এক বউ রয়েছেন।

গত বৃহস্পতিবার ১২ মে ছোট বউ মমতা রানী নিজেই রোহিনীকে ডিভোর্স দেয়। রোহিনীর বাবা যামিনী কান্ত শনিবার বিকালে মুঠোফোনে ডিভোর্সের খবর সাংবাদিকদের জানায়। তিনি বলেন মমতা রানীর পরিবারের ইচ্ছাতেই এই ডিভোর্স সম্পন্ন হয়।

তবে এ বিষয়ে মুখ খোলেনি মমতা রানী, যোগাযোগ করা যায়নি রোহিনীর সঙ্গেও। তবে মমতার পরিবারের কোন অভিযোগ নেই বলে জানিয়েছেন মমতা রানীর ভাই পলাশ রায়।

পলাশ বলেন, আর বাড়াবাড়ি করতে চাই না। বোনের ভবিষ্যতের বিষয়ে চিন্তা করেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

রোহিনীর বাবা যামিনী চন্দ্র বলেন, মমতা রানী স্বেচ্ছায় আমার ছেলেকে তালাক দিয়েছে। এতে আমরা অমত করিনি।

জানা গেছে, বলরামপুর ইউনিয়নের গাঠিয়াপাড়া এলাকার গিরিশ চন্দ্রের মেয়ে ইতি রানীর (২০) সঙ্গে রোহিনীর প্রেমের সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। এক পর্যায়ে তারা মন্দিরে গিয়ে বিয়ে করেন। বিয়ের বিষয়টি গোপন রেখেছিলেন দুইজনই।

এরমধ্যে রোহিনী নতুন করে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলেন লক্ষীদ্বার গ্রামের টোনো কিশোরের মেয়ে মমতা রানীর (১৮) সঙ্গে। এক পর্যায়ে মমতা রানীর সঙ্গে গত ১২ এপ্রিল রাতে দেখা করতে যান রোহিনী। সেখানে দুজনকে একত্রে দেখে ফেলেন মমতার পরিবারের লোকজন। আটকে রাখেন রোহিনীকে। পরে ১৩ এপ্রিল বিয়ের ব্যবস্থা করেন তাদের।

ওদিকে, রোহিনী বর্মনের বিয়ের খবর শুনে তার বাড়িতে অনশন শুরু করেন ইতি রানী। পরে বুধবার (২০ এপ্রিল) রাতে রোহিনীর বাড়িতে পুনরায় আনুষ্ঠানিকভাবে দুই বিয়ে একসঙ্গে সম্পন্ন করা হয়।

বলরামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন বলেন, বিচ্ছেদের বিষয়ে এখনো অফিসিয়ালি কোন তথ্য পাইনি। দুই পক্ষের কেউ কিছু জানায়নি। তবে লোকমুখে শুনছি মেয়েটা নিজেই নাকি ছেলেকে তালাক দিয়েছেন।

নিউজ ট্যাগ: রোহিনী

আরও খবর



ইউক্রেনে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২৭

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | ৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইউক্রেনে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় রোভেনস্কা জেলায় ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ২৭ জন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (৩ মে) রাতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে টাস।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মঙ্গলবার রাতে রোভেনস্কা জেলার সিটনয় গ্রামের কাছে কিয়েভ-ছোপ।

মহাসড়কে একটি মিনিভ্যান, যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের ত্রিমুখী সংঘর্ষ হয়। এসময় তিনটি গাড়ির সংঘর্ষে আগুন ধরে যায় এবং এ প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

ইউক্রেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সহযোগী আন্তন গেরাশচেঙ্কো বলেন, দুর্ঘটনাকবলিত বাসে ৩৮ জন যাত্রী ছিলেন। তাদের মধ্যে ১২ জন বেঁচে আছেন। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, দুর্ঘটনার জন্য দায়ী মিনিভ্যানটি। এর চালকও মারা গেছেন।

জানা যায়, ইউক্রেনে গত এক দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা এটি।

এদিকে, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিও সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির খবর নিশ্চিত করেছেন। নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি।


আরও খবর



মালদ্বীপে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য সুখবর

প্রকাশিত:রবিবার ২২ মে 20২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২২ মে 20২২ | ১৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মালদ্বীপে বৈধ কাগজপত্র ছাড়া বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য সুখবর দিয়েছে দেশটির অর্থনৈতিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়। যাদের বৈধ ভিসা ও ওয়ার্ক পারমিট নেই তাদের দ্রুত আবেদন করতে বলা হয়েছে। শনিবার (২১ মে) মালদ্বীপে বাংলাদেশ হাই কমিশন এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যাদের বৈধ ভিসা ও ওয়ার্ক পারমিট নাই তাদেরকে দ্রুততার সঙ্গে ভিসা বা ওয়ার্ক পারমিট সংগ্রহ করে মালদ্বীপে বৈধভাবে কাজ করার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে। বৈধকরণ প্রক্রিয়ার সুযোগে যদি কেউ বৈধ ভিসা বা ওয়ার্ক পারমিট সংগ্রহ না করেন, তবে তার বিরুদ্ধে মালদ্বীপের আইন অনুযায়ী কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আবেদনের প্রক্রিয়া উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বর্তমানে আপনি যেখানে কাজ করছেন সেই মালিককে ইকনোমিক ডেভেলপমেন্ট মিনিস্ট্রিতে আবেদন করতে হবে। কোনো তথ্য প্রয়োজন হলে অফিস সময়ে অর্থনৈতিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের ফোন নম্বর (১৫০০) বা ইমেইল (xpat@1500help.mv) কিংবা বাংলাদেশ হাইকমিশনের ফোন (৩৩২০৮৫৯) অথবা ভাইবারে (৭৬১৬৬৩৬) যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

পর্যটননির্ভর অর্থনীতির দেশ মালদ্বীপে বর্তমানে বৈধ-অবৈধ মিলিয়ে মোট কতজন বাংলাদেশি কর্মী কাজ করছেন তার সুনির্দিষ্ট তথ্য পাওয়া যায়নি। ৮০ হাজারের মতো প্রবাসীকর্মী দেশটিতে রয়েছেন বলে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছিল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।


আরও খবর



পুঠিয়ায় ৯২ হাজার লিটার সয়াবিন তেল জব্দ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | ৪৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর বাজারে বেশ কয়েকটি গুদাম ও দোকানে অবৈধভাবে ৯২ হাজার ৬১৬ লিটার ভোজ্যতেল মজুদের ঘটনায় অভিযান পরিচালনা করছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১০ মে) বিকালে রাজশাহী জেলা পুলিশ ও পুঠিয়া থানা পুলিশ যৌথ অভিযান পরিচালনা শুরু করে। নিউজ লেখা পর্যন্ত পুলিশের অভিযান অব্যাহত ছিলো।

মঙ্গলবার (১০ মে) সন্ধ্যা পোনে ৭টার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করে রাজশাহী জেলা পুলিশের মুখপাত্র ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইফতে খায়ের আলম জানান, অভিযান এখনও অব্যাহত রয়েছে। চারটি গোডাউন থেকে সয়াবিন ও সরিষার তেল পাওয়া যায়। চার গোডাউনের মালিককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সেইসাথে তাদের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। তবে সরকারিভাবে এখনও জব্দ বা আটক কোনো কিছু দেখানো হয়নি। অভিযান শেষে বিস্তারিত জানানো সম্ভব হবে।

এর আগে মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত অবৈধভাবে সয়াবিন তেল মজুদ ও নির্ধারিত দামের চেয়ে অতিরিক্ত দামে তেল বিক্রি করার অভিযোগে রাজশাহীর তিন ব্যবসায়ীকে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক অপূর্ব অধিকারী ও সহকারী পরিচালক হাসান-আল-মারুফ এই অভিযান চালান।

অভিযান শেষে সহকারী পরিচালক হাসান-আল-মারুফ জানান, মঙ্গলবার (১০ মে) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত তারা নগরীর সাহেব বাজার ও বহরমপুর এলাকায় অভিযান চালান। এ সময় সাহেববাজার এলাকার মেসার্স হুমায়ুন স্টোরে ১৩২ বোতল সয়াবিন তেল মজুদ পাওয়া যায়। বোতলজাত সয়াবিন তেল মজুদ রেখেছিলেন বিক্রেতা হুমায়ুন কবীর। এই ঘটনায় তাকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। একইসঙ্গে জব্দকৃত ১৩২ বোতল সয়াবিন তেল গায়ে লেখা দামে বিক্রি করে ব্যবসায়ীতে অর্থ প্রদান করা হয়েছে।

একই অভিযানে সাহেববাজার এলাকার মেসার্স পাপ্পু অ্যান্ড ব্রাদার্সকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানটির মালিক নজরুল ইসলাম নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে বাড়তি দামে বোতলজাত সয়াবিন তেল বিক্রি করছিলেন।

হাসান-আল-মারুফ জানান, আলাদা অভিযানে নগরীর বহরমপুর মোড় এলাকার মেসার্স নুরুন্নবি ট্রডার্সকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে বাড়তি মূল্যে খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি করছিলেন প্রতিষ্ঠানটির মালিক নুরুন্নবী। তাৎক্ষণিকভাবে এই তিন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে জরিমানা আদায় করে রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা করা হয়েছে।


আরও খবর



আমি নিজেই তো আমার পরিচয় জানি না: মিথিলা

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | ৪৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গুনে বললে আর পাঁচদিন বাকি আছে। এরপরই মুক্তি পাবে রাফিয়াত রশিদ মিথিলা অভিনীত ওয়েব সিরিজ মন্টু পাইলট ২’। কলকাতার আলোচিত এই সিরিজের ট্রেলার ইতোমধ্যে প্রকাশ্যে এসেছে। প্রকাশিত হয়েছে গানও। সবগুলোই পেয়েছে আশানুরূপ সাড়া। মন্টু পাইলট ২’ মুক্তি উপলক্ষে বিভিন্ন প্রচারণা চালানো হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে ব্যতিক্রম এক ভিডিও ইন্টারভিউ দিয়েছেন মিথিলা। যেখানে তিনি কথা বলেছেন সিরিজের চরিত্র তথা বহ্নি কিংবা পরী হয়ে।

এক ব্যক্তি বহ্নিরূপী মিথিলার কাছে তার পরিচয় জানতে চান। জবাবে মিথিলা বলেন, পরিচয়! আমি নিজেই তো আমার পরিচয় জানি না। বলা উচিৎ আসল পরিচয়; আমার নাম বহ্নি। পরীও বলতে পারেন। নীলকুঠির বিবিজানের দেওয়া নতুন নাম পরী।’

ওয়েব সিরিজটিতে দেখা যাবে, ঘটনাক্রমে নীলকুঠি যৌনপল্লিতে চলে আসেন মিথিলা। এরপর তার জীবন পুরোপুরি বদলে যায়। অকল্পনীয় এক অধ্যায়ের মধ্যে ঢুকে পড়েন তিনি। এ বিষয়ে ওই ভিডিও কথোপকথনে অভিনেত্রী বলেন, নীলকুঠির গলিটা নাকি নদীর মতো। কেউ নাকি এই দুনিয়া থেকে বের হতে পারে না। জীবনের কখন কোন মোড় থেকে কোন গল্প শুরু হয়, কেউ কি জানে? আমার ক্ষেত্রেও তাই। বিদেশ যাচ্ছিলাম। কত নতুন স্বপ্ন, কত নতুন আশা। কিন্তু সব স্বপ্ন কি পূরণ হয়? আমারও হয়নি।’

মন্টু পাইলটের মাধ্যমে নীলকুঠিতে চলে আসেন মিথিলা। সে কথা জানিয়ে তিনি বলেন, যার হাত ধরে এই দুনিয়ায় এসে পড়লাম, সে মন্টু। হ্যাঁ মন্টু পাইলট। একটু কান পাতলেই যার কথা নীলকুঠির অলিতেগলিতে শোনা যায়। মন্টু বলে, নীলকুঠিতে থাকলে নাকি শরীর বেচার সঙ্গে সঙ্গে হাহাকার ভরা কান্নার চিৎকারও শোনাতে হয়। কিন্তু আমি পরী। নাম বদলালেও সত্তাটা তো একই। আমি কাঁদি না, কাঁদতে পারি না, আমি কাঁদবোও না।’

কলকাতার বহুল আলোচিত সিরিজ মন্টু পাইলট’। এর প্রথম সিজন মুক্তি পেয়েছিল ২০১৯ সালে। এবার আসছে দ্বিতীয় সিজন। এতে মন্টু পাইলট চরিত্রে অভিনয় করা সৌরভ দাসের সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন বাংলাদেশের মিথিলা। তাকে দেখা যাবে বহ্নি চরিত্রে। সিরিজটি পরিচালনা করেছেন দেবালয় ভট্টাচার্য। আগামী ২৯ এপ্রিল হইচই-তে মুক্তি পাবে এটি।


আরও খবর