আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

লাল কার্ড-পেনাল্টিতে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

প্রকাশিত:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | ৫২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কেউ গড়িয়ে কাঁদছেন, কেউ রেফারিকে ঘিরে ধরেছেন। স্বপ্নের ফাইনালটা হাতের মুঠো থেকে ফস্কে গেল। ৮৬ মিনিট পর্যন্ত ১-০ গোলে এগিয়ে ছিল বাংলাদেশ দল। ৮৭ মিনিটে উজবেকিস্তানের রেফারির পেনাল্টির এক বাঁশিই বাংলাদেশের স্বপ্ন ভেঙে দিল। বক্সের মধ্যে নেপালের ফরোয়ার্ড পড়ে যান। উজবেকিস্তানের রেফারির পেনাল্টির বাঁশি। পাশাপাশি ডিফেন্ডার বিশ্বনাথ ঘোষকে হলুদ কার্ড। পেনাল্টি থেকে নেপালের অঞ্জন বিষ্টা গোল করলে স্কোরলাইন ১-১ হয়।

বাংলাদেশের ১৬ বছর পর সাফ ফাইনাল খেলার স্বপ্নও শেষ হয়ে যায়। উজবেকিস্তানের রেফারির শেষ বাঁশির সঙ্গে সঙ্গে মালে স্টেডিয়াম পরিণত হলো বাংলাদেশের ট্র্যাজেডি হিসেবে। গ্যালারীতে থাকা বাংলাদেশের সমর্থকরাও নিথর দাঁড়িয়ে রইলেন। প্রেসবক্সে থাকা বাংলাদেশি সাংবাদিকরাও নিশ্চুপ।

ম্যাচের ৭৮ মিনিট পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। বাংলাদেশ ফাইনালের পথেই হাঁটছিল। সারা ম্যাচ জুড়ে দুর্দান্ত খেলা গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকোর এক ভুলে গোটা দল চরম বিপদে পড়ে। বক্সের বাইরের বল ক্লিয়ার করতে এগিয়ে যান গোলরক্ষক জিকো। ক্লিয়ার করতে গিয়ে তার হাতে বল লাগলে রেফারি সরাসরি লাল কার্ড দেখান। ম্যাচের বাকি সময় বাংলাদেশ দশজন নিয়ে খেলে।

জিকো লাল কার্ড দেখায় কোচ অস্কার দ্রুত কয়েকটি পরিবর্তন করেন। বিপলুকে বদলে সিনিয়র গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানাকে নামান। ফরোয়ার্ড সুমন রেজার পরিবর্তে ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার আতিকুর রহমান ফাহাদকে নামান। রানা নামার পরপরই একটি ফ্লাইং সেভ করেন। অভিজ্ঞ এই গোলরক্ষক পেনাল্টি শটের সময় সঠিক দিক ঝাপ দিলেও সেভ করতে পারেননি। দশজন নিয়ে আর জেতা হয়নি বাংলাদেশের। ফলে চার ম্যাচে সাত পয়েন্ট নিয়ে নেপাল সাফের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ফাইনালে আর বাংলাদেশ চার পয়েন্ট নিয়ে আবার গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিল।

২০০৫ সালের পর থেকে বাংলাদেশ আর কখনো ফাইনাল খেলতে পারেনি। গতবার নিজেদের মাঠে এই নেপালের কাছে হেরেই গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছিল।

এর আগে কোচ অস্কার ব্রুজন বাংলাদেশ ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক মেজাজে। ফলও মিলেছে মিনেট দশেকের মধ্যে। ম্যাচ শুরুর দশ মিনিট পরেই গর্জে উঠল মালে স্টেডিয়াম। বাঁপ্রান্ত থেকে রাকিব বল নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছিলেন। নেপালের ডিফেন্ডার তাকে বাঁধা দিলে পড়ে যান। উজবেকিস্তানের রেফারি ফাউলের বাঁশি বাজান। অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়ার ফ্রি-কিক থেকে বক্সে জটলার মধ্যে হেড করেন সুমন রেজা। সুমনকে দুই ম্যাচ পর আবারন একাদশে সুযোগ দেন কোচ। সেই সুযোগের পূর্ণ ব্যবহার করেন সুমন। উত্তর বারিধারার হয়ে সদ্য সমাপ্ত লিগে সুমন ছিলেন দেশিদের মধ্যে সর্বোচ্চ গোলদাতা। প্রথমার্ধে বাংলাদেশ সুমনের গোলেই ড্রেসিংরুমে ফেরে।

দ্বিতীয়ার্ধে নেপাল ম্যাচে ফেরার সব চেষ্টাই করেছে। প্রথমার্ধে নায়ক সুমন, দ্বিতীয়ার্ধে বাংলাদেশের নায়ক ও খলনায়ক গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো। নেপালের ফরোয়ার্ডদের একের পর এক আক্রমণ প্রতিহিত করেছেন। ৫৫ মিনিটে বক্সের মধ্যে নেপালের ফরোয়ার্ড নবযুগ শ্রেষ্ঠার হেড সেভ করেন গোলরক্ষক আনিসুর রহমান জিকো। আরো বেশ কয়েকটি দুর্দান্ত সেভ করেন। এত সেভ করার পরও ৭৮ মিনিটে তার ভুলে বাংলাদেশ দশজনের দলে পরিণত হয়। এরপর রেফারির সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের ফাইনালে বাঁধা হয়ে দাড়াল।


আরও খবর
অজিদের কষ্টার্জিত জয়

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




১৯ মাস পর হলে উঠলেন রাবি শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত:রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ | ৩৬৫জন দেখেছেন
Image

রাবি প্রতিনিধিঃ

মহামারি করোনায় দীর্ঘ ১৯ মাস শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার পর খুলে দেওয়া হয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আবাসিক হল গুলো।

রবিবার সকাল ১০টায় বঙ্গবন্ধু হলে ফুল, স্যানিটাইজ, মাস্ক ও চকলেট খাইয়ে ছাত্রদের বরণ করে নেয় হল প্রশাসন। পরে উৎসব মুখর পরিবেশে নিজ নিজ হলে উঠতে শুরু করে আবাসিক শিক্ষার্থীরা। হলে ঢোকার সময় নিজেদের পরিচয় পত্র ও কোভিড ১৯ ভাকসিনের টিকা কার্ড, অন্তত এক ডোজ টিকা নেওয়ার শর্তে হলে ঢুকতে দেওয়া হয়।

এর আগে সকাল সাড়ে ৯ টায় মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার ছাত্র শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে  শিক্ষার্থীদের টিকাদান কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে ছাত্রদের বরণ করে নেন রাবি উপাচার্য। তিনি বলেন, আমাদের কাছে বরাদ্দকৃত যে ২০ হাজার টিকা আছে সেটা দিয়ে সকল শিক্ষার্থীদের টিকার আওতায় আনতে সক্ষম হবো। তাছাড়া শিক্ষার্থীদের সুরক্ষার জন্য আইসোলেশনসহ স্বাস্থ্যবিধির কথা মাথায় রেখে হাত ধোঁয়ার জন্য প্রতিটি হলের ফটকে বসানো হয়েছে বেসিন এবং হলের যাবতীয় সংস্কারের কাজ প্রায় শেষের দিকে। বাকি কাজগুলো অতি দ্রুত সম্পন্ন করা হবে।

তিনি আরও বলেন, দীর্ঘদিন করোনা মহামারীর কারণে শিক্ষার্থীদের যে সেশনজট তৈরি হয়েছে একাডেমিক কাউন্সিলের সাথে আলোচনা করে অতি দ্রুত তা পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হবে।

রসায়ন বিভাগের শিক্ষার্থী আব্দুল আহাদ বলেন, দীর্ঘ বিরতির পরে আজ হলে উঠতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। করোনাকালে বাড়িতে থেকে আমরা হীনমন্যতায় ভুগছিলাম। পড়াশোনা থেমে ছিল। এখন হলে থেকে আমরা আবার পড়ালেখা শুরু করতে পারব। আমাদের যে ১৮ মাসের সেশন জট হয়েছে তা কমিয়ে আনতে প্রশাসনের কাছে অনুরোধ জানাচ্ছি। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যেই ভ্যাক্সিনের ব্যবস্থা করতে প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।


আরও খবর



ট্রাক্টর-ভ্যান সংঘর্ষে নীলফামারীতে শিশুসহ নিহত ২

প্রকাশিত:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | ৫৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় ট্রাক্টর ও ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে শিশুসহ দুজন নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন আরও দুজন।

শনিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার বোড়াগাড়ি-গোমনাতি সড়কের পাঠানপাড়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন উপজেলার বামুনিয়া ইউনিয়নের ময়দানপাড়া এলাকার আবুল হোসেন (৫৫) এবং নীলফামারী সদর উপজেলার রামগঞ্জ এলাকার নুরনবী ইসলামের আট মাসের কন্যাশিশু সাবিহা সুলতানা।

ডোমার থানার ওসি সাইফুল ইসলাম জানান, সন্ধ্যায় গোমনাতি থেকে ভ্যানটি যাত্রী নিয়ে ময়দানপাড়া যাচ্ছিল। পথে উপজেলার বোড়াগাড়ি-গোমনাতি সড়কের পাঠানপাড়ায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক্টরের সঙ্গে ওই ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই শিশু সাবিহার মৃত্যু হয়।

গুরুতর আহত ভ্যানচালক আবুল হোসেন, সাবিহার মা সুবর্ণা বেগম ও তার নানি মালেকা বেগমকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় দায়িত্বরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদের রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। রংপুর নেওয়ার পথে ভ্যানচালক আবুল হোসেন মারা যান।

নিউজ ট্যাগ: সড়ক দুর্ঘটনা

আরও খবর
চা-চাষে সম্ভাবনার দুয়ার খুলেছে নীলফামারীতে

বৃহস্পতিবার ০৭ জানুয়ারী ২০২১




সাম্প্রদায়িক অপশক্তির প্রধান পৃষ্ঠপোষক বিএনপি: কাদের

প্রকাশিত:রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ | ৩৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিএনপি সাম্প্রদায়িক অপশক্তির প্রধান পৃষ্ঠপোষক বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সব অপকর্ম ও সাম্প্রদায়িকতার জনক ও ঠিকুজি বিএনপি এমন মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, অপকর্মকারিদের কোনো দল নেই, এরা হচ্ছে দুর্বৃত্ত।

রবিবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুল অ্যান্ড কলেজে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও শিক্ষার্থীদের মাঝে মেধা বৃত্তি, দরিদ্র তহবিলে বিশেষ অনুদান ও শিক্ষা উপকরণ প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। স্বপ্ন ও সম্ভাবনার স্ফুলিঙ্গ- শেখ রাসেল শীর্ষক এই আলোচনা সভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটি।

বিএনপি-জামায়াত থেকে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, জামায়াত ছাড়া বিএনপি অচল এবং জামায়াতেরও নির্ভরযোগ্য ছাতা হচ্ছে বিএনপি। ভেতরে ভেতরে জামায়াত-বিএনপি মধুর বন্ধনে আবদ্ধ, যা কোনদিন বন্ধ হবে না। আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে অন্ধকারের এই অপশক্তি মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে, সুযোগ পেলেই ছোবল মারবে। তাই এখন থেকেই সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।

৭১ এর পরাজিত শক্তিই ৭৫ এর হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল এমনটা জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর এই চক্রের বিষবৃক্ষ অনেক গভীরে ছড়িয়ে পড়েছে, এদের নিষ্ক্রিয় মনে হলেও এরা তলে তলে এখনো সক্রিয়, তাই এখন থেকেই সতর্ক থাকতে হবে।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মো. মোজাফফর হোসেন।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মো. আবদুল হালিম। সভাটি সঞ্চালনা করেন ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটির সদস্য সচিব সুজিত রায় নন্দী।

পরে নেতৃবৃন্দকে সঙ্গে নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে মেধাবৃত্তি ও দরিদ্র তহবিলে অনুদান এবং শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেন ওবায়দুল কাদের।


আরও খবর



ডেঙ্গুতে নতুন আক্রান্ত আরও ১৯৪ জন

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ অক্টোবর ২০২১ | ৫১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে সারাদেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন আরও ১৯৪ জন। তাদের অধিকাংশই রাজধানীর বাসিন্দা। রোববার বিকেলে সারাদেশের পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের নিয়মিত ডেঙ্গু বিষয়ক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে নতুন ১৯৪ জন ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে রাজধানীর বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৪৩ জন। ঢাকার  ঢাকার বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৫১ জন।

নতুন ১৯৪ জন নিয়ে বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ভর্তি থাকা রোগীর সংখ্যা ৯৫৫ জনে পৌঁছেছে। বর্তমানে ঢাকার ৪৫টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৭৫৮ জন এবং অন্যান্য বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১৯৭ জন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত হাসপাতালে সর্বমোট রোগী ভর্তি হয়েছেন ১৮ হাজার ৭৪৪ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১৭ হাজার ৭২১ জন। একই সময়ে দেশে ডেঙ্গুতে ৬৮ জনের প্রাণহানি হয়েছে।



আরও খবর



২৪ ঘণ্টায় ৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৯৩

প্রকাশিত:শনিবার ১৬ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৬ অক্টোবর ২০২১ | ৩১০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ছয়জন। তাদের নিয়ে দেশে সরকারি হিসেবে করোনাতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন ২৭ হাজার ৭৫২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাতে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ২৯৩ জন। তাদের নিয়ে দেশে করোনাতে সরকারি হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ৬৫ হাজার ১৭৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৪৪২জন, তাদের নিয়ে দেশে করোনাতে আক্রান্ত হয়ে মোট সুস্থ হলেন ১৫ লাখ ২৭ হাজার ৩৩৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাতে রোগী শনাক্তের হার এক দশমিক ৮৮ শতাংশ আর এখন পর্যন্ত রোগী শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ৫৩ শতাংশ।

শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৫৮ শতাংশ আর শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যহার এক দশমিক ৭৭ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৫ হাজার ২৫১টি আর নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৫ হাজার ৫৮০টি।  দেশে এখন পর্যন্ত করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১ কোটি ৭৬ হাজার ৮২৫টি। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৭৩ লাখ ৮০ হাজার ৬৯৬ টি আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ২৬ লাখ ৯৬ হাজার ১২৯টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ছয়জনের মধ্যে পুরুষ চারজন আর নারী দুইজন। দেশে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে পুরুষ মারা গেছেন ১৭ হাজার ৭৭৯ জন আর নারী নয় হাজার ৯৭৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে ৭১ থেকে ৮০ বছর বয়সী দুজন,  ৬১ থেকে ৭০ বছর বয়সী  দুজন আর ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে আছেন দুজন।  মারা যাওয়া ছয়জনের মধ্যে তিনজন ঢাকা বিভাগের আর চট্টগ্রাম, খুলনা ও সিলেট বিভাগের আছেন একজন করে। তারা সবাই সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন।


আরও খবর