আজঃ মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১
শিরোনাম

পূর্বাচলে ১ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে বাণিজ্যমেলা

প্রকাশিত:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | ৩৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পূর্বাচলের বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে (বিবিসিএফইসি) হবে ২০২২ সালের বাণিজ্যমেলা। আগামী ১ জানুয়ারি থেকে মেলা শুরুর অনুমতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এবারের মেলায় চলাচলের সুবিধার্থে কুড়িল ফ্লইওভার থেকে মেলাপ্রাঙ্গণে বিআরসিটিসির বাস চলবে। আর ডিসেম্বরের মধ্যেই পূর্বাচলের রাস্তা সংস্কার করে চলাচলের জন্য উপযোগী করা হবে।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) সূত্রে জানা গেছে, দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতি হওয়ায় আগামী ১ জানুয়ারি রাজধানীর পূর্বাচলে স্থাপিত বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে ২৬তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা আয়োজনের প্রস্তুতি নিতে গত ১৩ সেপ্টেম্বর ইপিবিকে চিঠি দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

এক্সিবিশন সেন্টারটির প্রকল্প পরিচালক রেজাউল করিম বলেন, আমরা আমাদের কাজ শেষ করেছি। অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করেছেন। মেলাপ্রাঙ্গণ প্রস্তুত। ইপিবি মেলার লেআউটসহ অন্যান্য কাজ করবে।

কুড়িল থেকে মেলাকেন্দ্রে চলবে বিআরটিসির বাস:

বাণিজ্যমেলাকে কেন্দ্র করে কুড়িল ফ্লাইওভার থেকে পূর্বাচলের মেলাকেন্দ্রে বিআরটিসির বাস চলাচল করবে। মাসব্যাপী এই রুটে বিআরটিসির ৩০টি বাস চলাচলের জন্য চিঠি দিয়েছে ইপিবি। এসব বাসের ন্যূনতম একটা ভাড়া থাকবে। এতে সহজেই কুড়িল ফ্লাইওভারের নিচ থেকে মেলাকেন্দ্রে যেতে পারবেন দর্শনার্থীরা।

ডিসেম্বরের মধ্যে সড়ক সংস্কার:

বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে যাওয়ার পথে সড়কের দুর্দশা নিরসনে দ্রুত উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে পূর্বাচলের ১০ কিলোমিটার সড়কে নির্বিঘ্নে যানবাহন চলাচলের জন্য উপযোগী করে গড়ে তোলা হবে।

মেলায় থাকবে প্রায় তিনশ স্টল:

এবারের বাণিজ্যমেলায় প্রায় তিনশ স্টল থাকবে। ভেতরে এবং বাইরে মিলে এসব স্টল থাকবে। তবে মেলাকেন্দ্রের ভেতরে থাকা জায়গার মধ্যে অধিকাংশই মানুষের চলাচলের জন্য ফাঁকা রাখা হবে। আর কেন্দ্রের বাইরে ডানপাশে স্টল বসলেও, আরেকদিক সৌন্দের্যের জন্য ফাঁকা রাখা হবে।

মেলায় থাকবে পার্কিং ব্যবস্থা:

নতুন মেলাকেন্দ্রে বৃহৎ পরিসরে পার্কিং সুবিধা রয়েছে। তবে মেলার শৃঙ্খলার স্বার্থে গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য কেন্দ্রের পাশেই রাজউকের পানির প্ল্যান্ট ভাড়া নেওয়া হয়েছে। সেখানেই এক হাজার গাড়ি পার্কিং হবে। জানা গেছে, দোতলা পার্কিং বিল্ডিংয়ের মোট পার্কিং স্পেস সাত হাজার ৯১২ বর্গমিটার, যেখানে ৫০০টি গাড়ি রাখা যাবে আর এক্সিবিশন বিল্ডিংয়ের সামনের খোলা জায়গায় আরও এক হাজার গাড়ি পার্কিং করার সুযোগ আছে।

যেসব সুবিধা রয়েছে এক্সিবিশন সেন্টারে:

রাজধানীর পূর্বাচলের বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারটি নির্মাণে মোট ব্যয় হয়েছে ৭৭৩ কোটি টাকা। যার মধ্যে চীনের অনুদান ৫২০ কোটি ৭৩ লাখ টাকা, বাংলাদেশ সরকারের ২৩১ কোটি টাকা ও ইপিবি নিজস্ব তহবিল থেকে ২১ কোটি ২৭ লাখ টাকা অর্থায়ন করেছে।

এক্সিবিশন সেন্টারে তৈরি করা ফ্লোরের আয়তন ৩৩ হাজার বর্গমিটার, বিল্ডিংয়ের ফ্লোরের আয়তন ২৪ হাজার ৩৭০ বর্গমিটার, এক্সিবিশন হলের আয়তন ১৫ হাজার ৪১৮ বর্গমিটার। এক্সিবিশন হলে ৮০০টি বুথ রয়েছে, প্রতিটি বুথের আয়তন ৯ দশমিক ৬৭ বর্গমিটার। দোতলা পার্কিং বিল্ডিংয়ের মোট পার্কিং স্পেস সাত হাজার ৯১২ বর্গমিটার, যেখানে ৫০০টি গাড়ি রাখা যাবে আর এক্সিবিশন বিল্ডিংয়ের সামনের খোলা জায়গায় আরও এক হাজার গাড়ি পার্কিং করার সুযোগ আছে।

এছাড়াও রয়েছে ৪৭৩ আসনবিশিষ্ট একটি মাল্টি-ফাংশনাল হল, ৫০ আসনবিশিষ্ট একটি কনফারেন্স রুম, ছয়টি মিটিং রুম, ৫০০ আসনবিশিষ্ট ক্যাফেটেরিয়া, শিশুদের খেলার স্পেস, নামাজের কক্ষ, অফিস রুম দুটি, মেডিকেল রুম, ডরমিটরি-গেস্ট রুম, ১৩৯টি টয়লেট, বিল্ট ইন পাবলিক অ্যাড্রেস সিস্টেম, নিজস্ব ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট, স্টোর রুম, সিসিটিভি কন্ট্রোল রুম, অটোমেটেড সেন্ট্রাল এসি সিস্টেম, ইনবিল্ট ইন্টারনেটসহ আধুনিক সুযোগ-সুবিধা।

নিউজ ট্যাগ: বাণিজ্যমেলা

আরও খবর
আগামীকাল জাতীয় আয়কর দিবস

সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১




করোনায় বিশ্বজুড়ে মৃত্যু অর্ধকোটি ছাড়ালো

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ২৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৬ হাজার ৩৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এনিয়ে মোট ৫২ লাখ ৫ হাজার ৯৯০ জনের মৃত্যু হলো। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় রোগী শনাক্ত হয়েছে ৫ লাখ ৬৯ হাজার ৮৩৩ জন। এখন পর্যন্ত মোট শনাক্ত হয়েছে ২৬ কোটি ৮ লাখ ৫৯ হাজার ৮৬৪ জন। শনিবার (২৭ নভেম্বর) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটার্সের তথ্য মতে, দৈনিক সংক্রমণের হিসেবে বিশ্বের দেশসমূহের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে জার্মানি এবং এ রোগে শুক্রবার সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে রাশিয়ায়। শুক্রবার জার্মানিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৭২ হাজার ১৫৯ জন এবং এ রোগে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৩৭৪ জনের। অন্যদিকে, একই সময়সীমায় রাশিয়ায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ২৩৫ জনের।

রাশিয়া ও জার্মানি ছাড়া অন্যান্য যেসব দেশে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হারে উর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা গেছে সেগুলো হলো- যুক্তরাজ্য (নতুন আক্রান্ত ৫০ হাজার ৯১, মৃত্যু ১৬০), ফ্রান্স (নতুন আক্রান্ত ৩৪ হাজার ৪৩৬, মৃত্যু ৬০), যুক্তরাষ্ট্র (নতুন আক্রান্ত ৩১ হাজার ৪৫৪, মৃত্যু ২৯৮), তুরস্ক (নতুন আক্রান্ত ২৪ হাজার ২, মৃত্যু ২০১), চেক প্রজাতন্ত্র (নতুন আক্রান্ত ২৭ হাজার ৭১৭, মৃত্যু ৪৮) এবং পোল্যান্ড (নতুন আক্রান্ত ২৬ হাজার ৭৭৫, মৃত্যু ৪২১)।

ওয়ার্ল্ডোমিটার্সের তথ্য অনুযায়ী, শুক্রবার বিশ্বজুড়ে করোনায় নতুন আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৫ লাখ ৬১ হাজার ৭১৯ এবং এ রোগে মৃতের সংখ্যা ছিল ৬ হাজার ২২৮ জন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর গত বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে বৈশ্বিক মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে। এর আগে একই বছরের ২০ জানুয়ারি বিশ্বজুড়ে জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে সংস্থাটি।


আরও খবর



শ ম রেজাউল করিম বলেন

সমবায়ের নামে অসহায় মানুষদের হয়রানি করলে কঠোর ব্যবস্থা

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | ১০৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সমবায়ের নামে অসহায় মানুষদের হয়রানি করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি।

শনিবার (০৬ নভেম্বর) পিরোজপুরের নেছারাবাদে জাতীয় সমবায় দিবস ২০২১ উপলক্ষ্যে নেছারাবাদ উপজেলা সমবায় বিভাগ ও উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর দর্শন, সমবায়ে উন্নয়ন শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা জানান।

তিনি আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের লক্ষ্য ছিল যৌথ মালিকানা ও যৌথ নেতৃত্ব। সে কারণে তিনি সমবায়ভিত্তিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা চালু করতে চেয়েছিলেন। তিনি চেয়েছিলেন রাষ্ট্রের সম্পত্তি হবে সকলের। বঙ্গবন্ধুর লক্ষ্য ছিল গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলের কৃষক, জেলে, শ্রমিক এবং খেটে খাওয়া মানুষদের সাংবিধানিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করা। সে লক্ষ্যেই বঙ্গবন্ধু সমবায়ভিত্তিক রাষ্ট্র ব্যবস্থার কথা বলেছিলেন এবং সমবায়ভিত্তিক কর্মসূচি গ্রহণ করেছিলেন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর পুঁজিবাদী সমাজ ব্যবস্থা কায়েম হয় বাংলাদেশে। সমাজে ভারসাম্যপূর্ণ অবস্থা আনার জন্য বঙ্গবন্ধুর যে লক্ষ্য ছিল সেটি ধ্বংস করে দেওয়া হয়। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা রাষ্ট্র ক্ষমতায় এসে আবার মেহনতি মানুষ, কৃষক, শ্রমিক, জেলে ও খেটে খাওয়া মানুষের সাংবিধানিক অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য আবার কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন

দেশে সমবায়ভিত্তিক ব্যবস্থা অনেক জোরদার উল্লেখ করে মন্ত্রী আরো বলেন, দেশে সমবায়ভিত্তিক ব্যবস্থা জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। তবে মাইক্রোক্রেডিটের নামে একটা শ্রেণি মানুষদের নিষ্পেষন করছে, চক্রবৃদ্ধি হারে সুদ নিচ্ছে। এদের জন্য নীতি-নিয়মের মধ্যে যে সব সমবায় প্রতিষ্ঠান কাজ করছে তাদের বদনাম হচ্ছে। এ বিষয়টি লক্ষ্য রাখতে হবে। বিধি ভঙ্গ করে মানুষের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে কেউ যেন নীল চাষিদের মতো অসহায় মানুষদের নির্যাতন করতে না পারে। সমবায়ের সৃযোগ নিয়ে কেউ যেন এর অপব্যবহার না করে। সমবায় হোক আমাদের শক্তির একটি প্লাটফর্ম। সমবায় হোক দরিদ্র-অসহায় মানুষদের সম্মিলিতভাবে কাজ করার একটি প্ল্যাটফর্ম।

সমবায়ভিত্তিক মৎস্যজীবীদের সরকারিভাবে সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। সমবায় দল গঠন করে মৎস্য চাষ বা গবাদিপশু পালন করতে চাইলে রাষ্ট্র তাদের সহজশর্তে, স্বল্প সুদে ঋণ দিচ্ছে-জানান মন্ত্রী।

নেছারাবাদ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোশারেফ হোসেনের সভাপতিত্বে নেছারাবাদ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল হক, স্বরূপকাঠি পৌরসভার মেয়র মো. গোলাম কবির, নেছারাবাদ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রনি দত্ত জয় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিন

মিরপুরে বাসের অপেক্ষায় শত শত যাত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ নভেম্বর ২০২১ | ২৫২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর মিরপুরে দ্বিতীয় দিনের মতো চলছে পরিবহণ শ্রমিকদের ধর্মঘট।  গণপরিবহণের জন্য সকাল থেকে শত শত যাত্রী বিভিন্ন পয়েন্টে দাঁড়িয়ে থাকলেও বাসের দেখা নেই। অনেকক্ষণ পর পর দুএকটি বাস এলে তাতে উঠতে যাত্রীদের ঠেলাঠেলি করতে দেখা গেছে। গন্তব্যে যাওয়ার জন্য বাস না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন যাত্রীসাধারণ।

সরেজমিন বুধবার সকালে মিরপুর ১০, ১১, ১২, কালশী, পূরবী, সিরামিক রোড ঘুরে দেখা যায়, অফিস ও  শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগামী যাত্রীরা বাসের জন্য অনেকক্ষণ ধরে ঠায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন। অনেকে দিগ্বিদিক ছোটাছুটি করছেন; কিন্তু কোনো গাড়ি পাচ্ছেন না।

মিরপুর ১২ নম্বর থেকে হাতেগোনা দুয়েকটি বাস ছাড়লেও ওইসব বাস যাত্রীতে ঠাসা।  মূল সড়কে কয়েশ বাস পার্কিং করে রাখা রয়েছে। ওই সব বাসের শ্রমিকরা  সকাল থেকেই বিভিন্ন জায়গায় জড়ো হয়ে ধর্মঘট করছেন।

সকাল ৮টায় মিরপুর ১২ নম্বর পূরবী সিনেমা হলের সামনে ৩০-৪০ শ্রমিক জড়ো হয়ে মিরপুর ১০ নম্বর থেকে আসা কয়েকটি বাস থামিয়ে ওই বাসের যাত্রীদের নামিয়ে দেন। এতে যাত্রীদের সঙ্গে পরিবহণ শ্রমিকদের কয়েক দফা বাদানুবাদ হয়। সকাল সাড়ে ৮টায় পুলিশ এসে ওই স্থান থেকে শ্রমিকদের সরিয়ে দেয়। পরে শ্রমিকরা  সড়কের আশপাশে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে অবস্থান নেন।

এ সময় কথা হয় নাজমা আক্তার নামে এক গৃহিণীর সঙ্গে। তিনি বলেন, আমি মিরপুর ১২ নম্বরে যাব। সকাল ৮টায় পূরবী সিনেমা হলের সামনে শ্রমিকরা আমাদের বাস থেকে নামিয়ে দেন। আরও অনেক যাত্রী ছিল যারা উত্তরা, গুলশানে কর্মস্থলে যেতেন। বাস না থাকায় অনেকে হেঁটে রওনা দেন।

বেসরকারি ব্যাংক কর্মকর্তা নকিব খান বলেন, মতিঝিলে অফিসের কাজে যাওয়ার কথা।  সকাল  সাড়ে ৭টা থেকেই পূরবীর সামনে বাসের জন্য দাঁড়িয়ে রয়েছি। ১২ নম্বর থেকে দুয়েকটি বাস এলেও অনেক যাত্রী। বাসে ওঠা যায় না। আবার শ্রমিকরা বাস থেকে যাত্রী নামিয়ে দিচ্ছেন। সিএনজি অটোরিকশাও নেই। রিকশায় করে মতিঝিল যাব কিনা ভাবছি।

মিরপুর ১২ নম্বরের ট্রাফিক পরিদর্শক সোহেল রানা বলেন, শ্রমিকরা বাস না চালিয়ে আন্দোলন করছেন।  সকাল থেকে কিছু বাস চললেও তা পরিমাণে খুবই কম। পূরবীর সামনে সকাল ৮টায় শ্রমিকরা জড়ো হয়ে বাস থেকে যাত্রী নামিয়ে দিলেও পুলিশ  শ্রমিকদের সেখান থেকে সরিয়ে দেয়। তবে এ নিয়ে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। 


আরও খবর
মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৪৬

সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১




কক্সবাজারে আটকেপড়া পর্যটকদের পৌঁছে দিচ্ছে পুলিশ

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | ৪১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গণপরিবহণ ও দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধের কারণে কক্সবাজারে আটকেপড়া পর্যটকদের বিশেষ ব্যবস্থায় চট্টগ্রাম পৌঁছে দিচ্ছে কক্সবাজার জেলা পুলিশ। শনিবার বিকাল ৩টার দিকে জেলা পুলিশের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক পেজে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার (ভারপ্রাপ্ত) মো. রফিকুল ইসলাম এ ঘোষণা দেন।

পুলিশ সুপার লেখেন, পর্যটন শহর কক্সবাজারে বিভিন্ন জেলা থেকে আগত যেসব পর্যটক বাস ধর্মঘটের কারণে নিজ গন্তব্যে ফিরতে পারছেন না, তাদের জ্ঞাতার্থে জানানো যাচ্ছে যে, বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর পক্ষ থেকে কক্সবাজার জেলা পুলিশের সহায়তায় নিজস্ব পরিবহণে কোনো প্রকার ভাড়া ছাড়াই চট্টগ্রাম জেলায় পৌঁছে দেওয়া হবে। ফিরে যেতে আগ্রহীদের জেলা পুলিশ লাইনসে যাওয়ার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো। পর্যটকদের ০১৩০২০১০৮৪৭৪ মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগের জন্য অনুরোধ করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কক্সবাজারের পুলিশ সুপার ঘোষণা দেওয়ার পর চট্টগ্রাম থেকে পুলিশের কয়েকটি গাড়ি কক্সবাজার পৌঁছায়। পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে এমন মানুষদের এই গাড়িতে করে চট্টগ্রাম পৌঁছে দেওয়া হবে। সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে আটকে পড়া যাত্রীদের নিয়ে প্রথম গাড়িটি রওনা দেবে। 

উল্লেখ্য, জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে হঠাৎ গণপরিবহণ ও দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ হওয়ায় কক্সবাজার বেড়াতে গিয়ে শুক্র ও শনিবার ফিরে যাওয়ার সিডিউল থাকা প্রায় অর্ধলাখ পর্যটক আটকা পড়েন। শনিবার অনেকে অতিরিক্ত ভাড়ায় উড়োজাহাজে করে কক্সবাজার ত্যাগ করেন। কিন্তু অনেকে ছোট যানবাহনে কক্সবাজার ছাড়ার চেষ্টা চালান শুক্র ও শনিবার। অন্য সময়ের চেয়ে ভাড়া দুই-তিনগুণ বেশি হওয়ায় শনিবার দুপুর পর্যন্ত কক্সবাজার ত্যাগ করতে পারেননি আটকাপড়া হাজার হাজার মানুষ। শনিবার বিমানের টিকিটের মূল্যও অন্যদিনের থেকে বেশ চড়া।


আরও খবর



পোস্টারেই সিয়াম-পূজার রোমান্সের ঝলক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ নভেম্বর ২০২১ | ৩৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সিয়াম আহমেদ ও পূজার চেরি জুটির নতুন ছবি ‌শান আসছে আগামী বছরের জানুয়ারিতে। গতকাল সোমবার ছবির দ্বিতীয় অফিসিয়াল পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছে। এতে রোমান্টিক লুকে দেখা গেছে সিয়াম-পূজাকে।

পোস্টার পোস্ট করে পূজা লিখেছেন, ‌মানব পাচারকারীর রক্ত দিয়ে খেলি হোলি, গাই আমি উল্লাসের গান। মানব পাচারকারী রুখি খড়গ হস্তে আমি নিভয়, নির্ভীক আমি শান

পুলিশ অ্যাকশন থ্রিলার ছবিটি মুক্তি পাবে আগামী বছরের ৭ জানুয়ারি। ছবিটি পরিবেশনার দায়িত্বে আছে জাজ মাল্টিমিডিয়া ।

এম রাহিম পরিচালিত ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন তাসকিন, চম্পা, অরুণা বিশ্বাস, হাসান ইমাম, মিশা সওদাগর, নাদের চৌধুরী, ডন, আরমান পারভেজ মুরাদ ও আরো অনেকে।

 

নিউজ ট্যাগ: সিয়াম-পূজা

আরও খবর
শাকিব খানের ব্যাংক হিসাব তলব

সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১