আজঃ শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

শেষটা সুখকর হলো না বাংলাদেশের

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১০ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বড় লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দ্রুত উইকেট হারায় বাংলাদেশ। টপঅর্ডাররা দায়িত্ব নিতে পারেননি। তবে দলের হার এড়ানোর চেষ্টা করেও পারেননি আফিফ হোসেন। শেষ পর্যন্ত ১৩৪ রানে ইনিংস গুটিয়ে নেয় বাংলাদেশ। তাই ২৭ রানে হারে লাল-সবুজের দল। তবে এই ম্যাচে হারলেও সিরিজ ৩-২ ব্যবধানে জিতেছে মাহমুদউল্লাহরা।

অবশ্য শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। দুই ওপেনার লিটন দাস ও মোহাম্মদ নাঈমের ব্যাটে মন্থরগতিতে শুরু হয় স্বাগতিকদের। এর পর পঞ্চম ওভারে হতাশ করে ফিরে যান লিটন দাস। ধারাবাহিক ব্যর্থ হওয়া লিটন ১২ বলে ১০ রান করে ফেরেন। দলীয় ২৬ রানে প্রথম উইকেট হারায় লাল-সবুজের দল।

লিটনের পর দায়িত্ব নিতে পারেননি নাঈমও। তিনি ফেরেন ২৩ রানে। এরপর বিদায় নেন সৌম্য সরকার ও মুশফিকুর রহিম।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৬১ রান করে নিউজিল্যান্ড। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৫০ রান করেছেন অধিনায়ক টম ল্যাথাম। গত ১০ ম্যাচে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে এটিই সর্বোচ্চ সংগ্রহ।

সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতেও টস ভাগ্য ছিল কিউই অধিনায়ক টম ল্যাথামের পক্ষে। আগের চার ম্যাচেই ব্যর্থ ছিল নিউজিল্যান্ডের ওপেনিং জুটি। গত ম্যাচগুলোতে শুরুর জুটিতে যথাক্রমে ১, ১৬, ১৬, ০ রান পেয়েছিল কিউইরা।

সেই নিউজিল্যান্ডই আজ পেয়েছে দারুণ সূচনা। ইনিংসে প্রথম পাঁচ ওভারেই দলীয় স্কোর পঞ্চাশ ছাড়ায়  নিউজিল্যান্ড। তবে নিউজিল্যান্ডের শুরুর ছন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে দেননি শরিফুল ইসলাম। ষষ্ঠ ওভারে বল হাতে এসেই জোড়া উইকেট তুলে নেন তিনি।

সে ওভারে রাচিন রবীন্দ্রকে ফিরিয়ে উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন শরিফুল। তরুণ এই পেসারের বলে পুল শট খেলতে চেয়েছেন রবীন্দ্র। কিন্তু টাইমিং ঠিক হয়নি। ব্যাটের ওপরের দিকে লেগে বল যায় মিড অফে। সেখান থাকা মুশফিকুর রহিম ঝাঁপিয়ে পড়ে ক্যাচ লুফে নেন। ১২ বলে ১৭ রান করে ফেরেন রবীন্দ্র।

একই ওভারে ফিন অ্যালানকেও বিদায় করেন শরিফুল। রিভিউতে বেঁচে যাওয়া অ্যালানকে বোল্ড করেন শরিফুল। পাওয়ার প্লের শেষ বলে আউট হয়ে ২৪ বলে ৪১ রান করে ফেরেন অ্যালান। দলীয় ৫৮ রানেই জোড়া উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড।

মিডল অর্ডারে নামা দুই কিউই ব্যাটসম্যান উইল ইয়ং ও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমকে স্থায়ী হতে দেননি আফিফ হোসেন ও নাসুম আহমেদ। চলতি সিরিজে প্রথমবার বল হাতে এসেই ইয়ংকে নিজের শিকার বানান আফিফ। রাউন্ড দ্য উইকেটে গিয়ে বল করে ইয়ংকে ফেরান তিনি। ছয় রানে সাজঘরে ফেরেন ইয়ং।

১১তম ওভারে হাতখুলে খেলার আগেই দি গ্র্যান্ডহোমকে থামান নাসুম। তরুণ এই স্পিনারের মিডল স্টামে পিচ করা ফুল লেংথের বলে ছক্কা হাঁকাতে চেয়েছেন গ্র্যান্ডহোম। বল চলে যায় লং অফে। সেখানে দৌড়ে গিয়ে ক্যাচ মুঠোয় জমান শামীম হোসেন। ৯ রানে থামেন দি গ্র্যান্ডহোম।

দারুণ শুরুর পর দ্রুত চার উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে যায় নিউজিল্যান্ড। হেনরি নিকোলসকে নিয়ে সেখান থেকে দলকে উদ্ধার করেন অধিনায়ক টম ল্যাথাম। উইকেট হারানোর চাপ সামলে হাত খুলে খেলেন অধিনায়ক। ল্যাথামের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে শেষ পর্যন্ত ১৬১ রান গড়ে নিউজিল্যান্ড। ৫০ রান করে অপরাজিত ছিলেন তিনি।

বল হাতে বাংলাদেশের হয়ে ৪৮ রান দিয়ে দুটি উইকেট নেন শরিফুল ইসলাম। একটি করে উইকেট পান আফিফ, নাসুম ও তাসকিন আহমেদ।


আরও খবর
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের থিম সং প্রকাশ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

মেসিকে পেছনে ফেললেন সিআর সেভেন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




টিকার দাবিতে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে প্রবাসীদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে টিকার দাবিতে বিক্ষোভ করছেন প্রবাসীরা। আজ শনিবার সকাল থেকে টিকার দাবিতে তাঁরা স্লোগান দিতে থাকেন। এ সময় প্রবাসীরা হাসপাতালের সামনের সড়ক অবরোধ করেন। এতে সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

বিক্ষোভের একপর্যায়ে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের সড়ক থেকে সরিয়ে দেয়। পরে টিকা কবে পাওয়া যাবে, সে বিষয়ে কথা বলতে বিক্ষোভকারীদের পক্ষ থেকে পাঁচ জন ও পুলিশ কর্মকর্তারা হাসপাতালের পরিচালকের সঙ্গে এক ঘণ্টা আলোচনা করেন। এরপরও প্রবাসীরা তাঁদের বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছেন।

প্রবাসীরা বলেন, টিকার খুদেবার্তা আসার পর আমরা টিকা নিতে এসেছি। কিন্তু এখানে মডার্না ও ফাইজারের প্রথম ডোজ নেই। এদিকে, ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে, এখন আমরা কী করব? আমরা অনেক টাকা খরচ করে টিকার জন্য গ্রাম থেকে এসেছি।

সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. খলিলুর রহমান প্রবাসীদের বলেছেন, আমাদের কাছে ফাইজার ও মডার্নার টিকা নেই। এখন সিনোফার্মের টিকা চলছে। টিকা না দিলে আমরা আপনাদের কীভাবে দেব? আপনারা সিনোফার্ম নিলে এখনই দিতে পারব। আমাদের কাছে শুধু দ্বিতীয় ডোজের জন্য মডার্না আছে।

এদিকে পুলিশ বলছে, পরিচালকের কথা তারা প্রবাসীদের বোঝানোর চেষ্টা করছে। কিন্তু, বিক্ষোভকারীরা কোনোভাবেই মানছেন না। তাঁরা হাসপাতালে বিক্ষোভ করছেন। সরকার টিকা না দিলে হাসপাতাল কীভাবে দেবে। এখানে তো আর টিকা তৈরি হয় না। তাদের দাবি ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে। তারাও নিরুপায় হয়েই বিক্ষোভ করছে।

প্রবাসীরা বলেন, আমরা মেসেজ পেয়েছি। তারা বলছে সিনোফার্ম নিতে। কিন্তু, এই টিকা নিলে সৌদি আরবে প্রবেশ করতে দেবে না। আমাদের মডার্না বা ফাইজারের টিকা নিতে হবে।

এদিকে একজন প্রবাসী বলেন, হাসপাতালের পরিচালক আমাদের জানিয়েছেন, এখানে ফাইজার বা মডার্নার টিকা নেই। তিনি বিষয়গুলো আমাদের জানিয়েছেন। এক ঘণ্টা আলোচনা শেষে বিষয়টি সবাইকে বোঝানোর চেষ্টা করছি, কিন্তু কেউ বিশ্বাস করছে না। হাসপাতালের ভেতরে এখনও বিক্ষোভ চলছে।


আরও খবর



ক্যামেরার চোখে জীবন দেখি : এস এম রনি

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৮১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

স্বপ্ন অনেক দূরে যাবার, ভালো ভালো কাজের সাথে নিজেক সম্পৃক্ত রাখার।ক্যামেরার চোখে আমি জীবন খুঁজে পাই। কথা গুলো আজকের দপর্ণের সাথে  বলছিলেন তরুণ চিত্রগাহক  এস এম রনি।

সম্প্রতি ডি.এন.বাংলা প্রযোজিত মোঃদ্বীন ইসলাম এর কাহিনী, সংলাপ, চিত্রনাট্য ও পরিচালনায়চরিত্রচলচ্চিত্রটি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সনদ পত্র পেয়েছে ।চরিত্রচলচ্চিত্রটি আগামী অক্টোবর ২০২১ এ, প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

সিনেমাটি নিয়ে এস এম রনি বলেন, দেশীয় মৌলিক গল্পের চলচ্চিত্র, এই চলচ্চিত্রটিতে আবহমান গ্রামবাংলা ও সমাজের প্রতিচ্ছবি তুলে ধরা হয়েছে। চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন, ফরহাদ হোসেন, কান্তানুর, মিষ্টিমারিয়া, সমুচৌধুরী, ফারুক আহমেদ, মাহমুদুর রহমান মিঠু(বড়দামিঠু), মাসুম আজিজ, আমির সিরাজী, গুলশানারা পপি, শম্পানিজামসহ সুনামধন্য অনেক শিল্পী।

চরিত্রচলচ্চিত্রটির চিত্রধরণ করেছেন, শ্রাবণ চৌধুরী সুমন, এস এম রনি, সোহাগ।

সিনামিটি করতে গিয়ে নিজের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে এস এম রনি বলেন, আমি সব সময় চেষ্টা করি গল্প এবং নির্মাতাকে রিড করে চিত্রধারন করার। এই সিনামেতেও তার ব্যাতিক্রম হয়নি।

ভালো কাজের সাথে সব সময় থাকতে চাই, ভালো কিছু উপহার দিতে চাই ।

 


আরও খবর
আক্রমণাত্মক মন্তব্যের শিকার নুসরাত

শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

হাইকোর্টে জামিন পেলেন মডেল মৌ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




ই-কমার্স ব্যবসা তদারকিতে হাইকোর্টে রিট

প্রকাশিত:সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০21 | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের ই-কমার্স ব্যবসা তদারকি করতে একটি ই-কমার্স রেগুলেটরি অথরিটি করার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়েছে।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট আবেদন করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. আনোয়ারুল ইসলাম বাধন।

রিটে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের চেয়ারম্যান ও ই-ক্যাবকে বিবাদী করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মুস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে শুনানি হবে বলে জানিয়েছেন রিটকারী আইনজীবী।

ই-কমার্স নিয়ে হাইকোর্টের সতর্ক ও সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়ে এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ও অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন কথা বলার একদিন পরই এ রিটটি দায়ের করা হলো।

নিউজ ট্যাগ: ই-কমার্স

আরও খবর



করোনায় আরও ৩১ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন শনাক্ত ও মৃত্যু বেড়েছে। তবে কমেছে দৈনিক শনাক্তের হার। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩১ জন, যা গতকাল (২৩ সেপ্টেম্বর) ছিল ২৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ২৩৩ জন। গতকাল এক হাজার ১৪৪ জন শনাক্তের তথ্য জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদফতর।

তবে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় রোগী শনাক্তের হার গতকালের তুলনায় কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার চার দশমিক ৫৪ শতাংশ, গতকাল শনাক্তের হার ছিল চার দশমিক ৬১ শতাংশ। আর আজকের শনাক্তের হার নিয়ে টানা চতুর্থ দিনের মতো দৈনিক শনাক্তের হার পাঁচ শতাংশের নিচে।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা বিষয়ক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মারা যাওয়া ৩১ জনকে নিয়ে দেশে সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত মারা গেলেন ২৭ হাজার ৩৬৮ জন এবং ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত এক হাজার ২৩৩ জনকে নিয়ে এখন পর্যন্ত শনাক্ত হলেন ১৫ লাখ ৪৯ হাজার ৫৫৩ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৪১৩ জন। তাদের নিয়ে দেশে করোনা থেকে সুস্থ হলেন মোট ১৫ লাখ নয় হাজার ২০২ জন।

এতে বলা হয়, দেশে এখন পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ১৮ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৪০ শতাংশ এবং মৃত্যুহার এক দশমিক ৭৭ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ৩১ জনের মধ্যে পুরুষ ১৮ জন আর নারী ১৩ জন। দেশে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট পুরুষ মারা গেলেন ১৭ হাজার ৫৮৪ জন এবং নারী ৯ হাজার ৭৮৪ জন।

২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের বয়স বিবেচনায় ৯১ থেকে ১০০ বছরের মধ্যে রয়েছেন একজন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে তিন জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে পাঁচ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৯ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ছয় জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে চার জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে একজন এবং ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে দুই জন।

মারা যাওয়া ৩১ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগের আছেন ১৬ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের আট জন, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের দুই জন করে এবং খুলনা, সিলেট ও ময়মনসিংহ বিভাগের একজন করে।

স্বাস্থ্য অধিদফতর জানাচ্ছে, ৩১ জনের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ২৬ জন এবং বেসরকারি হাসপাতালে পাঁচ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার নমুনা সংগৃহীত হয়েছে ২৭ হাজার ৫৫৭টি, আর নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৭ হাজার ১৪১টি। দেশে এখন পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৯৫ লাখ ৭৯ হাজার ১১১টি। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরীক্ষা করা হয়েছে ৭০ লাখ ৬৫ হাজার ৫০৯টি এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২৫ লাখ ১৩ হাজার ৬০২টি।


আরও খবর
করোনায় শনাক্ত ও মৃত্যু আরও কমল

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




দেশের অর্ধেক ইন্টারনেট ব্যবহৃত হচ্ছে পর্নোগ্রাফিতে

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৯৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে বর্তমানে ব্যবহৃত ইন্টারনেটের অর্ধেকই খরচ হচ্ছে পর্নোগ্রাফি, টিকটক, ফ্রি-ফায়ার কিংবা পাবজির পেছনে। জাতীয় প্রেসক্লাবে নিরাপদ ইন্টারনেট বিষয়ক এক অনুষ্ঠানে উঠে আসে উদ্বেগজনক এমন তথ্য।

তবে বিটিআরসি বলছে, ফ্রি-ফায়ার-পাবজির পর, টিকটক-লাইকির মতো অ্যাপ বন্ধের প্রক্রিয়া চলছে। সবার জন্য নিরাপদ ইন্টারনেট নিশ্চিতে আইন করার কথাও ভাবা হচ্ছে।

করোনাকালে দেশে হঠাৎ করে আলোচনায় টিকটক ও লাইকি। এসব অ্যাপে তারকা বানানোর প্রলোভন দেখিয়ে নারী পাচারসহ নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ডে দেশজুড়ে শুরু হয় তোলপাড়।

ফ্রি-ফায়ার ও পাবজির মতো অনলাইন গেইম কিশোর-তরুণদের আগ্রাসী করতে তুলছে বলে নানা মহল থেকে অভিযোগ ওঠার পর বন্ধ করা হয়েছে এগুলো। বন্ধ করা হয়েছে ২০ হাজারের বেশি পর্ন সাইটও।

তবে শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে ইন্টারনেট সেবাদাতাদের সংগঠন আইএসপিএবি সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক দাবি করলেন, বর্তমানে দেশে ব্যবহৃত ২৬শ' জিবিপিএস ব্যান্ডউইথের অর্ধেকই ব্যয় হচ্ছে ভার্চুয়াল গেম, টিকটক, লাইকি ও পর্নোগ্রাফি দেখার পেছনে।

বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় বলেন, সাইবার সিকিউরিটি বিষয়ক একটা পলিসি এখন আসলেই দরকার। আমাদের স্থায়ী সমাধানে যেতে হবে।

বর্তমানে দেশে মুঠোফোন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ১১ কোটি ৩৬ লাখ। আর ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন এক কোটি গ্রাহক।


আরও খবর