আজঃ শনিবার ২২ জানুয়ারী 20২২
শিরোনাম

ময়মনসিংহে ট্রাকচাপায় ৩ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৮০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ময়মনসিংহ সদরের শম্ভুগঞ্জ চায়না মোড় এলাকায় ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেলের তিন আরোহী নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৬ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন-জেলার ত্রিশাল উপজেলার সেনবাড়ি কালিবাজার গ্রামের ফজলুল হকের পুত্র বাবু (২৫), একই গ্রামের সোহরাব উদ্দিনের পুত্র ইয়াসিন (১৮) ও ইসলামের পুত্র রিপন(৩০)।

কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহ কামাল আকন্দ জানান, মোটরসাইকেলে ৩ আরোহী টোলপ্লাজা থেকে শম্ভুগঞ্জ যাচ্ছিল। আর শম্ভুগঞ্জ থেকে বালুবোঝাই ট্রাক টোলপ্লাজার দিকে আসছিল। এ সময় চায়না মোড় এলাকায় ট্রাকটি ওই ৩ মোটরসাইকেল আরোহীকে চাপা দেয়। ঘটনাস্থলে ২ জন মারা যান। গুরুতর আহত একজনকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


আরও খবর



রজনীকান্ত কন্যার সঙ্গে বিয়ে ভাঙল ধনুশের

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারী ২০২২ | ২৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্ত্রী ঐশ্বর্যর সঙ্গে ১৮ বছরের দাম্পত্য সম্পর্কে ইতি টানান ঘোষণা দিয়েছেন দক্ষিণ ভারতের সুপারস্টার ধনুশ। সোমবার গভীর রাতে টুইটারে টুইট করে ধনুশ বলেন, ১৮ বছরের দাম্পত্য সম্পর্কে ইতি টানবার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি ও তার স্ত্রী ঐশ্বর্য।

ধনুশের এই ঘোষণায় রীতিমতো হইচই পড়ে গেছে দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রিতে। নাগা চৈতন্য ও সামান্থার ডিভোর্সের ধাক্কা সামলে ওঠার আগেই আলাদা হল আরও এক তারকা দম্পতির পথ।

ধনুশ লেখেন, বন্ধু হিসেবে, জুটি হিসেবে, বাবা-মা হিসেবে ১৮ বছরের এই পথ চলা। সফরটা ছিল মানুষ হিসেবে বেড়ে ওঠার, একে অপরকে বুঝে ওঠার, মানিয়ে চলার। আজ আমরা এমন এক সিদ্ধান্তে এসে পৌঁছেছি, যেখানে আমরা বুঝতে পারছি এবার আমাদের পথ আলাদা হওয়াটাই ভালো। আমি আর ঐশ্বর্য আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যুগল হিসেবে এতদিন থেকেছি। এবার নিজেদের নিজেদেরকে বোঝার পালা

ধনুশ আরও যোগ করেন, 'আগামীদিনগুলোতে বরং একে অপরকে বোঝার জন্য আর একটু সময় দেব। সকলের কাছে অনুরোধ অনুগ্রহ করে আমাদের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাবেন এবং আমাদের ব্যক্তিগত জীবনের গোপনীয়তা বজায় রাখতে দেবেন।'

একই বিবৃতি ঐশ্বর্যও তার সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন। সঙ্গে রজনীকান্ত কন্যা লেখেন, এই পোস্টের জন্য আলাদা কোনও ক্যাপশনের দরকার নেই, প্রয়োজন তোমাদের ভালোবাসা

ধনুশ-ঐশ্বর্যর বিচ্ছেদের খবরে হাহাকার তাদের ভক্তদের মধ্যে। দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম আদর্শ দম্পতি হিসাবেই পরিচিত ছিলেন ধনুশ-ঐশ্বর্য। তাদের দাম্পত্য জীবন বরাবরই বিতর্কহীন।

কোনওদিন তাদের মধ্যে কোনও মনোমালিন্যের খবর সামনে আসেনি। কেন এই বিচ্ছেদ? ১৮ বছরের দাম্পত্য জীবনে এমন কী বিপর্যয় নেমে এল যে পথ আলাদা হল জুটির? এই প্রশ্নেই তোলপাড়া দক্ষিণের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি।

২০০৪ সালে রজনীকান্তের মেয়ের সঙ্গে বিয়ের পর্ব সেরেছিলেন ধনুশ। দুই ছেলে যাত্রা ও লিঙ্গার বাবা-মা এই প্রাক্তন তারকা দম্পতি। ভাই রাজা ভাই, ৩'-র মতো ছবির পরিচালক ঐশ্বর্য।

অন্যদিকে গত দেড় দশক ধরে দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম লিডিং সুপারস্টার ধনুশ। সম্প্রতি তার দেখা মিলেছে আনন্দ এল রাই পরিচালিত আতরঙ্গি রে ছবিতে।


আরও খবর



শামীম ওসমান নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন : সিইসি

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | ৪১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে নৌকার পক্ষে প্রচারণায় নেমেছেন জানিয়ে শামীম ওসমান যে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তা আচরণবিধির লঙ্ঘন। তবে শামীম ওসমান সংবাদ সম্মেলন করে মাঠে নামার ঘোষণা দিলেও তিনি নামেননি। এতে নির্বাচনি আচরণবিধির লঙ্ঘন হয়েছে, তবে তা শাস্তিযোগ্য অপরাধ নয়।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরে নারায়ণগঞ্জে নির্বাচন পরিস্থিতি দেখতে এসে নগরীর মরগান স্কুলে প্রিসাইডিং ও রিটার্নিং কর্তকর্তাদের সঙ্গে মত বিনিময় শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন তিনি।

কে এম নূরুল হুদা বলেন, আমি নারায়ণগঞ্জে কোনো সমস্যা দেখি না। নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু করতে সব রকম ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। নির্বাচনে যে প্রার্থীরা আছেন তারা মৌখিক অভিযোগ ছাড়া কোনো সংঘর্ষে জড়ায়নি। আমি মনে করি, সংঘর্ষ ছাড়াই এখানে নির্বাচন হবে।

ইভিএম বিতর্ক নিয়েও নূরুল হুদা বলেন, ইভিএম এমন একটা মেশিন, যার মাধ্যমে ভোট গ্রহণ শেষে ১০ মিনিটের মধ্যে ভোট গণনা করতে পারি এবং এটি একটি পরিচ্ছন্ন মেশিন।


আরও খবর



বিধিনিষেধ: বাণিজ্যমেলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত আজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | ৩১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পূর্বাচলের বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে (বিবিসিএফইসি) মাসব্যাপী ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা চলছে। সরকারঘোষিত বিধিনিষেধের কারণে মেলা নিয়ে নতুন করে শঙ্কা তৈরি হয়েছে। এ অবস্থায় মেলা চলবে কি না সে বিষয়ে আজ বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানা গেছে।

সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এক প্রজ্ঞাপনে নতুন ধরন ওমিক্রনসহ করোনা সংক্রমণ বাড়তে থাকায় আগামী ১৩ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) থেকে সারাদেশে বিধিনিষেধ জারি করেছে সরকার।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, কোভিড আক্রান্তের হার ক্রমবর্ধমান হওয়ায় উন্মুক্ত স্থানে সব ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক, ধর্মীয় অনুষ্ঠান ও সমাবেশ পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখতে হবে।

একই সঙ্গে দোকান, শপিংমল ও বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতা এবং হোটেল-রেস্তোরাঁসহ সব জনসমাগমস্থলে বাধ্যতামূলকভাবে সবাইকে মাস্ক পরিধান করতে হবে, অন্যথায় আইনানুগ শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে বলেও জানানো হয়।

মেলা কর্তৃপক্ষ বলছে, সরকারঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে সেটা বাণিজ্যমেলার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য কি না সেটি নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না। যেহেতু শপিংমল, বাজারসহ বিভিন্ন বাণিজ্যিক ক্ষেত্র চালু থাকছে, সেক্ষেত্রে বাণিজ্যমেলা চালু রাখা যায় কি না সেটা নিয়ে আলাপ-আলোচনা করছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। আজ এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়ে মেলা কর্তৃপক্ষকে মন্ত্রণালয় জানাবে।

এ বিষয়ে ইপিবির সচিব ও মেলার পরিচালক মো. ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী বলেন, বাণিজ্যমেলার বিষয়ে মন্ত্রণালয় আজ হয়তো সিদ্ধান্ত নেবে। এ বিষয়ে কি করা যায় বসে সিদ্ধান্ত নেবে। তারা সিদ্ধান্ত নিলে সেই অনুযায়ী আমরা কাজ করবো। বিধিনিষেধে গণজমায়েত বন্ধের শব্দটা কিছু কনফিউশন তৈরি করেছে। আমরা আশা করছি, পজিটিভ কিছু হবে।’

মেলা চললে স্বাস্থ্যবিধি জোরদার করা হবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, মেলা চললে স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে অবশ্যই আরও বেশি ব্যবস্থা নেবো। স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে মেলায় কঠোরতা বাড়বে। নিজেদের মতো করে বিধিনিষেধগুলো তৈরি করবো।’

নিউজ ট্যাগ: বাণিজ্যমেলা

আরও খবর



ছাত্রলীগ করতে হলে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে: রাবি উপাচার্য

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০৪ জানুয়ারী ২০২২ | ৫৫৫জন দেখেছেন

Image

রাবি প্রতিনিধি:

ছাত্রলীগ করতে হলে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার। ছাত্রলীগের ৭৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের আয়োজনে অংশ নিয়ে তিনি একথা বলেন।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবার (৪ ডিসেম্বর) দিনব্যাপী নানান আয়োজন করে সংগঠনটি।

দিনের শুরুতে সাড়ে ৭টায় জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করে কর্মসূচি শুরু হয়। বেলা ১২টায় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের পেছনে দলীয় টেন্ট থেকে রাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি গোলাম কিবরিয়া ও সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনুর নেতৃত্বে একটি আনন্দ র‍্যালী বের করা হয়। র‍্যালীটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে পুনরায় টেন্টে এসে র‍্যালীটি শেষ হয়।

পরে দুপুর ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তারসহ আমন্ত্রিত অতিথিদের উপস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটেন।

এ সময় উপাচার্য বলেন, শিক্ষা শান্তি প্রগতি ও ঐতিহ্যবাহী ও প্রাচীনতম সংগঠন আওয়ামীলীগের আগে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। ১৯৪৮ সালে এই দলের জন্ম হয়েছিল বাঙালীর হৃদযের উত্তাপ থেকে। ছাত্রলীগ করতে হলে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে। শুধু শ্লোগানে নয় হৃদয়ে ধারন করতে হবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ। বঙ্গবন্ধু সবসময় ছাত্রলীগের উপর নির্ভর করতেন। আমরা যদি বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনাকে ভালোবেসে থাকি এবং জয়ের আদর্শকে ধারণ করি তাহলে আগামীতে যে চ্যালেঞ্জ আছে তা ছাত্রলীগকেই মোকাবিলা করতে হবে। শেখ হাসিনা দেশ বিনির্মাণে যে অবদান রাখছে তার সারথী হবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। এবং আগামী সোনার বাংলা বিনির্মাণে  ছাত্রলীগ মূখ্য ভূমিকা রাখবে।"

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, উপ-উপাচার্যদ্বয় অধ্যাপক ড. সুলতান-উল-ইসলাম, অধ্যাপক চৌধুরী এম জাকারিয়া, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক তারেক নুর, প্রক্টর(ভারপ্রাপ্ত) লিয়াকত আলী, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি কাজী আমিনুল হক লিংকন, হাবিবুল্লাহ নিক্সন, মেজবাহুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহিনুল ইসলাম সরকার (ডন), সাংগঠনিক সম্পাদক এনায়েত হক রাজু, মেহেদী হাসান মিশুসহ প্রায় ৪ শতাধিক নেতাকর্মী।



আরও খবর
গণ-অনশনে শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীরা

শনিবার ২২ জানুয়ারী 20২২




২৩তম প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ ডিসেম্বর ২০২১ | ৬২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের ২৩তম প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীকে। রাষ্ট্রপতির নির্দেশক্রমে আইন মন্ত্রণালয় এ প্রজ্ঞাপন জারি করে।

বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী আপিল বিভাগের পাঁচ বিচারপতির মধ্যে জ্যেষ্ঠতার দিক দিয়ে তৃতীয় নম্বরে ছিলেন।

এদিকে বর্তমান প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন অবসরে গেছেন আজ (বৃহস্পতিবার)। দেশের ২২তম প্রধান বিচারপতি হিসেবে আজই তার শেষ কর্মদিবস। সংবিধান অনুযায়ী ৬৭ বছর বয়স পর্যন্ত বিচারপতি পদে থাকা যায়। সে হিসাবে বর্তমান প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের ৬৭ বছর পূর্ণ হচ্ছে ৩০ ডিসেম্বর।

দীর্ঘদিনের রীতি অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি আপিল বিভাগের যে বিচারপতিকে প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেবেন, তার বিষয়ে সম্মতি দিয়ে প্রথমে আইন মন্ত্রণালয়কে জানান। এরপর এ সংক্রান্ত ফাইল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে হয়ে বঙ্গভবনে যায়। সেখানে রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষরের পর প্রধান বিচারপতি নিয়োগের গেজেট জারি করে আইন মন্ত্রণালয়।

সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইট থেকে পাওয়া তথ্য অনুসারে, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী কুষ্টিয়ার সন্তান। তিনি জেলার খোকসা উপজেলার রমানাথপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা আবদুল গফুর মোল্লা। তিনি ১৯৭২ সালে খোকসা জানিপুর পাইলট হাইস্কুল থেকে এসএসসি পাস করেন। ১৯৭৪ সালে সাতক্ষীরার সরকারি পিসি কলেজ থেকে আইএসসি, পরে একই কলেজ থেকে বিএ পাস করেন। তিনি মাস্টার্স করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ থেকে। এলএলবি ধানমণ্ডি ল কলেজ থেকে।

১৯৮১ সালে ঢাকা জজ কোর্টে আইন পেশায় যোগদান করেন তিনি। ১৯৮৩ সালে হাইকোর্ট বিভাগে এবং ১৯৯৮ সালে আপিল বিভাগে আইনজীবী হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হন।

হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ২০০১ সালে হাইকোর্টে অতিরিক্ত বিচারপতি, ২০০৯ সালে হাইকোর্ট ডিভিশনে স্থায়ী বিচারপতি এবং ২০১৩ সালের ২৮ মার্চ আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান।


আরও খবর
রিফাত হত্যা: খালাস চেয়ে মিন্নির জেল আপিল

বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারী ২০22