আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

অর্ধ শতাধিক যাত্রী নিয়ে পদ্মায় নৌকাডুবি

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৫৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে পদ্মা নদীতে ৫০-৬০ জন যাত্রী নিয়ে একটি নৌকা ডুবে গেছে। এ ঘটনায় তিন জনের লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। এছাড়া ১৫ জনকে জীবীত উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পদ্মার চরপাকা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

চরপাকা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, প্রাথমিক অবস্থায় আশপাশের নৌকার মাঝিরা উদ্ধার কাজ শুরু করেন। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উদ্ধার কাজ শুরু করেন। উদ্ধারকাজ এখনও চলমান রয়েছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে চেয়্যারমান জালাল উদ্দিন বলেন, শিবগঞ্জ উপজেলার দুর্ভলপুরের বগলাউড়ী এলাকার নদীর ঘাট থেকে পদ্মার ওপারে যাওয়ার সময় দশরশিয়া এলাকায় গিয়ে নৌকাটি ডুবে যায়। অতিরিক্ত মাল বোঝাইয়ের জন্য এ দুর্ঘটনা ঘটে। ধারণা করা হচ্ছে নৌকায় থাকা সব যাত্রী চরপাকা এলাকার বাসিন্দা।


আরও খবর



‘বিদেশে থাকা সাইবার অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে’

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | ৪২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিদেশে অবস্থান করে যারা সাইবার ক্রাইম করছেন তা আমাদের দৃষ্টিগোচর হচ্ছে। দেশীয় আইন অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এদের নিয়ন্ত্রণ করতে ফেসবুক ও ইউটিউবের কাছে সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

শনিবার (৯ অক্টোবর) দুপুরে মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার নবনির্মিত জুড়ী থানা ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এ সব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, বিদেশের সিটিজেন এবং বিদেশে বসে যারা দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করছেন-আমরা এ বিষয়টি সেই দেশকে জানাচ্ছি। নতুন প্রজন্মের দিকে খেয়াল রাখতে হবে তারা যেন মাদকের পথে না যায়। সমাজ, দেশ ও পরিবারকে মাদকমুক্ত করতে হবে। কঠোরতা নয় মাদকাসক্তদের কাউন্সিলিং করে স্বাভাবিক পথে ফিরিয়ে আনতে হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন এমপি, মৌলভীবাজার-৩ আসনের এমপি নেছার আহমদ, সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি সৈয়দা জোহুরা আলাউদ্দিন, সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মফিজ উদ্দিন, জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া।


আরও খবর
মুনিয়া-শারুন আলাপ কী প্রমাণ করে?

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




আইনজীবী সনদ পেলেন ৫৯৭২ জন

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মৌখিক পরীক্ষা শেষে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের আইনজীবী হিসেবে সনদ পেলেন ৫৯৭২ জন শিক্ষার্থী। এদের মধ্যে ৯ জন পরীক্ষার্থীর রেজাল্ট আটকে রাখা হয়েছে। তাদের ব্যাপারে বলা হয়েছে প্রয়োজনীয় নথিপত্র দাখিল সাপেক্ষে তাদের ফলাফল প্রকাশ করা হবে। একইসঙ্গে ইবাইস বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনজন শিক্ষার্থীর রিট পিটিশন নিষ্পত্ত্বি না হওয়ায় তাদের ফল প্রকাশ করা হয়নি।

শনিবার বিকালে বার কাউন্সিলের ওয়েব সাইটে এমন তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। গত ৩১ আগস্ট থেকে সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়াম ও জাজেস স্পোর্টস কমপ্লেক্সে ধাপে ধাপে এ পরীক্ষা নেওয়া হয়। কয়েকটি বোর্ড এ পরীক্ষা নিয়েছেন।

গত ২৯ মে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের আইনজীবী তালিকাভুক্তির লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। ২০২০ সালের ১৯ ডিসেম্বর লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রায় ১৩ হাজার আইন শিক্ষানবিশ অংশ নেন। তালিকাভুক্তি করণ লিখিত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। এবারের লিখিত পরীক্ষায় ১৩ হাজারের মতো শিক্ষানবিশ আইনজীবীর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৫৩৩৫ জন।

পরে জানানো হয়, ২৩০ জন পরীক্ষার্থীর ফল থার্ড এক্সামিনারের সিদ্ধান্তের জন্য স্থগিত রয়েছে এবং একজনের পরীক্ষার ফল উইথহেলড রাখা হয়েছে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা মৌখিক পরীক্ষায় অংশ নেবেন।

কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলার কারণে লিখিত পরীক্ষা দুইবার পিছিয়ে নেয় বার কাউন্সিল। ২০২০ সালের ১৯ ডিসেম্বর লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় ৯টি কেন্দ্রে। রাজধানীর আজিমপুর গভমেন্ট গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, শেখ বোরহান উুদ্দিন পোস্ট গ্রাজুয়েট কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দি কলেজ, মোহাম্মাপুর মহিলা কলেজ, মোহাম্মাদপুর কেন্দ্রীয় কলেজ, সেন্ট্রাল ইউমেন্স কলেজ, বিসিএসআইআর হাইস্কুল, গভর্মেন্ট মোহাম্মাদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজ।

এর মধ্যে মোহাম্মদপুর মহিলা কলেজ, মোহাম্মদপুর কেন্দ্রীয় কলেজ, বিসিএসআইআর উচ্চ বিদ্যালয়, সরকারি মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং ঢাকা মহানগর মহিলা কলেজ কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীদের লিখিত পরীক্ষা বাতিল করা হয়। পরে বাতিল ৫টি কেন্দ্রের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় চলতি বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি।

৯টি কেন্দ্রে ১২ হাজার ৮৭৮ জন শিক্ষার্থী লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেন। এদের মধ্যে পরীক্ষার প্রশ্ন কঠিনের অজুহাতে কিছু শিক্ষার্থী বিশৃঙ্খলায় জড়িয়ে পড়েন। এ ঘটনায় মামলা দায়ের এবং অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থীকে রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

জানা যায়, ২০২০ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি প্রায় ৭০ হাজার শিক্ষানবিশ আইনজীবী এমসিকিউ পরীক্ষায় অংশ নেন। এরমধ্যে এমসিকিউতে উত্তীর্ণ হন মাত্র আট হাজার ৭৬৪ জন। এ ছাড়া ২০১৭ সালে ৩৪ হাজার শিক্ষার্থীর মধ্য থেকে লিখিত পরীক্ষায় দ্বিতীয় ও শেষবারের মতো বাদ পড়া ৩ হাজার ৫৯০ শিক্ষার্থীসহ মোট ১২ হাজার ৮৭৮ জন শিক্ষার্থী এবারের লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেন।

২০২০ সালের ২৬শে সেপ্টেম্বর লিখিত পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয় বার কাউন্সিল। কিন্তু করোনার কারণে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয় সরকার। তাই করোনার সংক্রমণের মধ্যে পূর্বের নোটিশ অনুসারে পরীক্ষা নিতে পারেনি বার কাউন্সিল। পরে, ২০২০ সালের ১৯ ডিসেম্বর লিখিত পরীক্ষা নেয়া হয়।



আরও খবর



‘সাহেদের সঙ্গে আপনার এত মহব্বত কীভাবে’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৭ অক্টোবর ২০২১ | ৬৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আলোচিত রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমের সঙ্গে কী করে খাতির হয়েছিল, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক (ডিজি) আবুল কালাম আজাদের কাছে তা জানতে চেয়েছেন বিচারক।

রিজেন্ট কেলেঙ্কারির মামলায় ডা. আজাদ বৃহস্পতিবার আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। পরে ঢাকা মহানগরের জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ কেএম ইমরুল কায়েশ ২ নভেম্বর পর্যন্ত জামিন মঞ্জুর করেন। সেই শুনানিতেই স্বাস্থ্যের ডিজিকে বিচারক ওই প্রশ্ন করেন। শুনানি চলাকালে আবুল কালাম আজাদ বিচারককে বলেন,  আমি সারাজীবন কোনো অন্যায় করিনি, আর কখনও অন্যায় করবও না।

তিনি বলেন, সারা পৃথিবীতে করোনার যে অবস্থা, সেই অবস্থায় সচিব মহোদয়ের নির্দেশে মানুষের জীবন বাঁচাতে এটা (রিজেন্টের সঙ্গে চুক্তি) করতে হয়েছিল। স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও সচিব মহোদয়ের সামনে (চুক্তি) স্বাক্ষর করা হয়েছিল।

আবুল কালাম আজাদ বলেন, সাহেদ যে একজন প্রতারক, সেটি আমার জানা ছিল না। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে রিজেন্ট হাসপাতালের মাধ্যমে দৈনিক ৫০টি করোনা টেস্ট করার নির্দেশ দেওয়া হয়।

কিন্তু মানবসেবার নামে করোনাভাইরাস পরীক্ষা করার জন্য টাকা নিচ্ছে রিজেন্ট হাসপাতাল এমনটি অভিযোগ পরে জানতে পারি। এর পর আমি সঙ্গে সঙ্গে বললাম, ওই দুটি শাখা (রিজেন্ট হাসপাতালের) বন্ধ হয়ে যাবে।’ বিচারক এ সময় আজাদকে বলেন, সাহেদের সঙ্গে আপনার এত মহব্বত কীভাবে হয়েছিল?

আজাদ উত্তরে বলেন, চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার দিন সাহেদের সঙ্গে আমার প্রথম দেখা হয়েছিল। স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে মন্ত্রী মহোদয় উপস্থিত ছিলেন। আরও বড় বড় কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। ওই থেকে সাহেদের সঙ্গে আমার পরিচয়।

তিনি আরও বলেন, আমি আগে থেকে জানতাম না সাহেদ একজন প্রতারক ছিলেন। স্যার, আমার ডায়াবেটিস রয়েছে। আমরা জীবন তুচ্ছ করে মানুষের জন্য কাজ করেছি। আমি কোনো অপরাধ করিনি, আর ভবিষ্যতেও করব না।

লাইসেন্সের মেয়াদ না থাকার পরও করোনাভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ ও চিকিৎসার জন্য চুক্তি করে সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে এ মামলায় রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আবুল কালাম আজাদসহ মোট ছয়জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপপরিচালক ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী ৩০ সেপ্টেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন।

বাকি চার আসামি হলেনস্বাস্থ্য অধিদপ্তর সাবেক পরিচালক আমিনুল হাসান, উপপরিচালক (হাসপাতাল-১) মো. ইউনুস আলী, সহকারী পরিচালক (হাসপাতাল-১) মো. শফিউর রহমান এবং গবেষণা কর্মকর্তা মো. দিদারুল ইসলাম।



আরও খবর
ইকবালসহ ৪ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




দৌলতদিয়ায় পারাপারের অপেক্ষায় ৬০০ ট্রাক

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | ৪৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
নদী পারের জন্য দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের আড়াই কিলোমিটার বাংলাদেশ হ্যাচারিজ পর্যন্ত প্রায় দুই শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ঘাটে পদ্মা পারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় ৬০০ পণ্যবাহী ট্রাক। শনিবার সকাল ৯টায় সরেজমিন রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড়ে গিয়ে এ চিত্র দেখা যায়।

জানা যায়, ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে খোলা আকাশের নিচেই কাটছে ওই ট্রাকচালকদের নির্ঘুম রাত। ২৪ ঘণ্টা অপেক্ষা করেও ট্রাক চালকরা দেখা পাচ্ছেন না কাঙ্খিত ফেরির। ফলে মানবেতর জীবনযাপন করছেন চালক ও সহকারীরা।

এদিকে ঘাট এলাকায় শত শত পণ্যবাহী ট্রাক নদী পারের জন্য অপেক্ষায় থাকলেও চাপ নেই যাত্রীবাহী দূরপাল্লার পরিবহন ও ব্যক্তিগত ছোট গাড়ির। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যাত্রীবাহী বাস ও ব্যক্তিগত ছোট গাড়ী নদী পার করার কারণে ঘাটে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে না যাত্রীদের। ঘাট এলাকাতে এসে কিছু সময় পরই ফেরিতে উঠে যাচ্ছে পরিবহন ও ছোটগাড়িগুলো।

নদী পারের জন্য দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের আড়াই কিলোমিটার বাংলাদেশ হ্যাচারিজ পর্যন্ত প্রায় দুই শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক। তবে এ সময় ওই এলাকায় নদী পারের জন্য কোনো দূরপাল্লার বাস বা ব্যক্তিগত ছোট গাড়ি অপেক্ষা করতে দেখা যায়নি।

অন্যদিকে, দৌলতদিয়া-কুষ্টিয়া আঞ্চলিক মহাসড়কের গোয়ালন্দ মোড় হতে রাজবাড়ীর দিকে কল্যাণপুর বাজার পর্যন্ত প্রায় তিন কিলোমিটার সড়কে নদী পারের জন্য অপেক্ষা করছে আরও প্রায় তিন শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক। আর ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোয়ালন্দের স্কেলের কাছে আরও অপেক্ষা করছে প্রায় অর্ধশত পণ্যবাহী ট্রাক। সব মিলে নদী পারের জন্য এই মুহূর্তে অপেক্ষা করছে প্রায় ৬০০ পণ্যবাহী ট্রাক।

ঝিনাইদহ থেকে ছেড়ে আসা পাট বোঝাই ট্রাক চালক মিঠু, কামরুল মিয়াসহ একাধিক চালক ও শ্রমিকরা জানান, শুক্রবার বিকালে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ মোড় এলাকায় নদী পারের জন্য তাদের ২৪ ঘণ্টার ওপড়ে ফাঁকা সড়কে অবস্থান করতে হচ্ছে। বেশি বিপাকে পড়েছেন তারা গোয়ালন্দ মোড়ে; কারণ এ সড়কটি পুরোই ফাঁকা। নেই কোনো খাবার হোটেল, নেই টয়লেটের ব্যবস্থাও।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কার্যালয় (বিআইডাব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) শিহাব উদ্দিন বলেন, শনিবার ফেরি চলাচল করছে ১৯টি। আর আমাদের ঘাট চালু আছে চারটি। আমরা চেষ্টা করছি এই দীর্ঘ সারি ঘাট এলাকায় যেন না থাকে। তবে তিনি এই দীর্ঘ সারিকে স্বাভাবিক বলেই মনে করছেন। কারণ বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুটে ট্রাকের চাপ বেড়েছে।


আরও খবর
মুনিয়া-শারুন আলাপ কী প্রমাণ করে?

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের পরীক্ষা আজ, আসনপ্রতি লড়বেন ৭৪ জন

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১ | ১৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
পরীক্ষা চলাকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবনস্থ পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করবেন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০২০-২১ সেশনের ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা আজ। শনিবার (২৩ অক্টোবর) বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত চলবে দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠের এ ভর্তিযুদ্ধ। এতে প্রতি আসনের বিপরীতে লড়বেন ৭৩.৮১ জন।

 

প্রথমবারের মতো ঢাকা ও ঢাকার বাইরে সাতটি বিভাগীয় শহরে অনুষ্ঠিত হবে এ পরীক্ষা। কঠোর নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষায় অংশ নেবেন ভর্তিচ্ছুরা।

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ বিভাগ জানিয়েছে, পরীক্ষা চলাকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবনস্থ পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করবেন।

 

এবারের ইউনিটে মোট আবেদনকারীর সংখ্যা এক লক্ষ ১৫ হাজার ৮৮১ জন। মোট আসন সংখ্যা এক হাজার ৫৭০টি।

 

এর মধ্যে ইউনিটে ঢাবিতে ৬১ হাজার ৮৫০ জন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ১২ হাজার জন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে নয় হাজার ৮৯৮ জন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে আট হাজার ১২৪ জন, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই হাজার ১৭৮ জন, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ১১ হাজার ২০ জন, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে তিন হাজার ১৩ জন ও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাত হাজার ৭৯৮ জন ভর্তিচ্ছু পরীক্ষার্থী পরীক্ষা দেবেন।


আরও খবর