আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

অষ্টমীর দিনে কুমারী দুর্গা সাহেবা খাতুন

প্রকাশিত:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | ১৯৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অষ্টমীর দিন ধর্মীয় ভেদাভেদ ঘুচে গেল! মৃন্ময়ী মাতৃমূর্তির সামনে চিন্ময়ী রূপে পুজো পেল পাঁচ বছরের সাহেবা খাতুন। বুধবার হুগলির চুঁচুড়ার এক আশ্রমে ছোট্ট সাহেবার কুমারী মায়ের রূপ ধূসর করে দিল সাম্প্রদায়িক বিভেদকে।

এই প্রথম নয়, চুঁচুড়ায় ঝিঙেপাড়ার সারদা রামকৃষ্ণ সেবাশ্রমে এর আগেও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের শিশুকন্যাকে কুমারী হিসাবে পুজো করা হয়েছে। সাহেবার আগে গত চার বছর ধরে কুমারীর আসনে বসেছে তারই দিদি। আশ্রমের তরফে স্বামী দুর্গাত্মানন্দ মহারাজ জানিয়েছেন, রামকৃষ্ণের মতাদর্শে চালিত এই মঠ ভেদাভেদে বিশ্বাসী নয়। তাঁর কথায়, আমরা রামকৃষ্ণের মতে পুজো করি। তাই ধর্মের বিভেদ করি না।

তিনি জানিয়েছেন, সনাতন শাস্ত্র মতে কুমারীর মধ্যে দুর্গা বসত করেন। মুনিঋষিরা সেই কুমারীর মধ্যে প্রকৃতি হিসাবে আরাধনা করতেন। প্রকৃতি অর্থাৎ নারী। সেই কুমারীর মধ্যেই মা দুর্গার আবির্ভাব হয়, বিশ্বাস অনেকের। মহারাজের কথায়, অষ্টমী-নবমীর সন্ধিক্ষণে মহিষাসুর বিজয়ের পর দেবতারা মা দুর্গার বন্দনা করেছিলেন।

দীর্ঘ দিন ধরে আমাদের আশ্রমে কুমারীদের সেই মা দুর্গার কল্পনাতেই পুজো করা হয়। আমরা শ্রীরামকৃষ্ণের তত্ত্বের অনুসারী। ফলে কোনও ধর্মীয় ভেদাভেদ মেনে চলি না। আমাদের মঠে হিন্দু-মুসলিম নির্বিশেষে কাজ করা হয়। এই কুমারী আজ আমাদের কাছে মা দুর্গা। অর্থাৎ মৃন্ময়ী প্রতিমার চিন্ময়ী রূপ।

নিউজ ট্যাগ: কুমারী দুর্গা

আরও খবর



ইভ্যালি পরিচালনা কমিটি: ২ সচিবসহ ৩ জনের নাম প্রস্তাব

প্রকাশিত:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | ৪১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি পরিচালনার জন্য হাইকোর্টের বোর্ড গঠনের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে দুই সচিবসহ তিনজনের নাম প্রস্তাব করেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। যাদের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে, তারা হলেন- স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব রেজাউল আহসান, সংস্কার বোর্ডের সচিব ইয়াকুব আলী পাটোয়ারী এবং সাবেক সচিব মাকছুদুর রহমান পাটোয়ারী।

নামের এ তালিকা ইতোমধ্যে আদালতে দাখিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ব্যাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আইনজীবী তাপস কান্তি বল। তাদের মধ্যে একজনকে রাখা হবে কমিটিতে।

এর আগে, মঙ্গলবার জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মসের পক্ষ থেকে ইভ্যালির যাবতীয় নথি হাইকোর্টে দাখিল করা হয়। এদিন ইভ্যালির দুই কর্ণধার কারাবন্দি থাকার প্রেক্ষাপটে নতুন একটি কমিটি গঠনের কথা বলেছে আদালত। আজ বুধবার বিচারপতি মুহাম্মদ খুরশীদ আলম সরকারের একক হাইকোর্ট বেঞ্চের এ বিষয়ে আদেশ দেওয়ার কথা রয়েছে।

আদালতে আবেদনের পক্ষে আইনজীবী এন এম মাছুম ও সৈয়দ মাহসিব হোসেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, রেজিস্ট্রার জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মস, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ও প্রতিযোগিতা কমিশনের পক্ষে আইনজীবী তাপস কান্তি বল শুনানি করেন।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর এক আদেশে ইভ্যালির নথিপত্র ১২ অক্টোবরের মধ্যে আদালতে দাখিল করতে রেজিস্ট্রার জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মসকে নির্দেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট। সেই অনুযায়ী গতকাল সব নথি দাখিল করা হয়। আইনজীবী তাপস কান্তি বল জানান, সব নথি দাখিল করা হয়েছে। যেহেতু এ কোম্পানিটির দুই জন মালিকই জেলে, তাই একটি কমিটি গঠনের অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছেন। যে কমিটিতে একজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারক, অবসরপ্রাপ্ত সচিব, চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট ও একজন আইনজীবী থাকতে পারেন। এ বিষয়ে বুধবার আদেশ দেবে হাইকোর্ট।

এর আগে এক গ্রাহকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ২২ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির সব ধরনের সম্পদ বিক্রি এবং হস্তান্তরে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল হাইকোর্ট।


আরও খবর
ইকবালসহ ৪ আসামির রিমান্ড মঞ্জুর

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




শুটিং সেটে নায়কের গুলিতে সিনেমাটোগ্রাফার নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ | ৮৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

শুটিংয়ের সময় হলিউড অভিনেতা অ্যালেক বল্ডউইনের প্রপ গান থেকে ছোড়া গুলিতে সিনেমাটির সিনেমাটোগ্রাফার নিহত হয়েছেন। আর গুরুতর আহত হয়েছেন সিনেমাটির পরিচালক। যুক্তরাষ্ট্রের নিউ মেক্সিকোর বোনানজা ক্রিক র‌্যাঞ্চে গতকাল বৃহস্পতিবার ওয়েস্টার্ন ঘরানার রাস্ট সিনেমার শুটিং সেটে এমন ঘটনা ঘটেছে।

সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ৪২ বছর বয়সী নিহত নারীর নাম হালইয়ানা হুটচিনস। তিনি সিনেমাটিতে সিনেমাটোগ্রাফার হিসেবে কাজ করছিলেন। গুলিবিদ্ধ হওয়ার পর হাসপাতলে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

এদিকে, সিনেমার পরিচালক জোয়েল সুজা গুরুতর আহত অবস্থায় এখনও চিকিৎসাধীন।

বার্তা সংস্থা এপির খবর শুটিংয়ে প্রপ গান হিসেবে নকল বন্দুক ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এ ছাড়া সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করে সত্যিকারের বন্দুকও ব্যবহার করতে দেখা যায়। তবে, এ ঘটনায় ঠিক কী ঘটেছিল, তার বিস্তারিত এখনও জানা যায়নি।

নিউজ ট্যাগ: শুটিং সেট

আরও খবর
গাছের সঙ্গে বিয়ে হবে নয়নতারার

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১




জানুয়ারি থেকে ক্লাসের সংখ্যা বাড়বে : শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১ | ৬৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে আগামী জানুয়ারি থেকে ক্লাসের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি। তিনি বলেন, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা শেষে জানুয়ারিতে নতুন ক্লাস শুরু হলে ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানো হবে।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) চাঁদপুর শহরের বাবুরহাট এলাকায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নবনির্মিত কার্যালয়ের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এই মুহূর্তে ক্লাসের সংখ্যা বাড়ানোর সুযোগ নেই। কারণ স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করেই পাঠদান কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে। তাছাড়া বিশ্বের কিছু দেশে করোনার তৃতীয় ঢেউ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তাই এই মুহূর্তে সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিষয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার যেখানে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার জন্য, দেশকে উন্নত করার জন্য নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে সেখানে নির্বাচনকে সামনে রেখে চিহ্নিত বিএনপি-জামাত ও তাদের দোসররা এই সরকারের বিরুদ্ধে একজোট হয়ে নানাভাবে বিভিন্ন অপকর্ম করছে এবং তা প্রমাণিত।

তিনি বলেন, অপশক্তি যতই সংঘবদ্ধ হোক না কেনো, আমরা শুভশক্তির মানুষ যদি একজোট থাকি, তাহলে কিছুতেই তারা আমাদের ক্ষতি করতে পারবে না। একাত্তরে পারেনি আর এখনো পারবে না ইনশাআল্লাহ। এ কারণেই আমাদের একসঙ্গে কাজ করতে হবে। চোখ-কান খোলা রাখাতে হবে।

তিনি আরও বলেন, সহিংসতার বিষয়ে গোয়েন্দা সংস্থা কাজ করছে এবং কোথায়, কারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত তাদের শনাক্ত করে দ্রুত আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক (ডিসি) অঞ্জনা খান মজলিশ, পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ, চাঁদপুর পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম দেব কুমার মালু, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, অ্যাড. মজিবুর রহমান ভূঁইয়া, নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান, জিল্লুর রহমান জুয়েল, অ্যাড. জাহিদুল ইসলাম রোমান, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন পাটওয়ারী প্রমুখ।


আরও খবর



করোনায় বেড়েছে মৃত্যু, কমেছে শনাক্ত

প্রকাশিত:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৯ অক্টোবর ২০২১ | ৫০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

একদিনের ব্যবধানে আবারও দেশে করোনায় মৃত্যু বেড়েছে। তবে কমেছে শনাক্ত। গত ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন ২০ জন, যা গতকাল (শুক্রবার) ছিল সাত। এ ছাড়া গতকাল ৬৪৫ জন নতুন শনাক্ত হলেও আজ হয়েছে ৪১৫। গত ১৬ মের পর দৈনিক সংক্রমণ পাঁচশর নিচে নামলো। ওই দিন ৩৬১ রোগী শনাক্তের খবর এসেছিল।

শনিবার (৯ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, একদিনে ২০ জনকে নিয়ে দেশে সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট মারা গেলেন ২৭ হাজার ৬৭৪ জন। একই সময়ে ভাইরাসটিতে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৪৪৫ জন। তাদের নিয়ে দেশে সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত মোট শনাক্ত হলেন ১৫ লাখ ৬১ হাজার ৮৭৮ জন।

করোনা আক্রান্ত হয়ে একই সময়ে সুস্থ হয়েছেন ৫৪৩ জন। তাদের নিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়ে মোট ১৫ লাখ ২৩ হাজার ১৩৪ জন সুস্থ হয়েছেন বলে জানাচ্ছে অধিদফতর।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় রোগী শনাক্তের হার দুই দশমিক ৪৫ শতাংশ। আর এখন পর্যন্ত দেশে করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ৭৩ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৫২ শতাংশ আর মৃত্যুর হার এক দশমিক ৭৭ শতাংশ।

অধিদফতর জানাচ্ছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ১৬ হাজার ৭৫৫টি আর পরীক্ষা হয়েছে ১৬ হাজার ৯২৫টি। দেশে এখন পর্যন্ত করোনার মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৯৯ লাখ ৩১ হাজার ৮৪১টি। এরমধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা হয়েছে ৭২ লাখ ৯৯ হাজার ১২৩টি আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২৬ লাখ ৩২ হাজার ৭১৮টি।


আরও খবর



দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় সেতু নয়, টানেল হবে : সেতুমন্ত্রী

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০১ অক্টোবর ২০২১ | ৬১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের যোগাযোগ ব‌্যবস্থা সহজ করতে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া এলাকায় দ্বিতীয় পদ্মা সেতুর যে দাবি উঠেছে, সেটি বিবেচনায় নিয়ে সরকার আগে নদীর নাব‌্যতা কি হবে তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, সরকার সেখানে আন্ডারপাস বা টানেল নির্মাণের পরিকল্পনা করছে। এখন থেকে সরকার সেতুর পরিবর্তে টানেলের দিকে নজর দিচ্ছে বলেও জানান তিনি।

শুক্রবার (১ অক্টোবর) রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা শেখ হাসিনার উন্নয়নের সংগ্রাম, নিরবচ্ছিন্ন স্বপ্নের মহাসড়কে খুলনা থেকে চট্টগ্রাম শীর্ষক সেমিনারে অংশ নিয়ে এ কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে এই সেমিনারের আয়োজন করে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, নদী বাঁচাতে হবে, তা না হলে শ‌্যামল বাংলাদেশ থাকবে না। এত ব্রিজ করার দরকার কি? পদ্মা সেতু একটা হয়েছে, এখন দাবি উঠেছে দৌলতদিয়া আরেকটি সেতু। দুটি সেতু হলে নদীর নাব‌্যতা কি হবে? এটা কিন্তু আমরা পরীক্ষা নিরীক্ষা করছি।

কাজেই সেতু না করে আমরা আন্ডারপাস করার চিন্তা ভাবনা করছি। দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া আমরা টানেল নির্মাণের চিন্তা ভাবনা করছি। জামালপুরে দেওয়ানগঞ্জ থেকে গাইবান্ধা পর্যন্ত আরেকটি টানেল নির্মাণের পরিকল্পনাও আমাদের রয়েছে। কিছু কিছু জায়গায় আমাদের টানেলের দিকে নজর দিতে হবে। চট্টগ্রামে কর্নফুলী নদীর তলে যে টানেল হচ্ছে সেটাও ৭৫ ভাগ কাজ হয়ে গেছে, বলেন তিনি।

নদীগুলো শুধু সেতু নির্মাণ করে এমনিতেই নাব‌্যতা নেই উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, সেতু যত নির্মাণ করবেন নাব‌্যতা হারাবে।  অনেক সেতু উদ্বোধন হয়েছে, আরও প্রায় ৫০টির মতো সেতু উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে। এ সময় যশোর-খুলনা মহাসড়কটি বারবার নষ্ট হচ্ছে কেন তা ভালোভাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সংস্কার করার নির্দেশ দেন।  তিনি বলেন, রাস্তা করে রক্ষণাবেক্ষণ না হলে তার সুফল পাওয়া যাবে না।

এ সময় চার লেনেরে সব রাস্তায় অবশ‌্যই সার্ভিস লেন রাখাতে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে এবং সেভাবে বাস্তবায়ন করা হচ্ছে বলেও জানান মন্ত্রী।

আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে যোগাযোগ ব‌্যবস্থার উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, ঢাকা মাওয়ার মতো এক্সপ্রেস ওয়ে ইউরোপের অনেক দেশেও নাই। প্রতিবেশি দেশ ভারতেও নেই। গাজীপুর থেকে টাঙ্গাইল, এলেঙ্গা থেকে রংপুর, রংপুর থেকে যাবে পঞ্চগড় একটা আরেকটা বুড়িমাড়ী এগুলো আমাদের পরিকল্পনা। এর কাজ চলছে। খুলনা-মোংলা-বাগেরহাট এগুলোও আমাদের কাজেরই অংশ। এখানে নতুন কোনো পরিকল্পর প্রয়োজন নেই। এগুলো বাইরে ঢাকা সিলেট চার লেনের কাজ যত দ্রুত শেষ করা যায়। আরেকটা হচ্ছে চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার চার লেন।  সেটাও প্রতিশ্রুতি দিয়েছি। ওটাও দ্রুত শুরু করার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি।  ফরিদপুর থেকে বরিশাল ফোর লেন করার জন‌্য এডিবির সাথে কথা হয়েছে।

আগামী বছর এদেশের সড়ক যোগাযোগের চেহারা পাল্টে যাবে জানিয়ে তিনি বলেন, মেট্রোরেল, ম‌্যাস র‌্যাপিট ট্রানজিট, পদ্মা সেতু সব উদ্বোধন হবে। শেখ হাসিনা তার ভিশন বাস্তবায়নে সব পরিকল্পনা সাজাচ্ছেন, মাস্টারপ্লান করেছেন এবং কাজ যখন যেটা করার দরকার সেটি করছেন। আমাদের ভিশন বিএনপির ভিশন নয়।

এ সময় গত নির্বাচনে বিএনপির ভিশন-২০৩০ এর কথা তুলে ধরে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এটা হলো নির্বাচনকে সামনে রেখে পলিটিক‌্যালি স্টান্ডবাজি।  ওটা বিবৃতির মধ‌্যই সীমাবদ্ধ আর আলোর মুখ দেখবে না। বিএনপি নির্বাচন করবে কি দিয়ে?

সেমিনারে স্বাগত বক্তব্যে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এবং উপ-কমিটির সদস্য সচিব ইঞ্জিনিয়ার মো. আবদুস সবুর বলেন, দেশে এ পর্যন্ত উত্তর-দক্ষিণ সংযোগকারী যোগাযোগ ব্যবস্থা থাকলেও পূর্ব-পশ্চিম সংযোগকারী সরাসরি যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে উঠেনি। ফলে আমাদের যোগাযোগ ব্যবস্থায় রাজধানী ঢাকার ওপর চাপ ক্রমাগত বৃদ্ধি পেয়েছে। খুলনা অথবা বরিশাল থেকে কোন গাড়ি যদি চট্টগ্রাম বন্দরে যেতে চায় তবে ঢাকা ছাড়া তাদের যাওয়ার কোন সরাসরি ব্যবস্থা নেই। পূর্ব-পশ্চিম সরাসরি যোগাযোগ তৈরি করতে পারলে ঢাকা-চট্টগ্রাম ৪-লেন সড়কের উপর চাপ বহুলাংশে কমে যাবে।

তিনি বলেন, আমাদের পাশ্ববর্তী দেশ ভারতের দিকে তাকালে আমরা দেখতে পাই সমগ্র সমুদ্র উপকূলজুড়ে তাদের রোড নেটওয়ার্ক গড়ে উঠেছে। ফলে বন্দর থেকে বন্দরে পণ্য পরিবহনে তাদের একটা সমন্বিত নেটওয়ার্ক গড়ে উঠেছে। আমরা সমুদ্র উপকূল দিয়ে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপন করতে পারলে দেশের ব্লু-ইকোনমিতে একটা বিশাল প্রভাব ফেলবে। আন্তর্জাতিকভাবে বাংলাদেশ হয়ে উঠবে যোগাযোগের একটি হাব। সিঙ্গাপুরের মত বাংলাদেশও সমন্বিত যোগাযোগ ব্যবস্থার একটা রোল মডেল হয়ে উঠবে।

ইঞ্জিনিয়ার মো. আবদুস সবুর বলেন, দেশের সম্ভাবনাময় পর্যটন শিল্পের একটা নতুন দ্বার উমোচিত হবে। এখন বাংলাদেশের মানুষ বছরের বিভিন্ন সময় থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর ও ভারত ঘুরতে যায়, কিন্তু তখন ঘুরতে যাবে নোয়াখালি, সন্দীপ ও হাতিয়াসহ দেশের দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন পর্যটন নগরীতে। শুধু দেশের নয় বিদেশী পর্যটকের দ্বারা এই অঞ্চলটি হবে মুখরিত। সম্ভাবনার দ্বার উমোচিত হবে ফরেন ডাইরেক ইনভেস্টমেন্ট এর যার ফলে দেশের জিডিপির প্রবৃদ্ধি আরও শতকরা দুইভাগ বেড়ে যাবে বলে আমরা ধারণা করি।

অনুষ্ঠানের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির চেয়ারম্যান এবং আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য প্রফেসর ড. মো. হোসেন মনসুরের সভাপতিত্বে সঞ্চালনা করেন আইইবির ঢাকা কেন্দ্রের সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার কাজী খায়রুল বাশার। স্বাগত বক্তব্যে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এবং উপ-কমিটির সদস্য সচিব ইঞ্জিনিয়ার মো.  আবদুস সবুর।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) পুরকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. ইঞ্জিনিয়ার এ. এফ. এম. সাইফুল আমিন। 


আরও খবর
মুনিয়া-শারুন আলাপ কী প্রমাণ করে?

শনিবার ২৩ অক্টোবর ২০২১