আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম

সিলেট গ্যাস ফিল্ডে উত্তোলন বাড়লো ১৯ মিলিয়ন ঘনফুট

প্রকাশিত:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৮ মে ২০২২ | ৩৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সিলেটের গোলাপগঞ্জের কৈলাশটিলা গ্যাসক্ষেত্রের ৭নং কূপ থেকে ওয়ার্ক ওভারের মাধ্যমে জাতীয় গ্রিডে আরও ১৯ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস যুক্ত হয়েছে। এখন থেকে এ গ্যাস ফিল্ডে দৈনিক ১৯ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস বেশি উত্তোলন হবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

শনিবার রাতে নিজের ফেরিফাইড ফেসবুক পেজে তিনি আরো জানান, শনিবার (৭ মে) রাত পৌনে ৯টা থেকে কৈলাশটিলার এ কূপ থেকে সফলভাবে গ্যাস উত্তোলন শুরু হয়েছে।

তিনি লিখেন, ঈদের আগে গ্যাস নিয়ে সু-সংবাদ দিয়েছিলাম আপনাদের। জাতীয় গ্রিডে নতুন করে গ্যাস যুক্ত হওয়ার কথা ছিল এ মাসের ১০ তারিখে। আমরা সময়ের আগেই দ্রুত কাজ শেষ করেছি। শনিবার রাত ৮টা ৪৫ মিনিট থেকে সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের কৈলাশটিলা-৭নং কূপ বাপেক্সের বিজয়-১১ রিগ দ্বারা সফলভাবে ওয়ার্ক ওভারের মাধ্যমে দৈনিক ১৯ এমএমসিএফ (মিলিয়ন ঘনফুট) গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ শুরু করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, আমাদের বর্তমানে দৈনিক গ্যাসের চাহিদা প্রায় ৩৬০০ এমএমসিএফডি। আমাদের নিজস্ব গ্যাস ফিল্ড থেকে ২৩০০ এমএমসিএফডি উৎপাদন করা হচ্ছে এবং বাকিটা এলএনজি আমদানি করে ৮৫০ এমএমসিএফডি জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হচ্ছে। ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার সময়ও গ্যাসের উৎপাদন ছিল মাত্র ১৭৪৪ এমএমসিএফডি। সেখান থেকে আমরা উৎপাদন সক্ষমতা বাড়িয়েছিলাম ২৭৫০ এমএমসিএফডি পর্যন্ত। ২০১৮ সাল পর্যন্ত আমরা এ সক্ষমতায় গ্যাস উৎপাদন করেছি। কিন্তু দু:খজনক হলেও সত্য যে, আমাদের নিজস্ব গ্যাসের রির্জাভ কমতে শুরু করেছে।

নসরুল হামিদ আরো জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর দেখানো পথে জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তায় বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। নতুন নতুন গ্যাস ক্ষেত্র আবিস্কার, বিদ্যমান গ্যাসকূপগুলোতে ডিপ ড্রিলিং এর মাধ্যমে অনুসন্ধান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। আগামীতে গ্যাস নিয়ে আরো সু-খবর দিতে পারবো বলে আশা করি।

এদিকে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শনিবার (৭ মে) রাত ৮টা ৪৫ মিনিট থেকে সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের কৈলাশটিলা-৭নং কূপ হতে দৈনিক ১৯ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ শুরু করা হয়েছে।

সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেডের (এসজিএফএল)-কৈলাশটিলা গ্যাস ফিল্ডে এখন পর্যন্ত ৭টি কূপ খনন করা হয়েছে। এর মধ্যে চলমান দু’টি কূপ থেকে দৈনিক ২ কোটি ৯০ লাখ ঘনফুট গ্যাস উৎপাদন করে জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হচ্ছে।

কৈলাশটিলা গ্যাসক্ষেত্রের ৭ নম্বর কূপের খনন কাজ শুরু হয় ২০১৪ সালের ১৭ অক্টোবর। এর আগের বছর ২০১৩ মালের ১৭ সেপ্টেম্বর সিলেট সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কূপটির খননকাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।


আরও খবর



বেঙ্গালুরুকে ২৯ রানে হারিয়েছে রাজস্থান

প্রকাশিত:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৭ এপ্রিল ২০২২ | ২৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতের পুনেতে মঙ্গলবার (২৬ এপ্রিল) রাতে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুকে ২৯ রানে হারিয়েছে রাজস্থান রয়্যালস। এই জয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠেছে রাজস্থান। অন্যদিকে বিপাকে পড়েছে কোহলি-ডু প্লেসিসরা। তাদের প্লেঅফে খেলার স্বপ্ন কঠিন হয়ে গেলো।

এদিন রাজস্থান আগে ব্যাট করে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৪ রান সংগ্রহ করে। আর সেটা সম্ভব হয় রিয়ান পরাগের ব্যাটে ভর করে। তরুণ এই ব্যাটসম্যান ৩১ বলে ৩টি চার ও ৪ ছক্কায় অপরাজিত ৫৬ রান করেন। ১ চার ও ৩ ছক্কায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৭ রান করেন সঞ্জু স্যামসন। রবীচন্দ্রন অশ্বিন ১৭ ও ড্যারিল মিচেল করেন ১৬ রান। বাকিদের কেউ দুই অঙ্কের কোটা ছুঁতে পারেনি। বল হাতে বেঙ্গালুরুর মোহাম্মদ সিরাজ, জস হাজলেউড ও ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা ২টি করে উইকেট নেন।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে বেঙ্গালুরু। কোহলি আজ আরও একবার ব্যর্থ হন। ১০ বলে ২ চারে করেন তিনি ৯ রান। ফাফ ডু প্লেসিসও সুবিধা করতে পারেননি। ২৩ রান করে আউট হন তিনি। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানও এটি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৮ রান করেন হাসারাঙ্গা ও ১৭ করেন শাহবাজ আহমেদ। তাতে ১৯.৩ ওভারে ১১৫ রানে অলআউট হয়ে যায় বেঙ্গালুরু।

বল হাতে রাজস্থানের নায়ক কুলদীপ সেন। তিনি ৩.৩ ওভার বল করে ২০ রান দিয়ে ৪টি উইকেট নেন। ৪ ওভারে ১৭ রান দিয়ে ৩টি উইকেট নেন অশ্বিন। আর ২৩ রান দিয়ে ২টি উইকেট নেন প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা। ম্যাচসেরা হন রিয়ান পরাগ। এই জয়ে ৮ ম্যাচ থেকে ১২ পয়েন্ট সংগ্রহ করে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান নিয়েছে রাজস্থান রয়্যালস। আর ৯ ম্যাচ থেকে ১০ পয়েন্ট সংগ্রহ করে বেঙ্গালুরু আছে পঞ্চম স্থানে।


আরও খবর



পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে আগামী বছর চলবে ট্রেন

প্রকাশিত:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ১৫ মে ২০২২ | ৩৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা থেকে আগামী বছর ভাঙ্গায় ট্রেন চলাচল শুরু হবে। ২৬ মার্চ থেকে এই ট্রেন চালুর সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন খোদ রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। কোনো কারণে সেদিন এই রুটে ট্রেন চালু না হলে টার্গেট করা হয়েছে জুনকে। আর ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত ১৬৯ কিলোমিটার রেলপথের পুরোটা ২০২৪ সালের জুনে শেষ করার লক্ষ্যে হাঁটছে সরকার।

পদ্মা রেল সংযোগ প্রকল্প এলাকা পরিদর্শনে এসে আজ রোববার দুপুরে মাওয়া সার্ভিস এলাকায় সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন রেলমন্ত্রী।

রেলমন্ত্রী সুজন বলেন, ঢাকা থেকে মাওয়া অংশের কাজ হয়েছে ৫৫ শতাংশ, মাওয়া থেকে ভাঙ্গা ৭৮ শতাংশ এবং ভাঙ্গা থেকে যশোর পর্যন্ত কাজ হয়েছে ৪৯ দশমিক ৫০ শতাংশ। ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত প্রকল্পের মূল কাজের ভৌত অগ্রগতি হয়েছে প্রায় ৫৭ দশমিক ৫০ শতাংশ। তিনি বলেন, ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত ১৬৯ কিলোমিটার পুরোটা ২০২৪ সালের জুনে শেষ করার লক্ষ্য আছে।

পদ্মা সেতুতে রেললাইন বসানোর কাজে দেরি হচ্ছে কেন জানতে চাইলে রেলমন্ত্রী বলেন, যেহেতু আমাদের অগ্রাধিকার প্রকল্প পদ্মা সেতু। তাই সেতুর সড়কপথ বেশি অগ্রাধিকার পাবে। তবে, জুনে সেতু চালু হওয়ার পরে আগামী জুলাই মাসে আমাদের সেতুতে রেললাইন বসানোর অনুমতি দেবে।

টেকনিক্যাল সমস্যার কারণে এত দিন সেতুতে রেললাইন বসানোর অনুমতি পাওয়া যায়নি উল্লেখ করে রেলমন্ত্রী বলেন, জুরাইন এলাকায় পরিষেবা স্থানান্তর এবং টিটিপাড়ায় আন্ডারপাস নির্মাণকাজের জন্য সব মিলিয়ে একটু দেরি হয়েছে।

পদ্মা মূল সেতুর ঠিকাদার চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি) এবং পদ্মা সেতু রেল লিংক প্রকল্পটির ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে আছে চায়না রেলওয়ে গ্রুপ লিমিটেড।


আরও খবর



রাজধানীর যেসব এলাকায় গ্যাসের চাপ কম থাকবে

প্রকাশিত:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ০৪ মে ২০২২ | ৩৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গ্যাস ট্রান্সমিশনস কোম্পানি লিমিটেড (জিটিসিএল) বর্তমানে উচ্চচাপ সম্পন্ন দুটি পাইপলাইনের সংস্কার কাজ করছে। এর ফলে ঈদের দিন রাত থেকে রাজধানী ঢাকার গাবতলী, মাজার রোড, মিরপুর, কল্যাণপুর, মোহাম্মদপুর, ধানমন্ডিসহ কিছু এলাকায় গ্যাসের চাপ কিছুটা কম রয়েছে।

এক বিজ্ঞপ্তিতে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড জানিয়েছে, ঈদের দিন মঙ্গলবার (৩ মে) রাত ১০টা থেকে শুরু হয়ে এ অবস্থা আগামীকাল বৃহস্পতিবার (৫ মে) রাত ১০টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। তবে ঈদে প্রচুর মানুষ রাজধানী ছেড়ে গ্রামে যাওয়ায় সেসব এলাকায় গ্যাসের অভাব সেভাবে টের পাওয়া যাচ্ছে না।


আরও খবর



গাজীপুরে ট্রেন-পিকআপ সংঘর্ষে নিহত ৩

প্রকাশিত:শনিবার ২১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২১ মে ২০২২ | ২১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গাজীপুরের কালিগঞ্জ উপজেলায় ট্রেনের সঙ্গে পিকআপের সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। শনিবার (২১ মে) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আড়িখোলা রেল স্টেশনের অদূরে নলছাটা এলাকায় এ দুর্ঘটনায় ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই পিকআপে থাকা তিনজন আরোহী মারা যান। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের পরিচয় জানা যায়নি। আড়িখোলা রেল স্টেশনের মাস্টার কামরুল ইসলাম এ দুর্ঘটনা ও হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আড়িখোলা রেল স্টেশনের অদূরে নলছাটায় একটি অরক্ষিত গেটে তালভর্তি পিকআপের সঙ্গে কিশোরগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী এগারো সিন্ধুর ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় ট্রেনের ধাক্কায় পিকআপটি দূরে ছিটকে গিয়ে পড়ে এবং ওই পিকআপে থাকা তিনজন ঘটনাস্থলেই মারা যান।

কামরুল ইসলাম আরও বলেন, তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। দুর্ঘটনায় নিহতদের দেহ ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।


আরও খবর



মারিউপোলের কারখানা থেকে উদ্ধার ইউক্রেনের সেনা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২ | ৩১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

অবশেষে মারিউপলের স্টিল কারখানা থেকে ইউক্রেনের আহত সেনাদের উদ্ধারকাজ শুরু হলো। তাদের রাশিয়া-নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ডয়েচে ভেলে।

গত সপ্তাহে মারিউপোলের অ্যাজবস্টল স্টিল প্লান্ট থেকে বেসামরিক ব্যক্তিদের উদ্ধার করা হয়েছিল। রেডক্রস এবং জাতিসংঘের উপস্থিতিতে সেই কাজ হয়েছিল। উদ্ধার হওয়া ব্যক্তিদের কাছ থেকে জানা গেছিল, ওই কারখানার ভিতর আহত অবস্থায় আটকে আছে বেশ কিছু ইউক্রেনীয় সেনা। যারা দীর্ঘদিন ধরে ওই কারখানাকে বেস বানিয়ে রাশিয়ার সেনার সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিল।

ইউক্রেন আন্তর্জাতিক মঞ্চের কাছে ওই সেনাদের উদ্ধারের আবেদন করে। রাশিয়ার কাছেও যে কোনো শর্তে ওই সেনাদের উদ্ধারের আবেদন জানানো হয়। প্রাথমিকভাবে রাশিয়া তাতে রাজি না হলেও, শেষপর্যন্ত ইউক্রেনের দাবিতে সায় দেয়। সোমবার প্রথম ওই কারখানা থেকে বেশ কিছু ইউক্রেনের সেনাকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের তরফে জানানো হয়েছে।

সামরিক প্রধান জানিয়েছেন, অ্যাজবস্টলের কারখানা থেকে সোমবার ২৬০ জনকে উদ্ধার করা হয়। এদের মধ্যে বেশ কিছু সেনার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের সকলকেই রাশিয়ার দখলে থাকা পার্শ্ববর্তী শহরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানে তাদের হাসপাতালে ভর্তিও করা হয়েছে। এখনো বেশকিছু সেনা কারখানায় আটকে আছেন বলে জানা গেছে। রাশিয়া জানিয়েছে, মঙ্গলবার তাদেরও উদ্ধার করা হবে।

সোমবার রাতে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি জানিয়েছেন, ওই সেনারা আমাদের হিরো। তাদের যেন কোনো রকম ক্ষতি না হয়। আমরা একজন সেনাকেও হারাতে চাই না।

প্রশ্ন উঠছে, উদ্ধার করা হলেও রাশিয়া ওই সেনাদের ইউক্রেনের হাতে তুলে দেবে কি! হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হলেও পরবর্তী সময়ে ওই সেনাদের রাশিয়া যুদ্ধবন্দি করতে পারে বলেও কোনো কোনো মহল মনে করছে। তবে রাশিয়া এ বিষয়ে স্পষ্ট কোনো তথ্য দেয়নি। ইউক্রেনও এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি।


আরও খবর