আজঃ শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

সূচকের উত্থানে শেষ হলো পুঁজিবাজারে লেনদেন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বৃহস্পতিবার শেয়ার বিক্রির চাপে শুরুতে সূচক পতন হয়। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সূচক বাড়তে শুরু করে। সবচেয়ে বেশি সূচক বাড়ে দিনের শেষ ঘণ্টায়। এসময়ে ব্যাংক খাতের শেয়ার বৃদ্ধির ফলে সূচকের উত্থানের মধ্যদিয়ে দিনের লেনদেন শেষে হয়। ফলে বৃহস্পতিবার দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচক বেড়েছে ৬২ পয়েন্ট। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক বেড়েছে ১৫২ পয়েন্ট।

বুধবারের মতই এদিন ডিএসইতে ব্যাংক খাতের ৩২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ২২টির, কমেছে দুটির, আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৮ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম। এছাড়াও গ্রামীণফোন, বার্জার পেইন্টস এবং স্কয়ার ফার্মা এবং ইবনে সিনাসহ বড় মূলধনী কোম্পানির দাম বেড়েছে। আর তাতে পুঁজিবাজারে বড় উত্থান হয়েছে।

ডিএসইর তথ্য মতে, বুধবার বাজারে মোট ৩৭৪টি প্রতিষ্ঠানের ৬২ কোটি ৪২ লাখ ৮১ হাজার ৮৮১টি শেয়ার হাত বদল হয়েছে। এর মধ্যে ১৭৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ১৭৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টির।

আজ ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৬৯৬ কোটি ৫৮ লাখ ২৫ হাজার টাকা। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ৫৫৫ কোটি ৫২ লাখ ৬৪ হাজার টাকা। অর্থাৎ আগের দিনের চেয়ে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে।

এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ৬২ দশমিক ৪২ পয়েন্ট বেড়ে ৭ হাজার ২৫৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রধান সূচকের পাশাপাশি ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২০ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৫৯২ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৩৩ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ৬৪৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৫২ পয়েন্ট বেড়ে ২০ হাজার ১৩১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৩২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৪৪টির শেয়ারের দাম বেড়েছে। কমেছে ১৬৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২১টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। এ বাজারে লেনদেন হয়েছে ৯৬ কোটি ৭৩ লাখ ১৮ হাজার ২১৩ টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৮৪ কোটি ৪৪ লাখ৫৬ হাজার ৪৫২ টাকা।


আরও খবর
পুঁজিবাজারে সূচকের মিশ্র প্রবণতা

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




সাকিবকে ছাড়িয়ে যাওয়ার অপেক্ষায় পরীমনি

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশ ক্রিকেটের অন্যতম সেরা তারকা সাকিব আল হাসান। শুধু বাংলাদেশেরই নয়, গোটা বিশ্বের ক্রিকেট আইকন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

অন্যদিকে সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে বেশি আলোচিত চিত্রনায়িকা পরীমনি। যাকে ঘিরে গত দু মাস ধরে নিয়মিত সংবাদ প্রকাশ হচ্ছে। ঢাকাই ছবির এই চিত্রনায়িকা শিগগিরই ছুঁয়ে ফেলতে যাচ্ছেন সাকিব আল হাসানকে। হয়ত সাকিবকে ছাড়িয়েও যাবেন অচিরেই।

প্রশ্ন উঠতে পারে, একজন খেলোয়াড়ের সঙ্গে একজন অভিনয়শিল্পীর প্রতিযোগিতা কী করে হচ্ছে? কোনো দিক দিয়ে ২২ গজের তারকাকে ছাড়িয়ে যাচ্ছেন রূপালি পর্দার গ্ল্যামার কুইন! দুজনের ক্ষেত্র দুটি সম্পূর্ণ আলাদা।

অবশ্য একটি জায়গায় একে অপরকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। সেটা হলো বাংলাদেশে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ফেসবুকে। দুজনেই ফেসবুকে বেশ সক্রিয়। ফেসবুকে বাংলাদেশিদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রায় দেড় কোটি ফলোয়ার সাকিব আল হাসানের।

দেখা যাচ্ছে, এই মুহূর্তে ফলোয়ারের সংখ্যায় সাকিবের কাছাকাছি চলে এসেছেন পরীমনি। খুব দ্রুতগতিতেই এগুচ্ছে তার ফলোয়ার সংখ্যা।

মঙ্গলবার রাত দেড়টা পর্যন্ত ফেসবুক পেজে সাকিব আল হাসানের ফলোয়ার সংখ্যা ১ কোটি ৪৮ লাখ ৯৮ হাজার ৮৮৫। অন্যদিকে একই সময়ে পরীমনির ফলোয়ার সংখ্যা ১ কোটি ৪৪ লাখ ৮ হাজার ২২১। অর্থাৎ ৪ লাখ ৯০ হাজার ৬৬৪ পিছিয়ে পরীমনি।

এ সংখ্যা অনেক হলেও সম্প্রতি পরীমনির ফলোয়ার যে হারে বাড়ছে তাতে সাকিবকে কম সময়ের মধ্যে ধরে ফেলা অসম্ভবের কিছু নয়।

গত কয়েক মাসে তেমনটাই দেখা গেছে। ফলোয়ার বাড়ার হারে সাকিবের চেয়ে এগিয়েছিলেন পরীমনি। চলতি বছরের জুনের প্রথম দিকেও বিশ্বসুন্দরী’খ্যাত নায়িকার ফলোয়ার সংখ্যা ছিলো ১ কোটি ১৭ লাখ।

এরপর গত ৭ জুনের বোটক্লাব কাণ্ড ও ৪ আগস্ট র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়ে কারাবরণের পর হু হু করে বেড়েছে এ নায়িকার ফ্যান-ফলোয়ারের সংখ্যা।

এই সময়ের মধ্যেই পরীমনি ছাড়িয়ে যান সাকিবের সতীর্থ আরেক ক্রিকেট তারকা মুশফিকুর রহিমকে। মিস্টার ডিপেন্ডেবলের ফেসবুক ফলোয়ার সংখ্যা এখন ১ কোটি ২৯ লাখ ৯৩ হাজার ৭১৯ জন।


আরও খবর
আক্রমণাত্মক মন্তব্যের শিকার নুসরাত

শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

হাইকোর্টে জামিন পেলেন মডেল মৌ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ১৬৩ জন হাসপাতালে

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১৬৩ জন ডেঙ্গু রোগী বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। হাসপাতালে ভর্তি হওয়া অধিকাংশ রোগীই রাজধানীর বাসিন্দা। এখন পর্যন্ত এ বছর ডেঙ্গুতে না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন ৫৭ জন।

শুক্রবার বিকেলে সারা দেশের পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের নিয়মিত ডেঙ্গু বিষয়ক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে নতুন ১৬৩ জন ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১৪০ জন। ঢাকার বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২৩ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ১৬৩ জন নিয়ে বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ভর্তি থাকা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১৯১ জনে। ঢাকার ৪১টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৯৮৮ জন এবং অন্যান্য বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি আছেন ২০৩ জন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত হাসপাতালে সর্বমোট রোগী ভর্তি হয়েছেন ১৫ হাজার ২২৮ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১৩ হাজার ৯৮০ জন রোগী। ডেঙ্গুতে এ সময়ে ৫৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।


আরও খবর
করোনায় আরও ৩১ জনের মৃত্যু

শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১




পাঁচ বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৪০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৭৭৯ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম ৫টি বিদ্যুৎকেন্দ্র উদ্বোধন করেছেন। রবিবার সকাল ১০টায় গণভবন থেকে ভিডিওকনফারেন্সের মাধ্যমে এই বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো উদ্বোধন করেন তিনি।

বিদ্যুৎকেন্দ্র পাঁচটি হচ্ছে- হবিগঞ্জের জুলদায় বিবিয়ানা-৩ ৪০০ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎকেন্দ্র, চট্টগ্রাম ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্র ইউনিট-২, নারায়ণগঞ্জে মেঘনাঘাট ১০৪ মেগাওয়াট পাওয়ার প্লান্ট, বাগেরহাটে মধুমতি ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্র এবং সিলেটের ১৫০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে ১৫০ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎ কেন্দ্রে উত্তরণ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ ভবনের বিজয় হল থেকে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ ও জ্বালানি উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী বীর বিক্রম, বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান ওয়াসেকা আয়েশা খান, জ্বালানি বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আনিসুর রহমান, বিদ্যুৎ সচিব মো. হাবিবুর রহমান ও বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি)'র চেয়ারম্যান এবং গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস উপস্থিত ছিলেন।

বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, ২০০৯ সালে কাজ শুরুর পর সরকার সফলভাবেই ২০ হাজার ২৯৩ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনে সক্ষম ১১৯টি বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে সরকার ২০২১ সাল নাগাদ ২৪ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা গ্রহণ করেছিল। তবে এরই মধ্যে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি বিদ্যুৎ উৎপাদিত হয়েছে।  বিদ্যুৎ উৎপাদন ২৫ হাজার ২৩৫ মেগাওয়াটে পৌঁছেছে- যা ২০০৯ সালে ছিল ৪ হাজার ৯৪২ মেগাওয়াট। 


আরও খবর



নতুন চমক নিয়ে আসছেন নুসরাত ফারিয়া

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬২০জন দেখেছেন
এস এম মনির

Image

ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা নুসরাত ফারিয়া। নানান গুণে গুণান্বিত তিনি। অভিনয়ের বাইরে ২০১৮ সালে পটাকা শিরোনামের গান দিয়ে সংগীতাঙ্গনে তার যাত্রা শুরু হয়। প্রথম গান মুক্তি পর অনেক আলোচনা-সমালোচনা হয় নেট দুনিয়ায়।

এরপর নিজের গাওয়া দ্বিতীয় আমি চাই থাকতে গান নিয়ে দর্শক-শ্রোতাদের সামনে হাজির হন তিনি। এই গানটিতে সমালোচকদেরও কণ্ঠে মেলে স্তুতিবাক্য। এছাড়াও নুসরাত গেয়েছেন শিহাব শাহীনের ওয়েব ছবি যদি কিন্তু তবুওতেও। এবার আসছে এই নায়িকা-গায়িকার আরও একটি গান।

গতকাল শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) গানটির রেকর্ডিং হয়েছে । করোনাকালে নতুন গানটি নিয়েই ব্যস্ত ছিলেই তিনি। গত ছয় মাস ধরেই চলছে গানটির কাজ। তিনি বললেন, আমরা প্রায় ছয় মাস ধরে গানটির কাজ করছি। এর সংগীতায়োজন থেকে শুরু করে ভিডিওতেও থাকবে বিশেষ চমক।

জানা যায়, গানটিতে ভারতের একটি টিম কাজ করবে। বিশেষ করে ফারিয়ার শেষ মিউজিক ভিডিও আমি চাই থাকতের টিমের অনেকেই এর পেছনে থাকবেন।


আরও খবর
আক্রমণাত্মক মন্তব্যের শিকার নুসরাত

শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

হাইকোর্টে জামিন পেলেন মডেল মৌ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




ম্যাগসেসে পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশের বিজ্ঞানী ড. ফেরদৌসী কাদরী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ আগস্ট ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ৩১ আগস্ট ২০২১ | ৭২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image
ড. ফেরদৌসী ২০১৪ সালে ইনস্টিটিউট ফর ডেভেলপিং সায়েন্স অ্যান্ড হেলথ ইনিশিয়েটিভস প্রতিষ্ঠা করেন। এখানে বায়োমেডিকেল গবেষণা, ট্রেনিং কোর্স ও টেস্টিং সেন্টার পরিচালনা করা হয়

এশিয়ার নোবেল খ্যাত র‌্যামন ম্যাগসেসে ২০২১ পুরস্কার পেয়েছেন আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশের (আইসিডিডিআর,বি) জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞানী ড. ফেরদৌসী কাদরী। র‌্যামন ম্যাগসেসের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

ড. ফেরদৌসী ১৯৮৮ সালে আইসিডিডিআর,বিতে যোগ দেন। 'সংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণ, ইমিউনোলোজি, টিকার উন্নয়ন ও ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের ওপর ড. ফেরদৌসীর অবদান আছে' উল্লেখ করে র‌্যামন ম্যাগসেসের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে আরও জানানো হয়েছে নিরাপদ পানি, স্যানিটেশন, শিক্ষা ও চিকিৎসার কম সুযোগ-সুবিধার কারণে এশিয়া ও আফ্রিকার দেশগুলোর প্রধান রোগ কলেরা ও টাইফয়েড। ড. ফেরদৌসী রোগ দুইটি নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।

সাশ্রয়ী মূল্যে ওরাল কলেরা ভ্যাকসিন (ওসিভি) ও প্রাপ্তবয়স্ক, শিশু এমনকি নয় মাস বয়সী শিশুদের জন্য টাইফয়েডের টিকা (ভিআইটিসিভি) তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন তিনি।

ড. ফেরদৌসী ২০১৪ সালে ইনস্টিটিউট ফর ডেভেলপিং সায়েন্স অ্যান্ড হেলথ ইনিশিয়েটিভস প্রতিষ্ঠা করেন। এখানে বায়োমেডিকেল গবেষণা, ট্রেনিং কোর্স ও টেস্টিং সেন্টার পরিচালনা করা হয়। এটি বাংলাদেশের স্থানীয় ও ভিজিটিং বিজ্ঞানীদের কাজের একটি কেন্দ্র হিসেবে পরিচিত।

এশিয়ায় দারিদ্র্য বিমোচন ও সমাজ উন্নয়নে অসাধারণ অবদান রাখা ব্যক্তিদের প্রতিবছর ম্যাগসেসে পুরস্কার দেওয়া হয়। ড. ফেরদৌসী কাদরী ছাড়াও এবারের পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন পাকিস্তানের মুহাম্মদ আমজাদ সাদিক, ফিলিপাইনের রবার্তো ব্যালন, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার স্টিভেন মানসি ও ইন্দোনেশিয়ার প্রতিষ্ঠান ওয়াচডক।

শাসনে সততা, জনগণের প্রতি সাহসী সেবা ও একটি গণতান্ত্রিক সমাজে বাস্তববাদী আদর্শকে চিরস্থায়ী করার জন্যে ফিলিপাইনের সাবেক প্রেসিডেন্ট র‌্যামন ম্যাগসেসের যে অবদান তা স্মরণ করে রাখতে এই পুরস্কারের প্রবর্তন করা হয়।

ফিলিপাইন সরকারের সম্মতিতে নিউইয়র্ক সিটিতে অবস্থিত রকফেলার ব্রাদার্স ফান্ডের ট্রাস্টিরা ১৯৫৭ সালের এপ্রিলে ম্যাগসেসে পুরস্কারটি প্রবর্তন করেন।


আরও খবর