আজঃ মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১
শিরোনাম

সুগন্ধা নদীতে তেলবাহী জাহাজে বিস্ফোরণে নিহত ১, দগ্ধ ৭

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ নভেম্বর ২০২১ | ৬৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে জ্বালানি তেলবাহী ট্যাংকার জাহাজে বিস্ফোরণে একজন নিহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার সকাল সোয়া আটটার দিকে সুগন্ধা নদীর তীরবর্তী পদ্মা অয়েল কোম্পানির দক্ষিণপাড়ে সাগর নন্দিনী-৩ নামের ওই জাহাজে বিস্ফোরণ ঘটে। পরে ঝালকাঠি ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

নিহত ওই ব্যক্তির নাম মো. কামরুজ্জামান (৪৫)। তিনি ওই জাহাজের সুকানি ছিলেন। নিহত কামরুজ্জামানের বাড়ি গোপালগঞ্জে। এ ঘটনায় ওই জাহাজের আরও সাত কর্মী দগ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন। আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঝালকাঠি পদ্মা অয়েল কোম্পানি সূত্রে জানা যায়, ১০ নভেম্বর সাগর নন্দিনী-৩ নামের জাহাজটি চট্টগ্রাম থেকে জ্বালানি তেল বোঝাই করে ঝালকাঠি পদ্মা অয়েল কোম্পানির ডিপোতে আসে। জাহাজটি ওই ডিপোতে পেট্রল খালাস করার পর ডিজেল খালাস করার জন্য সুগন্ধা নদীর দক্ষিণপাড়ে অবস্থান করছিল। এ সময় ওই জাহাজে ১৩ জন কর্মী অবস্থান করছিলেন।

আহত ব্যক্তিদের মধ্যে রুবেল হোসেন জানান, আজ সকালে জাহাজের ইঞ্জিনকক্ষের জেনারেটর চালু করতে গিয়ে হঠাৎ বিস্ফোরণ ঘটে আগুন ধরে যায়। এতে জাহাজে অবস্থান করা অধিকাংশ কর্মী দগ্ধ হন। এরপর আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসক সুকানি কামরুজ্জামানকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত অন্য কর্মীদের অবস্থাও আশঙ্কাজনক।

এদিকে ঘটনার খবর শুনে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী, পুলিশ সুপার ফাতিহা ইয়াসমিনসহ পদ্মা অয়েল কোম্পানির ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বিস্ফোরণে ক্ষতিগ্রস্ত জাহাজটি পরিদর্শন করেন।

জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী জানান, আহত ব্যক্তিদের বর্তমানে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তবে তাঁদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হবে। এ ঘটনা তদন্তের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হবে।

ঝালকাঠি ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম জানান, আজ সকালে জাহাজের ইঞ্জিনকক্ষের জেনারেটর চালু করতে গিয়ে বিকট শব্দে আগুন লাগে। আগুন দ্রুত পুরো জাহাজে ছড়িয়ে পড়ে। বিস্ফোরণের পর জাহাজের তলা ফেটে যাওয়ায় জাহাজটি ক্রমেই নদীতে ডুবে যাচ্ছে। ওই জাহাজে সাড়ে আট লাখ লিটার ডিজেল ছিল বলে জানা যায়।


আরও খবর



ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন

ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ নভেম্বর ২০২১ | ১৩৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ঘোষণা করেছে আওয়ামী লীগ। মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) দলটির দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তালিকা প্রকাশ করা হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রবিবার (২১ নভেম্বর) আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভায় চূড়ান্ত করা হয় এসব প্রার্থী।

ঢাকা

ঢাকা বিভাগের টাঙ্গাইল সদর উপজেলার দাইন্যা ইউনিয়ন পরিষদে সোলায়মান হোসেন, হুগড়ায় তোফাজ্জল হোসেন খান, করটিয়ায় খালেকুজ্জামান চৌধুরী, ঘারিন্দায় হোসাইন সাদাব অন্তু, পোড়াবাড়ীয়ায় ফজলুজ্জামান রশীদ, মগড়ায় আজাহারুল ইসলাম, বাঘিল ইউনিয়নে এস এম মতিয়ার রহমান, গালায় রাজকুমার সরকার; ভূঞাপুর উপজেলার অর্জুন ইউনিয়ন পরিষদে দিদারুল আলম খান (মাহবুব), গাবসারায় মনিরুজ্জামান, ফলদায় সাইদুল ইসলাম তালুকদার, গোবিন্দাসীতে দুলাল হোসেন চকদার, অলোয়ায় রফিকুল ইসলাম, নিকরাইলে মুহাম্মদ আব্দুল মতিন সরকার; ঘাটাইল উপজেলার দেউলাবাড়ীতে সুজাত আলী খান, ঘাটাইলে মোহাম্মদ হায়দার আলী, লোকেরপাড়ায় মোহাম্মদ শরিফ হোসেন, আনেহলায় তালুকদার শাহজাহান, দিঘলকান্দিতে ইকবাল হোসেন, দিগড়ে জামাল হোসেন, দেওপাড়ায় বাহাদুর আলম খান মনোনয়ন পেয়েছেন।

কিশোরগঞ্জ

কিশোরগঞ্জ জেলার হোসেনপুর উপজেলার জিনারী ইউনিয়ন পরিষদে আ. ছালাম, সিদলায় কামরুজ্জামান কাঞ্চন, গোবিন্দপুরে মোহাম্মদ সাইদুর রহমান, আড়াইবাড়ীয়াতে মোছলেহ উদ্দিন, শাহেদলে শাহ্ মাহবুবুল হক, পুমদীতে আ. কাইয়ুম; কটিয়াদি উপজেলার বনগ্রামে কামাল হোসেন মিলন, সহশ্রাম ধুলদিয়াতে আবুল কাসেম আকন্দ, করগাঁওয়ে বেলায়েত হোসেন, চান্দপুরে মাহফুজুর রহমান, মুমুরদিয়ায় তরিকুল ইসলাম, আচমিতায় একেএমএম মুর্শেদ, মসুয়ায় আল আমিন, লোহাজুরীতে আতাহার উদ্দিন ভূইয়া, জালালপুরে আ. খালেক সরকার (রাজু); ভৈরব উপজেলার শিমুলকান্দিতে মিজানুর রহমান, শ্রীনগরে আবুল বাশার, শিবপুরে শফিকুল ইসলাম, সাদেকপুরে সাফায়েত উল্লাহ, গজারিয়ায় ফরিদ উদ্দিন খান, কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়নে ফারুক মিয়া, আগানগরে হুমায়ুন কবীর চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

মানিকগঞ্জ

মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া উপজেলার বরাইদ ইউনিয়ন পরিষদে হারুন অর রশিদ, দিঘলিয়ায় সফিউল আলম (জুয়েল), দড়গ্রামে আলীনূর বক্স, সাটুরিয়ায় আনোয়ার হোসেন, হরগঞ্জে আনোয়ার হোসেন খান, ফকুরহাটিতে আফাজ উদ্দিন, ধানকোড়ায় আব্দুর রউফ, তিল্লীতে শরীফুল ইসলাম, বালিয়াটিতে রুহুল আমিন; ঘিওর উপজেলার ঘিওর ইউনিয়ন পরিষদে হামিদুর রহমান, বানিয়াজুড়ীতে নূর আলম, বড়টিয়ায় সামছুল হক মোল্লা (রওশন), বালিয়াখোড়ায় এমএ লতিফ, পয়লায় হারুন অর রশীদ, নালীতে আব্দুল কুদ্দুস, সিংজুরীতে আব্দুল আজিজ নৌকা প্রতীক পেয়েছেন।

মুন্সীগঞ্জ

মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলার শেখরনগর ইউনিয়ন পরিষদে দেবব্রত সরকার, বালুচরে এএসএম শাহাদাত হোসেন, রশনিয়ায় মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন, ইছাপুরায় আবদুল মতিন হাওলাদার, রাজানগরে মজিবর রহমান, চিত্রকোর্টে শামছুল হুদা (বাবুল), কেয়াইনে আশ্রাফ আলী, বাসাইলে সাইফুল ইসলাম, মধ্যপাড়ায় মি. করিম শেখ, বয়রাগাদীতে শহিদুল্লাহ, লতব্দীতে এস এম সোহরাব হোসেন, কোলায় মীর লিয়াকত আলী, জৈনসারে আবুল খায়ের বেপারী, মালখানগরে সানজিদা আক্তার; লৌহজং উপজেলার কলমা ইউনিয়ন পরিষদে আমিনুল ইসলাম ফকির, খিদিরপাড়ায় আবুল কালাম আজাদ, গাঁওদিয়ায় শহিদুল ইসলাম, বৌলতলীতে তোফাজ্জল হোসেন, বেজগাঁওয়ে ফারুক ইকবাল, হলদিয়ায় মোজাম্মেল হক, কনকসারে মেহেদী হাসান, কুমারভোগে লুৎফর রহমান তালুকদার, মেদিনীমণ্ডলে আশরাফ হোসেন চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

গাজীপুর

গাজীপুর জেলার সদর উপজেলার বাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদে জহিরুল ইসলাম খান, কালীগঞ্জ উপজেলার নাগরী ইউনিয়ন পরিষদে মোহাম্মদ অলিউল ইসলাম নৌকা প্রতীক পেয়েছেন।

নরসিংদী

নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার লেবুতলা ইউনিয়ন পরিষদে জাকির হোসেন আকন্দ, চালাকচরে ফখরুল মান্নান, চন্দনবাড়ীতে আব্দুর রউফ হিরন, বড়চাপায় অধ্যাপক এম সুলতান উদ্দিন, কাচিকাটায় নাজিবুর রহমান (সেলিম), শুকুন্দীতে ছাদিকুর রহমান শামিম, দৌলতপুরে হাদিউল ইসলাম, একদুয়ারিয়ায় আনিসুজ্জামান মিটুল, গোতাশিয়ায় মতিউর রহমান; পলাশ উপজেলার চরসিন্দুরে মোফাজ্জল হোসেন (রতন), জিনারদীতে মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম গাজী নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন।

নারায়ণগঞ্জ

নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজার উপজেলার সাতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদে অদুদ মাহমুদ, দুপ্তারায় নাজমুল হক, ব্রাহ্মন্দীতে লাক মিয়া, ফতেপুরে আবু তালিব, মাহমুদপুরে মোহাম্মদ আমান উল্যাহ, হাইজাদীতে আলী হোসেন, উচিতপুরায় ইসমাঈল, খাগকান্দায় আরিফুল ইসলাম, বিশনন্দীতে সিরাজুল ইসলাম, কালাপাহাড়িয়ায় মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম; সোনারগাঁ উপজেলার বৈদ্যেরবাজার ইউনিয়ন পরিষদে আল আমিন সরকার; নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদে খন্দকার লুৎফর রহমান স্বপন মনোনয়ন পেয়েছেন।

রাজবাড়ী

রাজবাড়ী জেলার সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়ন পরিষদে টুকু মিজি, খানগঞ্জে মুহাম্মদ শরিফুর রহমান সোহান, চন্দনীতে আব্দুর রব, সুলতানপুরে লুৎফর রহমান চুন্নু, শহীদ ওহাবপুরে নূর মোহাম্মদ ভূঁইয়া, পাঁচুরিয়ায় কাজী আলমগীর, দাদশীতে রমজান আলী, বরাট ইউনিয়নে ফরিদ উদ্দিন শেখ, বাণীবহে মোছা. শেফালী আক্তার, রামকান্তপুরে আবুল হাসেম বিশ্বাস, মুলঘরে ওহিদুজ্জামান শেখ, খানখানাপুরে আমীর আলী মোল্লা, বসন্তপুরে আব্দুল মান্নান মিয়া, আলীপুরে মুহাম্মদ বজলুর রশিদ মিঞা চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

ফরিদপুর

ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা উপজেলার টগরবন্দ ইউনিয়ন পরিষদে মিয়া আসাদুজ্জামান, বানায় আশরাফুজ্জামান মিয়া (জিল্লু), পাঁচুড়িয়ায় এসএম মিজানুর রহমান; বোয়ালমারী উপজেলার ঘোষপুরে ফারুক হোসেন, ময়নায় পলাশ বিশ্বাস, চতুলে খোন্দকার আবুল বাশার, গুনবহায় কামরুল ইসলাম, শেখরে কামাল আহমেদ, বোয়ালমারীতে ওহাব মোল্যা (তাঁরা), পরমেশ্বরদীতে সোলাইমান মোল্যা, দাদপুরে শেখ সাজ্জাদুর রহমান হাই, রূপাপাতে মাহব্বত আলী, সাতৈরে মুহাম্মদ মুজিবর রহমান নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন।

গোপালগঞ্জ

গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার কলাবাড়ী ইউনিয়নে বিজন বিশ্বাস, সাদুল্যাপুরে সমর চাঁদ মৃধা, রাধাগঞ্জে ভীম চন্দ্র বাগচী, বান্ধবাড়ীতে মিজানুর রহমান হাওলাদার, আমতলীতে রাফেজা বেগম, পিঞ্জুরীতে আমিনুজ্জামান খাঁন, হিরণে মাজাহারুল আলম, কান্দিতে তুষার মধু, কুশলায় সুলতান মাহমুদ চৌধুরী, শোয়াগ্রামে যজ্ঞেশ্বর বৈদ্য অনুপ, টুঙ্গিপাড়া উপজেলার কুশলীতে বেলায়েত হোসেন সরদার, বর্ণিতে মোসা. মিলিয়া আমিনুল, গোপালপুরে লাল বাহাদুর বিশ্বাস, পাটগাতীতে শেখ শুকুর আহমদ, ডুমুরিয়ায় আলী আহম্মেদ শেখ নৌকা প্রতীক পেয়েছেন।

জামালপুর

ময়মনসিংহ বিভাগে জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জ উপজেলার বাট্টাজোর ইউনিয়ন পরিষদে মোখলেছুর রহমান তালুকদার, বকশীগঞ্জ সদরে আলমগীর কবির আলমাস; মাদারগঞ্জ উপজেলার কড়ইচড়া ইউনিয়ন পরিষদে মোজাম্মেল হক, গুনারীতলায় মোস্তাফিজুর রহমান, আদারভিটায় মিজানুর রহমান, সিধুলীতে মাহাবুব আলম, চরপাকেরদহে বদরুল আলম সরদার, বালিজুড়ীতে মির্জা ফকরুল ইসলাম, জোড়খালীতে সুজা মিঞা; সরিষাবাড়ী উপজেলার সাতপোয়া ইউনিয়ন পরিষদে আবু তাহের, পোগলদিঘাতে মুহাম্মদ আশরাফুল আলম, ডোয়াইলে মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক, আওনায় বেল্লাল হোসেন, ভাটারায় বোরহান উদ্দিন, কামরাবাদে আব্দুস ছালাম, মহাদানে একেএম আনিছুর রহমান নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন

শেরপুর

শেরপুর জেলার শ্রীবরদী উপজেলার শ্রীবরদী ইউনিয়ন পরিষদে মোহাম্মদ আব্দুল হালিম, গড়জরিপায় সাইফুল আলম সাগর, সিংগাবরুনায় ফকরুজ্জামান, কাকিলাকুড়ায় জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িকাহনিয়ায় নূর হোসেন, ভেলুয়ায় রেজাউল করিম, গোসাইপুরে শাহজামাল ইসলাম আশিক, রাণীশিমূলে মাসুদ রানা, তাতিহাটিতে আসাদউল্লাহ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহ জেলার তারাকান্দা উপজেলার তারাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদে খাদেমুল আলম শিশির, গালাগাঁওয়ে আবদুর রহমান তালুকদার, ঢাকুয়ায় এনায়েত কবির, বিষকায় আব্দুছ ছালাম মণ্ডল, বানিহালায় আলতাব হোসেন খন্দকার, কাকনীতে মশিউর রহমান, বালিখাতে শামছুল ইসলাম, রামপুরে আজিজুর রহমান, কামারিয়ায় একেএম, আজাহারুল ইসলাম, কামারগাঁওয়ে রফিকুল ইসলাম, গৌরিপুরে মইলাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদ মুহাম্মদ জোসেফ উদ্দিন, গৌরীপুরে হযরত আলী, অচিন্তপুরে মোছা. জাহানারা বেগম, মাওহাতে নুর মোহাম্মদ কালন, ডৌহাখলায় শহীদুল হক সরকার, সহনাটিতে সালাউদ্দিন কাদের রুবেল, বোকাইনগরে মোহাম্মদ হাবিব উল্লাহ, রামগোপালপুরে আবুল হাসিম, ভাংনামারীতে নুরুল ইসলাম আকন্দ, সিধলাতে জয়নাল আবেদীন চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।

নেত্রকোনা

নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলার বড়কাশিয়া বিরামপুর ইউনিয়ন পরিষদে মোতাহার হোসেন চৌধুরী, বড়তলী বানিহারীতে মুখলেছুর রহমান, তেতুলিয়ায় শফিকুল ইসলাম চৌধুরী, মাঘান সিয়াধারে আবু বকর সিদ্দিক, সুয়াইরে কামরুল হাসান, গাগলাজুরে হাবিবুর রহমান, সমাজ সহিলদেও ইউনিয়ন পরিষদে আমিনুল ইসলাম খান সোহেল; খালিয়াজুরি উপজেলার চাকুয়ায় আবুল কালাম আজাদ, নগরে হরিধন সরকার, কৃষ্ণপুরে নাজিম উদ্দিন সরকার, গাজীপুরে আতাউর রহমান, সদর উপজেলার মদনপুরে কামরুজ্জামান চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন।



আরও খবর



পরিবহন ধর্মঘটের প্রভাব নিত্যপণ্যের বাজারে

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | ৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ডিজেল ও কেরোসিনের দাম বেড়ে যাওয়ায় দেশে চলছে অঘোষিত পরিবহন ধর্মঘট। শুক্রবার সকাল পরিবহন খাতের মালিক-শ্রমিকদের একাধিক সংগঠন যাত্রী-পণ্যবাহী যান বন্ধের ঘোষণা দেয়। পরিবহন ধর্মঘটে শুক্রবার থেকে কার্যত পুরো দেশ থমকে রয়েছে।

পরিবহন ধর্মঘটের প্রভাব পড়েছে সবজি-ফলমূলের বাজারে। ফলে ক্রেতাকে রাস্তায় চলাচলে ভোগান্তির পাশাপাশি চড়া দাম গুণতে হয়েছে শীতের সবজি কেনাকাটায়।

প্রকার ভেদে সবজি প্রতি ১০ থেকে ২০ টাকা বেড়েছে  দাম। এর মধ্যে কিছু সবজির দামে সেঞ্চুরি পেরিয়েছে। সবচেয়ে বেশি দামে শিম, টমেটো ও কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে যথাক্রমে ১৪০ থেকে ১৫০, ১২০ থেকে ১২৫ ও ১৫০ থেকে ১৬০ টাকায়। শনিবার (৬ নভেম্বর) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

যেখানে ফুলকপি ও বাঁধাকপি ৪০-৬০ টাকা (আকার ভেদে), কচুর লতি কেজি প্রতি ৫৫-৬০ টাকা, ধুন্দল ৬০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, মুলা-৬০ টাকা, শসা ৪০-৫০ টাকা, বেগুন ৬০-৭০ টাকা, ঢেড়শ ৬০-৭০ টাকা, শিম ১৪০-১৫০ টাকা, কাঁচা পেঁপে ৩০-৪০ টাকা এবং লাউ আকার ভেদে ৫০-৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া প্রতি কেজি টমেটো ১২০ টাকা, গাজর ১০০ টাকা, কাঁচা মরিচ ১৫০-১৬০ ও আলু দাম কিছুটা বেড়ে ২৮-৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অন্যদিকে দেশি পেঁয়াজ ৬০ টাকা, রসুন ১৩০-১৪০ টাকা ও আদা ১৩০-১৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বেড়েছে ডিমের দামও, ডজন প্রতি বিক্রি হচ্ছে ১১৫-১২০ টাকায়।

এ বিষয়ে সবজি বিক্রেতা উজ্জ্বল হোসেন বলেন, বাজারে সবজির কমতি নেই তারপর দামও কমছে না। আবার শুরু হয়েছে পরিবহন ধর্মঘট। দফায় দফায় দাম বাড়ছে। আমরা কি করবো? পাইকারি দাম বেশি হলে তার প্রভাব খুচরা বাজারেও পড়বে।

অন্যদিকে স্বস্তি নেই মুরগি বাজারেও। ব্রয়লার মুরগি কেজি প্রতি ১৬০-১৬৫ টাকা, সোনালী কক মুরগি বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ২৮০-৩০০ টাকা এবং দেশি মুরগি ৪০০-৪৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

অস্বস্তি শাকের বাজারেও। লালশাক, পালংশাক, মুলাশাক, সরিষা শাক ১০-২০ টাকা আঁটি, পুইশাক আটি প্রতি ২০ ও লাউশাক ৩০-৪০ টাকা দরে আঁটি বিক্রি হচ্ছে।

এ বিষয়ে রামপুরা বাজারের ক্রেতা রওনক হাসান বলেন, আমাদের মতো নিম্ন-মধ্যবিত্তরা চরম বিপাকে আছে। বাজারে কোনো পণ্যের দাম ঠিক থাকে না। যে যেমন খুশি জিনিসপত্র বেশি দামে বিক্রি করছে। সরকারের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। এবার সঙ্গে যোগ হয়েছে ধর্মঘট। তেলের দাম বৃদ্ধির অজুহাতে আবার সবকিছুর দাম বাড়বে। বেঁচে থাকাই  কঠিন হয়ে যাচ্ছে।



আরও খবর
আগামীকাল জাতীয় আয়কর দিবস

সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১




সাঈদীর পর মিজানুর রহমান আজহারীও যুক্তরাজ্যে নিষিদ্ধ

প্রকাশিত:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | ৩৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ, এই দেশে ঘৃণা ছড়ানো একটি মারাত্নক অপরাধ। ঘৃণা ছড়ায় এমন কাউকে আমরা এই দেশে প্রবেশ করতে দিতে পারি না

সর্বশেষ আইনি লড়াইয়েও হেরে গেলেন বাংলাদেশের বিতর্কিত ইসলামী বক্তা মিজানুর রহমান আজহারী। গত ১৮ অক্টোবর লন্ডনের হাইকোর্টে কুইন বেঞ্চ ডিভিশনে মিজানুর রহমান আজহারীর ব্রিটেনে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে করা মামলার জুডিশিয়াল রিভিউর শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। বিচারক জাস্টিন থ্রোনটন শুনানিশেষে আজহারীর ভিসা বাতিলের পক্ষে রায় দেন বলে একটি সূত্র জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, বিচারক জাস্টিন থ্রোনটন সাবেক লেবার পার্টির নেতা এড মিলিব্যান্ডের স্ত্রী। বিভিন্ন সূত্র মতে Authority to carry Scheme 2021 এর 14,e অনুযায়ী আজহারীর করা আবেদনটি খারিজ করে দেওয়া হয়। আজহারীর যুক্তরাজ্যে প্রবেশের ভিসা বাতিল নিয়ে বাংলাদেশি কমিউনিটিতে অক্টোবর থেকেই আলোচিত বিষয় ছিল। সর্বশেষ ব্রিটিশ পার্লামেন্টে এমপি বব ব্ল্যাকম্যান আজহারীর যুক্তরাজ্য সফরের নিষেধাজ্ঞা চেয়ে বক্তব্য রাখায় আরো বেশি গুরুত্ব পায়।

সংসদে দেওয়া তার বক্তব্যে বব বলেন, আজহারীর বক্তব্যে ব্রিটেনের মুসলিম কমিউনিটি বৃহৎ অংশ বিভ্রান্ত হতে পারে, সমাজে ঘৃণা ছড়াতে পারে, তাই তাকে ব্রিটেনে প্রবেশ করতে না দেওয়ার প্রস্তাব করেছিলেন। পার্লামেন্টে তার নির্ধারিত বক্তব্যে বলেছেন, বাংলাদেশের ঘৃণা ছড়ানো ইসলামিক বক্তা মাওলানা আজহারীকে লণ্ডনে রয়েল রিজেন্সী হলে ইসলামী কনফারেন্সে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল, সে যুক্তরাজ্যে আসার জন্য কাতারে এসে আটকে আছে। এরকম ঘৃণা ছড়ানো ব্যক্তি যে হিন্দু ও ইহুদি ধর্মের প্রতি ঘৃণা ছড়ায় তাকে ব্রিটেনে ঢুকতে দেওয়া ঠিক হবে না। মিজানুর রহমান আজহারী ব্রিটেনে ঢুকলে তার বক্তব্যের মাধ্যমে এখানকার শান্তিপ্রিয় বৃহৎ মুসলিম জনগোষ্ঠী ভুল তথ্য পেয়ে বিভ্রান্ত হতে পারে। এমনকি সে অনলাইনেও এই ধরনের ঘৃণা ছড়াতে পারে।

ব্ল্যাক ম্যান এমপি সংসদে মিজানুর রহমানের ভিসা বাতিল বহালের আলোচনার জন্য হোম সেক্রেটারী প্রীতি প্যাটেলের প্রতি আহবান জানিয়েছিলেন।

ব্ল্যাক ম্যান এমপির এই বক্তব্যের পর সংসদ লিডার স্যার জ্যাকব রিস বলেন, বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ, এই দেশে ঘৃণা ছড়ানো একটি মারাত্নক অপরাধ। ঘৃণা ছড়ায় এমন কাউকে আমরা এই দেশে প্রবেশ করতে  দিতে পারি না। ঘৃণা ছড়ানোর বিরুদ্ধে আমাদের একটি অবস্থান রয়েছে সেটার ভিত্তিতে হোম সেক্রেটারীর কাছে বিষয়টি অবগত করা হয়েছে।

অন্যদিকে আজহারীকে ব্রিটেনে নিয়ে আসতে আয়োজক, আতাউল্লাহ ফারুক একটি পিটিশন ক্যাম্পেইন শুরু করেছিলন। মিজানুর রহমান আজহারী নিজে ও তার ফেসবুকে এই সংক্রান্ত একটি বক্তব্য প্রচার করে পিটিশনে তার পক্ষে স্বাক্ষর দেওয়ার অনুরোধ জানান, সর্বশেষ সেখানে প্রায় ৩৯ হাজার মানুষ স্বাক্ষর করেন। তবে এতো কিছু করেও শেষ রক্ষা হয়নি আজহারীর। গত ৩১ অক্টোবর একটি ইসলামী কনফারেন্সে যোগ দিতে মালয়েশিয়া থেকে লন্ডনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছিলেন মিজানুর রহমান আজহারী। কিন্তু লন্ডনে আসার পথে কাতারে ট্রানজিটে আটকা পড়েন মিজানুর রহমান আজহারী। কাতারের ইমিগ্রেশন থেকে আজহারীকে লন্ডনের বিমানে উঠতে দেওয়া হয়নি। দুই দিন দেন দরবারের পরে ব্রিটিশ সরকার তার ভিসা বাতিল করে দেয়। বাতিল করা ভিসা বহালের জন্য লণ্ডনে আজহারীর পক্ষে আইনি লড়াই চালিয়েছিলেন আয়োজকগণ। যদিও ব্রিটেনে যে অনুষ্ঠানে মিজানুর রহমান আজহারী উপস্থিত থাকার কথা সেই অনুষ্ঠান আয়োজক আইওন টিভি অনুষ্ঠানটি স্থগিত ঘোষণা করেছে।

এই ব্যাপারে হোম অফিসের মিডিয়া এন্ড প্রেস অফিসে যোগাযোগ করা হলে তারা এই বিষয়ে কোনো তথ্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। মিজানুর রহমান আজহারীর বিষয়টি নিয়ে তাদের কাছে আরো অনেকেই জানতে চেয়েছে। কিন্তু বাধ্যবাধকতা থাকায় তার কোনো তথ্য দেয়নি। আমন্ত্রণকারীদের পক্ষ থেকেও কোনো ধরনের স্বচ্ছ ধারণা না দেওয়াতে নানা রকম আলোচনা সমালোচনা চলছিল।

লন্ডনের আয়োজকগণ আইনিভাবে আজহারীর যুক্তরাজ্য সফর নিশ্চিত করতে চেয়েছিলেন এবং জরুরী জুডিশিয়াল রিভিউর আবেদন করেছিলেন এবং ভার্চুয়াল আদালতে তার শুনানি হয়। বিচারক ব্রিটেন প্রবেশে আজহারীর ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি বহাল রাখেন। ভিন্ন ধর্ম সম্পর্কে ঘৃণা ছড়ানোর অভিযোগে যুক্তরাজ্যে নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয় আজহারীকে। গত ১৮ নভেম্বর হাইকোর্টের রায়ের বিষয়ে জানতে চাইলে আইওন টিভির সিইও আতাউল্লাহ ফারুক কোনো মন্তব্য করতে রাজী হননি। তিনি বলেন, যেহেতু আইনি বিষয়, আমার আইনজীবীরও নিষেধ আছে এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে।

গত ৩১ অক্টোবর রবিবার থেকে লণ্ডনসহ ব্রিটেনের ৬টি শহরে ইসলামী বক্তব্যের আয়োজন করা হয় ব্রিটেনের আইওন টিভির পক্ষ থেকে। এই অনুষ্ঠান উপলক্ষে সারা ব্রিটেনের বিভিন্ন শহরে ১৫ পাউন্ড থেকে ১০০ পাউণ্ডের মূল্যের ১২ হাজার টিকিট বিক্রি হয়েছিল।

মিজানুর রহমান আজহারীর যুক্তরাজ্যে সফরের সংবাদ প্রকাশের পর থেকেই কমিউনিটিতে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ছিল। অনেকেই আয়োজক আইওন টিভির ব্যানারে আজহারীর আগমনকে স্বাগত জানিয়েছেন আবার একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি থেকে শুরু করে প্রগতিশীল ও মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের অনেক মানুষ আজহারীর সফরের বিরোধীতা করে আসছিলেন। অনেকেই ব্রিটিশ এমপি থেকে শুরু করে হোম অফিসসহ বিভিন্ন সংশ্লিষ্ট জায়গায় মিজানুর রহমান আজহারীর বিভিন্ন বক্তব্য যেখানে অন্য ধর্মকে আঘাত করা হয়েছে, যেসব বক্তব্য ঘৃণা ছড়ায় এমন সব ভিডিও পাঠানো হয়েছে। এমনকি আজহারীর ওপর হযরত মোহাম্মদ (সা.) কে অবমাননা করে বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগও আছে।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০০৬ সালে, যুক্তরাজ্যে তৎকালীন ৪ দলীয় জোটের সরকারের সংসদ সদস্য থাকা অবস্থায় বর্তমানে যুদ্ধাপরাধ ও মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত দেলোয়ার হোসেন সাঈদীকেও যুক্তরাজ্যে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল দেশটির প্রশাসন।


আরও খবর



তৃতীয় ধাপে এক হাজার ইউপিতে ভোটগ্রহণ চলছে

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ | ২৮৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

তৃতীয় ধাপে ৯৮৬ ইউনিয়ন পরিষদ ও নয় পৌরসভা নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে। রবিবার সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়, একটানা চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

৩৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) , বাকি ৯৫৩টিতে কাগজের ব্যালটে ভোটগ্রহণ চলছে।

এ ধাপে এক হাজার ইউনিয়ন পরিষদে ভোট হওয়ার কথা ছিল। একশজন চেয়ারম্যানসহ ৫৬৯ জন সাধারণ ও সংরক্ষিত নারী সদস্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় পাওয়ায় সংশ্লিষ্ট পদগুলোয় ভোটের প্রয়োজন হচ্ছে না। এর মধ্যে চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলার ১৪টিতে চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্যরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতা জয় পেয়েছেন।

ইসির তথ্য অনুযায়ী, তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৫০ হাজার ১৪৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এর মধ্যে চেয়ারম্যান ৪ হাজার ৪০৯ জন, সংরক্ষিত সদস্য ১১ হাজার ১০৫ ও সাধারণ সদস্য ৩৪ হাজার ৬৩২ জন। এতে ভোটকেন্দ্র ১০ হাজার ১৫৯ ও ভোটকক্ষ ৬১ হাজার ৮৩০টি। ভোটার রয়েছেন ২ কোটি ১ লাখ ৪৯ হাজার ২৭৮ জন। এ ধাপে ভোটের আগেই জয় পেয়েছেন ৫৬৯ জন প্রার্থী। গত চার ধাপের মধ্যে এ ধাপেই সবচেয়ে বেশিসংখ্যক জনপ্রতিনিধি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় পেলেন। তাদের মধ্যে ১০০ জন চেয়ারম্যান রয়েছেন। এছাড়া সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ১৩২ এবং সাধারণ সদস্য পদে ৩৩৭ জন রয়েছেন।

ইসি সূত্রে জানা যায়, তৃতীয় ধাপের ভোটগ্রহণ উপলক্ষ্যে শনিবার পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি ও কোস্টগার্ড সদস্যরা মাঠে নেমেছেন। প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদের পুলিশের একটি মোবাইল ফোর্স ও প্রতি তিন ইউনিয়ন পরিষদের জন্য একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স রয়েছে।

সূত্র জানায়, তৃতীয় ধাপে ৬২ জেলার ১২২ উপজেলায় আজ ভোট হচ্ছে। ইতোমধ্যে স্থানীয় প্রশাসনের চাহিদা অনুযায়ী ২১ জেলায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নির্ধারিত হারের অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এর মধ্যে মুন্সীগঞ্জে ২৪ প্লাটুন, কক্সবাজারে ১২ প্লাটুন, চাঁদপুরে ১০ প্লাটুন অতিরিক্ত বিজিবি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এরপরও অনেক জেলায় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংসতার আশঙ্কা রয়েছে ভোটারদের মধ্যে।

তৃতীয় ধাপের ভোট সুষ্ঠু হবে-এমন প্রত্যাশা করলেও সহিংসতার আশঙ্কা উড়িয়ে দেননি নির্বাচন কমিশন সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন প্রত্যাশা করে ভোট ভালো হবে। এই মুহূর্তে কোনো আশঙ্কা নেই। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ডোর টু ডোর, বাড়ি-বাড়ি ও পাড়ায়-পাড়ায় প্রতিযোগিতা হয়। যে কোনো মুহূর্তে যে কোনো ঘটনা ঘটতে পারে। এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও জেলা প্রশাসনকে নির্দেশনা দেওয়া আছে। আশা করি গ্রহণযোগ্য ভোট হবে।


আরও খবর



সৌদিকে ৫৫০০ কোটি টাকার ক্ষেপণাস্ত্র দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৫ নভেম্বর ২০২১ | ৪৯৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সৌদি আরবের কাছে ৬৫ কোটি মার্কিন ডলার মূল্যের ক্ষেপণাস্ত্র বিক্রির অনুমোদন দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। জো বাইডেন প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর এই প্রথম কোনো মধ্যপ্রাচ্যের রাষ্ট্রের কাছে অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন দিল দেশটি। এক ঘোষণায় মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতর পেন্টাগন এ তথ্য জানিয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে আল জাজিরা।

গতকাল বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে পেন্টাগন জানায়, সৌদি আরবের বর্তমান ও ভবিষ্যত হুমকি মোকাবিলায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এই অনুমোদন দিয়েছে। প্রস্তাবিত এই অস্ত্র বিক্রি যুক্তরাষ্ট্রের বৈদেশিক নীতিমালার ও নিরাপত্তার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সৌদি আরব মধ্যপ্রাচ্যের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, মধ্য পালার এআইএম-১২০সি-৭/সি-৮ মডেলের এয়ার-টু-এয়ার ক্ষেপণাস্ত্রগুলো ৬৫ কোটি ডলারে বিক্রি করছে যুক্তরাষ্ট্র। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ৫ হাজার ৫৭৬ কোটি ৪০ লাখ ৫৯ হাজার টাকা।

পেন্টাগণের বিবৃতির পর মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় টুইটারে জানায়, এই ক্ষেপণাস্ত্র স্থলে কোনো লক্ষ্যবস্তুতে হামলা করার জন্য ব্যবহৃত হবে না। সম্প্রতি সীমান্তের ওই পাশ থেকে বেশকিছু হামলার ঘটনা ঘটেছে সৌদি আরবে। নতুন এই এআইএম-১২০সি-৭/সি-৮ মডেলের এয়ার-টু-এয়ার ক্ষেপণাস্ত্রগুলো সেসব হামলা প্রতিহত করতে সাহায্য করবে। এতে সৌদিতে থাকা প্রায় ৭০ হাজার মার্কিন নাগরিক নিরাপদে থাকবে।


আরও খবর