আজঃ সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১
শিরোনাম

তেজগাঁওয়ে বহুতল ভবনে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর ২০২১ | ২২৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাজধানীর তেজগাঁওয়ে চ্যানেল ২৪ ভবনের পাশে একটি বহুতল ভবনে বৃহস্পতিবার দুপুরে আগুন লেগেছে।

খবর পেয়ে তেজগাঁও এবং মোহাম্মদ ফায়ার সার্ভিস অফিস থেকে ৫টি ইউনিট দ্রুত আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে।

দুপুর ১টা ১৫ মিনিটের দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে বলে জানান তেজগাঁও ফায়ার সার্ভিস অফিসের কর্মকর্তা মো, শাহরিয়ার অপু।

ফায়ার সার্ভিসের সদর দপ্তরের ফায়ার ফাইটার মো. আনিসুর রহমান জানান, দুপুর পৌনে ১টার দিকে তেজগাঁওয়ে চ্যানেল ২৪ ভবনের পাশে একটি পরিত্যক্ত ১০ তলা ভবনের নিচতলায় রাখা মালামালে আগুন লাগে।

খবর পেয়ে তেজগাঁও থেকে ৩টি এবং মোহাম্মদপুর থেকে দুটি ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট গিয়ে আধাঘণ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তাৎক্ষণিকভাবে এতে কোনো হতাহতের খবর পাওয় যায়নি বলে জানান ওই ফায়ার সার্ভিসকর্মী। 


আরও খবর
মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৪৬

সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১




বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেলেন সাকিব

প্রকাশিত:রবিবার ৩১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ৩১ অক্টোবর ২০২১ | ৫১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

উইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচেই চোটে পড়েছিলেন, সেই চোটের কারণেই চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকেই ছিটকে গেলেন বাংলাদেশ দলের তারকা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশের বাকি দুই ম্যাচেই খেলা হবে না বিশ্বসেরা এই তারকার।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বিসিবির এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সাকিবের ম্যাচ খেলার মত অবস্থা নেই। তার চোটের উন্নতি হয়নি। ম্যাচ খেলার মত ফিট নয় সে।

শুধু সাকিব একা নন, উইকেটরক্ষক ব্যাটার নুরুল হাসান সোহানও ইনজুরি আক্রান্ত। তাকেও রেস্টে রাখা হয়েছে। বিসিবির ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সোহনকে এক নভেম্বর পর্যন্ত পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। তারপর মেডিকেল টিম তাঁর ব্যাপারে ডিসিশন নিবে যে, তিনি খেলার জন্য ফিট কিনা।

অন্যদিকে, হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি আক্রান্ত সাকিবকে ৪৮ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখার পর বিসিবি মেডিকেল টিম জানায়, সাকিবের চোট সেরে ওঠেনি। পরের দুই ম্যাচে কোনোভাবেই তার খেলার সম্ভাবনা নেই। সোমবার কিংবা পরশু ম্যাচের দিন সাকিব হোটেল ছাড়বেন। যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের কাছে চলে যাবেন।

বিসিবির জানানো তথ্য মতোই সোমবার অথবা মঙ্গলবার সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের কাছে চলে যাবেন সাকিব।

এর আগে শুক্রবার (২৯ অক্টোবর) ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেলার সময় হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পান সাকিব। যদিও সেই চোট নিয়েই ব্যাটিং ও বোলিংয়ের গুরুদায়িত্ব পালন করেন তিনি। মেডিকেল টিম তাকে দুই দিন পর্যবেক্ষণে রাখে।

এদিকে বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারকে ছাড়াই আগামী ২ নভেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকা ও ৪ নভেম্বর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এবারের বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ দুটি ম্যাচে মাঠে নামবে বাংলাদেশ দল। সুপার টুয়েলভে টানা তিন ম্যাচেই হেরে এখন আনুষ্ঠানিকতা সারার অপেক্ষায় রিয়াদ বাহিনী।

নিউজ ট্যাগ: সাকিব আল হাসান

আরও খবর
হারের শঙ্কায় টাইগাররা

সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১




হেফাজত মহাসচিব মাওলানা নুরুল ইসলাম মারা গেছেন

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ | ২২০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা নুরুল ইসলাম জিহাদী আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার (২৯ নভেম্বর) দুপুর সোয়া ১২টার দিকে তিনি মারা যান। হেফাজতে ইসলামের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর মোহাম্মদ ইদ্রিস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাত ৯টার দিকে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর অবস্থার অবনতি হলে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। তার আগে শনিবার অনুষ্ঠিত ওলামা মাশায়েখ সম্মেলন বাস্তবায়নে নিয়ে কর্মব্যস্ত ছিলেন নুরুল ইসলাম। সম্মেলন শেষে মাদরাসায় ফেরার পথে গাড়ির মধ্যেই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপর দ্রুত তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

নুরুল ইসলাম জিহাদী শিক্ষাজীবন শেষে পটিয়া থানার কৈয়গ্রাম মাদরাসায় শিক্ষক হিসেবে প্রথম যোগদান করেন। ওই মাদরাসায় এক বছর শিক্ষকতার পর বাবুনগর মাদরাসায় শিক্ষক হিসেবে নিয়োজিত হন। এরপর বাবুনগর মাদরাসায় শিক্ষকতার কয়েক বছর পর ঢাকার আশরাফুল উলুম বড় কাটারা মাদরাসায় ১৯৮২ সাল পর্যন্ত অধ্যাপনা করেন। এ সময়ে তার বাবার মৃত্যুর পর তিনি নিজ বাড়িতে চলে যান এবং পুনরায় বাবুনগর মাদরাসায় যোগদান করেন।

১৯৮৪ সালের ১০ জুলাই তিনি ঢাকার খিলগাঁও-এ আল জামিয়াতুল ইসলামিয়া মাখজানুল উলুম প্রতিষ্ঠা করেন। আমৃত্যু তিনি এই মাদরাসার মহাপরিচালক ও শায়খুল হাদিস হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন। পাশাপাশি তিনি দারুল উলুম হাটহাজারীর মজলিসে শূরা এবং বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা ও আমেলার গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০২০ সালের ২৬ ডিসেম্বর তিনি হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব নির্বাচিত হন।


আরও খবর



দ্রুত নিষ্পত্তির উদ্যোগ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের

এক লাখ মামলার জালে সরকার

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ | ৩৩০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সরকারের মাথার ওপর বছরের পর বছর ঝুলছে প্রায় এক লাখ (৯৪ হাজার ১৫০) মামলা। এসব মামলায় সরকারের গুরুত্বপূর্ণ নীতিনির্ধারণী বিষয়ের সঙ্গে রাষ্ট্রের কয়েক হাজার কোটি টাকার স্বার্থ জড়িত। রাষ্ট্রপক্ষের সক্রিয় উদ্যোগের অভাবে মামলাগুলো সহজেই নিষ্পত্তি হচ্ছে না। এতে সুযোগ নিচ্ছে অনেক স্বার্থান্বেষী মহল। শুধু তাই নয়, অর্থসংক্রান্ত মামলার ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপক্ষের আইন কর্মকর্তারাও বিরোধী পক্ষকে সহযোগিতা করছেন-এমন অভিযোগ সংশ্লিষ্টদের।

এসব চক্র ভেঙে মামলা পরিচালনার যাবতীয় কার্যক্রম দ্রুত সম্পন্ন করতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এরই অংশ হিসাবে ইতোমধ্যেই মন্ত্রিপরিষদ সচিবের নেতৃত্বে একটি উচ্চ পর্যায়ের আন্তঃমন্ত্রণালয়ের কমিটি কাজ শুরু করেছে। কমিটির প্রথম বৈঠকে মন্ত্রিপরিষদ সচিব সব মামলার তথ্য একটি সফটওয়্যারের মাধ্যমে ব্যবস্থাপনার নির্দেশ দিয়েছেন। এটি তৈরির প্রাথমিক কাজ চলছে। এতে প্রত্যেকটি মামলার প্রথমে থেকে সর্বশেষ সব তথ্য-উপাত্ত সংযোজন করা হবে। সংশ্লিষ্ট মামলা নিয়ে আইন কর্মকর্তারা আপডেট থাকবেন। ফলে কেউ তথ্য গোপন করে আদালতকে বিভ্রান্ত করতে পারবে না।

সূত্র জানায়, সরকারের সব মন্ত্রণালয়-বিভাগ এবং ৬৪টি জেলার মামলা সম্পর্কিত সব তথ্য এখন মন্ত্রিপরিষদের হাতে। এর আগে সরকারি মামলা নিয়ে এত বড় উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। গত বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে ৮ সচিবের উচ্চ পর্যায়ের একটি বৈঠক সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের ৯৪ হাজার ১৫০টি অনিষ্পন্ন মামলার তথ্য উপস্থাপন করা হয়। এর মধ্যে প্রায় দুই হাজার মামলাকে অতি গুরুত্বপূর্ণ মামলা হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

গুরুত্বপূর্ণ মামলা বাছাইয়ের ক্ষেত্রে কয়েকটি মানদণ্ড ঠিক করা হয়েছে। এর মধ্যে অতি গুরুত্বপূর্ণ মামলার তালিকায় রয়েছে-আইন, অধ্যাদেশ, রাষ্ট্রপতির আদেশ, বিধি, প্রবিধি এবং সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পরিপত্র ও নীতিমালাকে চ্যালেঞ্জ। আরও আছে-ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক অবস্থানগত গুরুত্ব বিবেচনার সরকারি সম্পত্তি সংক্রান্ত মামলা। জাতীয়ভাবে গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প, সরকারের অগ্রাধিকার প্রকল্প, কেপিআই সংক্রান্ত মামলা। গণমাধ্যমে বহুল আলোচিত মামলাগুলোকেও অতি গুরুত্বপূর্ণ তালিকার মামলায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

অন্যদিকে ক্রয়, ইজারা, লিজ, নিলাম, ক্ষতিপূরণ, বকেয়া ও আর্থিক দাবি সংক্রান্ত মামলাগুলো সাধারণ তালিকায় থাকছে। তবে এগুলোর মধ্যে বিপুল আর্থিক মূল্য আছে-এমন মামলাকে গুরুত্বপূর্ণ তালিকায় রাখা হচ্ছে। এছাড়া চাকরি সংক্রান্ত ব্যক্তিগত প্রতিকার, উন্নয়ন প্রকল্প থেকে রাজস্ব খাতে স্থানান্তর বিষয়ক মামলাগুলোকেও সাধারণ তালিকায় রাখা হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ১৬ হাজার ৭৩টি মামলার বেড়াজালে আছে অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ। অন্যদিকে মাত্র ২টি মামলা নিয়ে সর্বনিম্নে রয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ। আর এক হাজারের বেশি মামলা আছে এমন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সংখ্যা ১৬টি। এর মধ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগের মামলা ১১ হাজার ৪০৫টি, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের ১১ হাজার ৩৮৬টি, জননিরাপত্তা বিভাগের ৫ হাজার ৩৮টি, অর্থ বিভাগের পাঁচ হাজার ১০টি, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ৪ হাজার ৬০৩টি। এর বাইরেও হাজারের বেশি মামলা থাকা দপ্তরগুলোর মধ্যে রয়েছে, রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার, সড়ক পরিবহণ ও মহাসড়ক বিভাগ, ঢাকার বিভাগীয় কমিশনার, দুর্নীতি দমন কমিশন, পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ, খাদ্য মন্ত্রণালয় ও কৃষি মন্ত্রণালয়।

সংশ্লিষ্টদের অভিযোগ, এতদিন সরকার সংশ্লিষ্ট মামলা ব্যবস্থাপনায় কেন্দ্রীয় কোনো উদ্যোগ ছিল না। মন্ত্রণালয়গুলো নিজস্ব উদ্যোগে মামলা পরিচালনা করে। দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের মামলা সংক্রান্ত জ্ঞানের অভাব, অবহেলা এবং কোনো কোনো ক্ষেত্রে মামলার বিপক্ষ পার্টির কাছ থেকে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে কেউ কেউ সরকারকে মামলায় হারিয়ে দেওয়ার মতো কাজ করছেন বলে অভিযোগ আছে। তাই মামলা সংক্রান্ত অব্যবস্থাপনা দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ এই উদ্যোগ নিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের আইন অনুবিভাগ। অন্যদিকে আইন মন্ত্রণালয় থেকে প্রত্যেক মন্ত্রণালয় ও বিভাগে মামলা সংক্রান্ত বিষয়ে ফোকাল পয়েন্ট অফিসার ঠিক করে দেওয়া হবে। যিনি ওই মন্ত্রণালয়ের মামলা সংক্রান্ত সব কাজে সহযোগিতা করবেন। অন্যদিকে সলিসিটর উইংয়ে একেকজন অফিসারকে কয়েকটি করে জেলার দায়িত্ব দেওয়া হবে। যাতে মাঠ প্রশাসন থেকে আসা মামলার বিষয়গুলো দ্রুত নিষ্পত্তি হয়। অভিযোগ আছে সরকারি স্বার্থসংশ্লিষ্ট অনেক গুরুত্বপূর্ণ মামলার তথ্য সলিসিটর উইং থেকে উধাও হয়ে যায়।

আরও জানা গেছে, মামলার তথ্য পাওয়ার প্রক্রিয়াটিও অনেক কঠিন ছিল। বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগে আইন অনুবিভাগকে অগুরুত্বপূর্ণ করে রাখা হয়েছে। এই জায়গায় কাজ করা বেশির ভাগ অফিসারই ঠিকমতো দায়িত্ব পালন করেন না। অনেকে মামলা সংক্রান্ত কাজের প্রক্রিয়াও বোঝেন না। এ কারণে তথ্য পেতে সমস্যা হয়েছে। অবশেষে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের আইন অনুবিভাগ তালিকা তৈরি করেছে। এর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ এক হাজার ৯৯৭টি মামলাকে চিহ্নিত করে বিশেষ উদ্যোগের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। গত বছর আগস্টে এ সংক্রান্ত উদ্যোগ প্রথম নেওয়া হয়েছিল। করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির কারণে তখন আর এগোয়নি।

জানা গেছে, পুরোনো অনেক মামলায় নতুন দায়িত্ব নেওয়া অফিসারদের বিব্রত হতে হয়। অনেক ক্ষেত্রে সরকারি পক্ষের সঠিক উদ্যোগের অভাবে মন্ত্রণালয়ের সচিবদের আদালত অবমাননার মুখে পড়তে হয়। এগুলোর মূল কারণ মামলা সংক্রান্ত তথ্য ঠিকভাবে আদালতে না যাওয়া। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এই উদ্যোগটিতে সফটওয়্যারের মাধ্যমে মামলার হালনাগাদ তথ্য জানা থাকলে এসব ঘটনা ঘটবে না বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

সূত্র জানায়, গত বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত সরকারের উচ্চ পর্যায়ের ওই বৈঠকে কমিটির বেশির ভাগ সদস্য উপস্থিত থাকলেও অ্যাটর্নি জেনারেল ছিলেন না। অ্যাটর্নি জেনারেল অফিস থেকে কোনো প্রতিনিধি পাঠানো হয়নি। সরকারের স্বার্থসংশ্লিষ্ট মামলা নিষ্পত্তির জন্য অ্যাটর্নি জেনারেল অফিসের উদ্যোগ গুরুত্বপূর্ণ। বৈঠকে এই অফিসের প্রতিনিধি না থাকায় বৈঠকে সংশ্লিষ্টরা হতাশা প্রকাশ করেছেন। তারা বলছেন, অ্যাটর্নি জেনারেল সরকারের প্রতিনিধি। তিনি বা তার অফিসের কোনো প্রতিনিধি বৈঠকে উপস্থিত থাকলে মামলা সংক্রান্ত কার্যক্রম নিষ্পত্তি বেগবান হতো।

সংশ্লিষ্টদের মতে, সরকারি স্বার্থসংশ্লিষ্ট মামলায় সরকার পক্ষে যারা আইনজীবী থাকেন তারা সামান্য সম্মানী পান। অন্যদিকে সরকারের বিপক্ষ পার্টি বিপুল টাকা বিনিয়োগ করেন। ফলে অনেক মামলায় সরকার পক্ষের আইনজীবী, অনেক ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট অফিসের কেউ কেউ ম্যানেজ হয়ে যান। ফলে জনস্বার্থ রক্ষা পায় না। তাই মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এ উদ্যোগটি সফল হলে এ ধরনের চাতুরতা ধরা পড়বে। অন্যদিকে সরকার পক্ষের আইনজীবীদের সম্মানী বাড়ানোর বিষয়েও মত দেন বৈঠকে অংশ নেওয়া কর্মকর্তারা।

নিউজ ট্যাগ: মামলার রায়

আরও খবর



পরিবহন ধর্মঘট ইস্যুতে ডাকা সভা হঠাৎ স্থগিত

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | ৮১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

জ্বালানি তেল ডিজেল ও কেরোসিনের দাম ১৫ টাকা বৃদ্ধির প্রতিবাদে ভাড়া বাড়ানো দাবিতে সারা দেশে ধর্মঘট চালিয়েছেন পরিবহণ মালিক-শ্রমিকরা। বিষয়টির শান্তিপূর্ণ সমাধানের লক্ষ্যে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আজ (শনিবার) সন্ধ্যা ৬টায় সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ৪০ মিনিট আগে তা স্থগিতের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

বিকাল ৫টা ২০ মিনিটে সভা স্থগিতের কথা জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরীফ মাহমুদ অপু। জনসংযোগ কর্মকর্তা বলেন, আজকে (শনিবার) সন্ধ্যা ৬টার সভা অনিবার্য কারণে হবে না। পরে যেদিন সভা হবে যথাসময়ে জানিয়ে দেওয়া হবে।

সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ছাড়াও সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত থাকার কথা ছিল। বিকাল থেকেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকরা সেখানে উপস্থিত হতে থাকেন। এরমধ্যেই হঠাৎ সভা স্থগিতের কথা জানানো হয়।

এদিকে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়িয়ে ৬৫ থেকে ৮০ টাকা করার প্রতিবাদে শুক্রবার থেকে সারা দেশে ধর্মঘট শুরু করেছেন পরিবহণ মালিক-শ্রমিকরা। এতে দেশ কার্যত অবরুদ্ধ তাদের হাতে। সীমাহীন দুর্ভোগে পড়েছেন দেশের সাধারণ মানুষ।

বিষয়টির শান্তিপূর্ণ সমাধানের লক্ষ্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামালের সঙ্গে শনিবার দুপুর ১২টার দিকে তার ধানমণ্ডির সরকারি বাসভবনে বৈঠক হয়েছে বাংলাদেশ কাভার্ড ভ্যান ট্রাক পণ্য পরিবহন মালিক অ্যাসোসিয়েশনের।কিন্তু বৈঠকে কোনো সুরাহা হয়নি। ধর্মঘট প্রত্যাহারের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। বৈঠক শেষে বের হয়ে দাবি মানা না হলে ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন তারা।

বৈঠক শেষে বাংলাদেশ কাভার্ড ভ্যান ট্রাক পণ্য পরিবহন মালিক অ্যাসোসিয়েশনের অতিরিক্ত মহাসচিব আবদুল মোতালেব সাংবাদিকদের বলেন, তেলের দাম প্রত্যাহারের দাবিতে চলা আমাদের ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে। আমাদের দাবির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আলোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানাবেন বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

আবদুল মোতালেব বলেন, যেহেতু সরকারের পক্ষ থেকে আমাদের দাবি মেনে নেওয়া হয়নি, তাই আমাদের কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে। হয় জ্বালানির বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার করতে হবে, নয়তো ভাড়া বাড়াতে হবে। দুটির একটি না হওয়া পর্যন্ত ধর্মঘট চলবে।



আরও খবর



আজ আপনার জন্মদিন হলে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৩ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৩ নভেম্বর ২০২১ | ৩৭০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

আজ আপনার জন্মদিন হলে পাশ্চাত্য জ্যোতিষে আপনি ধনু রাশির জাতক/ জাতিকা। আপনার জন্মসংখ্যা : ৫। আপনার ওপর প্রভাবকারী গ্রহ : বুধ ও বৃহস্পতি। আপনার শুভ সংখ্যা : ৫ ও ৩। শুভ বার : বুধ ও বৃহস্পতি। শুভ রত্ন : পোখরাজ ও পান্না।

মেষ (২১ মার্চ-২০ এপ্রিল)

আত্মীয়দের সঙ্গে যোগাযোগ হতে পারে। ব্যক্তিগত যোগাযোগ ফলপ্রসূ হতে পারে। প্রাপ্ত তথ্য ভালোভাবে যাচাই করে নিন। কাজকর্মে ভাগ্যের আনুকূল্য পেতে পারন। কারও সঙ্গে নতুন বন্ধুত্ব হতে পারে।

বৃষ (২১ এপ্রিল-২০ মে)

অধীনদের কাজে লাগাতে পারবেন। মূল্যবোধ সমুন্নত থাকতে পারে। পড়াশোনা আনন্দ পাবেন। আর্থিক দিক ভালো যাবে। আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে হঠাৎ দেখা হতে পারে।

মিথুন (২১ মে-২০ জুন)

যে কোনও পরিবেশে নিজেকে মানিয়ে চলার চেষ্টা করুন। শরীর ভালো থাকতে পারে। আত্মপ্রতিষ্ঠার চেষ্টা জোরদার করুন। সে ক্ষেত্রে সাফল্য পেতে পারেন। ব্যক্তিত্ব দিয়ে অন্যকে প্রভাবিত করতে পারবেন।

কর্কট (২১ জুন-২০ জুলাই)

কোনও গুরুত্বপূর্ণ কাজ শেষ করতে পারবেন। ভ্রমণের সুযোগ পেতে পারেন। সম্ভাব্যক্ষেত্রে বিদেশযাত্রা হতে পারে। ব্যয় কমানোর চেষ্টা করুন। গোপন শত্রু সম্পর্কে সতর্ক থাকুন।

সিংহ (২১ জুলাই-২১ আগস্ট)

বন্ধুদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় থাকতে পারে। প্রয়োজনে তাদের সহযোগিতা পেতে পারেন। কোনও আশা পূরণ হতে পারে। আর্থিক দিক ভালো যাবে। পেশাগত যোগাযোগ ফলপ্রসূ হতে পারে।

কন্যা (২২ আগস্ট-২২ সেপ্টেম্বর)

সামাজিক অবস্থান সুদৃঢ় হতে পারে। পাবলিক ইমেজ বৃদ্ধি পাবে। কোনও উচ্চাশা পূরণ হতে পারে। বেকারদের কারও কারও চাকরি হতে পারে। কর্মস্থলে পদস্থদের আনুকূল্য পেতে পারেন।

তুলা (২৩ সেপ্টেম্বর-২২ অক্টোবর)

সামাজিক অগ্রগতি অব্যাহত থাকতে পারে। পেশাগত দিক ভালো যাবে। কোনও আশা পূরণ হতে পারে। মন ভালো থাকবে। ভ্রমণ ফলপ্রসূ হতে পারে।

বৃশ্চিক (২৩ অক্টোবর-২১ নভেম্বর)

দিনটি মিশ্র সম্ভাবনাময়। শারীরিক অসুস্থতাকে অবহেলা করবেন না। ব্যবসায়িক দিক খুব একটা ভালো না-ও থাকতে পারে। জৈবিক কামনা-বাসনাকে সংযত রাখুন।

ধনু (২২ নভেম্বর-২০ ডিসেম্বর)

ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে। বিক্রয়-বাণিজ্যে লাভযোগ আছে। যৌথ ব্যবসায় নিজের কর্তৃত্ব বজায় রাখতে পারবেন। দাম্পত্য সম্পর্ক ভালো থাকবে। কোনও ঘনিষ্ঠ বন্ধুর সহযোগিতা পেতে পারেন।

মকর (২১ ডিসেম্বর-১৯ জানুয়ারি)

কর্মপরিবেশ অনুকূল না-ও থাকতে পারে। কর্মস্থলে ঝামেলা এড়িয়ে চলুন। শত্রু সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। সীমা লঙ্ঘন করবেন না। পরিমিত আহার করুন।

কুম্ভ (২০ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

মনের মানুষকে মনের কথা স্পষ্ট করে বলুন। রোমান্টিক প্রস্তাবে সাড়া পেতে পারেন। বিদ্যার্থীদের জন্য দিনটি শুভ। পড়াশোনায় মন বসাতে পারবেন। সন্তানের কোনও সাফল্য আনন্দদায়ক হতে পারে।

মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

মাতৃস্বাস্থ্য ভালো যাবে। মন ভালো থাকবে। কোনও প্রত্যাশা পূরণ হতে পারে। আত্মীয়দের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় থাকতে পারে। জ্ঞানস্পৃহা বৃদ্ধি পাবে।

 

নিউজ ট্যাগ: আজকের রাশিফল

আরও খবর