আজঃ রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১
শিরোনাম

রাণীশংকৈলে মৃত্যুর সাড়ে তিন মাস পর কবর থেকে মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১০ অক্টোবর ২০২১ | ৫৯০জন দেখেছেন
Image

রাণীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃ

মৃত্যুর সাড়ে তিন মাস পর ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার গাঙ্গুয়া গ্রামের হোসেন আলির (৭৮) গলিত মরদেহ উত্তোলন করা হয়েছে।

আজ রবিবার সোয়া ১১টায় সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (সার্কেল) তোফাজ্জল হোসেন, সহকারি কমিশনার (ভূমি) ইন্দ্রজিৎ সাহা, রাণীশংকৈল থানার ওসি(তদন্ত) আব্দুল লতিফ শেখ, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডাঃ ফিরোজ আলম স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম ও এলাকাবাসির উপস্থিতিতে এ মরদেহ উত্তোলন করেন।

জানা যায়, গত ২৬ জুন দুপুর ১টায় গাঙ্গুয়া গ্রামের হোসেন আলি তার নাতি রুহুল আমিনের বাড়ির বারান্দায় অসুস্থ অবস্থায় মারা যান। তাকে স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়। পরে তার মেয়ে মাহমুদা খাতুন এ নিয়ে গত ৩ জুলাই ঠাকুরগাঁও জেলা আদালতে বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

ওসি(তদন্ত) আব্দুল লতিফ শেখ জানান, উত্তোলনকৃত লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



সাম্প্রদায়িক অপশক্তির প্রধান পৃষ্ঠপোষক বিএনপি: কাদের

প্রকাশিত:রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১ | ৩৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিএনপি সাম্প্রদায়িক অপশক্তির প্রধান পৃষ্ঠপোষক বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সব অপকর্ম ও সাম্প্রদায়িকতার জনক ও ঠিকুজি বিএনপি এমন মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, অপকর্মকারিদের কোনো দল নেই, এরা হচ্ছে দুর্বৃত্ত।

রবিবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুল অ্যান্ড কলেজে শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও শিক্ষার্থীদের মাঝে মেধা বৃত্তি, দরিদ্র তহবিলে বিশেষ অনুদান ও শিক্ষা উপকরণ প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। স্বপ্ন ও সম্ভাবনার স্ফুলিঙ্গ- শেখ রাসেল শীর্ষক এই আলোচনা সভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটি।

বিএনপি-জামায়াত থেকে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, জামায়াত ছাড়া বিএনপি অচল এবং জামায়াতেরও নির্ভরযোগ্য ছাতা হচ্ছে বিএনপি। ভেতরে ভেতরে জামায়াত-বিএনপি মধুর বন্ধনে আবদ্ধ, যা কোনদিন বন্ধ হবে না। আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে অন্ধকারের এই অপশক্তি মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে, সুযোগ পেলেই ছোবল মারবে। তাই এখন থেকেই সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।

৭১ এর পরাজিত শক্তিই ৭৫ এর হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল এমনটা জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর এই চক্রের বিষবৃক্ষ অনেক গভীরে ছড়িয়ে পড়েছে, এদের নিষ্ক্রিয় মনে হলেও এরা তলে তলে এখনো সক্রিয়, তাই এখন থেকেই সতর্ক থাকতে হবে।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মো. মোজাফফর হোসেন।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মো. আবদুল হালিম। সভাটি সঞ্চালনা করেন ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটির সদস্য সচিব সুজিত রায় নন্দী।

পরে নেতৃবৃন্দকে সঙ্গে নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে মেধাবৃত্তি ও দরিদ্র তহবিলে অনুদান এবং শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করেন ওবায়দুল কাদের।


আরও খবর



সিলেটে গ্যাসের চাপ কম থাকায় গ্রাহকদের ভোগান্তি

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৩ অক্টোবর ২০২১ | ৬৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সিলেট থেকে মুহাম্মদ আমজাদ হোসাইন:

সিলেট নগরীর কয়েকটি এলাকার মানুষ গ্যাস সংকটে ভুগছেন। এ সকল এলাকার গ্রাহকদের অভিযোগ ভোর, সকাল কিংবা দুপুরবেলা গ্যাস সংকট দেখা দেয়। রান্না-বান্নার কাজ শুরু করতে যাওয়া মাত্র গ্যাসের লুকোচুরি শুরু হয়ে যায়। গ্যাসের চাপ কম থাকায় এই সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে বলে তাদের ভাষ্য। তবে এ অভিযোগ আমলে নিচ্ছেন না গ্যাস কর্তৃপক্ষ।

গত একমাস ধরে সিলেট নগরীর কয়েকটি এলাকায় গ্যাস সংকট তীব্র আকার ধারণ করেছে। ভোর থেকে সকাল এগারোটা পর্যন্ত আবার কোথাও সকাল এগারোটা থেকে বেলা তিনটা পর্যন্ত এই সমস্যা স্থায়ী থাকছে। বিকেলে পর অবশ্য যথারীতি পর্যাপ্ত গ্যাস পাওয়া যাচ্ছে। এ অবস্থায় যারা ভোর কিংবা দুপুরবেলা রান্নাঘরে যান, তাদের রান্নার কাজ করতে ব্যাপক ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। বিশেষ করে এ সমস্যায় বেশি পড়তে হচ্ছে দরগা মহল্লা ঝর্ণারপার, দর্শনদেউড়ী এলাকার বাসিন্দাদের।

দর্শনদেউড়ী এলাকার গৃহিনী সাদিয়া আক্তার অভিযোগ করে বলেন, পরিবারের প্রয়োজনে ভোর থেকে তাদের রান্নার কাজ করতে হয়। কিন্তু তখন গ্যাসের চুলায় আগুন পাওয়া যায়না, কখনো পাওয়া গেলেও জ্বলছে নিভু নিভু করে। এতে রান্না করা কঠিন হয়ে পড়ে। ঝরনার পার পায়রা আবাসিক এলাকার বাসিন্দা রনি আক্তার বলেন, বেশ কিছুদিন ধরে এই সমস্যায় ভুগছি। কবে যে মুক্তি পাবো জানি না। গ্যাস সংকট নিরসনে কর্তৃপক্ষের দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া উচিত। তিনি বলেন, বেশ কিছুদিন শুধু সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত গ্যাসের চাপ এতটাই কম থাকে যে সামান্য পরিমাণ চা বানাতেও ঘণ্টাখানেক সময় লেগে যায়। একই এলাকার সৈয়দা সালামা সুলতানা ও সালমা বেগম জানান, একই সমস্যায় ভুগছেন তারা। তবে সবসময় নয়। মাঝে মধ্যে দুপুরের দিকে রান্নার ব্যস্ত সময়ে প্রয়োজনীয় গ্যাস পাওয়া যায়না। ওই এলাকার সাব্বির আহমদ ও জুবের আহমদ অভিযোগ করে বলেন, বিষয়টি কয়েক দফায় কর্তৃপক্ষকে বলা হয়েছে, কিন্তু গুরুত্ব দেয়া হচ্ছেনা। ফলে সমস্যা দিনদিন প্রকট হচ্ছে।

যোগাযোগ করা হলে জালালাবাদ গ্যাসের প্রকৌশলী মো. মনজুর আহমদ চৌধুরী জানান, এ ধরণের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে এটা গ্যাসের সমস্যা নয়, পাইপ লাইনের সমস্যা। সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসী যদি নির্দিষ্টভাবে সীমানা উল্লেখ করে আবেদন করেন, তাহলে আমরা সমাধান করে দেবো।

পরিসংখ্যান বলছে, দেশে মোট গ্যাস মজুতের পরিমাণ ৪০ ট্রিলিয়ন ঘনফুট (টিসিএফ)। এরমধ্যে উত্তোলনযোগ্য মজুতের পরিমাণ ৩০ টিসিএফ। এখন পর্যন্ত উত্তোলন করা হয়েছে ১৮ দশমিক ৫৩ টিসিএফ। অবশিষ্ট আছে ১১ দশমিক ৫২ টিসিএফ। পেট্রোবাংলা সূত্র বলছে, এখন প্রতি বছর গড়ে এক টিসিএফ করে গ্যাস উত্তোলন হয়ে থাকে। অর্থাৎ অবশিষ্ট মজুদে আর ১০ বছর মতো চলবে। কিন্তু ক্রমান্বয়ে প্রতি বছরই গ্যাস উত্তোলন ক্ষমতা কমে আসবে। এতে করে শেষের বছরগুলাতে সংকট আরও প্রকট হবে। দেশীয় গ্যাসের উৎপাদন কমে আসলে আনুপাতিক হারে আমদানি বাড়াতে হবে।

জানা গেছে বাপেক্স-এর ৮টি গ্যাস ক্ষেত্রের মোট মজুত ১ দশমিক ৪৬ টিসিএফ থেকে ৪৭৩ বিসিএফ তোলা হয়েছে। অবশিষ্ট রয়েছে ৯৮৭ বিসিএফ। বাপেক্সের সিলেট অঞ্চলের খনিগুলোর মধ্যে ফেঞ্চুগঞ্জে ৩২৯ বিসিএফ মজুতের ১৬২ তোলা হয়েছে মজুত রয়েছে ১৬৬ বিসিএফ। বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ড কোম্পানির মোট মজুত ১২ দশমিক ২৫২ টিসিএফ, এরমধ্যে তোলা হয়েছে ৮ দশমিক ৭৬৮ টিসিএফ। বাকি রয়েছে ৩ দশমিক ৪৮৪ টিসিএফ। সিলেটের খনিগুলোর মধ্যে হবিগঞ্জে দুই দশমিক ৭৮৭ টিসিএফ মধ্যে ২ দশমিক ৫৮৮ টিসিএফ তোলা হয়েছে। বাকি রয়েছে ১৯২ বিসিএফ।

শেভরন বাংলাদেশের তিন ক্ষেত্রের মোট মজুত ৯ দশমিক ৭৪২ টিসিএফ। উত্তোলন করা হয়েছে ৬ দশমিক ৪৫৩ টিসিএফ। বাকি রয়েছে ৩ দশমিক ২৮৯ টিসিএফ। শেভরনের বিবিয়ানাতে এখনও ২ টিসিএফ এর একটু বেশি, মৌলভীবাজারে ১৫৮ বিসিএফ এবং জালালাবাদে এক দশমিক ২৬ টিসিএফ মজুত অবশিষ্ট রয়েছে। সিলেট গ্যাস ফিল্ডের মোট মজুতের পরিমাণ ৭ দশমিক ৩৩ টিসিএফ এরমধ্যে এক ১ দশমিক ৭৮৪ টিসিএফ তোলা হয়েছে। এখানের ৫টি খনিতে এখনও মজুত রয়েছে ৫ দশমিক ২৪৯ টিসিএফ। এখানের পাঁচটি খনি হচ্ছে কৈলাসটিলা, সিলেট, রশিদপুর, ছাতক এবং বিয়ানীবাজার।


আরও খবর



করোনায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ১৩ অক্টোবর ২০২১ | ৪২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এক দিনে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৫০৫ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ২৫ হাজার ৬৭৩ জন

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৭ হাজার ৭৩০ জনে। একই সময়ে নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫১৮ জনের। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ৬৪ হাজার ১৯ জনে।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এক দিনে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৫০৫ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ২৫ হাজার ৬৭৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ২১ হাজার ৯৮৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ২২ হাজার ১৫৩টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার ২ দশমিক ৩৪ শতাংশ।

এ পর্যন্ত মোট ১ কোটি ২০ হাজার ৬৭৩টি নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ৬১ শতাংশ। প্রতি ১০০ জনে সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৫৪ শতাংশ এবং মৃত্যু হার ১ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে পুরুষ ৮ জন ও নারী ৯ জন। এ সময় ঢাকায় ১৩, চট্টগ্রামে ১, খুলনায় ২, বরিশালে ১ জন মারা গেছেন। বাকি বিভাগগুলোতে কেউ মারা যাননি।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

নিউজ ট্যাগ: করোনাভাইরাস

আরও খবর



দেশে করোনায় মৃত্যু ও শনাক্ত বাড়ল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত মোট ২৭ হাজার ৪৭০ জন মারা গেলেন ভাইরাসটিতে।

গতকাল (সোমবার) ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল। আর শনাক্ত ছিল ১ হাজার ২১২ জন। মঙ্গলবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৩১০ জনের।

দেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল গত বছরের ৮ মার্চ। প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর গত বছরের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সেই বছর সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছিল ৬৪ জনের।

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ায় চলতি বছর জুন থেকে রোগীর সংখ্যা হু-হু করে বাড়তে থাকে। ২৮ জুলাই একদিনে সর্বোচ্চ ১৬ হাজার ২৩০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছিল।

চলতি বছরের গত ৭ জুলাই প্রথমবারের মতো দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৫ ও ১০ আগস্ট ২৬৪ জন করে মৃত্যু হয়, যা মহামারির মধ্যে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু।

বেশকিছু দিন ২ শতাধিক মৃত্যু হয়। এরপর গত ১৩ আগস্ট মৃত্যুর সংখ্যা ২০০ এর নিচে নামা শুরু করে। দীর্ঘদিন শতাধিক থাকার পর গত ২৮ আগস্ট মৃত্যু ১০০ এর নিচে নেমে আসে।


আরও খবর



করোনায় ইসি গঠনে আইন প্রণয়ন সম্ভব নয় : আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ১১ অক্টোবর ২০২১ | ৪৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আইনমন্ত্রী ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন, নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনে ১৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে আইন প্রণয়ন করা সম্ভব নয়। আজ রোববার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি য়োজিতমিট ্য রিপোর্টার্সঅনুষ্ঠানে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি কথা বলেন।

আনিসুল হক লেন, নির্বাচন মিশন গঠনের জন্য আইনের প্রয়োজন রয়েছে। কিন্তু ১৫ ফেব্রুয়ারি বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। সময়ের মধ্যে নির্বাচন মিশন গঠ করার লক্ষ্যে আইন করা সম্ভব নয়।

আইনমন্ত্রী লেন, এখনও কোভিড পরিস্থিতি বিদ্যমান। কোভিডের কারণে সংসদের সেশনও সংক্ষিপ্ত করা হয়। এত দ্রুত সময়ে সংসদে আলাপ-আলোচনা রে আইন করা অসম্ভব ব্যাপার।

আনিসুল হক বলেন, এবারও সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন মিশন গঠন করা হবে। রাষ্ট্রপতি সব দলের সঙ্গে আলাপ রে সার্চ মিটি গঠন রে থাকেন।

সার্চ মিটি গঠনের প্রেক্ষাপট তুলে রে আইনমন্ত্রী লেন, নির্বাচন মিশন গঠনে এতদিন আইন করা হয়নি। ২০১২ সালে রাষ্ট্রপতি সব রাজনৈতিক লের ঙ্গে আলোচনা রে কিভাবে নির্বাচন করবেন সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেন। সিদ্ধান্তটা লো সার্চ মিটি গঠন। দলগুলোর কাছ থেকে নাম নিয়ে সার্চ মিটি গঠন করা হয়। সার্চ মিটির মাধ্যমে ঠিত নির্বাচন মিশনের মাধ্যমে দুটি নির্বাচনও লো।

আনিসুল হক আরও বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতিতে দেশে নির্বাচন য়েছে, কিন্তু সেটা নিয়েও রে বিতর্ক উঠেছে। এখন সার্চ মিটি নিয়ে কথা উঠছে। অথচ বর্তমান নির্বাচন মিশনে তাদের (বিএনপির) প্রস্তাবিত লোক য়েছে।

সার্চ মিটির মাধ্যমে নির্বাচন মিশন লে নির্বাচন সুষ্ঠু বে না বিএনপির এমন অভিযোগের জবাবে আইনমন্ত্রী লেন, আমি তাদের আশ্বস্ত রে বলতে চাই, দেশে নির্বাচন নিরপেক্ষ বে। অতীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকা আমলে জাতীয় নির্বাচন নিরপেক্ষ সুষ্ঠু য়েছে।

নিউজ ট্যাগ: আনিসুল হক

আরও খবর