আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম

অর্থ আত্মসাৎ-পাচার : ডেসটিনির এক মামলার রায় আজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | ৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ডেসটিনি গ্রুপের চেয়ারম্যান হারুন-অর-রশিদ ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) রফিকুল আমীনসহ ৪৬ জনের বিরুদ্ধে করা অর্থ আত্মসাৎ ও পাচারের মামলার রায় বৃহস্পতিবার (১২ মে) ঘোষণা করা হবে। বেলা ১১টার দিকে ঢাকার চতুর্থ বিশেষ জজ আদালতের বিচারক শেখ নাজমুল আলম এ রায় ঘোষণা করবেন। রায়ে সব আসামিকে সর্বোচ্চ শাস্তি ১২ বছরের কারাদণ্ড আশা করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। অন্যদিকে আসামিপক্ষ বলছে, দুদক অভিযোগ প্রমাণ করতে সক্ষম হয়নি। তাই আসামিরা রায়ে খালাস পাবেন।

দুদকের আইনজীবী মীর আহম্মেদ সালাম জাগো নিউজকে বলেন, ডেসটিনি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির গ্রাহকের অর্থ আত্মসাৎ ও পাচারের মামলায় গ্রুপের চেয়ারম্যান সাবেক সেনাপ্রধান হারুন-অর-রশিদ এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল আমীনসহ ৪৬ জনের বিরুদ্ধে করা মামলার রায় বৃহস্পতিবার হবে। আসামিদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য প্রমাণে আমরা অভিযোগ প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছি। যে ধারায় আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে তার সর্বোচ্চ শাস্তি ১২ বছরের কারাদণ্ড। রায়ে আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি প্রত্যাশা করছি।

এর আগে রোববার (২৭ মার্চ) ঢাকার চতুর্থ বিশেষ জজ আদালতের বিচারক শেখ নাজমুল আলম রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য ১২ মে দিন ধার্য করেছিলেন।

মামলায় ডেসটিনির এমডি রফিকুল আমীনসহ আসামি ৪৬ জন। তাদের মধ্যে জামিনে রয়েছেন লে. কর্নেল (অব.) মো. দিদারুল আলম, লে. জেনারেল (অব.) হারুন-অর-রশিদ, মিসেস জেসমিন আক্তার (মিলন), জিয়াউল হক মোল্লা ও সাইফুল ইসলাম রুবেল। কারাগারে আছেন এমডি রফিকুল আমীন ও প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হোসেন। অন্য ৩৯ আসামি পলাতক।

পলাতক আসামিরা হলেন- ডেসটিনির উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোফরানুল হক, পরিচালক মেজবাহ উদ্দিন, ফারাহ দীবা, সাঈদ-উর-রহমান, সৈয়দ সাজ্জাদ হোসেন, জমশেদ আরা চৌধুরী, ইরফান আহমেদ, শেখ তৈয়বুর রহমান, নেপাল চন্দ্র বিশ্বাস, জাকির হোসেন, জসিম উদ্দিন ভূঁইয়া, এসএম আহসানুল কবির, জুবায়ের হোসেন, মোসাদ্দেক আলী খান, আবদুল মান্নান, আবুল কালাম আজাদ, আজাদ রহমান, মো. আকবর হোসেন সুমন, মো. সুমন আলী খান, শিরীন আকতার, রফিকুল ইসলাম সরকার, মো. মজিবুর রহমান, ড. এম হায়দারুজ্জামান, মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন, কাজী মো. ফজলুল করিম, মোল্লা আল আমীন, মো. শফিউল ইসলাম, ওমর ফারুক, সিকদার কবিরুল ইসলাম, মো. ফিরোজ আলম, সুনীল বরণ কর্মকার ওরফে এসবি কর্মকার, ফরিদ আকতার, এস সহিদুজ্জামান চয়ন, আবদুর রহমান তপন, মেজর (অব.) সাকিবুজ্জামান খান, এসএম আহসানুল কবির (বিপ্লব), এএইচএম আতাউর রহমান রেজা, গোলাম কিবরিয়া মিল্টন, মো. আতিকুর রহমান, খন্দকার বেনজীর আহমেদ, একেএম সফিউল্লাহ, শাহ আলম, মো. দেলোয়ার হোসেন ও মো. শফিকুল হক।

দুদকের উপ-পরিচালক মো. মোজাহার আলী সরদার ও সহকারী পরিচালক মো. তৌফিকুল ইসলাম ২০১২ সালের ৩১ জুলাই রাজধানীর কলাবাগান থানায় মানি লন্ডারিং আইনে মামলা দুটি করেছিলেন।

এরপর ২০১৪ সালের ৪ মে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন মোজাহার আলী সরদার। এতে ডেসটিনির গ্রাহকদের চার হাজার ১১৯ কোটি ২৪ লাখ টাকা আত্মসাৎ করে পাচারের অভিযোগ আনা হয়।

এর মধ্যে ডেসটিনি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির মামলায় ৪৬ জন এবং ডেসটিনি ট্রি প্লানটেশন লিমিটেডে দুর্নীতির মামলায় ১৯ জনকে আসামি করা হয়। দুই মামলায়ই আসামি হারুন-অর-রশিদ ও রফিকুল আমিন।

মামলার অভিযোগপত্রে বলা হয়, ২০০৮ সাল থেকে মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ প্রোজেক্টের নামে ডেসটিনি বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে সংগ্রহ করেছিল ১ হাজার ৯০১ কোটি টাকা। সেখান থেকে ১ হাজার ৮৬১ কোটি টাকা আত্মসাৎ করা হয় বলে দুদকের অনুসন্ধানে ধরা পড়ে। ওই অর্থ আত্মসাতের ফলে সাড়ে ৮ লাখ বিনিয়োগকারী ক্ষতির মুখে পড়েন।

ডেসটিনি ট্রি প্লান্টেশন প্রোজেক্টের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ২ হাজার ৪৪৫ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে ২ হাজার ২৫৭ কোটি ৭৮ লাখ ৭৭ হাজার টাকা করা হয় আত্মসাৎ। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হন সাড়ে ১৭ লাখ বিনিয়োগকারী।

অভিযোগপত্রে আরও বলা হয়, ডেসটিনি গ্রুপের নামে ২৮টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বেশ কয়েকটি ছিল নাম সর্বস্ব। আসামিরা প্রথমে প্রোজেক্টের টাকা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের হিসাবে জমা করতেন। তারপর বিভিন্ন ব্যাংকের হিসাবে তা স্থানান্তর করা হতো। দুদক ৩৪টি ব্যাংকে এমন ৭২২টি হিসাবের সন্ধান পায়, যেগুলো পরে জব্দ করা হয়।


আরও খবর



৬৪ জেলার শিল্পকলার অডিটরিয়ামে সিনেমা চালানোর দাবি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জামালপুরের অডিটরিয়ামে গলুই ছবির প্রদর্শনী জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন নির্মাতা এস এ হক অলিক। পরিচালক জানান, জামালপুরের মূল প্রদর্শনী ক্ষেত্রটিও যেকোনো সময় বন্ধ হয়ে যেতে পারে। অডিটরিয়ামগুলো বন্ধ করার ব্যাপারে ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনামলে অর্থাৎ ১৯১৮ সালে প্রণীত একটি আইনকে সামনে টেনে এনেছেন জেলা প্রশাসক। যদিও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, তারা এমন কোনো নির্দেশনা দেয়নি।

এদিকে বিষয়টি নিয়ে চলচ্চিত্র ও নাট্যসংশ্লিষ্ট অনেকেই মুখ খুলছেন। অভিনয় শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক রওনক দেশের ৬৪ জেলার শিল্পকলার মিলনায়তনে সিনেমা চালানোর দাবি তুলেছেন। রওনক বলছেন, আসুন আমরা এইভাবে শুরু করি।  যেহেতু এখন বাংলাদেশে সিনেমা হল নেই বললেই চলে, সেহেতু আমরা সকলে মিলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে যাই। গিয়ে বলি যে মাননীয়, অন্তত সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত সিনেমাগুলো ৬৪ জেলার ৬৪ শিল্পকলা একাডেমির হলে অন্তত এক সপ্তাহ প্রদর্শনের অনুমতি প্রদান করুন।  সাধারণত সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত সিনেমা ব্যাবসায়িকভাবে সফল হয় না (ব্যতিক্রম অবশ্যই আছে) বলে হল মালিকরা সেসব ছবি চালাতে চান না। তাই সিনেমাগুলো বৃহত্তর দর্শক হতে বঞ্চিত হয়।

তিনি বলছেন, সারা দেশের মানুষ যাতে সাহিত্যনির্ভর সরকার দ্বারা অনুপ্রাণিত সিনেমাগুলো দেখার সুযোগ পায় সে জন্য এই ব্যবস্থা খুব কার্যকর ভূমিকা পালন করবে। এবং কোনো সিনেমা যদি ব্যাবসায়িকভাবে সাফল্য অর্জন করে তবে সেই সিনেমার সরকারি নিয়ম অনুযায়ী যেটুকু কর দেওয়ার বিধান আছে সেটুকু তার দিতে বাধ্য থাকবে। প্রদর্শনীর দিনগুলোতে যদি কোনো সরকারি পূর্বনির্ধারিত অনুষ্ঠান হলে থাকে তবে সেই দিনটি প্রদর্শনী বন্ধ থাকবে। এভাবে আমরা ভাবতে পারি। এভাবে অন্য সকল সিনেমারও প্রদর্শনী হতে পারে। এ বিষয়ে আমি চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট সকল সংগঠনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। আসুন আমরা তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির কাছে আমাদের আবেদন নিয়ে যাই। এ বিষয়ে আমরা অভিনয়শিল্পীরা যতটুকু প্রয়োজন সাথে থাকব, পাশে থাকব। বাংলাদেশের চলচ্চিত্র তার কাঙ্ক্ষিত কক্ষপথে ফিরে আসুক।

ঈদুল ফিতরের দিন থেকে জামালপুর সদরের শিল্পকলা নতুন অডিটরিয়াম ভবন (শীততাপ নিয়ন্ত্রিত), ইসলামপুরে ফরিদুল হক খান দুলাল অডিটরিয়াম (শীততাপ নিয়ন্ত্রিত), মাদারগঞ্জে নুরুন্নাহার মাল্টিপারপাস অডিটরিয়ামে (শীততাপ নিয়ন্ত্রিত) বিশেষ ব্যবস্থায় প্রদর্শনী হয়ে আসছিল। পরে জামালপুর সদরের প্রদর্শনী স্থানান্তর করে মির্জা আজম অডিটরিয়ামে নিয়ে আসা হয়। 

এই তিন অডিটরিয়ামেই চলচ্চিত্রটির প্রদর্শনী থাকছে না। নির্মাতার অভিযোগের প্রেক্ষিতে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মোকলেসুর রহমান বলেন, ‘চলচ্চিত্র বন্ধ করার কোনো নির্দেশনা আমরা দিইনি। কারণ সেখানে আমাদের বলার কিছু নেই। সিনেমা চললে চলবে, আমাদের অনুমতি দেওয়া বা বন্ধ করতে বলার কোনো কারণই ঘটেনি। ’


আরও খবর



৩০ দিন পর করোনায় মৃত্যু দেখলো দেশ

প্রকাশিত:শনিবার ২১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ১৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একজন মারা গেছেন। টানা ৩০ দিন পর করোনায় মৃত্যু দেখলো দেশ । সর্বশেষ ২০ এপ্রিল একজনের মৃত্যু হয়েছিল।

শনিবার (২০ মে) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এদিকে ২৪ ঘণ্টায় ৩ হাজার ৯২৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১৬ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার শূন্য দশমিক ৪১ শতাংশ। দেশে এ পর্যন্ত ১৯ লাখ ৫৩ হাজার ২০৪ জনের করোনা শনাক্ত হলো। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছে ১৭২ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হলো ১৯ লাখ ৭৪৭ জন। দেশে করোনায় মোট ২৯ হাজার ১২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

২০১৯ সালের শেষে চীনের উহানে প্রথম করোনার সংক্রমণ ধরা পড়ে। এরপর কয়েক মাসের মধ্যে এ ভাইরাস সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে। দেশে প্রথম করোনা শনাক্ত হয় ২০২০ সালের ৮ মার্চ। আর প্রথম মৃত্যু হয় একই বছরের ১৮ মার্চ।


আরও খবর



জুনেই পদ্মা সেতু উদ্বোধন: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ৩৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সময় দিলে আগামী জুন মাসের শেষেই পদ্মা সেতু উদ্বোধন করা হবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। বুধবার (১১ মে) রাজধানীর বনানীতে সেতু ভবনে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের বোর্ড সভা শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা জানান তিনি। মন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধন নিয়ে ধোঁয়াশার কোনো কারণ নেই। আমি মন্ত্রী হিসেবে জেনে-শুনেই বলছি, জুনেই সেতু উদ্বোধন করা হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী মাসের শেষ দিকে আমরা পদ্মা সেতু উদ্বোধনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমরা এ সংক্রান্ত সারসংক্ষেপ পাঠাচ্ছি। আমরা শেষ দিকে আছি, সামান্য কিছু কাজ বাকি। এটা মে মাসের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সময় দিলে জুনের শেষেই পদ্মা সেতু উদ্বোধন করা হবে।

তিনি বলেন, আজকের বোর্ড সভায় আমরা কিছু বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সেতু বিভাগের আওতায় বেশকিছু জনগুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। এরমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার প্রকল্প পদ্মা বহুমুখী সেতু।

সেতুর কাজের অগ্রগতি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, মূল সেতু বাস্তবায়ন কাজের অগ্রগতি ৯৮ ভাগ, নদী শাসন ৯২ ভাগ, মূল সেতুর কার্পেটিং ৯১ ভাগ, সার্বিক সেতু প্রকল্প বাস্তবায়ন কাজের অগ্রগতি ৯৩ দশমিক ৫০ ভাগ।

সেতুর নাম করণ প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, আমরা বারবার প্রধানমন্ত্রীকে বলার চেষ্টা করেছি, সেতুর নাম শেখ হাসিনা পদ্মাসেতু করার জোরালো দাবি এসেছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী রাজি হচ্ছেন না। উদ্বোধনের যে সামারি আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠাব সেখানে আবারও নাম শেখ হাসিনা পদ্মাসেতু প্রস্তাব করা হবে। তিনিই নাম ঠিক করবেন, সেটা ওনার এখতিয়ার।

পদ্মা সেতুর টোল প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল বলেন, আমরা টোলের সামারি প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠিয়েছি। তিনি যেটা অনুমোদন করবেন সেটাই হবে।’ পদ্মা সেতুতে রেল সংযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জুলাই থেকে রেল সংযোগের কাজ শুরু হবে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প কর্ণফুলীর তলদেশে টানেল নির্মাণ। টানেল প্রকল্পের সার্বিক কাজের অগ্রগতি ৮৫ ভাগ। আশা করছি এ বছরই টানেল আলোর মুখ দেখবে।


আরও খবর



কলেজে চালু হচ্ছে পর্নোগ্রাফি ছবির ক্লাস

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | ৮২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পর্নো‌গ্রাফি ছবির ক্লাস চালু করার সিদ্ধান্ত নিলেন একটি বেসরকারি কলেজ কর্তৃপক্ষ। শুধু তাই নয়, পড়ুয়াদের পাশে বসিয়েই সেই ছবি দেখবেন শিক্ষকরা। গোটা বিষয়টিকে শিক্ষার অঙ্গ হিসেবেই দেখা হবে বলে দাবি ওই কলেজ কর্তৃপক্ষের।

পঠনপাঠনের এই কোর্স চালু করছে আমেরিকার উটা শহরের ওয়েস্টমিনস্টার কলেজ। এই কোর্সটির নাম দেওয়া হয়েছে ফিল্ম ৩০০০। কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি, যৌনতার মধ্যে যে জাতি, শ্রেণি এবং লিঙ্গের কোনও ভেদাভেদ নেই এবং যৌনতা যে একটি শিল্প, পড়ুয়াদের তা বোঝানোই এই পঠনপাঠনের মূল লক্ষ্য। তা ছাড়া এই পর্নোগ্রাফির পঠনপাঠনের মধ্য দিয়েই সামাজিক সমস্যাগুলিকে আরও ভাল ভাবে ব্যাখ্যা করার সুযোগ পাবেন পড়ুয়ারা। এমনটাই দাবি কলেজ কর্তৃপক্ষের।

কলেজ কর্তৃপক্ষের বিশ্বাস, এই বিতর্কিত বিষয়টি নিয়ে তাঁরা পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে তদন্তের কাজে নিজেদের নিয়োজিত করবেন কি না, এই পঠনপাঠনই তাঁদের সেই সিদ্ধন্ত নিতে সাহায্য করবে। কলেজ কর্তৃপক্ষ যে বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেন তাতে বলা হয়েছে, রবিবার রাতের ফুটবল ম্যাচের তুলনায় পর্নোগ্রাফি অনেক বেশি জনপ্রিয়। কোটি কোটি ডলারের এই শিল্পের যে একটা সাংস্কৃতিক পরিচয় আছে সেটাকে তুলে ধরাই আমাদের লক্ষ্য। ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে এই পঠন পাঠন চালু হবে বলে জানিয়েছেন কলেজ কর্তৃপক্ষ।

কলেজ কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্তের পরই মিশ্র প্রতিক্রিয়া আসতে শুরু করেছে। অনেকে কলেজ কর্তৃপক্ষের সমালোচনা করে বলেছেন, এই সিদ্ধান্ত অত্যন্ত বিরক্তিকর। কী ভাবে এমন সিদ্ধান্ত নিল কলেজ? আবার অনেকে কলেজের এই সিদ্ধান্তকে খুব একটা খারাপ চোখেও দেখছেন না।

নিউজ ট্যাগ: পর্নোগ্রাফি

আরও খবর



মঠবাড়িয়ায় সড়কে ঝরলো মোটরসাইকেল আরোহীর প্রাণ

প্রকাশিত:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | হালনাগাদ:শুক্রবার ২০ মে ২০22 | ২৭৫জন দেখেছেন
মনিরুল ইসলাম, মঠবাড়িয়া

Image

পিরোজপুর জেলায় মঠবাড়িয়া উপজেলায় হানিফ পরিবহনের বেপরোয়া গতিতে এক মটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার (২০ মে) সকাল ৯টার দিকে মঠবাড়িয়া চরখালী সড়ক মুসুল্লীবাড়ি নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত হারুন অর রশিদ শেখ (৫৫) পিরোজপুর জেলা সদরের উত্তর রানীপুর গ্রামের বাসিন্দা ও গহর আলী শেখের পুত্র।

স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, নিহত হারুনের ছেলে আহসান শেখ (৪৫ ) ও নাতি লিমন শেখ (২২) তিনজন একটি মটরসাইকেল যোগে মঠবাড়িয়ায় তার নিকট আত্মীয়র বাসায় যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে মঠবাড়িয়া চরখালী সড়ক মুসুল্লীবাড়ি নামক স্থানে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা মঠবাড়িয়াগামী হানিফ পরিবহনের একটি বাস বেপরোয়া গতিতে মটরসাইকেলটিকে পিছন থেকে স্বজোরে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলে হারুনের মৃত হয় এবং তার ছেলে ও নাতী গুরুতর আহত হয়। দুর্ঘটনা ঘটিয়ে বাসটি নিয়ে চালক দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করার সময় স্থানীয় লোকজন পরিবহন, চালক ও হেলপারকে আটকে রেখে পুলিশকে খবর দেন।

এ ঘটনায় ঘাতক বাস চালক মাসুম মোল্লা (৩৫) ও বাসের হেলপার নুর মোল্লা (৫০) কে গ্রেফতার করেছেন থানা পুলিশ।

মঠবাড়িয়া থানা অফিসার ইনচার্জ নুরুল ইসলাম বাদল বলেন, ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় বাসটির চালক ও হেলপারকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে অতি দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরও খবর