আজঃ শনিবার ২২ জানুয়ারী 20২২
শিরোনাম

মহিলাদের কম বয়সি পুরুষ কেন পছন্দ

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | ২৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সমীক্ষা বলছে, ৪০ ছুঁই ছুঁই মহিলাদের সম্পর্কে জড়ানোর ক্ষেত্রে তাঁদের প্রথম পছন্দ কম বয়সি পুরুষরা। জীবনের এই মধ্যবর্তী বয়সে এসে মহিলারা খোঁজেন এমন কাউকে যিনি অভিজ্ঞতায় নয়, তাঁকে সমৃদ্ধ করবে উছ্বাস আর উন্মাদনায়। সঙ্গীর হাত ধরে আরও এক বার ফিরে যাওয়া যাবে ফেলে আসা মুহূর্তের আছে। এগুলি ছাড়াও আরও কতগুলি কারণ সম্প্রতি একটি সমীক্ষায় উঠে এসছে।

আকর্ষণীয় দেহসৌষ্ঠব :

অল্পবয়সি পুরুষদের পেশিবহুলতা, সুদৃঢ় ব্যক্তিত্ব বয়সে বড় মহিলাদের আকর্ষণ করে বেশি। শারীরিক ঘনিষ্ঠতার ক্ষেত্রে বয়সে বড় নারীদের প্রথম পছন্দ কম বয়সিরা।

ভরপুর উদ্দীপনা :

যখন অসম বয়সি দুজন মানুষ শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হচ্ছেন, অভিজ্ঞ সঙ্গীর সামনে স্বাভাবিক ভাবেই নিজেকে প্রমাণ করার একটা অকপট চেষ্টা থাকে। সেটা প্রতিফলিত হয় অল্পবয়সির উদ্দীপনায়।

মন মতো গড়ে নেওয়ায় সুযোগ :

বয়সে বড় এবং অভিজ্ঞ হওয়ার সুবাদে কম বয়সি সঙ্গীকে সম্পর্কের টানাপোড়েন, চড়াই-উতরাই নিয়ে নিজের মতো শেখানো যায়। এমনকি শারীরিক আমোদের নানা কলা কৌশল শিখিয়ে নেওয়ার সুযোগ থাকে। অধিকাংশ নারীরা যেটা পছন্দ করেন।

অহংকে বাড়িয়ে দেয় :

নিজের থেকে কম বয়সি পুরুষদের সঙ্গে সম্পর্কের ফলে নারীরা অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠেন। সে সম্পর্ক প্রেমের হোক বা শরীরী। নিজের সঞ্চিত অভিজ্ঞতার দ্বারা আরেক জন মানুষকে সমৃদ্ধ করতে পেরে পরিতৃপ্তি লাভ করেন নারীরা।

 


আরও খবর
আজ আপনার জন্মদিন হলে

শুক্রবার ২১ জানুয়ারী ২০২২

সহজেই বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু মূলার পায়েস

বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22




রাবিতে সশরীরে ক্লাস বন্ধ, হল খোলা রেখে অনলাইনে ক্লাস

প্রকাশিত:শুক্রবার ২১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২১ জানুয়ারী ২০২২ | ২১৫জন দেখেছেন

Image

রাবি প্রতিনিধিঃ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি)  সশরীরে ক্লাস বন্ধ থাকবে। তবে আবাসিক হলগুলো খোলা রেখে অনলাইনে ক্লাস চলবে। পরীক্ষা অনলাইনে হবে নাকি সশরীরে হবে সে সিদ্ধান্ত নিবে স্ব স্ব বিভাগ।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি)  বিকেল ৫টায় শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সারাদেশে শিক্ষার্থীদের মধ্যে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার হার আশঙ্কাজনকহারে বেড়ে যাওয়ায় আগামী দুই সপ্তাহ স্কুল, কলেজ বন্ধ রাখতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রজ্ঞাপন জারির পর  জরুরী সভাই এ ঘোষণা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। 

সভাশেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক প্রদীপ কুমার পাণ্ডে বলেন, করোনার পরিস্থিতি বেড়ে যাওয়ার  কারণে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের বিষয়টি বিবেচনা করে এই জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে সশরীরে ক্লাস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে অনলাইনে ক্লাস চালিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি আবাসিক হলগুলো খোলা রাখার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, দেশে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় মৃত্যু ব্যাপকহারে বেড়ে যাওয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

এর আগে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে দেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে  দীর্ঘ ১৮ মাস পর ২০২১ সালের গত ১২ সেপ্টেম্বর আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হয়। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পাঁচ মাস পর করোনাভাইরাস ও এর নতুন ধরন ওমিক্রন সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় আবারও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিল সরকার।


আরও খবর



‘টান’ দিয়ে বছর শুরু সিয়াম-বুবলীর

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জানুয়ারী 2০২2 | হালনাগাদ:রবিবার ০২ জানুয়ারী 2০২2 | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সময়ের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী ও হালের জনপ্রিয় নায়ক সিয়াম আহমেদ। নতুন বছরটি নতুনভাবে শুরু করলেন তারা। প্রথমবারের মতো একসঙ্গে 'টান' নামের একটি ওয়েব ফিল্মে জুটি বেঁধেছেন দুই তারকা। তাদেরকে এক ফ্রেমে বেঁধেছেন তরুণ নির্মাতা রায়হান রাফি।

সিয়াম এর আগে ওয়েব ফিল্মে কাজ করলেও বুবলীর জন্য এটিই প্রথম। এমনকি পরিচালক ও সহশিল্পীর সঙ্গেও প্রথম কাজ এই অভিনেত্রীর। তাই উচ্ছ্বাস, আগ্রহ একটু বেশিই বটে। ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে শুটিং। ঢাকার ভেতরেই চলছে চিত্রায়ন। তাতে অংশ নিচ্ছেন বুবলী ও সিয়াম।

বুবলী বলেন, ছবির গল্প, পরিচালক ও সহশিল্পী দেখেই কাজটি করছি। যখন কাজটির জন্য প্রস্তাব পেলাম, সবকিছু জানার পর দেখলাম ভালো কাজের একটি ফুল প্যাকেজ। রাফি ভাই এ সময়ের একজন পরীক্ষিত পরিচালক। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ভালো ভালো কাজ দিচ্ছেন দর্শকদের।

সিয়ামের সঙ্গে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা জানিয়ে তিনি বলেন, 'প্রথম দিন তার সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে একটু অস্বস্তি লাগছিল। কারণ তার সঙ্গে এতদিন হাই-হ্যালোর মধ্যেই ছিলাম। ওইভাবে মেলামেশা হয়নি আগে। কাজ করতে গিয়ে দেখলাম সহশিল্পীকে কমফোর্ট জোন দেওয়ার চেষ্টা করেন, ভালো কাজে উৎসাহিত করেন তিনি। যা বর্তমান সময়ে একজন সহশিল্পী হিসেবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এদিকে রোববার (২ জানুয়ারি) সকালে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবির মাধ্যমে নতুন কাজের ইঙ্গিত দেন সিয়াম। গাড়িতে তোলা সেই ছবির ক্যাপশনে অভিনেতা লেখেন, ২০২২-এর প্রথম শুটিং। সারপ্রাইজ আসছে। বোঝা গেল, সিয়ামের সেই সারপ্রাইজের নাম বুবলী।

জানা গেছে, আগামী ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত শুটিং চলবে। এতে সিয়াম-বুবলীর সঙ্গে আরও থাকছেন সোহেল মণ্ডল, নীলাঞ্জনা নীলা প্রমুখ। ওয়েব প্ল্যাটফর্মের জন্য নির্মিত হলেও সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহেও মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।


আরও খবর



একদিনে নতুন করে ৩০ লাখ করোনায় আক্রান্ত

প্রকাশিত:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | ২৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলমান করোনা মহামারিতে বিশ্বজুড়ে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা আরও বেড়েছে। একইসঙ্গে আগের দিনের উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বেড়েছে নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও। গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৮ হাজারের বেশি মানুষ। একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩০ লাখ ১৫ হাজার।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে রাশিয়া। প্রাণহানির তালিকায় এরপরই রয়েছে যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, ইতালি, স্পেন পোল্যান্ড ও ব্রাজিল। এতে বিশ্বব্যাপী করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩৩ কোটি ৫১ লাখের ঘর। অন্যদিকে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৫৫ লাখ ৭২ হাজার।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৮ হাজার ৩৬ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে তিন হাজারের বেশি। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৫৫ লাখ ৭২ হাজার ৮৯৪ জনে।

একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩০ লাখ ১৫ হাজার ১৬ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় ১১ লাখ। এতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৩ কোটি ৫১ লাখ ১৩ হাজার ৪০৫ জনে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। এই সময়ের মধ্যে দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৪৫ হাজার ২৯৯ জন এবং মারা গেছেন ১ হাজার ৭১৯ জন। করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৬ কোটি ৮৭ লাখ ৬৪ হাজার ৮৩২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ৮ লাখ ৭৭ হাজার ২৩৯ জন মারা গেছেন।

অন্যদিকে দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে রাশিয়া। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৬৮৮ জন এবং নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ৩১ হাজার ২৫২ জন। এছাড়া মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১ কোটি ৮ লাখ ৬৫ হাজার ৮১২ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ২২ হাজার ৬৭৮ জনের।

এছাড়া গত এক দিনে যুক্তরাজ্যে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৪ হাজার ৪৩২ জন এবং মারা গেছেন ৪৩৮ জন। মহামারির শুরু থেকে এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৫৩ লাখ ৯৯ হাজার ৩০০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ৫২ হাজার ৫১৩ জন মারা গেছেন। একই সময়ে ইতালিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ২৮ হাজার ১৭৯ জন এবং মারা গেছেন ৪৩৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ফ্রান্সে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৭৬৯ জন এবং মারা গেছেন ৩৭৫ জন। মহামারির শুরু থেকে এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৪৭ লাখ ৩৯ হাজার ২৯৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ২৭ হাজার ৬৩৮ জন মারা গেছেন। একই সময়ে কলম্বিয়ায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ২৮ হাজার ৮৪৯ জন এবং মারা গেছেন ১৩৮ জন।

এছাড়া জার্মানিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৯৫ হাজার ৯৮ জন এবং মারা গেছেন ১৯৯ জন। করোনা মহামারির শুরু থেকে ইউরোপের এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৮১ লাখ ৪০ হাজার ৪৪৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ১৬ হাজার ৬১০ জন মারা গেছেন। একই সময়ের মধ্যে ইউক্রেনে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ৫৫৮ জন এবং মারা গেছেন ১৮৮ জন।

লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় ও মৃত্যুর সংখ্যায় তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩১৭ জন এবং নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ১ লাখ ৩২ হাজার ২৫৪ জন। অপরদিকে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২ কোটি ৩২ লাখ ১৫ হাজার ৫৫১ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ২১ হাজার ৫৭৮ জনের।

এদিকে করোনায় আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। তবে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যার তালিকায় দেশটির অবস্থান তৃতীয়। মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ৩ কোটি ৭৮ লাখ ৯৬ হাজার ১১ জন এবং মারা গেছেন ৪ লাখ ৮৭ হাজার ২২৬ জন।

এছাড়া করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় তুরস্কে ১৫৭ জন, হাঙ্গেরিতে ৯৪ জন, দক্ষিণ আফ্রিকায় ১০০ জন, পোল্যান্ডে ৩৭৭ জন, কানাডায় ১৪৬ জন, স্পেনে ২৮৪ জন, আর্জেন্টিনায় ১৮৯ জন এবং ভিয়েতনামে ১৮৪ মারা গেছেন। অন্যদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় মেক্সিকোতে মারা গেছেন ৫৯ জন। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত উত্তর আমেরিকার এই দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ১ হাজার ৪৬৯ জনের।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ২০২০ সালের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে বৈশ্বিক মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে। এর আগে একই বছরের ২০ জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে সংস্থাটি।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর



আজ আপনার জন্মদিন হলে

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৫২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আজ আপনার জন্মদিন হলে পাশ্চাত্য জ্যোতিষে আপনি মকর রাশির জাতক/জাতিকা। আপনার জন্মসংখ্যা : ৩। আপনার ওপর প্রভাবকারী গ্রহ : শনি ও বৃহস্পতি। আপনার শুভ সংখ্যা : ৩ ও ৮। শুভ বার : শনি ও বৃহস্পতি। শুভ রত্ন : নীলা ও পোখরাজ।

মেষ (২১ মার্চ-২০ এপ্রিল)

কোনো আশা পূরণ হতে পারে। সামাজিক অগ্রগতি অব্যাহত থাকতে পারে। কাজকর্মে ভাগ্যের আনুকূল্য পেতে পারেন। উচ্চ শিক্ষার্থীদের জন্য সময় অনুকূল থাকতে পারে।

বৃষ (২১ এপ্রিল-২০ মে)

দিনটি মিশ্র সম্ভাবনাময়। ব্যবসায়িক দিক খুব একটা ভালো যাবে না। বিক্রয় বাণিজ্যে লোকসান হতে পারে। সামাজিক সংকট এড়িয়ে চলুন। রিপুকে সংযত রাখুন।

মিথুন (২১ মে-২০ জুন)

কোনো ঘনিষ্ঠ বন্ধুর সহযোগিতা পেতে পারেন। ঘনিষ্ঠ কেউ শত্রুতা করতে পারে। বিপদ এড়িয়ে চলুন। ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে। বিক্রয় বাণিজ্যে লাভযোগ আছে।

কর্কট (২১ জুন-২০ জুলাই)

শারীরিক অসুস্থতাকে অবহেলা করবেন না। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করুন। ব্যক্তিগত দায় দায়িত্ব বৃদ্ধি পেতে পারে। কর্মস্থলে সহকর্মীদের সহযোগিতা পেতে পারেন। শত্রু সম্পর্কে সতর্ক থাকুন।

সিংহ (২১ জুলাই-২১ আগস্ট)

নিজের মনোভাব স্পষ্ট ভাবে প্রকাশ করুন। সেক্ষেত্রে সাফল্য পেতে পারেন। সন্তানের কোনো সাফল্য আনন্দদায়ক হতে পারে। বিদ্যার্থীদের জন্য দিনটি শুভ। পড়াশোনায় মন বসাতে পারবেন।

কন্যা (২২ আগস্ট-২২ সেপ্টেম্বর)

কোনো স্থাবর সম্পত্তি ক্রয় করতে পারেন। মন ভালো থাকবে। পারিবারিক পরিবেশ অনুকূল থাকতে পারে। কোনো প্রত্যাশা পূরণ হতে পারে। জ্ঞানস্পৃহা বৃদ্ধি পাবে।

তুলা (২৩ সেপ্টেম্বর-২২ অক্টোবর)

আত্মীয়দের সঙ্গে যোগাযোগ হতে পারে। ব্যক্তিগত যোগাযোগে সুফল পাবেন। প্রাপ্ত তথ্যের উপর নির্ভর করতে পারেন। প্রবাসী আপনজনের সঙ্গে যোগাযোগ হতে পারে। প্রতিবেশীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় থাকতে পারে।

বৃশ্চিক (২৩ অক্টোবর-২১ নভেম্বর)

অধীনদের কাজে লাগাতে পারবেন। মূল্যবোধ সমুন্নত থাকতে পারে। প্রদত্ত প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে পারবেন। আর্থিক দিক ভালো যাবে। পাওনা টাকা আদায় হতে পারে।

ধনু (২২ নভেম্বর-২০ ডিসেম্বর)

শরীর ভালো থাকবে। মানুষিক প্রশান্তি বজায় থাকতে পারে। নিজের প্রভাব-প্রতিপত্তি বৃদ্ধি পেতে পারে। ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে। ভালো ব্যবহার দিয়ে কাজ আদায় করতে পারবেন।

মকর (২১ ডিসেম্বর-১৯ জানুয়ারি)

সম্ভাব্য ক্ষেত্রে বিদেশযাত্রা হতে পারে। কোনো গুরুত্বপূর্ণ কাজ শেষ করতে পারবেন। ব্যয় বৃদ্ধি পেতে পারে। গোপন শত্রুরা ক্ষতি করার চেষ্টা করতে পারে। গোপন শত্রু সম্পর্কে সতর্ক থাকুন।

কুম্ভ (২০ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

কোনো আশা পূরণ হতে পারে। রাজনীতিবিদদের জন্য দিনটি শুভ। সাংগঠনিক কাজে সুফল পাবেন। আর্থিক দিক ভালো যাবে। পেশাগত যোগাযোগ ফলপ্রসূ হতে পারে।

মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

সামাজিক অবস্থান সুদৃঢ় হতে পারে। পাবলিক ইমেজ বৃদ্ধি পাবে। কোনো উচ্চাশা পূরণ হতে পারে। কর্ম পরিবেশ অনুকূল থাকবে। কর্মস্থলে সহকর্মীদের সহযোগিতা পেতে পারেন।

নিউজ ট্যাগ: আজকের রাশিফল

আরও খবর
আজ আপনার জন্মদিন হলে

শুক্রবার ২১ জানুয়ারী ২০২২

সহজেই বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু মূলার পায়েস

বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22




‘গবেষণা জাহাজ ইলিশ উৎপাদনে ব্যাপক সক্ষমতা বৃদ্ধি করবে’

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৩৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ইলিশ উৎপাদনে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে। অতীতের চেয়ে এখন বেশি ইলিশ উৎপাদন হচ্ছে। তবে ইলিশের সাময়িক উৎপাদন বৃদ্ধি নয় বরং গবেষণার মাধ্যমে আমরা ইলিশ উৎপাদনে সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে চাই। ইলিশ উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি ইলিশের গুণগত মান আমরা নিশ্চিত করতে চাই

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের নতুন গবেষণা জাহাজ ইলিশ উৎপাদনে ব্যাপক সক্ষমতা বৃদ্ধি করবে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম

মঙ্গলবার (০৪ জানুয়ারি) খুলনা শিপইয়ার্ডে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের জন্য শিপইয়ার্ড কর্তৃক নবনির্মিত ইলিশ গবেষণা জাহাজ হস্তান্তর উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা জানান।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী আরো বলেন, "ইলিশ উৎপাদনে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে। অতীতের চেয়ে এখন বেশি ইলিশ উৎপাদন হচ্ছে। তবে ইলিশের সাময়িক উৎপাদন বৃদ্ধি নয় বরং গবেষণার মাধ্যমে আমরা ইলিশ উৎপাদনে সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে চাই। ইলিশ উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি ইলিশের গুণগত মান আমরা নিশ্চিত করতে চাই। অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতিতে ইলিশ কখনো বিপন্ন যাতে না হয় সেজন্য আমাদের গবেষণা ইনস্টিটিউট রয়েছে, বিভিন্ন ল্যাবরেটরি রয়েছে। ইলিশ গবেষণার ক্ষেত্রে গবেষণা জাহাজ বড় ধরনের সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। আমরা চাই নদীমাতৃক বাংলাদেশে যেন পৃথিবীর সবচেয়ে সুস্বাদু ইলিশ পাওয়া যায়"।

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, "বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অপ্রতিরোধ্য গতি নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। খুলনা শিপইয়ার্ডে গবেষণা জাহাজ তৈরি আমাদের সক্ষমতার পরিচয়। জাহাজ নির্মাণে ভবিষ্যতে আমরা বিদেশের উপর নির্ভর করবো না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রায়ই বলেন আমাদের নিজেদের সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে হবে। আজ দেশের মানুষের সাংবিধানিক মৌলিক চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হয়েছে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। উন্নয়নের অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বিশ্বের বিস্ময় হবে বাংলাদেশ"।

মন্ত্রী আরো বলেন, "করোনার সময় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের দরজা একদিনের জন্যও বন্ধ ছিল না। কারণ এ মন্ত্রণালয়ের কাজ স্থবির হয়ে গেলে মানুষের পুষ্টি ও আমিষের চাহিদা মেটানো মাছ, মাংস, দুধ, ডিমের উৎপাদন বন্ধ হয়ে যাবে। এ খাতে কাজ করা মানুষ বেকার হয়ে যাবে। এ খাতের রপ্তানি বন্ধ হয়ে যাবে। এভাবে আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতকে একটা বৈপ্লবিক পরিবর্তনের দিকে নিয়ে এসেছি"।

এ সময় চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, "এ দেশটা আইনসঙ্গতভাবে চলবে। দেশের সর্বোচ্চ আইন সংবিধান। সংবিধানে যেটা নেই সে জাতীয় আবদার করলে সেটা দেয়ার কোন সুযোগ থাকবে না। অসাংবিধানিক কোন কিছু দাবী করা আইনের শাসনের পরিপন্থী। বিএনপির তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি সংবিধানসম্মত নয়। তাই এ দাবি কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। দেশে বিএনপি-জামাত অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি সৃষ্টি করে ইমেজ সংকটে পড়েছে। এখন যদি আবার সে চেষ্টা কেউ করে এ দেশের মানুষই তাদের কঠোরভাবে মোকাবিলা করবে। বর্তমান সরকার প্রধান বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য উত্তরসূরি শেখ হাসিনা। তিনি বারবার মৃত্যুর মুখোমুখি হয়েও সমঝোতা করেন নি। কাজেই অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করে আওয়ামী লীগ বা সরকারকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে কোন লাভ নেই। জনগণের ম্যান্ডেট না নিয়ে যেনতেন উপায়ে বিএনপির ক্ষমতায় আসার দুঃস্বপ্ন কখনো সফল হবে না। কারণ নেতৃত্বহীন, আদর্শহীন বিএনপিতে মানুষের আস্থা নেই"।

খুলনা শিপইয়ার্ড লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কমডোর খন্দকার আক্তার হোসেনের সভাপতিত্বে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। সম্মানীয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই)-এর মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মাহমুদ। খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মো. ইসমাইল হোসেন, খুলনা নেভাল এরিয়া কমান্ডার রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, খুলনার জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার, বিএফআরআই-এর ইলিশ গবেষণা জোরদারকরণ প্রকল্পের পরিচালক মো. আবুল বাশার এবং বিএফআরআই ও খুলনা শিপইয়ার্ডের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউটের ইলিশ গবেষণা জোরদারকরণ প্রকল্পের আওতায় খুলনা শিপইয়ার্ড লিমিটেড এ গবেষণা জাহাজ নির্মাণ করেছে। ৮৬ ফুট দৈর্ঘ্যের ও ১৯ দশমিক ৬৮ ফুট প্রস্থের এ জাহাজে ফিশ ফাইন্ডার, ইকো-সাউন্ডার, নেভিগেশন এবং অত্যাধুনিক টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা, অগ্নি নির্বাপক সরঞ্জামাদি, আধুনিক ইলিশ গবেষণা ল্যাবরেটরি, নেটিং সিস্টেম, পোর্টেবল মিনি হ্যাচারিসহ অন্যান্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সংযোজন করা হয়েছে। জাহাজটি দিয়ে নদী এবং সাগরের মোহনায় ইলিশের প্রজনন এবং বিচরণক্ষেত্রের পরিবর্তন পর্যবেক্ষণ এবং নতুন নতুন ক্ষেত্র চিহ্নিত করা সম্ভব হবে। এছাড়া ইলিশের সর্বোচ্চ সহনশীল উৎপাদন, ইলিশের গতিবিদ্যা, জীবনচক্র ও উৎপাদনশীলতার ওপর পরিবেশ ও জলবায়ুগত প্রভাব নির্ণয় সংক্রান্ত গবেষণা পরিচালনা করা হবে।



আরও খবর