আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম

প্রভাসের পারিশ্রমিকের তুলনায় পিছিয়ে শাহরুখ-সালমান!

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১২ মে ২০২২ | ৩৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বলিউডের খান-কাপুরদের রাজত্বে কি এবার দক্ষিণী দখলদার ঢুকে পড়লেন? প্রতি ছবিতে বাহুবলী’র রোজগারের খবর ছড়াতেই এমনই বলাবলি শুরু হয়েছে। কত টাকা রোজগার করছেন বাহুবলী খ্যাত প্রভাস? বলিউডের অন্দরের খবরাখবর যারা রাখেন, তারা বলছেন যে প্রভাস নাকি ১৫০ কোটি রুপি ছাড়া কোনো ছবিতেই কাজ করতে রাজি নন। তিনিই এখন ভারতের সবচেয়ে বেশি রোজগেরে অভিনেতা! তেমনটাই তো বলছে বলিপাড়ার বাসিন্দারা।

দক্ষিণী ছবিতে তার রমরমা বাজার তো ছিলই। এবার শাহরুখ-আমির-সালমানদের তিল তিল করে গড়ে তোলা রাজত্ব কি খান খান করে তুলতে চান প্রভাস?

প্রভাসের তুলনায় ছবি প্রতি পারিশ্রমিকে বেশ পিছিয়ে শাহরুখ। তিনি নাকি ১০০ কোটিতে ছবি করতে রাজি হন। সালমান আবার একটু বেশি টাকা দাবি করেন বলে শোনা যায়। তা প্রায় ১২৫ কোটি। তবে অনেকের দাবি, শাহরুখ-সালমান নন, প্রভাসকে টক্কর দিতে পারেন একমাত্র অক্ষয় কুমার। খিলাড়ি নাকি ১৫০ কোটির কাছাকাছি না পেলে ছবিতে কাজ শুরু করতে রাজি হন না!

নিউজ ট্যাগ: প্রভাস

আরও খবর



ইসরায়েলির মিসাইল হামলায় সিরিয়ায় তিনজন নিহত

প্রকাশিত:শনিবার ২১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ১৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের কাছে ইসরায়েলের সারফেস টু সারফেস ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় তিনজন নিহত হয়েছে। শুক্রবার (২০ মে) রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম সানা একটি সামরিক সূত্রের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে। সামরিক সূত্র জানায়, মিসাইলগুলো ইসরায়েল অধিকৃত গোলান এলাকা থেকে ছোড়া হয়েছে এবং সিরিয়ার বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দ্বারা প্রতিহত করা হয়েছে। 

সিরিয়ান অবসারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানায়, ৩ জন সামরিক কর্মকর্তা ছাড়াও ৪ জন বিমান ক্রু এ হামলায় আহত হয়েছে। সংস্থাটি আরও জানায়, হামলাটি সিরিয়ার বিমানবন্দরের খুব কাছে ইরানি গোলাবারুদের ডিপোগুলোকে লক্ষ্য করে করা হয়েছে এবং সেখানে আগুন জ্বলতে দেখা গেছে।

এর আগে সর্বশেষ ১৩ মে ইসরায়েল সিরিয়ায় হামলা চালায় যেখানে ৫ জন নিহত হয়। যদিও ইসরায়েল তাদের হামলার বিষয়ে খুব কম মন্তব্য করে কিন্তু তারা এ পর্যন্ত সিরিয়ায় চালানো শত শত হামলার কথা স্বীকার করেছে।


আরও খবর



মাদারীপুরে খাদ্য গুদামের ভেতর থেকে ওসির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ৮৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মাদারীপুরে নিজ কার্যালয় থেকে খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ কামরুল ইসলামের (৪০) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার (১৫ মে) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সদর উপজেলার নয়াচর এলাকায় অবস্থিত চরমুগরিয়া খাদ্য গুদামের ভেতর থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সকালে চরমুগরিয়া খাদ্য গুদাম কার্যালয়ের ভেতরে বাথরুমের সামনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ কামরুল ইসলামের মরদেহ ঝুলে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয় অফিসের স্টাফরা। পরে পুলিশ গিয়ে সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত শেষে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। পরে প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে দেয় সদর উপজেলা প্রশাসন।

মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চাইলাউ মারমা জানান, পারিবারিক কোনো ঝামেলা কিংবা অফিস সংক্রান্ত কোনো সমস্যার ছিল কিনা এসব বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে পরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরও খবর



‘মুজিব কিল্লা’ নির্মাণকাজে ধীরগতি, বাড়ছে সময়-ব্যয়

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | ৫০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঘূর্ণিঝড় ও বন্যার মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে জানমাল রক্ষায় দেশের উপকূলীয় এলাকায় মাটির কিল্লা নির্মাণ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। পরবর্তীসময়ে জনগণের কাছে এটি মুজিব কিল্লা’ নামে পরিচিতি পায়। দীর্ঘদিন রক্ষণাবেক্ষণের অভাবসহ নানাবিধ কারণে বেদখল হয়ে যায় এসব কিল্লা। বর্তমান সরকার সেগুলো ফের সংস্কার ও সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয় ২০১৮ সালে। কিন্তু চার বছরে নির্মাণকাজে দেখা গেছে ধীরগতি। এরই মধ্যে নতুন করে বাড়ানো হয়েছে সময় ও ব্যয়। বিদ্যমান ১৭২টি মুজিব কিল্লা সংস্কার ও উন্নয়নের পাশাপাশি নতুন করে নির্মাণ করা হবে ৩৭৮টি কিল্লা। ফলে মোট মুজিব কিল্লার সংখ্যা দাঁড়াবে ৫৫০টি। দেশের ঘূর্ণিঝড়প্রবণ ১৬টি জেলার ৬৪টি উপজেলা এবং বন্যা ও নদী ভাঙনপ্রবণ ২৪টি জেলার ৮৮টি উপজেলায় এগুলো নির্মাণ ও সংস্কার হবে।

‘মুজিব কিল্লা নির্মাণ, সংস্কার ও উন্নয়ন’ প্রকল্পের আওতায় এ উদ্যোগ নেয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর। প্রকল্পের কাজ ২০১৮ সালের জুলাই মাসে শুরু হয়, যা শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০২১ সালের ডিসেম্বরে। কিন্তু সময়মতো কাজ শেষ না হওয়ায় এর মেয়াদ বাড়ছে ২০২২ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত। পাশাপাশি ব্যয় বাড়ছে ৪০ কোটি টাকা। মূল প্রকল্পের ব্যয় ধরা ছিল ১ হাজার ৯৯৭ কোটি ৪৭ লাখ টাকা। এর মধ্যে চার বছরে প্রকল্পে ব্যয় হয়েছে ৮৫ কোটি ৪৮ লাখ টাকা বা ১৬ শতাংশ। তবে প্রকল্পের আওতায় কোথাও কোথাও কিল্লা নির্মাণে জমি পাওয়া যাচ্ছে না।

প্রকল্পের উদ্দেশ্য ও লক্ষ্যমাত্রা: দুর্যোগকালে কিল্লার আশপাশের জনসাধারণ ও তাদের মূল্যবান সামগ্রী রক্ষা, গৃহপালিত প্রাণীদের নিরাপদ আশ্রয়} নিশ্চিতকরণ, স্বাভাবিক সময়ে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি খেলার মাঠ ও হাট-বাজার হিসেবে কিল্লা ব্যবহার করা। গ্রাম ও ইউনিয়ন কমিউনিটির মাধ্যমে বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান এবং সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের বৈঠকখানা হিসেবে ব্যবহার করা হবে কিল্লা। প্রশিক্ষণ কার্যক্রম ও দুর্যোগের সময় অস্থায়ী সেবাকেন্দ্র হিসেবেও কিল্লা ব্যবহার করা হবে।

প্রকল্পের প্রধান কার্যক্রম: ১৮৬টি মুজিব কিল্লা এ’ ক্যাটাগরির। এর মধ্যে বিদ্যমান ৫৫টি কিল্লা পুনর্নির্মাণ ও সংস্কার হবে। নতুন করে নির্মাণ হবে ১৩১টি। বি’ ক্যাটাগরির মুজিব কিল্লা হবে ১৭১টি। এর মধ্যে বিদ্যমান ৬৩টি পুনর্নির্মাণ ও সংস্কার করা হবে। নতুন করে নির্মাণ হবে ১০৮টি। সি’ ক্যাটাগরিতে রয়েছে ১৯৩টি মুজিব কিল্লা। এর মধ্যে ৫৪টি বিদ্যমান মুজিব কিল্লা পুনর্নির্মাণ ও সংস্কার হবে, ১৩৯টি নির্মাণ হবে নতুন করে।

প্রকল্প এলাকা: গাইবান্ধা, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, বগুড়া, সিরাজগঞ্জ, নাটোর, রাজশাহী, টাঙ্গাইল, শরীয়তপুর, ফরিদপুর, মাদারীপুর, মানিকগঞ্জ, গোপালগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, নেত্রকোনা, জামালপুর, শেরপুর, ফেনী, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, কুমিল্লা, পটুয়াখালী, বরগুনা, ভোলা, পিরোজপুর, বরিশাল, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, খুলনা, যশোর, নড়াইল, সুনামগঞ্জ ও চাঁদপুরে নির্মাণ করা হবে এসব মুজিব কিল্লা।

বেড়েছে প্রকল্পের মেয়াদ: বর্তমান সময় পর্যন্ত মুজিব কিল্লা নির্মাণ, সংস্কার ও উন্নয়ন’ প্রকল্পের অগ্রগতি মাত্র ১৬ শতাংশ। এর মধ্যে আবার করোনার কারণে পরামর্শক প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) প্রকল্প এলাকায় আসতে পারেনি। সব মিলিয়ে এক বছর বাড়ছে এর মেয়াদ।

কম্পিউটার খাতে ব্যয় বৃদ্ধি: নানা কারণে প্রকল্পের কিছু বিষয় সংশোধন হচ্ছে। এর মধ্যে কম্পিউটার ও আনুষঙ্গিক খাতে বেড়েছে ব্যয়। মূল ডিপিপিতে (উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনা) সাতটি কম্পিউটারের ব্যবস্থা রয়েছে। কিন্তু প্রকল্প দপ্তরে নিয়োজিত আছেন ১৬ কর্মকর্তা। জনপ্রতি একটি করে কম্পিউটার রাখা হয়েছে। ফলে এ খাতে বেড়েছে ব্যয়।

পরামর্শক খাতে ব্যয় বৃদ্ধি: মূল প্রকল্পে পরামর্শক খাতে ব্যয়ের জন্য ৪ কোটি ৪০ লাখ টাকা ধরা হয়েছিল। পরে এটা করা হয় ৬ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। এর মধ্যে বুয়েট ৩ কোটি ৭৮ লাখ টাকা উত্তোলন করে।

রেইনওয়াটার হার্ভেস্টিং: প্রথমে পরামর্শক প্রতিষ্ঠান বুয়েট খেলার মাঠে রেইনওয়াটার হার্ভেস্টিং (বিশেষ পদ্ধতিতে কূপের মাধ্যমে বৃষ্টির পানি ভূগর্ভে রিজার্ভ) ডিজাইন করে। কিন্তু মাঠে ৮-১১ ফুট পর্যন্ত বালু ভরাট হয়ে থাকে। ফলে সেখানে পানি ধরে রাখা সম্ভব নয়। বৃষ্টির সময় ময়লা পানি ভরে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাই প্রকল্পের সব সাইটের মাঠে রেইনওয়াটার হার্ভেস্টিং না করার সিদ্ধান্ত হয়।

অতিরিক্ত কাজের অন্তর্ভুক্তি: বিভিন্ন সাইটে বেশি করে মাটি ভরাট কাজ করতে হচ্ছে। এছাড়া বাড়ছে শেডের ফ্লোরের কাজ। বজ্ররোধক প্রযুক্তি লাইটনিং অ্যারেস্টার স্থাপনের কারণেও ব্যয় ও সময় বাড়ছে।

জ্বালানির পরিমাণ বৃদ্ধি ও গাড়ি ভাড়া: প্রকল্পের জন্য কেনা দুটি গাড়িতে জ্বালানি হিসেবে অকটেন ব্যবহার হয়। প্রতিটি গাড়িতে মূল ডিপিপিতে বরাদ্দ দেখানো হয়েছে মাসে ১৭৫ লিটার তেল। বর্তমানে জ্বালানি তেলের পরিমাণ বাড়িয়ে প্রতি মাসে গড়ে ৪০০ লিটার ধরা হয়েছে। এছাড়া প্রকল্পটি দেশের ৪০টি জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে বাস্তবায়িত হচ্ছে। সেখানে কাজের তদারকির জন্য যাতায়াত করতে হয়। তাই সঠিকভাবে কাজের মনিটরিংয়ের জন্য তিনটি গাড়ি ভাড়া করার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আতিকুল হক বলেন, চলমান প্রকল্পের কিছু কাজ করতে সমস্যা দেখা দিচ্ছে। কিছু জিনিস বাদ দিতে হবে, আবার কিছু যোগ করতে হবে। ঝামেলা রয়েছে জমি নিয়ে। এর মধ্যে আবার করোনা- সবমিলিয়ে প্রকল্প বাস্তবায়নে গতি কম। অন্যদিকে রড-সিমেন্টের দামও বেড়েছে। ফলে কাজে লাগানো যাচ্ছে না ঠিকাদারদের। আমরা প্রকল্পটি সংশোধনের উদ্যোগ নিয়েছি। ব্যয় কিছু বাড়বে। পাশাপাশি প্রকল্পের কাজ শতভাগ শেষ করতে এক বছর সময় প্রয়োজন।


আরও খবর



‘তুমি আমার প্রেয়সী’ নিয়ে মাহফুজুর রহমান

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৫ এপ্রিল ২০২২ | ৪৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রতি বছরের মতো এবার ঈদেও একক সঙ্গীতানুষ্ঠান নিয়ে দর্শকদের মাঝে হাজির হচ্ছেন কণ্ঠশিল্পী ড. মাহফুজুর রহমান। সংগীতের প্রতি তার রয়েছে অসম্ভব ভালোবাসা। আর তাইতো নিজেই যুক্ত হয়েছেন গানের ভুবনে। ২০১৬ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে এটিএন বাংলায় প্রচার হচ্ছে তার গাওয়া গান নিয়ে একক সঙ্গীতানুষ্ঠান। এ ধারাবাহিকতায় এবারের ঈদেও তার গাওয়া ১০টি গান নিয়ে ঈদের দিন রাত ১০টা ৩০ মিনিটে প্রচার হবে একক সঙ্গীতানুষ্ঠান তুমি আমার প্রেয়সী

গানগুলোতে সুর করেছেন মান্নান মোহাম্মদ ও রাজেশ ঘোষ। গানের কথা লিখেছেন- শেখ রেজা শানু, নাজমা মোহাম্মদ ও রাজেশ ঘোষ। প্রেম করলেই, ভালোবাসা দাও, চাই চাই চাই, আমার জীবন, নয়নে রাখিব নয়ন, মুক্তি চেয়েছ, লক্ষ্মী মেয়ে, ললনা, পরান পাখি ও প্রেয়সী শিরোনামের গানগুলো নিয়ে দর্শক শ্রোতাদের সামনে হাজির হবেন এই শিল্পী। ইতোমধ্যেই গানগুলোর ভিডিও এটিএন বাংলার স্টুডিওতে চিত্রায়ন করা হয়েছে।


আরও খবর



ময়মনসিংহে দেবরের দায়ের কোপে ভাবির মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ৩২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ময়মনসিংহের তারাকান্দায় বাঁশ কাটাকে কেন্দ্র করে দেবরের দায়ের কোপে জাহানারা বেগম (৪৫) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। এ সময় স্ত্রীকে উদ্ধার করতে গেলে মো. ইদ্রিছ আলীকেও কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের বাহেলা গ্রামের মৃত লাল হোসেন খাঁর পুত্র ইদ্রিস আলীর সঙ্গে সহোদর ভাই সিদ্দিকুর রহমান ও হাবিবুর রহমানের জমাজমি ভাগবন্টন নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়। সোমবার ইদ্রিস আলী পৈত্রিক জমিতে থাকা বাশঁ কাটতে গেলে তার বড় ভাই সিদ্দিকুর রহমান বাধা দেয়। এ নিয়ে বাকবিতণ্ডা হয় এবং ইদ্রিছ আলীকে হত্যার হুমকি দেয়।

মঙ্গলবার (১৭ মে) বেলা সাড়ে ১১টায় ইদ্রিছ আলী স্থানীয় বাজার থেকে বাজার নিয়ে বাড়িতে ফিরে। এসময় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সহোদর ভাই সিদ্দিকুর রহমান ও হাবিবুর রহমানসহ ৮/১০ জন ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ইদ্রিছ মিয়াকে (৫০) তার ঘরে ঢুকে জখম করে। জাহানারা বেগম স্বামীকে উদ্ধার করতে গেলে তাকেও কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর জখম করে ফেলে রাখে।

নিহতের মেয়ে ঝর্ণা আক্তার (২২) ও তামান্না আক্তার (১৪) জানায়, গুরুতর আহত অবস্থায় জাহানারা বেগম ও ইদ্রিছ আলীকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার মাকে মৃত ঘোষণা করে।

তারাকান্দা থানার ওসি আবুল খায়ের জানান, খুনের আলামত জব্দসহ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। আসামি গ্রেফতার ও মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

নিউজ ট্যাগ: ময়মনসিংহ

আরও খবর