আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম

পিরোজপুরে নির্দোষ ব্যক্তির ছবি দিয়ে সংবাদ প্রচার: বিপাকে পরিবার

প্রকাশিত:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৯ মে ২০২২ | ৬০৫জন দেখেছেন

Image

পিরোজপুর প্রতিনিধি:

পিরোজপুরে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে নির্দোষ ব্যক্তির ছবি দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে স্থানীয় কিছু পত্রিকা।

জানা যায় পিরোজপুর সদর উপজেলার কুমিরমারা গ্রামের প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল ফকিরের দ্বিতীয় পুত্র পিরোজপুর পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রচার সম্পাদক  মো. মমিনুল ইসলাম রাজার ছবি ব্যবহার করে উদ্দেশ্যমূলকভাবে সংবাদ প্রচার করেছে দৈনিক গ্রামের সমাজ, আজকের সময়সহ বেশ কয়েকটি পত্রিকা। তারা তাদের পত্রিকার ওয়েবসাইটে পিরোজপুরে ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজির সময় যুবক গ্রেফতার শিরোনামে একটি সংবাদ প্রচার করে। কে এম সাঈদ নামের একটি ফেসবুক আইডি থেকে এই সংবাদটি শেয়ার করে। বিষয়টি দ্রুত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ায় ভুক্তভোগির বড় ভাই আমিনুল ইসলামের নজরে পড়লে তিনি কাউখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করেন। পরবর্তীতে কাউখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নিশ্চিত করেন গ্রেফতারকৃত জুয়েল রানার ছবি এটি নয়। তিনিও বিষয়টি নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেন।

এদিকে মমিনুলের ছবি প্রকাশিত হওয়ায় বিপাকে পড়েছে তার পরিবার। তার পিতার দাবি- তিনি ও তার পরিবারকে হেয় প্রতিপন্ন করার লক্ষ্যে উদ্দেশ্যমূলকভাবে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে। তিনি আরো বলেন, তার নির্দোষ ছেলেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখে অপরাধী বানানোর উদ্দেশ্যে এ হীন কাজ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পিরোজপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও পিরোজপুর পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের বর্তমান সভাপতি জহিরুল হক টিটু বলেন, এমন কাজ অবশ্যই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, কোনো পেশাদার সাংবাদিক নিশ্চিত না হয়ে নির্দোষ ব্যাক্তির ছবি ব্যবহার করে ক্রাইম নিউজ করবেন এটা বেমানান।

তিনি বিষয়টিকে অপ-সাংবাদিকতা বলে অভিহিত করেন। বিষয়টি খতিয়ে দেখে এদের বিরুদ্ধে  আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া উচিৎ বলে মনে করেন তিনি।

উল্লেখ্য পিরজপুর জেলার কাউখালী থানাধীন বেকুটিয়া ফেরী ঘাট এলাকা থেকে ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে টাকা নেয়ার সময় পুলিশ রফিকুল ইসলাম জুয়েলকে চ্যালেঞ্জ করে। পরবর্তীতে কাউখালি থানায় তার বিরুদ্ধে একটি প্রতারণা মামলা হয় ও পুলিশ তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে। এঘটনার সাথে সম্পৃক্ত ব্যক্তির ছবির স্থলে উদ্দেশ্যমূলকভাবে মুমিনুল এর ছবি ব্যবহার করে স্থানীয় দুই তিনটি পত্রিকার ওয়েবসাইটে খবর প্রকাশ করে।

দৈনিক গ্রামের সমাজের সংবাদ পাবলিশের দ্বায়িত্বে থাকা আবির হাসানকে বিষয়টি জিজ্ঞেস করলে তিনি উল্টো যা ইচ্ছে তাই কথা বলেন। অপরদিকে আজকের সময় এর সম্পাদক অনুপ কুমার ও প্রকাশক কে এম সাঈদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাদেরকে কেউ চেনে না বলে জানান স্থানীয় লোকজন। তবে কেএম সাঈদ তার ফেসবুক আইডি থেকে সংবাদটি প্রকাশ করেন।


আরও খবর



অর্জুনের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন মালাইকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৫ মে ২০২২ | ৪৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দিন আগে তাঁদের বিচ্ছেদের গুজবেও তোলপাড় হয়েছিল টিনসেল নগরী। সে সব পেরিয়ে এ বার কি নিজের থেকে বয়সে অনেকটাই ছোট অর্জুন কপূরের সঙ্গে সাত পাক ঘুরতে চলেছেন মালাইকা অরোরা? অভিনেত্রীর কথায় যেন তারই ইঙ্গিত।

গত কয়েক বছর ধরেই সম্পর্কে অর্জুন এবং অভিনেতা আরবাজ খানের প্রাক্তন স্ত্রী মালাইকা। আরবাজের সঙ্গে দীর্ঘদিনের দাম্পত্যে বিচ্ছেদের পর থেকেই অর্জুন-মালাইকার সম্পর্ক নিয়ে দেদার আলোচনা বলিপাড়ায়। সম্পর্কের কথা কখনও লুকোননি মালাইকা-অর্জুনও। নেটমাধ্যমে তাঁদের ছবি-ভিডিয়োই তার প্রমাণ। তবে বিয়ে বা সম্পর্কের ভবিষ্যৎ নিয়ে এর আগে কোনও দিনই মুখ খোলেননি দুজনের কেউই।

এত দিন পরে এই প্রথম বিয়ের ইঙ্গিত মালাইকার কথায়। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী বলেছেন, আমাদের সম্পর্কে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল, আমরা আগামীতে একসঙ্গে কাটাতে চাই। তা নিয়ে নিজেদের কোনও ধন্দ নেই। আমরা এখন যেখানে দাঁড়িয়ে, তাতে দুজনেই ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবনাচিন্তা করছি। তা নিয়ে নিয়মিত আলোচনাও করছি। নিজেদের সম্পর্কের পরিণতি নিয়ে আমাদের ভাবনাগুলোও এক। আগামীতে একসঙ্গে কাটানো একটা সুন্দর জীবন চাই দুজনেই। আমি ওর সঙ্গেই বুড়ো হতে চাই!

মালাইকার দাবি, অর্জুনের সঙ্গে এই সম্পর্কে নিজেকে খুব নিরাপদ লাগে তাঁর। একে অন্যের প্রতি টান, ভালবাসা সেই সম্পর্কের পুরোটা জুড়ে রয়েছে। তাঁরা প্রত্যেকটা দিন কাটান গভীর প্রেমে। তবে সম্পর্কের ভবিষ্যৎ নিয়ে এখনই এর বেশি আর কিছু বলতে নারাজ অভিনেত্রী।


আরও খবর



ওজন কমিয়ে বলিউডে ফিরছেন তনুশ্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ | ৩৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বলিউডের আশিক বানায়া আপনে’ গার্লকে মনে আছে? নিজের রূপের জাদুতে একটা সময় নিজের আশিক’ বানিয়েছিলেন এই বঙ্গ ললনা। এরপর আচমকাই বলিউড কেরিয়ার, গ্ল্যামার দুনিয়াকে অলবিদা’ জানান তনুশ্রী দত্ত। অবশেষে স্বেচ্ছা নির্বাসন থেকে ফেরবার ইঙ্গিত দিলেন তনুশ্রী। আবার বলিউডে ফিরছেন  আশিক বানায়া আপনে’ খ্যাত  তনুশ্রী দত্ত।

৩৮ বছর বয়সী এই নায়িকা সদ্যই ১৮ কেজি ওজন ঝরিয়েছেন। তাঁর ট্রান্সফরমেশন সত্যি চমকে দেওয়ার মতো। ২০১০ সালে তাঁর শেষ সিনেমা ছিল অ্যাপার্টমেন্ট’। এরপরই অভিনয় জগৎ থেকে বিরতি নিয়েছিলেন তিনি। নায়িকার লেটেস্ট ইনস্টাগ্রাম পোস্টগুলিতে সেই আগের মতোই স্লিম তনুশ্রী ধরা দিয়েছেন। বয়স কমেছে যেন অনেক। তবে কি ফের এই হট নায়িকাকে রূপালি পর্দায় দেখা যাবে?

এক দশকেরও বেশি সময় গ্ল্যামার দুনিয়া থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রেখেছেন তনুশ্রী। ইন্ডাস্ট্রির বিরুদ্ধে নিজের চাপা ক্ষোভও প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন সময়ে। তথ্যপ্রযুক্তি নিয়ে পড়াশোনা শেষ হলে যুক্তরাষ্ট্রে চাকরি করছিলেন। ২০১৮ সালেই সেখানের গ্রিন কার্ড পেয়েছেন তনুশ্রী দত্ত। তবুও মন টিকল না যুক্তরাষ্ট্রে। মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরে চাকরির সুযোগ হাতছাড়া করে নায়িকা ফিরেছেন মুম্বাইয়ে। ২০০৫ সালে চকোলেট’ সিনেমার মধ্য দিয়ে বলিউডে পথ চলা শুরু তনুশ্রীর। এরপর বলিউডে একাধিক সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। সম্প্রতি নায়িকা মনের কথা শেয়ার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। 

ইনস্টা পোস্টে তনুশ্রী লিখেছেন- আমি বরাবরই নিয়মানুবর্তী, গোছানো মানুষ। মুম্বাই থেকে এসে লস অ্যাঞ্জেলেসে মার্কিন সরকারের সঙ্গে যুক্ত একটা আইটি ফার্মে চাকরি করছি। নিজের জীবনকে নতুন করে সাজিয়েছি। তবে নিজের ভিতরে থাকা শিল্পীসত্ত্বার তাগিদে আবারও ফিরতে চাই অভিনয়ে। নতুন মেক-ওভার করে ১৫ কেজি ওজন কমিয়েছি। ফিরছি…বলিউডে'।

তনুশ্রী লিখেছেন, ভাল লোকও তো আছে ইন্ডাস্ট্রিতে। হাতে বেশ কিছু কাজের অফার রয়েছে, সেগুলো নিয়ে নতুন করে ভাবনাচিন্তা শুরু করেছেন। উল্লেখ্য, অভিনয় জগৎ থেকে দূরে থাকলেও অভিনেত্রীদের ওপর যৌন হেনস্থার প্রতিবাদে বছর কয়েক আগে সরব হয়েছিলেন তনুশ্রী। ২০১৮ সালে নানা পটেকর,গণেশ আচার্যদের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ এনে সংবাদ শিরোনামে আসেন তনুশ্রী।

নিউজ ট্যাগ: তনুশ্রী দত্ত

আরও খবর



সব মামলায় সম্রাটের জামিন, মুক্তিতে বাধা নেই

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ৪০৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুদকের করা মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। এরমধ্যে দিয়ে সম্রাট তার বিরুদ্ধে থাকা চারটি মামলাতেই জামিন পেলেন। এতে তার কারামুক্তিতে বাধা নেই।

বুধবার (১১ মে) ঢাকার বিশেষ আদালত-৬ এর বিচারক আল আসাদ মো. আসিফুজ্জামান শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। এর আগে গত ২৮ এপ্রিল একই আদালত এ মামলায় সম্রাটের জামিন নামঞ্জুর করেছিলেন।

জানা গেছে, ২০১৯ সালের ১২ নভেম্বর দুই কোটি ৯৪ লাখ ৮০ হাজার ৮৭ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে সম্রাটের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন দুদকের উপপরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম। একই বছরের ৬ অক্টোবর কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব।

মামলাটি তদন্ত করে ২০২০ সালের ২৬ নভেম্বর সম্রাটের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের উপপরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম। গত ২২ মার্চ দুদকের দেওয়া অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কেএম ইমরুল কায়েশ। অভিযোগ গঠন শুনানির তারিখ ধার্য করে মামলাটি বিশেষ জজ আদালত-৬ এ পাঠানো হয়।


আরও খবর



নবাবগঞ্জে অগ্নিকাণ্ডে দুটি ঘরসহ ১১টি গরু পুড়ে ছাঁই

প্রকাশিত:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১৬ মে ২০২২ | ৪৪০জন দেখেছেন

Image

নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি:

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় একটি গরুর খামারে আগুন লেগে ১১টি গরু পুড়ে ছাঁই হয়েছে। সোমবার ভোরে উপজেলার বাহ্রা ইউনিয়নের পশ্চিম চকবাহ্রা গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এতে দুটি ঘরসহ প্রায় ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত খামার মালিক জুয়েল হোসেনের পরিবার।

জুয়েল হোসেনের ভাই আব্বাস বলেন, কোরবানী ঈদকে সামনে রেখে ১১টি গরু মোটা তাজাকরণে জুয়েল ব্যস্ত থাকত। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত খামারে পশুর জন্য শ্রম দিত সে। কিন্তু সোমবার ভোরে খামারে হঠাৎ আগুনে আমার ভাইয়ের সে স্বপ্ন ভেঙ্গে চুরমার হয়ে গেছে। কি থেকে কি হল কিছুই জানি না কেউ। তিনি আরও বলেন, আগুনে ১১টি গরু পুড়ে যাওয়ায় এখন আমার ভাই মানসিক ও শারিরীকভাবে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বাহ্রা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড সদস্য সালাহউদ্দিন বাবু বলেন, এতে ৩০ লাখ টাকার ক্ষতির মুখে পড়েছেন জুয়েল। এ ক্ষতি পুষিয়ে উঠা সহজ হবে না। 

বাহ্রা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড. সাফিল উদ্দিন মিয়া বলেন, আসন্ন কোরবানীকে সামনে রেখে ঋণের টাকায় ১১টি গরু কিনেন জুয়েল। কোরবানীতে এ গরুগুলো বিক্রি করে ঋণের টাকা শোধ করবেন এ আশায়। সেকারণে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত নিজ সন্তানের ন্যায় কঠোর পরিশ্রম করতেন জুয়েল। শুধু জুয়েল নয় বাড়ির নারী পুরুষ সকলেই ছিল একাজে জড়িত। হঠাৎ আগুনে গরুগুলো পুড়ে যাওয়ায় সর্বস্ব খুইয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন সে। তিনি আরও বলেন, তার পাশে সরকারি সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেয়া দরকার। আমি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি অবগত করেছি।

৪,৫,৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী সদস্য রানু বেগম বলেন, জুয়েল কৃষিকাজও করেন। এর আগেও হঠাৎ বৃষ্টিতে আলু ও রসুন চাষ করে অনেক ক্ষতির মুখে পড়েছে জুয়েল। এখন আবার গরুগুলো পুড়ে মরে যাওয়ায় একেবারেই পথে বসে গেছেন। 

এদিকে জুয়েলের পাশে সরকারকে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দিতে আহবান জানান তার এলাকাবাসী।


আরও খবর



বাংলাদেশ থেকে ফেরি কিনতে চায় ইরান

প্রকাশিত:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৪ এপ্রিল ২০২২ | ৪৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কাতারে ফুটবল বিশ্বকাপকে সামনে রেখে বাংলাদেশ থেকে ৬টি ফেরি কেনার আগ্রহ প্রকাশ করেছে ইরানের টিটি তেজারত গোস্টারেস কিস নামের একটি কোম্পানি। তেহরানে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের কাছে এসব রো-রো ফেরি কেনার প্রস্তাব করেছে কোম্পানিটির মূল প্রতিষ্ঠান কিস মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশন। একইসঙ্গে একটি যাত্রীবাহী জাহাজ ভাড়া নিতে চায় কোম্পানিটি।

ইরান ও কাতার পারস্য উপসাগরের দুই পাড়ে অবস্থিত দুটি দেশ। পারস্য উপসাগরের আড়াআড়ি দৈর্ঘ্য ২০০ থেকে ২৫০ কিলোমিটার। কিস হচ্ছে পারস্য উপসাগরে ইরানের একটি দ্বীপ, যা দেশের মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন। আগামী ২১ নভেম্বর কাতারে শুরু হবে ফুটবলের ২২তম বিশ্ব আসর। চলবে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এ সময়ে কাতারে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে লাখ লাখ পর্যটক আসবেন। এ পর্যটকদের একটি অংশ কাতারের পাশাপাশি পারস্য উপসাগরের বিভিন্ন দ্বীপে ভ্রমণ করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। পর্যটনের এ সম্ভাবনা এবং ইরানের নাগরিকদের সমুদ্রপথে ফুটবল বিশ্বকাপ দেখতে কাতারে যাওয়ার সময় নৌপথে যে বাড়তি চাহিদা সৃষ্টি হবে সে বিবেচনায় এসব রো-রো ফেরি কেনা ও যাত্রীবাহী জাহাজ ভাড়া নেওয়ার কথা ভাবছে কোম্পানিটি।

সম্প্রতি তেহরান দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর ড. জুলিয়া মঈন চিঠি দিয়ে দেশের ব্যবসায়ীদের সংগঠন চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি, অ্যাসোসিয়েশন অব এক্সপোর্ট ওরিয়েন্টেড শিপবিল্ডিং ইন্ডাস্ট্রিজ অব বাংলাদেশ এবং জাহাজ রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের কাছে ৬টি ফেরি ও যাত্রীবাহী জাহাজ সরবরাহ করার বিষয়ে জানতে চেয়েছেন। তিনি চিঠিতে লিখেছেন, রো রো ফেরিগুলো কমপক্ষে ২০০ ব্যক্তি ও ৬০টি গাড়ি ধারণক্ষমতা সম্পন্ন হতে হবে। যে জাহাজটি ভাড়া করা হবে তার ধারণক্ষমতা হবে ৩০০ থেকে ৫০০ জন। এই জাহাজটি ফুটবল বিশ্বকাপ সময়ের জন্য ভাড়া নেবে ইরানের কোম্পানিটি। জাহাজের নাবিকসহ অন্যান্য স্টাফ তারা নিজস্ব উপায়ে ব্যবস্থা করবে।

এ বিষয়ে ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ডের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম বলেন, ইরানি কোম্পানি তেহরান দূতাবাসের মাধ্যমে যোগাযোগ করেছে। কোম্পানিটি বাংলাদেশ থেকে ফেরির কারিগরি দিক ও দাম বিষয়ে ধারণা নিতে চেয়েছে। সে ধারণা দেওয়া হয়েছে। এখন কোম্পানিটি আগ্রহী হলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। তিনি বলেন, এর আগেও বাংলাদেশ থেকে ডেনমার্ক ও পাকিস্তানে ফেরি সরবরাহ করা হয়েছে। সেখানে ভালোভাবেই চলছে ফেরিগুলো। নিউজিল্যান্ড ও ডেনমার্কে যাত্রীবাহী জাহাজ সরবরাহের অভিজ্ঞতা রয়েছে বাংলাদেশের শিপবিল্ডারদের। এছাড়া ভারতে বাল্ক্ক ক্যারিয়ার, জার্মানিতে মাল্টিপারপাস জাহাজ রপ্তানি করা হয়েছে। ফলে ইরানি কোম্পানির চাহিদা অনুযায়ী ফেরি সরবরাহ করা কঠিন নয়।

বাংলাদেশ ইতোমধ্যে জাহাজ রপ্তানিতে সুনাম অর্জন করেছে। দেশে গড়ে উঠেছে সমুদ্রগামী জাহাজ নির্মাণের কিছু প্রতিষ্ঠান। যদিও গত দুই বছর ধরে আন্তর্জাতিক বাজার থেকে বিশেষ অর্ডার আসেনি। তবে সংশ্নিষ্টরা আশা করছেন, করোনাপরবর্তী বাড়তি চাহিদার ফলে পণ্য পরিবহন জোরদার হবে। ফলে বাংলাদেশে সমুদ্রগামী জাহাজের নতুন অর্ডার আসবে।

জাতিসংঘের বাণিজ্য ও উন্নয়ন সংস্থার সর্বশেষ প্রতিবেদন অনুযায়ী, জাহাজ নির্মাণশিল্পে বাংলাদেশ ৫ বছরে ১৩ ধাপ এগিয়ে বর্তমানে বিশ্বে ১৪ নম্বরে অবস্থান করছে। বৈশ্বিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের এ সাফল্যের পেছনে কাজ করেছে দেশের কয়েকটি বড় শিল্প গ্রুপের জাহাজ নির্মাণশিল্পে বিনিয়োগ। কয়েকটি গ্রুপের যৌথ বিনিয়োগে জাহাজ নির্মাণশিল্পে গড়ে উঠেছে ডেলটা শিপইয়ার্ড। এ শিপইয়ার্ড থেকে বড় বড় মালবাহী জাহাজ তৈরি করা হচ্ছে। জাহাজের ধারণক্ষমতা তিন থেকে পাঁচ হাজার টন।


আরও খবর