আজঃ শনিবার ২২ জানুয়ারী 20২২
শিরোনাম

সাতছড়িতে অস্ত্রের সন্ধানে অভিযান চলছে

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৭ ডিসেম্বর ২০২১ | ৫৬১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
সর্বশেষ ১৩ আগস্ট হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান সংলগ্ন একটি ব্রিজের পাশ থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় ৯টি একনলা বন্দুক, ৩টি পিস্তল ও ১৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে বিজিবি

হবিগঞ্জের সাতছড়ির গহিন অরণ্যে অস্ত্রের সন্ধানে অভিযান চলছে। সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) ভোর থেকে কাউন্টার টেররিজমের একটি দল সতর্কতার সঙ্গে অভিযান চালাচ্ছে।

হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শৈলেন চাকমা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অভিযান চলছে।

বিজিবির ৫৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক সামিউন্নবী চৌধুরী জানান, আমি বিষয়টি জানি না। তবে শুনেছি কাউন্টার টেররিজমের একটি টিম অভিযান চালাচ্ছে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ১ জুন থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিন দফায় অভিযান চালিয়ে সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান থেকে ৩৩৪টি কামান বিধ্বংসী রকেট, ২৯৬টি রকেট চার্জার, একটি রকেট লঞ্চার, ১৬টি মেশিনগান এবং প্রায় ১৬ হাজার রাউন্ড বুলেটসহ বিপুল পরিমাণ গোলাবারুদ উদ্ধার করে র‌্যাব।

এরপর একই বছরের ১৬ অক্টোবর থেকে চতুর্থ দফায় প্রথম পর্যায়ে উদ্যানের গহীন অরণ্যে মাটি খুঁড়ে ৩টি মেশিনগান, ৪টি ব্যারেল, ৮টি ম্যাগজিন, ২৫০ গুলির ধারণক্ষমতাসম্পন্ন ৮টি বেল্ট ও উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন রেডিও উদ্ধার করা হয়। পরে ১৭ অক্টোবর দুপুরে এসএমজি ও এলএমজির ৮ হাজার ৩৬০ রাউন্ড, রাইফেলের ১৫২ রাউন্ড, পিস্তলের ৫১৭ রাউন্ড, মেশিনগানের ৪২৫ রাউন্ডসহ মোট ৯ হাজার ৪৫৪ রাউন্ড বুলেট উদ্ধার করা হয়।

পঞ্চম দফায় ২০১৮ সালের ২ ফেব্রুয়ারি সাতছড়িতে অভিযান চালিয়ে ১০টি হাই এক্সক্লুসিভ ৪০ এমএম অ্যান্টি-ট্যাংক রকেট উদ্ধার করা হয়। ষষ্ঠ দফায় ২০১৯ সালের ২৪ নভেম্বর সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান থেকে ১৩টি রকেট লঞ্চারের শেলসহ বেশ কিছু বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়। গত ২ মার্চ বিজিবি অভিযান চালিয়ে ১৮টি ট্যাংক বিধ্বংসী রকেট গোলা উদ্ধার করে। সর্বশেষ ১৩ আগস্ট হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান সংলগ্ন একটি ব্রিজের পাশ থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় ৯টি একনলা বন্দুক, ৩টি পিস্তল ও ১৯ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে বিজিবি।

নিউজ ট্যাগ: হবিগঞ্জ

আরও খবর
হবিগঞ্জে এসপিসহ ৫৪ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা

বৃহস্পতিবার ৩০ ডিসেম্বর ২০২১




মাসুদ রানা-খ্যাত কাজী আনোয়ার হোসেন আর নেই

প্রকাশিত:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | ২৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

পাঠকনন্দিত মাসুদ রানার স্রষ্টা, সেবা প্রকাশনীর প্রতিষ্ঠাতা, লেখক, অনুবাদক কাজী আনোয়ার হোসেন আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে কাজী আনোয়ার হোসেনের পুত্রবধূ মাসুমা মাইমুর এক স্ট্যাটাসে বরেণ্য এ লেখকের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

মাসুমা মাইমুর লিখেছেন, নিভে গেছে দীপ জনমের তরে জ্বলিবে না সে তো আর। দূর আকাশের তারা হয়ে গেছে আমার ছেলেটা। আমার ছোট্ট ছেলেটা। আর কোনও দিনও আমার পিছু পিছু ঘুরে খুঁজবে না মায়ের গায়ের মিষ্টি গন্ধ। কোনও দিনই না। কিন্তু মাকে ছেড়ে থাকবে কীভাবে ওই অন্ধকার ঘরে আমার ছেলেটা? একা, শুধু একা? কী সব বকছি জানি না। আব্বা (কাজী আনোয়ার হোসেন) আর নেই। চলে গেছেন আমাদের ছেড়ে।

মাসুমা মাইমুর জানান, গত বছরের ৩১ অক্টোবর কাজী আনোয়ার হোসেনের প্রোস্টেট ক্যানসার ধরা পড়ে। মাঝে পাঁচ বার হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।

মাসুমা মাইমুর আরও লিখেছেন, চিকিৎসার সুযোগ খুব একটা পাওয়া যায়নি। একটা ব্রেইন স্ট্রোক ও হার্ট অ্যাটাক হয়ে সব শেষ হয়ে গেল। ১০ জানুয়ারি থেকে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন। আজ চলে গেলেন আমাদের ছেড়ে।

কাজী আনোয়ার হোসেন প্রায় এক হাতেই বাংলাদেশে দাঁড় করিয়েছেন রহস্য-রোমাঞ্চ গল্পের জনপ্রিয় সাহিত্যধারা। তাঁর প্রতিষ্ঠিত সেবা প্রকাশনী পাঠক তৈরিতে বিশাল ভূমিকা রেখেছে।

কাজী আনোয়ার হোসেন ১৯৩৬ সালের ১৯ জুলাই ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পুরো নাম কাজী শামসুদ্দিন আনোয়ার হোসেন। ডাক নাম নবাব। তাঁর বাবা প্রখ্যাত বিজ্ঞানী, গণিতবিদ ও সাহিত্যিক কাজী মোতাহার হোসেন; মা সাজেদা খাতুন।

কাজী আনোয়ার হোসেন ছদ্মনাম হিসেবে বিদ্যুৎ মিত্র ও শামসুদ্দীন নওয়াব নাম ব্যবহার করতেন। কুয়াশা সিরিজের মাধ্যমে লেখালেখির জগতে বিচরণ ঘটে। তাঁর ভাষাশৈলী অসাধারণ। মৌলিক রচনাগুলোও চমকপ্রদ।


আরও খবর
অমর একুশে গ্রন্থমেলার প্রস্তুতি চলছে

বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২




রোহিঙ্গা-সংকট উত্তরণে বাংলাদেশের পাশে থাকার আশ্বাস তুরস্কের

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০৮ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রোহিঙ্গা-সংকট উত্তরণে তুরস্কের জনগণ সব সময় বাংলাদেশের পাশে আছে বলে মন্তব্য করেছেন তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সোলাইমান সয়লু। আজ শনিবার সকালে কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী ৯ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তুরস্ক সরকারের দুর্যোগ ও জরুরি ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ (আফাদ) পরিচালিত ৫০ শয্যার তুর্কি ফিল্ড হাসপাতালের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

জানা যায়, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় তুরস্কের জনগণের পক্ষে ধন্যবাদ দেওয়ার পাশাপাশি সুন্দর ক্যাম্প ব্যবস্থাপনার জন্য বাংলাদেশ সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করেন তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সোলাইমান সয়লু। পরে তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী একই এলাকায় গত বছরের ২২ মার্চের অগ্নিকাণ্ডে আশ্রয়হারা রোহিঙ্গাদের জন্য নির্মাণাধীন অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র পরিদর্শনে যান।

এ সময় তিনি রোহিঙ্গা কিশোরদের সঙ্গে কিছু সময় খেলাধুলায় মেতে ওঠেন। দোভাষীর সহায়তায় বিভিন্ন বয়সী মানুষের সঙ্গে কথাও বলেন। এরপর সোলাইমান সয়লু ১৭ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তুর্কি রেড ক্রিসেন্টের স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম, দিয়ানাত ফাউন্ডেশন পরিচালিত রোহিঙ্গা দ্বারা সাবান তৈরির কারখানা, খিলজাই নামে একটি সংস্থার লার্নিং সেন্টারের শিক্ষা কার্যক্রম পর্যবেক্ষণসহ বিভিন্ন প্রকল্প পরিদর্শন করেন।

তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ২০১৭ সাল থেকেই রোহিঙ্গা ভাইবোনদের মানবিক সহায়তা দিয়ে আসছে তুরস্ক। সংকটের সমাধান না হওয়া পর্যন্ত ভবিষ্যতেও আমাদের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে।

রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন তুরস্কের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী ইসমাইল ছাতাকলু, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী খালিল বল দামির, তুরস্কের দুজন সাংসদ, বাংলাদেশে নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওসমান তুরান, চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার কামরুল হাসান, ডিআইজি আনোয়ার হোসেন, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার শাহ রেজওয়ান হায়াত, জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদ, পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামানসহ পদস্থ কর্মকর্তারা।

তুর্কি ফিল্ড হাসপাতালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।

উল্লেখ্য, আজ সকাল ৮টায় তুরস্কের ২০ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদলসহ বিশেষ বিমানে করে তুরস্কের ইস্তাম্বুল থেকে সরাসরি কক্সবাজার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তাঁকে অভ্যর্থনা জানান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।

রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে দুপুরে বিশেষ বিমানযোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে কক্সবাজার ত্যাগ করেন সোলাইমান সয়লু। বিকেলে ঢাকায় পৌঁছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে মিলিত হবেন তিনি। পরে রাতেই তাঁর তুরস্কে ফিরে যাওয়ার কথা রয়েছে।

নিউজ ট্যাগ: কক্সবাজার

আরও খবর



নতুন বছরের শুরুতে সূচকের বড় উত্থান

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৯৫জন দেখেছেন

Image

নতুন বছরের প্রথম কার্যদিবসের মতো দ্বিতীয় কার্যদিবসেও লেনদেনের শুরুতে শেয়ারবাজারে মূল্যসূচকের বড় উত্থান প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। সেই সঙ্গে লেনদেনে বেশ ভালো গতি দেখা যাচ্ছে।

প্রথম আধঘণ্টার লেনদেনে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ৫০ পয়েন্টের ওপরে বেড়ে গেছে। আর লেনদেন হয়েছে ২০০ কোটি টাকার ওপরে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের পাশাপাশি অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) প্রথম আধঘণ্টার লেনদেনে সূচকের বড় উত্থান প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। সেই সঙ্গে দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট।

এর আগে বছরের প্রথম কার্যদিবস রোববার শেয়ারবাজারে মূল্যসূচকের উল্লম্ফন হয়। ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৯৬ পয়েন্ট বেড়ে যায়। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ ১৪ পয়েন্ট এবং বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক ২৮ পয়েন্ট বেড়ে যায়।

এ পরিস্থিতিতে বছরের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার ডিএসইতে লেনদেন শুরু হয় বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার মাধ্যমে। ফলে লেনদেনের শুরুতে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স প্রায় ৩০ পয়েন্ট বেড়ে যায়।

লেনদেনের শুরুতে দেখা দেওয়া সূচকের বড় উত্থান সময়ের সঙ্গে আরও বাড়তে থাকে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সকাল ১০টা ৪২ মিনিটে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের তুলনায় ৬৪ পয়েন্টে বেড়েছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক বেড়েছে ২৩ পয়েন্ট। আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক ১১ পয়েন্ট বেড়েছে।

এ সময় পর্যন্ত ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেওয়া ২৮০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৪৩টির। আর ৩৩টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। লেনদেন হয়েছে ২৬৯ কোটি ৩১ লাখ টাকা।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৯৫ পয়েন্ট বেড়েছে। লেনদেন হয়েছে ৪ কোটি ২০ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেওয়া ১১১ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ৭৬টির, কমেছে ২৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১২টির।


আরও খবর
সূচকের বড় উত্থানে শেষ পুঁজিবাজারের লেনদেন

বৃহস্পতিবার ১৩ জানুয়ারী ২০২২

শেয়ারবাজারে বড় উত্থান

সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২




১৬ জানুয়ারি বসছে বছরের প্রথম অধিবেশন

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ০১ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

চলতি বছরে সংসদের প্রথম অধিবেশন বসছে আগামী ১৬ জানুয়ারি (রোববার)। শনিবার (১ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের গণসংযোগ কর্মকর্তা মো. তারিক মাহমুদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তির তথ্য মতে, রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ২০২২ সালের ১৬ জানুয়ারি (রোববার) বিকেল ৪ টায় একাদশ জাতীয় সংসদের ষষ্ঠদশ অধিবেশন আহ্বান করেছেন।

রাষ্ট্রপতি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের ৭২ অনুচ্ছেদের (১) দফায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ অধিবেশন আহ্বান করেছেন।

উল্লেখ্য, গত ২৮ নভেম্বর সংসদের পঞ্চদশ অধিবেশন শেষ হয়। সংবিধান অনুযায়ী, জাতীয় সংসদের এক অধিবেশন থেকে আরেক অধিবেশনের মধ্যে সর্বোচ্চ ৬০ দিনের বেশি বিরতি দেওয়ার সুযোগ নেই।


আরও খবর



ঢাকা মেডিকেলের ১০৯ নম্বর কেবিনে আগুন

প্রকাশিত:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জানুয়ারী ২০২২ | ২৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নতুন ভবনের ১০ তলায় ১০৯ নম্বর কেবিনে আগুন লেগেছে।

আগুন লাগার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট প্রায় ১৭ মিনিট চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে জানানো হয়, বুধবার বিকেল ৫টা ৫৫ মিনিটে আগুন লাগার খবর পেলে ঘটনাস্থলে দ্রুত ছুঁটে যাই। পরে সন্ধ্যা ৬টা ১৮ মিনিটে আগুন নির্বাপণ করা হয়।


আরও খবর
মাঝরাতে বরিশালগামী লঞ্চে আগুন

রবিবার ০৯ জানুয়ারী ২০২২