আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

মা হতে চলছেন পরীমণি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৩৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সিনেমার পর্দা হোক কিংবা সোশ্যাল মিডিয়া, সবখানেই তাকে ঝলমলে-আকর্ষণীয় রূপে দেখা যায়। তবে স্বপ্নজাল সিনেমায় সাদামাটা চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসিত হয়েছেন এ নায়িকা পরীমণি।

এবার পরীমণি সাহসী এক সিদ্ধান্ত নিলেন। একটি সিনেমায় মায়ের চরিত্রে অভিনয় করবেন তিনি। নায়িকা হয়েও মায়ের রূপে অভিনয় করা, শুনতে অনেকটা অবিশ্বাস লাগতে পারে। তবে টিভি পর্দার সফল নির্মাতা অরণ্য আনোয়ারের প্রথম সিনেমাতে এই রূপেই দেখা যাবে পরীকে।

দীর্ঘ দিন দশকের নির্মাণ ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো সিনেমা বানাচ্ছেন অরণ্য আনোয়ার। এর নাম দিয়েছেন মা। নির্মিত হবে সত্য ঘটনা অবলম্বনে। ১৯৭১ সালে মৃত ঘোষিত ৭ মাস বয়সী এক সন্তানকে নিয়ে তার অসহায় মায়ের আবেগের ঘটনা দেখা যাবে সিনেমাটিতে। এতে সেই অসহায় মায়ের চরিত্রে থাকছেন পরীমণি।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে পরীমণি লিখিতভাবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন এই সিনেমায়। তবে এ বছর তার কোনো শিডিউল ফাঁকা নেই। তাই আগামী বছরের জানুয়ারিতে সিনেমাটির কাজ শুরু হবে বলে জানা গেছে।

নতুন এই সিনেমায় যুক্ত হয়ে উচ্ছ্বসিত পরীমণি বলেন, এমন চরিত্রে আমি আর কাজ করিনি। আমার তো মা নেই। এবার সেই মায়ের চরিত্রেই অভিনয় করবো। আশা করছি, নিজেকে ভাঙতে পারবো।

অন্যদিকে নির্মাতা অরণ্য আনোয়ার জানালেন, মায়ের চরিত্রে অভিনয়ের জন্য পরীমণি রাজি হবেন কিনা, সেটা নিয়ে দ্বিধায় ছিলেন। তবে গল্প শুনে পরী মুগ্ধ হয়েছেন এবং সানন্দে রাজি হয়েছেন।

মা সিনেমাটি যৌথভাবে প্রযোজনা করছেন প্রকৌশলী পুলক কান্তি বড়ুয়া ও অরণ্য আনোয়ার। পরীমণি ছাড়া আর কে কে থাকছেন এই সিনেমায়, সেটা শিগগিরই প্রকাশ্যে আনা হবে বলে জানিয়েছেন নির্মাতা।

নিউজ ট্যাগ: পরীমণি

আরও খবর
গাছের সঙ্গে বিয়ে হবে নয়নতারার

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




ইভ্যালি পরিচালনায় কমিটি গঠনে হাইকোর্টের আদেশের দিন পেছাল

প্রকাশিত:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | ৪৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি পরিচালনার জন্য কমিটি গঠনের আদেশের দিন পিছিয়ে দিয়েছেন হাইকোর্ট। কমিটি গঠনের জন্য প্রস্তাবিত ব্যক্তিদের ব্যাকগ্রাউন্ড পর্যালোচনা করে আদালত আগামী সপ্তাহে আদেশ দেবেন বলে জানিয়েছেন রিটকারী আইনজীবী সৈয়দ মাহসিব হোসাইন।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। তবে আদেশের দিন তারিখ জানানো হয়নি।

এর আগে সকালে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি পরিচালনার জন্য হাইকোর্ট যে কমিটি গঠনের কথা বলেছেন তার জন্য দুই সচিবসহ তিনজনের নাম পাঠায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

যাদের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে তারা হলেন- স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন বিভাগের সাবেক সচিব রেজাউল আহসান, ভূমি সংস্কার বোর্ডের সাবেক সচিব ইয়াকুব আলী পাটোয়ারী এবং ভূমি মন্ত্রণালয়ের সাবেক সচিব মাকছুদুর রহমান পাটওয়ারী। এর মধ্যে একজনকে রাখা হবে কমিটিতে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আইনজীবী তাপস কান্তি বল এ তালিকা আদালতে দাখিল করেন।

এর আগে গতকাল ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি পরিচালনার জন্য কমিটি করে দেওয়ার কথা বলেন হাইকোর্ট। একজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি, একজন সচিব, চার্টার্ড অ্যাকাউনটেন্ট ও একজন আইনজীবীকে কমিটিতে রাখার ইচ্ছা ব্যক্ত করেন আদালত।

শুনানিতে আদালত আইনজীবীদের উদ্দেশে বলেন, কোম্পানির দুজন সদস্য, দুজনই কারাগারে। কীভাবে বোর্ড মিটিং হবে? বোর্ড মিটিং করতে গেলেও তা করা যাচ্ছে না। বোর্ড মিটিং না করতে পারলে টাকা কোথায় কী আছে, সে বিষয়েও জানা যাচ্ছে না। সাবেক বিচারপতি, সচিব ও চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টসহ চার জন রাখা যেতে পারে। বেসরকারি কোম্পানিতে চার জনের বেশি সদস্যের দরকার নেই।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির সব নথি তলব করেছিলেন হাইকোর্ট। সে অনুযায়ী ১১ অক্টোবর বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের হাইকোর্ট বেঞ্চে সব নথি দাখিল করেন জয়েন্ট স্টক কোম্পানির রেজিস্ট্রার।

তার আগে ২২ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বিক্রি ও হস্তান্তরে নিষেধাজ্ঞা দেন হাইকোর্ট।


আরও খবর
ইকবালসহ ৪ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




রাজধানীর পিকক বারে র‍্যাবের অভিযান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর শাহবাগের হাবিবুল্লাহ রোড এলাকায় পিকক বার থেকে বিপুল পরিমাণ দেশি-বিদেশি মদ ও বিয়ার উদ্ধার করেছে র‍্যাব।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে অভিযান শুরু করে র‍্যাব-৪। অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক বলেন সাকুরা বারের লাগোয়া গলিতে পিকক বারে মাদক বিরোধী অভিযানে এখন পর্যন্ত ১০ / ১২ জনকে আটক হয়েছে। জব্দ করা মাদকের পরিমাণ প্রায় তিন টন। এ ছাড়া বারে আসা ২৫ ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: র‍্যাবের অভিযান

আরও খবর
ইকবালসহ ৪ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




পূজার পাঁচ দিনের সাজপোশাক

প্রকাশিত:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | ৫২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
পাঞ্জাবি ছাড়া পূজা যেন ভাবাই যায় না। প্রতি বারের মতো এবার পূজাতেও পাঞ্জাবির কাটছাঁট, ডিজাইন আর কলারে এসেছে পরিবর্তন

দিনগুণে পূজার পোশাক

এবার পূজার সময়টা যেহেতু দিনে গরম আর রাতে হালকা শীতের আমেজে, তাই এ সময় পূজার পোশাক নির্বাচনে আরামের দিকটাতে নজর দিতে হবে। শারদীয় দুর্গাপূজা বেশ কয়েকদিন ধরে চললেও ষষ্ঠী থেকে দশমী এ পাঁচ দিন সাজপোশাকের আয়োজনটা থাকে জোড়ালো। ষষ্ঠী এবং সপ্তমী পূজা শুরুর দিকে হওয়ায় এ দুই দিন সাধারণত সবাই হালকা স্নিগ্ধ সাজপোশাক বেছে নেন। সকালে মণ্ডপে অঞ্জলি দিতে যাওয়ার সময় শাড়ি, সালোয়ার কামিজ যে কোনোটাই পরতে পারেন। সন্ধ্যায় ভালো লাগবে সিল্কের হালকা নকশার মিষ্টি রঙা পোশাক। ছেলেরা পরতে পারেন সুতি কাপড়ের পাঞ্জাবি-পায়জামা কিংবা ট্রাউজার, ফতুয়া। অষ্টমী পূজায় অঞ্জলি বিশেষভাবে পালন হয় এবং এদিন কুমারী পূজা হওয়ায়। তাই সবাই চায় এদিন একটু জমকালো সাজপোশাক পরতে। অষ্টমীতে বেনারসি, কাতানের মতো ভারি শাড়ি পরতে পারেন। সালোয়ার-কামিজ পরলেও একটু ভারি কাজের নকশা বেছে নিন। ছেলেদের এদিন তসর, বলাকা সিল্ক, অ্যান্ডি সিল্ক, অ্যান্ডি সুতি পাঞ্জাবি বেশ মানায়। নবমীতে মেয়েরা পরতে পারেন সালোয়ার-কামিজ, গাউন, লং স্কার্ট প্রভৃতি। ছেলেদের ভালো লাগবে পাঞ্জাবি। তবে এ দিনটিতে পায়জামার বদলে ধুতি কিংবা প্যান্ট পরলে লুক চেঞ্জ হবে। দশমীতে সবাই সিঁদুর খেলায় মেতে ওঠে। তাই গাঢ় রঙের সাজপোশাক বেছে নিন। দশমীতে লাল শাড়ি, সাদা শাড়ি লাল পাড়ের ঐতিহ্য লক্ষ করা যায়। তবে সাদা শাড়ি লাল পাড়ই যে পরতে হবে এমনও কোনো কথা নেই। জমিনে হালকা কাজ, ভারি আঁচলের কাতান, বেনারসিও চলতে পারে। রঙের ক্ষেত্রে কালচে মেরুন, ম্যাজেন্টা, সোনালি ভালো লাগবে। ছেলেরা এদিন ধুতি পরে বৈচিত্র্য আনতে পারেন। ধুতির সঙ্গে মিলিয়ে পরতে পারেন রাজকীয় মোটিফের পাঞ্জাবি। রাতে ফরমাল শার্ট-প্যান্ট, একরঙা পাঞ্জাবির সঙ্গে প্রিন্স কোট পরে বাজিমাত করতে পারেন।

আজও স্বতন্ত্র, অমলিন শাড়ি

আধুনিকা হাজারো নকশার পোশাকের ভিড়ে শাড়ি আজও স্বতন্ত্র, অমলিন। আর দুর্গোৎসবে শাড়ির সাজ চিরন্তন। ঐতিহ্যবাহী গরদের সাদা জমিনে লাল পাড়ের শাড়ির পাশাপাশি ভিন্নতা আনতে পূজার শাড়িতে এখন ডিজাইনাররা শরতের নীল, সবুজ, লাল, কমলাসহ বিভিন্ন রং ব্যবহার করছেন। জনপ্রিয় এখন দেশি সিল্ক, সুতি, মসলিন, জামদানি, কাতান শাড়ি। শঙ্খ, দুর্গা মায়ের গহনা, পদ্ম, ওম, অস্ত্র প্রভৃতি মোটিভ ব্যবহার হয়েছে পূজার শাড়িতে। নকশা ফুটিয়ে তুলতে এবার স্ক্রিন প্রিন্ট এবং হ্যান্ড অ্যাম্ব্র্র্রয়ডারির ব্যবহার বেশি হয়েছে। এ ছাড়া টাই-ডাই, অ্যাপলিক, মেশিন অ্যাম্ব্রয়ডারি, আড়িও নান্দনিক রূপে এসেছে শাড়ির নকশায়। পূজার শাড়ির সঙ্গে বেশ মানায় থ্রি-কোয়ার্টার হাতা, ঘটি হাতা, টিউলিপ হাতা, লম্বা হাতায় কুঁচি দেওয়া নকশার ব্লাউজ।

পূজার পাঞ্জাবি

পাঞ্জাবি ছাড়া পূজা যেন ভাবাই যায় না। প্রতি বারের মতো এবার পূজাতেও পাঞ্জাবির কাটছাঁট, ডিজাইন আর কলারে এসেছে পরিবর্তন। লং প্যাটার্নের পাশাপাশি সেমি লংও চলছে। রেগুলার ফিটের পাশাপাশি স্লিমফিট এখন ফ্যাশনেবল। পাঞ্জাবির গলায় এবার ব্যান্ড কলার, শার্টের কলার ছাড়াও সাদামাটা কাট চোখে পড়বে।

শেরওয়ানি গলার পাঞ্জাবি এখন অনেকেরই পছন্দ। সুতার কাজ ছাড়াও ভিন্ন কাপড়ের প্যাঁচওয়ার্ক, মেশিন অ্যাম্ব্রয়ডারি, ব্লক বেশ চলছে। স্ট্রাইপ ও প্রিন্ট পাঞ্জাবিও রয়েছে। পূজা কিছুটা গরম আর বৃষ্টির সময়টাতে হওয়ায় পাঞ্জাবির কাপড় যাতে আরামদায়ক হয় সেদিকে বিশেষ লক্ষ্য রাখা হয়েছে।

কুর্তি-কামিজে নতুনত্ব

মেয়েদের পূজার পোশাকে এবার শুধু সিঙ্গেল বা থ্রি-পিস নয়, ফোর পিসও নজর কাড়বে। ভারি কাজের লং ফোর পিসগুলো বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। অনেকটা কামিজের আদলে তৈরি নতুন প্যাটার্নের গাউনও নজর কাড়ছে। নতুন নকশার এ গাউনগুলোর ওপরে আলাদাভাবে কলার দেওয়া শর্ট কোটি ব্যবহার করা হয়েছে। জর্জেটের টিউনিকও জনপ্রিয়তা পেয়েছে। গোল গলা, ল্যান্টার্ন হাতা, উঁচু-নিচু ছাঁটে কাটা হেম আর পিনটাকের কাজের এ টিউনিকগুলোতে ফ্লোরাল মোটিফের পাশাপাশি আল্পনা ধাঁচের নকশা করা হয়েছে। প্যাঁচওয়ার্কের কাজ করা লম্বা ধাঁচের কোটিতে নতুনত্ব পাওয়া যাবে। এর সঙ্গে বেল্ট দিয়ে স্টাইল করে পরলে গর্জিয়াস লুক আসবে। মিডি কামিজ কিংবা ফ্রক কুর্তির প্রতি আগ্রহ তৈরি হয়েছে তরুণীদের। পূজার কালেকশনে মেয়েদের বিভিন্ন ধরনের পোশাকে লাইন, সিমেট্রিক, অ্যাসিমেট্রিক প্যাটার্নে তৈরি হয়েছে। বরাবরের মতো অধিকাংশ হাতা ঢোলা এবং ছড়ানো স্টাইলে করা হয়েছে। ফেব্রিক হিসাবে ব্যবহার হয়েছে সুতি, ভয়েল, লিনেন, জর্জেট, সফট সিল্ক ছাড়াও বিভিন্ন রকম অর্নামেন্টেড কাপড়। পূজায় শুধু যে দেশীয় ঘরানার সাজপোশাকই পরতে হবে, সেই ধারা ভেঙেছে অনেক আগেই। দুর্গোৎসবে অনেকেই এখন প্রতিদিন শাড়ি বা সালোয়ার কামিজ না পরে দু’একদিন ফিউশন পোশাক পরেন।

ক্যাজুয়ালে নজরকাড়া

ছেলেরা ষষ্ঠী থেকে নবমীতে পরতে পারেন ক্যাজুয়াল পোশাক। ক্যাজুয়াল পোশাকের মধ্যে গোল গলা ও কলার দুই ধরনের টি-শার্টই এখন চলছে। একরঙা ও চেকের টি-শার্টেরও কদর বেশ। চাইলে যে কোনো পূজায় দুপুরে বন্ধুবান্ধবের আড্ডায় কিংবা পূজামণ্ডপে ঘোরার সময় টি-শার্ট, শার্ট, ফতুয়া পরা যায়। এখন ব্লক, বাটিক, স্কিনপ্রিন্টসহ নানা ধরনের কাজ হচ্ছে টি-শার্টগুলোতে।

বয়স্কদের পূজার পোশাক

বয়স্কদের জন্য হালকা রং নকশার আরামদায়ক ফেব্রিকে তৈরি করা হয়েছে পূজার পোশাক। বিভিন্ন ধরনের সুতি শাড়ি, তাঁতের শাড়ি, সিল্ক শাড়িতে চিকন পাড়ে হালকা রং নকশা যেমন চোখে পড়বে তেমনি চওড়া পাড়ের শাড়িও আছে। তবে বয়স্কদের শাড়ির পাড় হালকা রাখা হয়েছে। নকশায় তুলে আনা হয়েছে পূজার পটভূমিতে তৈরি বিভিন্ন মোটিভ। পাঞ্জাবির ক্ষেত্রে আরামদায়ক ফেব্রিক এবং লুজ ফিটিংয়ে বেশি প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। কলারে চিকন কাজ হালকা রং ব্যবহার হয়েছে। শার্টে ব্যবহার হয়েছে পূজার বিভিন্ন মোটিভ।

শিশুর পোশাকে স্টাইলিশ লুক

শিশুদের জন্য নানা ধরনের স্টাইলিশ পোশাক পাওয়া যাচ্ছে। আরাম পেতে সুতি কাপড়ে তৈরি হয়েছে অধিকাংশ পোশাক। রঙের ক্ষেত্রে উজ্জ্বল রংকেই প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। শিশুদের জন্য অ্যালাইন কাট, হাতাকাটা পোশাক ছাড়াও ঘটি হাতার ফ্রক, টপসের কালেকশন বেড়েছে। পার্টির জন্য কিনতে পারেন অ্যান্ডি সিল্ক, জর্জেট, লিনেনের ফ্রক, স্কার্ট, গাউন। ছেলে শিশুদের শার্ট, টি-শার্ট, ফতুয়া, কাতুয়ায় প্রাধান্য পেয়েছে শর্ট ও ফুল স্লিভ। সাদা পাঞ্জাবির পাশাপাশি ভাইব্রেন্ট কালারের পাঞ্জাবি রাখা হয়েছে।

আছে ফ্যামিলি পোশাক

বিভিন্ন উৎসবে এখন একই নকশার পোশাকে পরিবারের সবাই সাজার সুযোগ রয়েছে। বরাবরের মতো বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজ এবারও পূজা উপলক্ষ্যে নিয়ে এসেছে দারুণ সব ডিজাইনের পূজার পোশাক। শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, পাঞ্জাবি, বাচ্চাদের পোশাক সব ড্রেসেই একই মোটিভে নকশা করা হয়েছে এসব পোশাকে। গতবারের মতো এবারও পূজা উদযাপিত হতে যাচ্ছে করোনা মহামারির মধ্যেই। তাই কেনাকাটার ক্ষেত্রে এবং পরে পূজামণ্ডপে ঘুরে বেড়াতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন। জমকালো পোশাক আর ভরপুর সাজগোজ করলেও অবশ্যই মাস্ক পরুন।


আরও খবর
আজকের ভালো মন্দ

শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১

আজ আপনার জন্মদিন হলে

বুধবার ২০ অক্টোবর ২০21




তৃণমূল আ.লীগের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠান বর্জন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৫ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৫ অক্টোবর ২০২১ | ৩৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রূপগঞ্জ প্রতিনিধি:

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী বাছাইয়ে অনিয়মের অভিযোগ এনে সমর্থন ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠান বর্জন করেছে কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কায়েতপাড়া ইউনিয়নের নাওড়া এলাকায় চেয়ারম্যানের অস্থায়ী কার্যালয়ে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় রূপগঞ্জে এমপি এবং বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গাজী গোলাম দস্তগীর (বীর প্রতিক) এর বিরুদ্ধে তারা এই অনিয়মের অভিযোগ আনেন।

প্রতিবাদ সভায় কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সামসুল আলম জানান, দ্বিতীয় দফায় আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে রূপগঞ্জের ৫ টি ইউনিয়ন তফসিলভুক্ত হয়। এরমধ্যে কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদও রয়েছে। চলতি নির্বাচনে কায়েতপাড়া ইউনিয়নের সকল কার্যনির্বাহী সদস্য ও ওয়ার্ড সদস্যগণ বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ রফিকুল ইসলামের ভাই মিজানুর রহমানকে সমর্থন করেন। এদিকে কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের লিখিত আপত্তি থাকার পরও রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও স্থানীয় এমপি গাজী গোলাম দস্তগীর (বীর প্রতিক) তার পছন্দের প্রার্থী জাহেদ আলীকে তৃনমূলের সমর্থনে জেতাতে মঙ্গলবার বিকেলে তার বাড়িতে সমর্থন ভোটের আয়োজন করেন। এদিকে তিনি নিয়ম বহিঃভূতভাবে কায়েতপাড়া ৯ নং ওয়ার্ডের অর্ন্তগত চনপাড়া পূর্ণবাসন কেন্দ্রকে সাংগঠনিক ইউনিয়ন দাবি করে সেখানে রাতারাতি ১৮ জন ভোটার সৃষ্টি করে। যা চরম হাস্যকর ও পক্ষপাতমুলক বলে দাবি সামসুল আলমের । এসব কারনে তারা পুরো ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ মন্ত্রী গাজীর আয়োজিত তৃনমূল ভোটের অনুষ্ঠান বর্জন করেন।

কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এডভোকেট আব্দুল আউয়াল জানান, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ৬৪ জন কার্যকরী সদস্যর মধ্য ১৫ জন মারা গেছেন। প্রবাসে রয়েছেন একজন। দুই জন দলত্যাগ করেছেন। ৯ জন মারাত্মক অসুস্থ্য ও বিছানায় শয্যাশায়ী। বর্তমানে ভোটার রয়েছে ৩৭ জন। এরমধ্য আমরা এখানে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত রয়েছি ৩০ জন। যারা সবাই মিজানুর রহমানকে সমর্থন করেছি। তাহলে মন্ত্রী গাজী কিভাবে জাহেদ আলীকে গায়েবী ভোটে প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিতে চেষ্টা চালাচ্ছেন। প্রতিবাদ সভা শেষে তারা সেখানে মন্ত্রীর এই প্রহসনমূলক সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করেন।


আরও খবর



আইরিশ পেসারের বিশ্বকাপে প্রথম রেকর্ড

প্রকাশিত:সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ | ৩০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এর আগে দুটি ডাবল হ্যাটট্রিক হয়েছিল। ২০১৯ সালে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আফগানিস্তানের স্পিনার রশিদ খান প্রথম এই কীর্তি গড়েছিলেন। একই বছর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে রেকর্ডটি গড়েন লঙ্কান কিংবদন্তি  লাসিথ মালিঙ্গা। এবার তৃতীয় রেকর্ডটি গড়লেন আয়ারল্যান্ডের পেসার কার্টিস কাম্পার। অবশ্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম রেকর্ড এটি।

টানা চার বলে চার উইকেট নিয়ে এই রেকর্ড গড়েন কাম্পার। ক্রিকেটে সাধারণত টানা চার বলে চার উইকেট নিলেই ডাবল হ্যাটট্রিক ধরা হয়।

আজ সোমবার আবুধাবিতে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে আয়ারল্যান্ড পেসার কাম্পার এই ডাবল হ্যাটট্রিক করেন। ইনিংসের দশম ওভারে টানা চার বলে চার ব্যাটসম্যানকে ফেরান তিনি। ৯.২ ওভারে কলিন অ্যাকারম্যানকে প্রথম আউট করেন। পরের বলে লেগ বিফোরে সাজঘরে পাঠান রায়ান টেন ডেসকাটকে। পরের দুই বলে স্কট এডওয়ার্ডস ও রোয়েলফ ভন ডার মারউইকে সাজঘরে পাঠিয়ে তুলে নেন চার উইকেট।

প্রথম ওভারে ১২ রান দেওয়া ক্যাম্পারের দুই ওভার শেষে বোলিং ফিগার ছিল ২-০-১৪-৪। শেষ পর্যন্ত চার ওভারে ২৬ রান দিয়ে চার উইকেট নেন তিনি।

নিউজ ট্যাগ: কার্টিস কাম্পার

আরও খবর
অজিদের কষ্টার্জিত জয়

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১