আজঃ সোমবার ২৩ মে ২০২২
শিরোনাম

সিলিং ফ্যান পড়ে কপাল ফাটল মুরাদের

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৩ মে ২০২২ | ৪৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জামালপুরের সরিষাবাড়িতে নিজ বাড়িতে বন্ধুদের সঙ্গে গল্প করার সময় মাথায় সিলিং ফ্যান খুলে পড়ে কপাল ফেটেছে সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান এমপি গুরুতর আহত হয়েছেন। তার মাথায় তিনটি সেলাই দিতে হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (১২ মে) সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার (১৩ মে) বিষয়টি নিশ্চিত করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার দেবাশীষ রাজবংশী।

স্থানীয় ও হাসপাতাল সূত্র জানায়, আলোচিত-সমালোচিত সাবেক তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান এমপি দীর্ঘদিন যাবত উপজেলার আওনা ইউনিয়নের দৌলতপুর নিজ বাড়িতে অবস্থান করছেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১২ মে) রাতে বাড়ির বৈঠকখানায় বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিচ্ছিলেন। এসময় সিলিং ফ্যান মুরাদ হাসানের মাথায় পড়ে। এতে তার মাথা ফেটে তিনি গুরুতর আহত হলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে খবর দেওয়া হয়। পরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে থেকে চিকিৎসক এসে মাথায় তিন সেলাই দেওয়া হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার দেবাশীষ রাজবংশী জানান, সিলিং ফ্যান মাথায় পড়ে সাবেক তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান এমপি গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাই। পরে হাসপাতালে একটি চিকিৎসক দল মুরাদ হাসান এমপির বাড়িতে গিয়ে তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন।

তিনি আরও বলেন, তিনটি সেলাই দেওয়া হয়। বর্তমানে তিনি নিজ বাড়িতে চিকিৎসকের পর্যবেক্ষণে আছেন।

এ ব্যাপারে মুরাদ হাসান এমপির ব্যক্তিগত সহকারী জাহিদ নাঈম বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে সিলিং ফ্যান পড়ে মুরাদ হাসান এমপির কপাল ফেটে যায়। পরে সরিষাবাড়ী হাসপাতালে খবর দিলে চিকিৎসকের একটি দল তার বাড়িতে গিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা দেন। বর্তমানে এখন তিনি আশঙ্কামুক্ত রয়েছেন।


আরও খবর



এসএসসি পাসে চাকরি দিচ্ছে ইসলামী ব্যাংক

প্রকাশিত:বুধবার ১১ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১১ মে ২০২২ | ১৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটিতে সিকিউরিটি গার্ড’ পদে নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহী যোগ্য প্রার্থীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

পদের নাম:

সিকিউরিটি গার্ড (অস্থায়ী)।

শিক্ষাগত যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা:

স্বীকৃত যেকোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ন্যুনতম এসএসসি পাস প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। অবসরপ্রাপ্ত সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের অগ্যাধিকার দেওয়া হবে। প্রার্থীকে অবশ্যই শারীরিক ভাবে উপযুক্ত ও কমপক্ষ ৫ ফুট ৫ ইঞ্চি উচ্চতাসম্পন্ন হতে হবে। আনতার বাহিনীর সদস্যদের ক্ষেত্রে সরকারি আনসার ব্যাটালিয়ন অথবা অঙ্গীভূত আনসার হিসেবে কমপক্ষে তিন বছরের চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

বেতন:

ব্যাংকে বিদ্যমান নিয়ম অনুযায়ী।

আবেদন প্রক্রিয়া:

আগ্রহীরা অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন http://career.islamibankbd.com/career.php এই ঠিকানা থেকে। এছাড়াও ডাকযোগে আবেদনপত্র পাঠানো যাবে ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় (ডেপুটি ম্যানেজিং ডাইরেক্টর অ্যান্ড সিএইচআরওম, হিউম্যান রিসোর্সেস উইং, ইসলামী ব্যাংক টাওয়ার, ৪০ দিলকুশা বা/এ, ঢাকা-১০০০ বরাবর।

আবেদনের শেষ তারিখ:

৩০ মে, ২০২২।

বিস্তারিত বিজ্ঞপ্তিতে...



আরও খবর



সিলেট ও সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ২৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

উজান থেকে আসা পাহাড়ি ঢল আর বৃষ্টির পানিতে সিলেট ও সুনামগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। সুরমা নদীর তীর উপচে পানি ঢুকে পড়েছে সিলেট নগরীর বেশ কিছু এলাকা। প্রায় ১৮ বছর পর সিলেট নগরে বন্যার পানি ঢুকল। সুনামগঞ্জ শহরেরও নিচু এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

ঢলের পানিতে প্লাবিত হয়েছে ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মসজিদসহ ফসলি জমি। ঢলের পানিতে সদর ও দেয়ারাবাজার উপজেলার অনেক পুকুরের মাছ ভেসে যাওয়ায় ক্ষতির মুখে পড়েছেন মাছ চাষিরা। মঙ্গলবার সন্ধ্যার শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বন্যার কারণে পানি ওঠায় জেলার ছাতক-সুনামগঞ্জ-সিলেট, তাহিরপুর, বিশ্বম্ভরপুর, সুনামগঞ্জ এবং সুনামগঞ্জ-হালুয়াঘাট-মঙ্গলকাটা সড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

সিলেট সুনামগঞ্জ সড়কের গোবিন্দগঞ্জ এলাকায় পানি উঠায় যান চলাচলে ভোগান্তি সৃষ্টি হয়েছে। এদিকে সুনামগঞ্জ শহরের সাহেববাড়ি, মধ্যবাজার, জেলরোড, লঞ্চঘাট, উকিলপাড়া, নবীনগর, বড়পাড়াসহ একাধিক পয়েন্টে পানি প্রবেশ করায় ভোগান্তিতে রয়েছেন নগরবাসী। অপরদিকে পানিবন্ধী অবস্থায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন সুরমা নদীর তীরবর্তী সুনামগঞ্জ সদর, বিশ্বম্ভপুর, তাহিরপুর,দোয়ারাবাজার, ছাতক, ধর্মপাশাসহ অন্তত ১০ ইউনিয়নের ২০ হাজার মানুষ।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছেন, আগামী ৪৮ ঘণ্টা, ভারতের আসাম ও মেঘালয়ে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা থাকায় সুনামগঞ্জ -সিলেট অঞ্চলে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকতে পারে এবং টানা বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জে মাঝারি ধরনের বন্যার সৃষ্টি হতে পারে।

বন্যার্তদের সহযোগিতায় জেলার দোয়ারাবাজার উপজেলায় ১০ টন চাল ও নগদ দুই লাখ টাকা এবং বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় ৭ টন চাল বরাদ্দ দিয়েছে জেলা প্রশাসন। এ ছাড়াও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণের ওপরে অন্যান্য বন্যা কবলিত উপজেলায় চাল বরাদ্দ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন। বন্যায় আশ্রয় কেন্দ্রের জন্য বন্যার্ত এলাকায় প্রাথমিক বিদ্যালয় ও আশ্রয়কেন্দ্রগুলো খোলা রাখার কথা জানিয়েছেন তিনি।

ঢলের পানিতে তাহিরপুর, বিশ্বম্ভরপুর, দোয়ারাবাজার ও সদর উপজেলার উচ্চ এলাকার ৭০০ হেক্টর বোরো জমি এবং ৭০ হেক্টর চিনা বাদাম তলিয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন জেলা কৃষি সম্প্রসারণের উপপরিচালক বিমল চন্দ্র সোম। তবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আরও বেশি হতে পারে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

সদর উপজেলার সুরমা ভৈষারপার গ্রামের মুজিবুর রহমান বলেন, অনেক ঘরবাড়িতে পানি উঠেছে। আমাদের গ্রামের রাস্তায় পানি, স্কুলে পানি, পুকুরের মাছ ভেসে গেছে। কাংলার হাওর, রাঙ্গাউরি, ধরাবিলসহ কয়েকটি হাওরের স্কিমে চাষ করা জমির ফসল তলিয়ে গেছে।

আমীর হোসেন নামে আরেক কৃষক বলেন, পানিতে ঘরবাড়ি ডুবে গেছে। তিনখানি জমি চাষ করেছিলাম একটু ধানও কাটতে পারিনি। হঠাৎ পানি এসে আমার সব নিয়ে গেছে।

ভারতে অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের কারণে সুনামগঞ্জের সুরমাসহ সকল নদ-নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। আগামী ৪৮ ঘণ্টা পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সামছুদ্দোহা।

জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, পাহাড়ি ঢল অতি বৃষ্টিতে সুনামগঞ্জে সুরমা নদীর তীরবর্তী নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।বন্যা মোকাবিলায় সকল ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে আমাদের। সরকারের তরফ থেকে বন্যার্ত এলাকায় ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে যাচ্ছে।


আরও খবর



আসামে পাহাড়ি ঢলে উল্টে গেল ট্রেন

প্রকাশিত:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১৮ মে ২০২২ | ৩২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ভারতের আসাম রাজ্যে ভারী বৃষ্টির ফলে সৃষ্ট পাহাড়ি ঢলে স্টেশনে দাঁড়িয়ে থাকা রেলের কয়েকটি বগি উল্টে গেছে। রাজ্যের দিমা হাসাও জেলার হাফলং রেলওয়ে স্টেশনে আজ এই ঘটনা ঘটেছে। বন্যার কারণে রাজ্যের ২০ জেলার রেলযোগাযোগ ব্যাহত হয়েছে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া মিনিট তিনেকের একটি ভিডিওতে পাহাড়ি ঢলে ক্ষতিগ্রস্ত রেলের চিত্র উঠে এসেছে। রেলস্টেশনের পদচারীসেতুর ওপরে দাঁড়িয়ে থেকে ওই ভিডিওটি করা হয়।

ভিডিওতে দেখা যায়, মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যে গোটা হাফলং স্টেশন প্লাবিত হয়। রেললাইনে ট্রেন দাঁড়িয়ে না থাকলে বোঝার উপায় ছিল না যে এটি কোনো রেলস্টেশন। চারপাশে কাদাপানি যেন থইথই করছে। এর মধ্যেই নেমে আসে কাদাপানির ঢল। আতঙ্কিত হয়ে পড়েন ভিডিও চিত্র ধারণ করা ব্যক্তি। এ সময় বৃষ্টিও ঝরছিল। মেঘলা আকাশ প্রকৃতিতে যেন জেঁকে বসেছে। হঠাৎ কাদাপানির ঢলে পুরো চেহারাই বদলে গেল স্টেশনের।

কয়েক মিনিটে চারপাশ যেন একটা স্রোতস্বিনী চেহারা ধারণ করে। এর মধ্যেই গাছ, কাঠ, ধ্বংসস্তূপ ঠেলে নিয়ে স্টেশনেই দাঁড়িয়ে থাকা একটি গোটা ট্রেনের ওপর আছড়ে পড়ে কাদাপানির ঢল। এ সময় রেললাইনে দুটি ট্রেন দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। পানির ঢলে একটি ট্রেনের অনেক বগি দুলতে দুলতে উল্টে যায়।

বন্যায় ভারতের উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশটির বাজালি, বাকসা, কাছাড়, চরাইদেও, দারাং, ধেমাজি, দিব্রুগড়, দিমা হাসাও, কামরূপ, কার্বি আলং, নওগাঁও, শোনিতপুর, মাজুলি ও হোজাইসহ ২০টি জেলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে আসামের ৬৫২টি গ্রামের অন্তত দুই লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ঢলে রেলের বগি উল্টে যাওয়ার পর স্টেশনে অপেক্ষমাণ যাত্রীদের উদ্ধারে তৎপরতা চালায় ভারতের নর্থইস্ট ফ্রন্টেয়ার রেলওয়ে। এক টুইটবার্তায় তাঁরা উদ্ধার অভিযানের বেশ কয়েকটি ছবিও প্রকাশ করেছে। টুইটে লেখা হয়েছে, রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের ত্বরিত পদক্ষেপের কারণে দিতোকচেরায় লাইনচ্যুত ট্রেনের যাত্রীদের নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া সম্ভব হয়েছে। উদ্ধারকাজে বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টারও ব্যবহার করা হয়। 


আরও খবর



রেকর্ড সামরিক ব্যয় বৃদ্ধির বছরে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৬ এপ্রিল ২০২২ | ৩৪৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

গত বছর বিশ্বজুড়ে সামরিক ব্যয় রেকর্ড পরিমাণ বেড়েছে। সামরিক ব্যয় বৃদ্ধির দিক দিয়ে এক নম্বরে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দ্বিতীয় অবস্থানে চীন এবং তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। তবে গত বছর ইউক্রেন সীমান্তে যুদ্ধাবস্থা বিরাজমান থাকার পরও রাশিয়া রয়েছে পঞ্চম স্থানে। ২০২১ সালে ইউরোপের দেশগুলোতে সামরিক ব্যয় বৃদ্ধির প্রবণতা ছিল সবচেয়ে বেশি।

সোমবার (২৫ এপ্রিল) সুইডেনভিত্তিক গবেষণা সংস্থা স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (এসআইপিআরআই-সিপরি) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এ খবর জানিয়েছে।

ওই গবেষণা প্রতিবেদন অনুযায়ী, করোনা মহামারির মধ্যে অর্থনীতি সংকুচিত হলেও বিশ্বজুড়ে সামরিক ব্যয় বেড়েছে। দেশগুলো তাদের অস্ত্রাগারে অস্ত্র বাড়িয়েছে। গত বছর বৈশ্বিক সামরিক খাতে ব্যয় দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে। এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের পর সামরিক খাতে ব্যয়ের দিক থেকে বিশ্বে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে চীন। ২০২১ সালে দেশটি সামরিক খাতে ২৯ হাজার ৩০০ কোটি ডলার ব্যয় করেছে। ২০২১ সালে চীনে সামরিক খাতের ব্যয় ৪ দশমিক ৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এর মধ্য দিয়ে টানা ২৭ বছর ধরে চীনের সামরিক খাত ব্যয় বেড়েছে।

সামরিক ব্যয়ে বিশ্বে তৃতীয় অবস্থানে আছে ভারত। ২০২১ সালে ভারতের সামরিক ব্যয় দশমিক ৯ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এ বছর ভারত সামরিক খাতে ৭ হাজার ৬৬০ কোটি ডলার ব্যয় করেছে। যুক্তরাজ্য গত বছর দেশটির সামরিক ব্যয় ৩ শতাংশ বাড়িয়ে সৌদি আরবকে টপকে চতুর্থ স্থানে উঠে এসেছে। গত বছর সামরিক খাতে ৬ হাজার ৮৪০ কোটি ডলার ব্যয় করে যুক্তরাজ্য। এদিকে গত বছর সৌদি আরবের সামরিক ব্যয় ১৭ শতাংশ কমে ৫ হাজার ৫৬০ কোটি ডলারে দাঁড়িয়েছে।

সিপরির জ্যেষ্ঠ গবেষক দিয়োগে লোপেজ ডি সিলভা বলেন, ২০২১ সালে টানা সপ্তম বছরের মতো বিশ্বজুড়ে সামরিক খাতে ব্যয় বেড়ে ২ লাখ ১০ হাজার কোটি ডলারে গিয়ে ঠেকেছে। এর আগে কোনো এক বছরে বিশ্বজুড়ে সামরিক খাতে দেশগুলোর যৌথ ব্যয় এত বেশি হতে দেখা যায়নি। সামরিক ব্যয়ে বিশ্বে রাশিয়ার অবস্থান পঞ্চম। ২০২১ সালে টানা তৃতীয় বছরের মতো দেশটির সামরিক ব্যয় ২ দশমিক ৯ শতাংশ বেড়ে ৬ হাজার ৫৯০ কোটি ডলারে ঠেকেছে। সামরিক ব্যয় রাশিয়ার মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপির) ৪ দশমিক ১ শতাংশ, বৈশ্বিক গড়ের চেয়েও যা অনেক বেশি। ইউরোপের দেশগুলোতে সামরিক খাতে ব্যয় আরও বাড়বে বলে ধারণা করছেন তিনি।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত বছর সামরিক খাতে সবচেয়ে বেশি ব্যয় করেছে যুক্তরাষ্ট্র, অন্যান্য দেশের তুলনায় যা অনেক বেশি। ২০২১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ব্যয় ছিল ৮০ হাজার ১০০ কোটি ডলার। তবে বৈশ্বিক প্রবণতার বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ব্যয় ১ দশমিক ৪ শতাংশ কমেছে। গত এক দশকে গবেষণা ও উন্নয়ন খাতে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যয় ২৪ শতাংশ বেড়েছে এবং অস্ত্র সংগ্রহ ৬ দশমিক ৪ শতাংশ কমেছে। তবে গত বছর দুটি খাতেই দেশটির ব্যয় কমেছে। তবে গবেষণা খাতে ব্যয় কমার বিষয়টি নিয়ে তেমন কথা হয় না। এতে করে দেশটি যে নতুন প্রজন্মের প্রযুক্তিতে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে, তা উঠে এসেছে।

রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে যুদ্ধের কারণে ইউরোপে উত্তেজনা শুরু হয়েছে। এতে করে পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটোর অন্যান্য দেশও সামরিক খাতের ব্যয় বৃদ্ধি করছে। ন্যাটোর আটটি দেশ গত বছর জিডিপির ২ শতাংশ সামরিক খাতে ব্যয় করার লক্ষ্য পূরণ করেছে। তবে ২০২০ সালের সাত দেশ এ লক্ষ্য পূরণ করেছিল।

নিউজ ট্যাগ: যুক্তরাষ্ট্র

আরও খবর



কৃষ্ণ সাগরে রাশিয়ার দুই জাহাজে ইউক্রেনের ড্রোন হামলা

প্রকাশিত:সোমবার ০২ মে 2০২2 | হালনাগাদ:সোমবার ০২ মে 2০২2 | ৫৮০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইউক্রেনের সেনাবাহিনী প্রধান জানিয়েছেন, ড্রোন হামলা চালিয়ে কৃষ্ণ সাগরে রাশিয়ার দুটি টহল জাহাজ ধ্বংস করেছে ইউক্রেনীয় বাহিনী।

সেনাপ্রধান চিফ অব জেনারেল স্টাফ ভেলারি জুলুঝিনি এমন দাবি করে বলেন, রাশিয়ার দুটি র‌্যাপ্টোর ক্লাস জাহাজ আজ (সোমবার) ভোরে স্ন্যাক আইল্যান্ডের কাছে ধ্বংস করা হয়েছে। এই ড্রোন হামলার একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনী। তবে ভিডিওটির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি গণমাধ্যমগুলো।

ইউক্রেনের প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, কৃষ্ণ সাগরে টহলরত রাশিয়ার দুটি টহল জাহাজ লক্ষ্য করে আকাশ থেকে হামলা চালানো হচ্ছে। এই হামলায় ড্রোনের মাধ্যমে মিসাইল ছুড়তে দেখা যায়।এদিকে ইউক্রেনের হামলায় নিজেদের জাহাজ ধ্বংস হওয়ার বিষয়টি নিয়ে এখনো কোনো কিছু জানায়নি রাশিয়া।

এর আগে ইউক্রেনের ছোড়া নেপচুন মিসাইলে রাশিয়ার বিশাল যুদ্ধ জাহাজ মস্কভা কৃষ্ণ সাগরের অতল গভীরে তলিয়ে গিয়েছিল। যদিও রাশিয়ার পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল জাহাজে আগুন লাগে। এরফলে সেখানে বিস্ফোরণ হয়ে জাহাজটি ক্ষতিগস্ত হয়ে ডুবে যায়।


আরও খবর