আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

মুদি দোকানি থেকে যেভাবে মানব পাচারকারী

প্রকাশিত:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | ৪৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

এইচএসসি পাস করা সাইফুল ইসলাম ওরফে টুটুল (৩৮) মেহেরপুরের গাংনী থানাধীন কামন্দী গ্রামে মুদি দোকানদার ছিলেন। মাঝে মধ্যে ঢাকায় আসতেন। লোভে পড়ে মানবপাচারকারী চক্রে জড়িয়ে পড়েন। শুরুতে চক্রের দালাল হিসেবে বিভিন্ন এজেন্সির মাধ্যমে বিদেশে লোক পাঠানো শুরু করেন। পরে নিজেই রাজধানীর বাড্ডা এলাকায় খুলে বসেন টুটুল ওভারসিজ, লিমন ওভারসিজ ও লয়াল ওভারসিজ নামে ৩টি এজেন্সি।

সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানান র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক (সিও) অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক। তার দেওয়া তথ্য বিস্তারিতভাবে নিচে তুলে ধরা হলো-

চা দোকানি পরিচয় দিতেন এয়ারলাইন্সের ম্যানেজার

টুটুলের হাত ধরে প্রতারণায় জড়িয়ে পড়েন চা দোকানি আবু তৈয়ব (৪৫)। টুটুলের কথামতো বিভিন্ন অঞ্চলের বেকার ও শিক্ষিত অনেক নারী ও পুরুষকে বিদেশে পাঠানোর কথা বলে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিতো সে। পড়াশুনা না জানা তৈয়ব চায়ের দোকানি হলেও পরিচয় দিতেন স্বনামধন্য এয়ারলাইন্সের ম্যানেজার হিসেবে। টুটুলের প্ররোচনায় চক্রে জড়িয়ে প্রতারণামূলকভাবে বিদেশে মানবপাচারসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার নামে হাতিয়ে নেন লাখ লাখ টাকা। অনেককে দিয়েছেন চাকরির ভুয়া নিয়োগপত্রও।

মানবপাচার চক্রের অন্যতম সহযোগী শাহ মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন লিমন ও মারুফ হাসান ছিলেন বেতনভুক্ত কর্মচারী। জাহাঙ্গীর আলম, লালটু ইসলাম, আলামিন হোসাইন ও আব্দুল্লাহ আল মামুন টার্গেট সংগ্রহ, প্রার্থীর পাসপোর্টের ব্যবস্থা, কথিত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা, টাকা সংগ্রহ, প্রাথমিক মেডিকেল সম্পন্ন করাসহ অন্যান্য কাজে সহায়তা করে আসছিলেন।

টার্গেটে বেকার ও অসচ্ছল তরুণ-তরুণীরা

র‌্যাব জানায়, প্রতারক টুটুল ও তৈয়বের নির্দেশে চক্রের সদস্যরা টার্গেট সংগ্রহে দেশের বেকার ও অসচ্ছল যুবক-তরুণীদের সৌদি আরব, জর্ডান ও লেবাননসহ বিভিন্ন দেশের বাসাবাড়িতে লোভনীয় বেতনে কাজ দেওয়ার নামে প্রলুব্ধ করত। এরপর বিদেশ যেতে আগ্রহীদের ঢাকায় মূলহোতা টুটুল ও তৈয়বের কাছে পাঠাত।

র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক বলেন, টুটুল ও তৈয়ব তাদের অফিসে এনে ভিকটিমদের বিদেশে বাসাবাড়িতে কাজের নামে পাঠানোর ভুয়া মানি রিসিট প্রদান করে। এ বাবদ প্রতিজনের কাছ থেকে ২ থেকে ৫ লাখ টাকা নিতো তারা। প্রশিক্ষণের ক্ষেত্রেও পাচারকারী চক্রের কয়েকজন সদস্য নিজেদের উচ্চশিক্ষিত বলে পরিচয় দিতো। মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের বাসাবাড়িতে কাজের প্রশিক্ষণ দিয়ে ভিকটিমদের কাছে গ্রহণযোগ্যতা আদায় করতো চক্রের সদস্যরা।

বিদেশে বাসাবাড়িতে নারীদের বিক্রি, আর কঠোর পরিশ্রমে পুরুষদের ব্যবহার

র‌্যাব বলছে, চক্রের কয়েকজন সদস্য অফিস স্টাফ হিসেবে পরিচয় দিয়ে ভিকটিমকে বিদেশে পাঠানোর জন্য পাসপোর্ট করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করত। এতে ভিকটিমদের মনে আর কোনো সন্দেহ থাকত না। পাসপোর্ট অফিসের দালালের সঙ্গেও সখ্য ছিল চক্রের সদস্যদের। কথিত মেডিকেল টেস্ট শেষে নারী ভিকটিমদের বাসাবাড়িতে বিক্রি এবং পুরুষ ভিকটিমদের অমানবিক কাজে নিয়োজিত করার উদ্দেশে সৌদি আরবের জেদ্দা ও রিয়াদ, জর্ডান ও লেবাননে টাকার বিনিময়ে বিক্রি করত তারা। ভিকটিমরা বিদেশে গিয়ে পরিবারের সঙ্গে আর যোগাযোগ করতে পারত না। যাদের বিদেশে পাঠানো সম্ভব হতো না তারা টাকা ফেরতে যোগাযোগ করলে ভয়ভীতি প্রদর্শন করা হতো।

এয়ারলাইন্সের ম্যানেজার পরিচয়ে প্রতারণা

মোজাম্মেল হক বলেন, চক্রের অন্যতম মূলহোতা গ্রেপ্তার তৈয়ব নিজেকে স্বনামধন্য এয়ারলাইন্সের ম্যানেজার হিসেবে পরিচয় দিয়ে শিক্ষিত বেকার তরুণ-তরুণীদের উচ্চ বেতনে লোভনীয় চাকরির কথা বলে যোগাযোগ করে। এরপর নিজ কার্যালয়ে নিয়ে আসত। বিভিন্ন বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশনে চাকরিসহ আরও কিছু প্রতিষ্ঠানে ভুয়া চাকরির যোগদানপত্র প্রদান করে বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাৎ করে। বিষয়টি ইতোমধ্যে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন তিনি।

অবৈধ হলেও যেভাবে পাচার করা হতো

বৈধতা না থাকার পরও কীভাবে মানবপাচার করেছিল টুটুল-তৈয়ব চক্র? জানতে চাইলে মোজাম্মেল হক বলেন, তাদের ৩টি ওভারসিজ প্রতিষ্ঠানের বৈধতা না থাকায় বৈধ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যোগাযোগ করে এখন পর্যন্ত অর্ধশতাধিক মানুষকে পাচার করেছে। এছাড়া শতাধিক মানুষকে বিদেশে পাঠানো কথা বলে হাতিয়ে নিয়েছেন কোটি টাকা। এখন পর্যন্ত ২৫ জনের মতো ভুক্তভোগী র‌্যাবে যোগাযোগ করেছেন। প্রতারিত ভুক্তভোগীর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

জনশক্তি রফতানিকারক প্রতিষ্ঠানের মালিকরা হয়রানির অভিযোগ তুলে মানববন্ধন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্মারকলিপি দিয়েছেন। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক বলেন, বৈধ কোনো জনশক্তি রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানকে হয়রানি করা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্দেশ্য নয়। তবে বৈধতার আড়ালে কেউ যাতে মানবপাচার করতে না পারে সেজন্যই আইন-প্রয়োগকারী সংস্থা সতর্ক ও অভিযান চালিয়ে আসছে।

উল্লেখ্য, মুদি দোকানদার থেকে ৩টি ওভারসিজ প্রতিষ্ঠানের মালিক বনে যাওয়া মধ্যপ্রাচ্যে মানবপাচারকারী চক্রের অন্যতম হোতা টুটুল ও সহযোগী তৈয়বসহ ৮ জনকে গ্রেপ্তারের পর চাঞ্চল্যকর এসব তথ্য জানিয়েছে র‍্যাব-৪। আজ বুধবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক (সিও) অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক এসব তথ্য জানান।

গ্রেপ্তার অন্যরা হলেন- গোপালগঞ্জের শাহ্ মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন লিমন (৩৮), মেহেরপুরের মো. মারুফ হাসান (৩৭), জাহাঙ্গীর আলম (৩৮) ও লালটু ইসলাম (২৮), শরীয়তপুরের আলামিন হোসাইন (৩০), কুষ্টিয়ার আব্দুল্লাহ আল মামুন (৫৪)।

র‌্যাবের অধিনায়ক মোজাম্মেল হক বলেন, সম্প্রতি কয়েকজন নারী ভিকটিমের অভিভাবকের মধ্যপ্রাচ্যে মানবপাচার সংক্রান্ত অভিযোগের ভিত্তিতে র‍্যাব-৪ ছায়া তদন্ত শুরু করে ও গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করে। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) রাত থেকে আজ বুধবার সকাল পর্যন্ত বাড্ডা থানাধীন লিংক রোডে টুটুল ওভারসিজ, লিমন ওভারসিজ ও লয়াল ওভারসিজে অভিযান চালিয়ে দুই নারীসহ ৪জন ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও তাদের কাছ থেকে ১০টি পাসপোর্ট, ৭টি ফাইল, ৪টি সিল, ১৭টি মোবাইল, ৫টি রেজিস্টার, ব্যাংকের চেক বই, ২টি কম্পিউটার, ৩টি লিফলেট এবং নগদ ১০ হাজার টাকা জব্দ করা হয়।

নিউজ ট্যাগ: র‍্যাব

আরও খবর



ইলিশ ধরার দায়ে ১২ জেলের জরিমানা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৭ অক্টোবর ২০২১ | ৬৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজবাড়ীর পদ্মা নদীতে সরকারি নি‌ষেধাজ্ঞা অমান্য ক‌রে ইলিশ ধরার দা‌য়ে অভিযানের তৃতীয় দি‌নে ১২ জেলেকে আটকের পর ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জেল-জরিমানা করা হ‌য়ে‌ছে।

গতকাল বুধবার (৬ অক্টোবর) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত চলা অভিযানে তা‌দের আটক করা হয়। এ সময় পাংশায় আটক ৪ জন জে‌লে‌কে উপ‌জেলার সহকারী ক‌মিশনার (ভূমি) নুজহাত তাস‌নীম ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা ক‌রে সবাইকে ২ হাজার ক‌রে মোট ৮ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

অন্যদিকে রাজবাড়ীর সদর উপজেলার আটক ৮ জন জেলেকে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল হুদার ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ২০ দিন করে জেল দেয়া হয়।

রাজবাড়ী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. ম‌শিউর রহমান জানান, অভিযানের তৃতীয় দি‌ন বুধবার (৬ অক্টোবর) সকাল থে‌কে বিকেল পর্যন্ত ইলিশ ধরার দা‌য়ে সদ‌রে ৮ ও পাংশায় ৪ জন জে‌লে‌কে আটক করা হয়। প‌রে তা‌দের ভ্রাম্যমাণ আদাল‌তের মাধ্য‌মে জেল-জ‌রিমানা করা হ‌য়ে‌ছে।


আরও খবর
মুনিয়া-শারুন আলাপ কী প্রমাণ করে?

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলায় রেলওয়ের কর্মচারী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | ৬২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কিশোরগঞ্জ রেলস্টেশনের রেস্টহাউসে পঞ্চম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় একমাত্র অভিযুক্ত মাহমুদুল হাসান সাগরকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব।

শুক্রবার (৮ অক্টোবর) ভোরে নেত্রকোনার বারহাট্টা উপজেলার ঝাউয়াইল গ্রামে রাতভর অভিযান চালিয়ে সাগরকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অভিযুক্ত সাগর শহরের পূর্ব তারাপাশা এলাকার আবদুল জলিলের ছেলে। তিনি কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনের দ্বিতীয় তলায় রেলওয়ে রেস্টহাউজের কেয়ারটেকার ছিলেন।

র‌্যাব-১৪ কিশোরগঞ্জ ক্যাম্পের অধিনায়ক লে. কমান্ডার এম শোভন খান জানান, গত ২০ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যার পর বন্ধুর জন্মদিনের কথা বলে পঞ্চম শ্রেণির ওই স্কুলছাত্রীকে রেলওয়ের প্রথম শ্রেণির রেস্টহাউজে নিয়ে যায় রেলওয়ের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী সাগর। এরপর জোরপূর্বক ওই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়। তার চিৎকার শুনে পুলিশ ও আশপাশের লোকজন ছুটে গেলে কক্ষের জানলার গ্লাস খুলে পালিয়ে যায় সাগর।

তিনি আরও জানান, এ ঘটনায় মেয়েটির বড় ভাই বাদী হয়ে ওই দিনই কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে থানায় একটি মামলা করেন। গ্রেপ্তার সাগরকে জিআরপি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।


আরও খবর



আখাউড়া স্থলবন্দর থেকে ৫ দিন আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৮ অক্টোবর ২০২১ | ৪৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শারদীয়  দুর্গোৎসব উপলক্ষ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া আন্তর্জাতিক স্থলবন্দর দিয়ে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে টানা পাঁচ দিন পণ্য আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধের ঘোষণা দিয়েছেন ভারতীয় ব্যবসায়ীরা।

তবে এ সময় ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে পাসপোর্টধারী যাত্রীদের এপার-ওপার কার্যক্রম স্বাভাবিক থাকবে।

অপরদিকে পূজা উপলক্ষ্যে ব্যবসায়ীরা বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বন্ধের ঘোষণা দিলেও সরকারি ছুটি ছাড়া অন্যান্য দিন বন্দরের কার্যক্রম চালু থাকবে বলে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

আখাউড়া স্থলবন্দর আমদানি-রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম জানান, শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষ্যে ১২-১৬ অক্টোবর পর্যন্ত আখাউড়া-আগরতলা বন্দর দিয়ে দুদেশের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য সম্পূর্ণ বন্ধ থাকবে।

আখাউড়া স্থলবন্দরের কাস্টমস রাজস্ব কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুজ্জামান জানান, পূজা উপলক্ষ্যে ব্যবসায়ীরা বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বন্ধের ঘোষণা দিলেও সরকারি ছুটি ছাড়া অন্যান্য দিন বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক থাকবে।

 


আরও খবর
নাটকীয় উত্থানে ঘুরে দাঁড়াল পুঁজিবাজার

বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর 20২১




জম্মু ও কাশ্মীরে ৫ ভারতীয় সেনা নিহত

প্রকাশিত:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | ৪৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতশাসিত জম্মু ও কাশ্মীরে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে গোলাগুলিতে পাঁচ ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে একজন সেনা কর্মকর্তা এবং বাকি চারজন সেনা সদস্য। আজ সোমবার কাশ্মীরের পুঞ্চ জেলায় ঘটনাটি ঘটে। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

সোমবার ভোরে পুঞ্চ সেক্টরের সুরানকোট এলাকায় বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে ভারতীয় সেনাবাহিনীর বন্দুকযুদ্ধ হয়। বন্দুকধারী দুর্বৃত্তদের সংখ্যা ছিল চার থেকে পাঁচজন। তাঁরা কিছুদিন আগে দেশে প্রবেশ করেছিল। ভারী অস্ত্রধারীরা এলাকাটিতে অবস্থান করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে অভিযানে নামে সেনা সদস্যরা।

প্রতিরক্ষা বাহিনীর এক মুখপাত্র বলেন, শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ওই এলাকায় অভিযান অব্যাহত আছে।

এনডিটিভি বলছে, পাঁচ দিনে সাতজন সাধারণ মানুষের হত্যার পর জম্মু-কাশ্মীর জুড়ে অভিযানে নেমেছে পুলিশ। এরই মধ্যে ৯০০ জনকে আটক করা হয়েছে।   

নিউজ ট্যাগ: জম্মু ও কাশ্মীর

আরও খবর



দেবহাটায় স্কুলছাত্রী ধর্ষণ হত্যার অভিযুক্ত পার্থ মন্ডল গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সাতক্ষীরা থেকে দিলীপ কুমার দেব: সাতক্ষীরার চাঞ্চল্যকর পূর্ণিমা দাস ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের মূল আসামি পার্থ মন্ডল(২১) কে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় আটক করেছে পুলিশ। সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বৈকারী সীমান্ত থেকে ভারতে পালিয়ে যাওয়াকালে তাকে আটক করা হয়। এবিষয় রবিবার বেলা ১২ টায় সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারের কার্যলয়ে প্রেস ব্রিফিং করেছেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তফিজুর রহমান।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন,  গত ২৪ তারিখ সকাল অনুমান ৬ টার সময় সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার টিকেট গ্রামের তারক বাবুর পুরাতন পরিত্যক্ত বাড়িতে স্থানীয়রা পূর্ণিমা দাসের মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশের সংবাদ দেয়।

তাৎক্ষণিকভাবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ ) সজীব খান এর নেতৃত্বে ও জেলা গেয়েন্দা শাখার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইয়াছিন আলম চৌধুরী-এর সমন্বয়ে একটি চৌকস টিম মামলার মূল রহস্য উদঘাটন শুরু করে এজাহার নামীয় একমাত্র আসামী দেবহাটার টিকেট গ্রামের শিবু মন্ডলের ছেলে পার্থ মন্ডল (২১)কে সাড়াশি অভিযান পরিচালনা করে বৈকারী সীমান্ত থেকে আটক হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে আসামী পার্থ মন্ডল স্বীকারোক্তিকালে জানায়, গাভা একেএম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়াশুনা কালে ভিকটিম পূর্ণিমা দাস ও আসামী পার্থ মন্ডল এর মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তিন বছর ধরে প্রেম ছিল।

বর্তমানে ভিকটিম পূর্ণিমা দাস দশম শ্রেণির ছাত্রী এবং আসামী পার্থ মন্ডল এসএসসি পাশ করে খান বাহাদুর আহসান উল্লাহ প্যারামেডিক্যালে ২য় সেমিস্টারে অধ্যায়নরত।

গত ৪ মাস পূর্বে তাদের প্রেমের সম্পর্ক উভয় পরিবারের সাথে জানাজানি হয়ে গেলে উভয় পরিবার তাদের প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নেওয়ায় হতাশাগ্রস্ত হয়ে আসামী পার্থ মন্ডল বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে চিকিৎসায় সুস্থ হয়ে যায়। আসামী অসুস্থ থাকাকালীন তার প্রেমিকা পূর্ণিমা দাস আসামীর কোন খোঁজ খবর না নিয়ে তাকে এড়িয়ে চলে। পরবর্তীতে এলাকায় এবং এলাকার বাহিরে একাধিক ছেলের সাথে অবৈধ সম্পর্কে জড়ায়। এধরনের সংবাদ আসামীর কানে আসলে আসামী পার্থ মন্ডল ভিকটিম পূর্ণিমা দাসের প্রতি ক্ষিপ্ত হয় এবং মনে মনে পরিকল্পনা করে সে পূর্ণিমা দাসকে না পেলে অন্য কাউকে তাকে পেতে দেবে না। সুযোগ বুঝে আসামী ভিকটিম পূর্ণিমা দাসকে হত্যা করবে। হত্যা সংঘটনের এক থেকে দেড় মাস পূর্ব হতে মোবাইল ফোনের কথোপকথনের মাধ্যমে তাদের মধ্যে আবার সখ্যতা তৈরী হয়।

পূর্বপরিকল্পনার অংশ হিসেবে গত ২৪ তারিখ সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার সময় দেবহাটা উপজেলার টিকেট গ্রামের তারক বাবুর পুরাতন পরিত্যক্ত বাড়িতে ভিকটিম পূর্ণিমা দাস আসামী পার্থ মন্ডল-এর সাথে দেখা করে। ঘটনাস্থলে কথাবার্তার এক পর্যায়ে আসামী তার কাছে থাকা কালো ক্যাবল তার দিয়ে ভিকটিমের গলায় পেঁচিয়ে দিয়ে শ্বাসরোধ করে অচেতন করে মাটিতে ফেলে দেয় এবং পরবর্তীতে ভিকটিমকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে ভিকটিমের শরীরে বিভিন্ন স্থানে কামড় দিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করে সর্বশেষ তার হাত দিয়ে গলার টুটি চেপে ধরে মৃত্যু নিশ্চিত করে।

হত্যার পর দ্রুত সাতক্ষীরা শহরে সাইকেলযোগে পালিয়ে চলে এসে শহরের বড় বাজারস্থ প্রাণ সায়ের খালে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন সীমসহ ফেলে দিয়ে রাতে পুরাতন সাতক্ষীরার এলাকায় বসুন্ধরা ম্যাচে অবস্থান করে।

পরেরদিন ভোরে সাতক্ষীরার বিভিন্ন জায়গায় ছোটাছুটি করে বৈকারী সীমান্ত থেকে ভারতে যাওয়ার সয়ম আটক হয়। আসামীর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী হত্যাকাজে ব্যবহৃত ক্যাবল ও তার সাইকেল উদ্বার করা হয়। তার ব্যবহৃত  মোবাইল ফোনটি উদ্ধারের প্রচেষ্টা অব্যহত আছে।


আরও খবর
সাতক্ষীরা সীমান্তে ১৫টি ময়ূরসহ দুজন আটক

মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১