আজঃ শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

নেশার টাকা না দেয়ায় ছেলের হাতে জীবন দিল পিতা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৭ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ আগস্ট ২০২১ | ১৫৩০জন দেখেছেন
হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি

Image

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠিতে নেশাগ্রস্থ ছেলেকে নেশার টাকা না দেয়ায় ছেলের হাতে জীবন দিতে হল মো. জয়নাল আকন (৭০) নামের হতভাগ্য এক পিতাকে। বৃহস্পতিবার স্বরূপকাঠি উপজেলার আটঘর কুড়িয়ানা ইউনিয়নের দক্ষিন মাহামুদকাঠি গ্রামের আকন বাড়ীতে ওই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকেই ঘাতক ছেলে রাজ্জাক আকন (৩৮) পালাতক রয়েছে।

নিহত জয়নাল আকনের মেজ ছেলে সুমন আকন বলেন, তার বড় ভাই রাজ্জাক এলাকার একজন চিহ্নিত মাদকাসক্ত লোক। সে কোন কাজকর্ম করতোনা। সংসারে তার স্ত্রী ছেলে মেয়ে রয়েছে। সে মাদকাসক্ত  হওয়ায় তার সংসার বাবা ও অন্য ভাই মিলে চালাত। রাজ্জাক প্রায়ই নেশার টাকার জন্য বাবা ও ভাইদের সাথে ঝগড়াঝাঁটি করত। ঘটনার দিন দুপুরে রাজ্জাক বাড়িতে এসে বাবার কাছে নেশার জন্য টাকা চায়। বাবা টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে তাকে বকাঝকা করে। একপর্যায়ে রাজ্জাক ক্ষিপ্ত হয়ে বাবাকে কোদাল দিয়ে মাথায় একটি সজোরে পিটান দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই সে লুটিয়ে পড়ে। সাথে সাথে পরিবারের লোকজন জয়নালকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শুক্রবার লাশ ময়না তদন্ত করে নিহতের বাড়িতে লাশ দাফন করা হবে বলে তার পরিবার জানায়।

এ বিষয়ে নেছারাবাদ থানার ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন বলেন, খবর পেয়ে সাথে সাথে নেছারাবাদ সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার রিয়াজ হোসেনসহ আমরা সরেজমিনে গিয়েছি। পুলিশ এখনো ওই এলাকায় অবস্থান করছে। নিহতের পরিবারের লোকজন ময়না তদন্তে লাশ নিয়ে বরিশালে থাকায় তাদের কাউকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। তারা মামলা দিলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



তালেবানের হাতে ‘গৃহবন্দি’ হামিদ কারজাই ও আব্দুল্লাহ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৭ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৭ আগস্ট ২০২১ | ৭৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

তালেবান যোদ্ধারা আফগানিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই ও জ্যেষ্ঠ নেতা আব্দুল্লাহ আব্দুল্লাহকে গৃহবন্দি করে রেখেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। তাদের বাইরে যাওয়ার অনুমতি নেই। তবে তারা শুধু নিজেদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করতে পারছেন। স্থানীয় বার্তা সংস্থা খামা প্রেসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সূত্রের বরাতে খবরে বলা হয়, বর্তমান আবদুল্লাহর বাড়িতে রয়েছেন হামিদ কারজাই। তালেবানরা এবার আফগানিস্তান নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর বিজয় উদযাপন করেনি। বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর মিলিত সরকার গঠনের লক্ষ্যে আলাপ-আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে।

নারী স্বাধীনতাসহ কৌশলগত বিভিন্ন বিষয়ে মডারেট ফেস নিয়ে আবির্ভূত হয়েছে। যদিও তারা বলছে, শরিয়া কাঠামোর বাইরে যাওয়া তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। কিন্তু তারা বিভিন্ন পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করছে।

বিশেষ করে সাবেক প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই, জ্যেষ্ঠ নেতা আব্দুল্লাহ আব্দুল্লাহ ও ধর্মীয় নেতা গুলবুদ্দিন হেকমতিয়ারের সমন্বয়ে গঠিত হাই কাউন্সিল ফর ন্যাশনাল রিকন্সিলিয়েশন-এর সঙ্গে আলোচনা মূলত বহির্বিশ্বে স্বীকৃতি পাওয়ার লক্ষ্যে তালেবানের প্রচেষ্টার অংশ বলে মনে হচ্ছে।

প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি পালিয়ে যাওয়ার পর হামিদ কারজাই, আবদুল্লাহ আবদুল্লাহ ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী গুলবুদিন হেকমেতিয়ার তালেবান নেতৃত্ব ও উপজাতীয় প্রবীণদের সঙ্গে ঘন ঘন বৈঠক করে যাচ্ছেন।

দেশটির চলমান রাজনৈতিক সংকট মোকাবিলায় ভবিষ্যতে সরকার গঠনে তালেবানদের পরিকল্পনা অনুসারে তারা ১২ সদস্যের গ্র্যান্ড কাউন্সিল তৈরি করেছেন।

নতুন সরকারে এই তিন রাজনীতিক থাকবেন কিনা তা অবশ্য স্পষ্ট নয়। তালেবানরা এখনও নতুন সরকারের রূপরেখা নিয়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। তবে সবাইকে নিয়ে সরকারের প্রতিশ্রুতি দিয়ে যাচ্ছে বারবার।


আরও খবর



প্রকৃত পুরুষ চেনার ৫ উপায়!

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৮৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কিছু পুরুষ আছেন যাদের নারীর প্রতি মন থেকে শ্রদ্ধাবোধ এবং প্রতিজ্ঞাবোধ থাকে না। সুদর্শন, চতুর, আবেদনময়, মিষ্টভাষী গুণাবলীর মাধ্যমে নারীদের ঘায়েল করে তাদের সঙ্গে কখনো কখনো প্রতারণাও করে। সম্প্রতি সম্পর্কবিষয়ক এক ওয়েবসাইট থেকে এ ধরনের পুরুষদের শনাক্ত করার জন্য কিছু উপায় তুলে ধরেছে। নিচের স্বভাব-বৈশিষ্ট্য যে সকল পুরুষের মধ্যে নেই তার সঙ্গে বন্ধুত্ব সম্পর্ক অবশ্যই করা যায়। এবার তাহলে পাঠকদের জন্য পুরুষদের চিনতে পারার বিষয় তুলে ধরা হলো-

ব্যক্তিগত তথ্য লুকানো : এ ধরনের মানুষ কখনোই নিজের সম্পর্কে কাউকে কিছু বলতে চায় না। বিপরীতে তারা অন্য মানুষ সম্পর্কে ঠিকই যাবতীয় সব জেনে নিবে। অথচ এরা নিজ সম্পর্কে বলতে ভয় পায়। এদের বাহ্যিকভাব এমন যে তারা যেন কোনও কিছুর তোয়াক্কা করে না। এমনকি নারীকে নিজের কাছে খুবই সুন্দরভাবে তুলে ধরার ফলে সেই নারীও পুরুষ সঙ্গীর বিষয়ে কিছু জানতে চান না।

সুযোগ বুঝে কেটে পড়া : এমন স্বভাব-বৈশিষ্ট্যের মানুষ সুযোগ বুঝে সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে পড়ে। তারা যদি কোনও নারীর প্রতি প্রকৃতভাবেও আকৃষ্ট হয়ে থাকে তারপরও সম্পর্ক থেকে সরে দাঁড়াবে। কেননা এ পুরুষ ঠিক জানে সে সরে গেলে নারী সঙ্গী অবশ্যই তার পিছু নেবে।

ধরা ছোঁয়ার বাইরে : প্রয়োজনের সময় এমন বৈশিষ্ট্যের মানুষকে কখনোই পাশে পাওয়া যায় না। ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে বা অন্য কোনও উপায়ে তাদের কাছ থেকে কখনোই সাহায্য-সহযোগিতা পাওয়া যায় না।

নারীকে নিজ নিয়ন্ত্রণে রাখা : সবসময় নারী সঙ্গীর লাগাম নিজের নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রাখতে চায়। এছাড়া তাদের ভাষ্যমতে তাদের কখনোই ভুল হয় না। কখনোই তারা নিজের আবেগ-অনুভূতি প্রকাশ করে না এবং যদি কখনো প্রকাশও করে তবে তার পেছনে অন্য কোনও কারণ থাকে।

নারীকে সুন্দরভাবে তুলে ধরা : নারীরা সবসময় পরিপাটি পুরুষ পছন্দ করে। আবার পুরুষরাও পরিপাটি নারীদের পছন্দ করে। তবে ব্যতিক্রম হলো- যে কোনও পরিস্থিতিতে নারীকে পরিপাটি হিসেবে চায়। বিপরীতে নারী যদি কখনো পুরুষ সঙ্গীর অগোছালো বিষয়ে কথা বলতে চায় তাহলে পুরুষ সঙ্গী সবসময় বিষয়টি এড়ানোর চেষ্টা করবে।


আরও খবর
আজ আপনার জন্মদিন হলে

রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

আজ প্রথম প্রেম দিবস

শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১




জেলা জামায়াতের আমিরসহ নোয়াখালীতে গ্রেফতার ৩

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করায় জেলা জামায়াতের আমিরসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার (০৮ সেপ্টেম্বর) ভোরে উপজেলার পৃথক পৃথক স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। বর্তমানে তারা থানা হেফাজতে রয়েছেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- জেলা জামায়াতের আমির মাওলানা আলাউদ্দিন (৬০), জেলা জামায়াতের সাহিত্য-সংস্কৃতি সম্পাদক নাসিমুল গনি চৌধুরী ওরফে মহল (৪৫) এবং জামায়াত নেতা ফখরুল ইসলাম দাউদ (৪০)।

বেগমগঞ্জ মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রুহুল আমিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, নাশকতা সৃষ্টির অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করেছে। ওই মামলায় তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বুধবার দুপুরে তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে নোয়াখালী চিফ জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে। অন্যদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

নিউজ ট্যাগ: জামায়াতের আমির

আরও খবর
স্বামী হত্যায় স্ত্রীর যাবজ্জীবন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




আজ আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মানবকেন্দ্রিক পুনরুদ্ধারের জন্য সাক্ষরতা : ডিজিটাল বিভাজন কমিয়ে আনা এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সারাবিশ্বে উদযাপিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস। আজ বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) সাক্ষরতা দিবস উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে দেশের বিশাল কর্মক্ষম জনগোষ্ঠীকে যথাযথ শিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ জনসম্পদে পরিণত করে বাংলাদেশকে উন্নয়নের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে এক যোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

অন্যদিকে, প্রধানমন্ত্রী তার বাণীতে বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার দেশের নিরক্ষর জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে সাক্ষরতা ও জীবনমুখী দক্ষতা বৃদ্ধিতে বহুমুখী কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে।

প্রতিবারের ন্যায় এবারও সারাবিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশেও দিবসটি যথাযথভাবে পালন করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এই বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় জানায়, দিবস উপলক্ষ্যে প্রাথমিক শিক্ষক প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে দিবসটির উদ্বোধন করবেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ইউনেস্কো মহাপরিচালকের বক্তব্য পেশ করা হবে।

এছাড়াও দিবস উপলক্ষে আলোচনা অনুষ্ঠান, ক্রোড়পত্র প্রকাশ, গোলটেবিল বৈঠক, বাংলাদেশ টেলিভিশনে টক-শো অনুষ্ঠান করা হবে। পাশাপাশি দেশের প্রত্যেক জেলা প্রশাসক স্বাস্থ্যবিধি মেনে আলোচনা সভা করবেন। এ কারণে উপানুষ্ঠনিক প্রাথমিক ব্যুরো বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এছাড়া দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোও দিবসটি পালন করবে।

এর আগে সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) সংবাদ সম্মেলনে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী বলেছিলেন, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) তথ্যানুযায়ী ২০১৯ সালের হিসাবে দেশে গড় সাক্ষরতার হার ৭৪ দশমিক ৭ শতাংশ আর ২০২০ সালের তথ্যানুযায়ী দেশে এখন সাক্ষরতার হার ৭৫ দশমিক ৬ শতাংশ। ফলে করোনার মধ্যেও গত এক বছরে কোনো কার্যক্রম না থাকলেও সাক্ষরতার হার বেড়েছে দশমিক ৯০ শতাংশ।

করোনা মহামারির কারণে ১৭ মাস বন্ধ শিক্ষাব্যবস্থা। শ্রেণি কার্যক্রম ছিল না। এ কারণে শিক্ষার্থীরা পিছিয়ে পড়ছে। অনেক শিক্ষার্থীর ঝরে পড়ার আশঙ্কাও করেছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে সরকারি তথ্য বলছে, করোনায় সাক্ষরতার হার বেড়েছে। গত এক বছরে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর মাঠ পর্যায়ে কোনো কার্যক্রম না থাকলেও বেড়েছে সাক্ষরতার হার। তবে এ বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই।



আরও খবর
কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নতুনভাবে ভাবতে হবে

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




পুঁজিবাজারে সূচকের মিশ্র প্রবণতা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ২২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) পুঁজিবাজারে সূচকের মিশ্র প্রবণতার মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। এদিন দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ও অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন কমেছে।

ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, বৃহস্পতিবার  ডিএসই প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ৮ পয়েন্ট বেড়ে ৭ হাজার ২৫০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে শরীয়াহ সূচক ১ পয়েন্ট কমে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১ পয়েন্ট বেড়ে যথাক্রমে ১৫৮১ ও ২৬৭৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

বৃহস্পতিবার ডিএসইতে এক হাজার ৮৫২ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। আগের কার্যদিবসের চেয়ে ডিএসইতে ২৯৮ কোটি টাকার লেনদেন কমেছে। আগের দিন ডিএসইতে দুই হাজার ১৫০ কোটি ৬৮ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছিল। 

বৃহস্পতিবার ডিএসইতে ৩৭৫টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৪৫টি কোম্পানি কমেছে ১৮৫টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৫টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিটের দর।

বৃহস্পতিবার লেনদেনের শীর্ষে থাকা ১০ প্রতিষ্ঠান হলো- বেক্সিমকো লিমিটেড, অরিয়ন ফার্মা, বেক্সিমকো ফার্মা, ডেল্টা লাইফ, এসএস স্টিল, আলিফ ইন্স্যুরেন্স, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, ম্যাকসন স্পিনিং,  একটিভ ফাইন ও সাইফ পাওয়ার।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ১১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ২১ হাজার ১৪৬ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ৩১৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে

১১৫টির, কমেছে ১৭৪টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৬টির কোম্পানির শেয়ার দর।

বৃহস্পতিবার সিএসইতে ৫০ কোটি ৮১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিনের চেয়ে ১২ কোটি টাকার লেনদেন কমেছে। আগের দিন সিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৬২ কোটি ৩৩ লাখ টাকার।


আরও খবর
সপ্তাহের ব্যবধানে দাম বেড়েছে সবজির

শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

ইউনিয়ন ব্যাংকের ভল্ট থেকে ১৯ কোটি টাকা উধাও

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১