আজঃ শনিবার ২২ জানুয়ারী 20২২
শিরোনাম

তেলের দাম কমানো নিয়ে যা বললেন অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ১২ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় গত বছর নভেম্বরের শুরুতে এক লাফে লিটারে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম ১৫ টাকা বাড়ায় সরকার। এই অজুহাতে বাড়ানো হয় বাস-ট্রাক-লঞ্চের ভাড়া। তবে এর কিছুদিন পর বিশ্ববাজারে টানা তেলের দাম কমতে থাকলেও সুফল পায়নি দেশের সাধারণ মানুষ। তবে এবার তেলের দাম কমানোর বিষয়টি সরকার বিবেচনা করবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) অর্থনৈতিক বিষয়-সংক্রান্ত সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আপনারা জানেন জ্বালানি তেলের দাম কতটা ঊর্ধ্বমুখী ছিলে। এখন আমরা নিম্নমুখী দেখতে পাচ্ছি। আমার বিশ্বাস সরকার সেটি বিবেচনা করবে। এর জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। তবে দাম কমানোর বিষয়টি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ভালো বলতে পারবে।

তিনি বলেন, আজ রপ্তানি বাণিজ্যের পরিমাণ নির্ধারণ বিষয়ে একটি প্রস্তাব ছিল। আমরা কীভাবে রপ্তানি বাণিজ্য করব এর নীতি নির্ধারণ করার বিষয়টি প্রস্তাবে আসে। আমরা ২০২১ থেকে ২০২৪ সাল পর্যন্ত এর খসড়া নীতি নির্ধারণ করেছি, এটা অনুমোদন করে দিয়েছি। আমাদের বিদ্যমান রপ্তানি বাণিজ্যের যে লক্ষ্যমাত্রা সেটি ৬০ বিলিয়ন মর্কিন ডলার, এটিকে বাড়িয়ে ৮০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত করেছি। এর জন্য আনুষঙ্গিক যেসব বিষয় রয়েছে, সেগুলোর জন্য যা যা করা দরকার, করব।


আরও খবর



করোনা আতঙ্কে স্থগিত বেশ কয়েকটি ছবির মুক্তি

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ০৩ জানুয়ারী ২০২২ | ৩৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দীর্ঘ লকডাউনের ধাক্কা সামলে উঠে সবে একটু একটু করে ছন্দে ফিরছিল বিনোদন জগৎ। ধুঁকতে থাকা প্রেক্ষাগৃহগুলিও প্রাণ ফিরে পাচ্ছিল একাধিক ছবি মুক্তির হাত ধরে। সূর্যবংশী, স্পাইডারম্যান: নো ওয়ে হোম, পুষ্পা: দ্য রাইজ কোটি কোটি টাকার ব্যবসা করেছে। নতুন বছরেও একাধিক বড় বাজেটের ছবি আসার কথা। কিন্তু দেশ জুড়ে ফের ঊর্ধ্বমুখী করোনা সংক্রমণের কারণে স্থগিত রাখা হয়েছে বেশ কয়েকটি ছবির মুক্তি। এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক, কোন কোন ছবির জন্য আরও অপেক্ষা করতে হবে সিনেমাপ্রেমীদের।

জার্সি: শাহিদ কপূর এবং ম্রুনাল ঠাকুর অভিনীত এই ছবি গত বছর ৩১ ডিসেম্বর মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল । করোনা উদ্বেগের মাঝে এই ছবির মুক্তি স্থগিত রাখার ঘোষণা করা হয়। বিবৃতি জারি করে প্রযোজনা সংস্থা জানায়, বর্তমান পরিস্থিতি এবং নতুন কোভিড বিধির কথা মাথায় রেখে আমরা আপাতত ছবির মুক্তি পিছিয়ে দিচ্ছি।

আরআরআর: ৭ জানুয়ারি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল এস এস রাজামৌলি পরিচালিত এই ছবি। রাম চরণ, জুনিয়র এনটিআর, অজয় দেবগণ এবং আলিয়া ভট্ট অভিনীত আরআরআর নিয়ে আগাগোড়াই জোরদার উৎসাহ দর্শকমহলে। প্রথমে জানানো হয়েছিল, এই ছবি মুক্তির দিন পিছনো হবে না। কিন্তু ঘোষণার এক দিনের মাথায় সিদ্ধান্ত বদল করেন নির্মাতারা। একটি বিবৃতি জারি করে বলা হয়েছে, অনেক চেষ্টা করেছি আমরা। কিন্তু কিছু পরিস্থিতি তৈরি হয়, যা আমাদের নিয়ন্ত্রণে থাকে না। ভারতের একাধিক রাজ্যে প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ করে দেওয়ায় আমাদের কাছে আর কোনও রাস্তা নেই। তাই বাধ্য হচ্ছি, আপনাদের উত্তেজনায় বাধ সাধতে। ঠিক সময়ে ভারতীয় ছবির ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিলাম।

ভীমলা নায়ক: দক্ষিণী অভিনেতা পবন কল্যাণের এই তেলুগু ছবি প্রেক্ষাগৃহে আসার কথা ছিল ১২ জানুয়ারি। কিন্তু প্রযোজক সংগঠন এবং আরআরআর ছবির প্রযোজকদের অনুরোধে মুক্তির দিন আপাতত পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফেব্রুয়ারিতে এই ছবি বড় পর্দায় আনা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

কোভিড পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে দিল্লি, হরিয়ানার মতো রাজ্যে বন্ধ রাখা হয়েছে প্রেক্ষাগৃহ। রবিবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যসচিব জানিয়েছেন, সোমবার থেকে মোট আসনের ৫০ শতাংশ দর্শক নিয়ে চালাতে হবে সিনেমা হল, থিয়েটার। খোলা রাখা যাবে রাত ১০টা পর্যন্ত। এমন অবস্থায় কাঙ্ক্ষিত ব্যবসা না হওয়ার আশঙ্কায় পিছিয়ে যাচ্ছে একের পর এক ছবির মুক্তি।


আরও খবর



গীতিকার মেহবুবুল হাসান রাসেলের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ | ৪৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

রাসেল ওনীল নামে পরিচিত গীতিকার মেহবুবুল হাসান রাসেলের (৪৭) ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) দিবাগত রাতে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানাধীন লিচু বাগান এলাকার নিজ বাসা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

গণমাধ্যমে এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ডিউটি অফিসার মো. সাইদুর রহমান।

পরিবারের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, রাতের খাবার শেষে নিজের রুমে যান মেহবুবুল হাসান রাসেল। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে পরিবারের অন্য সদস্যরা ডাকাডাকির পর দরজা না খোলায় পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ গিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে থাকা অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করে।

প্রাথমিকভাবে এটি আত্মহত্যা বলে ধারণা করছে পুলিশ। তবে তদন্তের পর এর প্রকৃত কারণ সম্পর্কে জানা সম্ভব হবে বলে জানান মো. সাইদুর রহমান।

তিনি বলেন, মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

দিন বাড়ি যায়/ চড়ে পাখির ডানায় এর মতো অসংখ্য জনপ্রিয় গানের রচয়িতা রাসেল একসময় সাংবাদিকতায়ও যুক্ত ছিলেন। পরে সাংবাদিকতা ছেড়ে বিজ্ঞাপনী সংস্থায় যুক্ত হন। গানের পাশাপাশি অসংখ্য বিজ্ঞাপনের জিংগেলও লিখেছেন তিনি। তার লেখা অধিকাংশ গানই দলছুট এবং বাপ্পা মজুমদারের গাওয়া।


আরও খবর



শেখ হাসিনা মানেই সমৃদ্ধ বাংলাদেশ : মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ | ১৩৫০জন দেখেছেন
হযরত আলী হিরু, স্বরূপকাঠি

Image

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম (এমপি) বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানেই সমৃদ্ধ বাংলাদেশ, তিনি মনে করেন এ দেশের প্রতিটি মানুষের প্রতি তাঁর দায়িত্ব রয়েছে, সে যে ধর্মের বা যে দলেরই হোক না কেন। তাই তিনি দেশের প্রতিটি নাগরিকের খাদ্য ও রাষ্ট্রীয় সকল সেবা নিশ্চিত করেছেন। করোনার এই ভয়াবহ সময়েও বছরের শুরুতে তিনি শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যে বই পৌঁছে দিয়েছেন। সকল শ্রেণির মানুষকে বিনামূল্যে করোনার ভ্যাকসিন দিচ্ছেন। তিনি প্রতিহিংসার বা সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করেন না। শেখ হাসিনা না থাকলে দেশের উন্নয়ন থেমে যাবে, দেশে আবার জঙ্গি, সন্ত্রাস ও দুর্নীতি বেড়ে যাবে। শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করবেন তিনি ভাল থাকলে আমরা ভাল থাকব।

মন্ত্রী আজ মঙ্গলবার দিনব্যাপি পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নে বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কার্যক্রমের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন, শেষে আলহাজ্ব আব্দুর রহমান ডিগ্রী কলেজ প্রাঙ্গনে, বলদিয়া সেন্ট্রাল মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে ও বলদিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে এলাকার উন্নয়ন নিয়ে অনুষ্ঠিত পৃথক তিনটি সুধী সমাবেশে বক্তব্যে এ কথা বলেন।

মন্ত্রী সকালে চাঁদকাঠি জিসি-বৈঠাকাঠা সড়কে আরসিসি গার্ডার ব্রিজ নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। দুপুরে বলদিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৪ তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন নির্মাণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। বিকেলে মন্ত্রী ইয়ংমেন্স ক্লাব আয়োজিত চেয়ারম্যান কাপ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন। এছাড়াও মন্ত্রী বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী দানবীর আব্দুর রহমান, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শহিদুল্লাহ মিয়া ও সমাজ সেবক শামিম হাসানের কবর জিয়ারত করেন।  

সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথি মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম ছাড়াও আরও বক্তব্য রাখেন, সাবেক এমপি অধ্যক্ষ মো. শাহ আলম, উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হক, ইউএনও মো. মোশারেফ হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ, সাধারণ সম্পাদক এস এম ফুয়াদ, ইউপি চেয়ারম্যান মো. সাইদুর রহমান, উপজেলা যুবলীগ নেতা শাহ মো. নাসির উদ্দিন প্রমুখ।

এসময় পিরোজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) থান্দার খাইরুল ইসলাম পিপিএম  (সেবা), নেছারাবাদ থানার ওসি আবির মোহাম্মদ হোসেন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার গৌতম নারায়ন চৌধুরী, জেলা পূজা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক গোপাল বসু, নাজিরপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. মোস্তাফিজুর রহমান রঞ্জু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহরিয়ার ফেরদৌস রুনা, আইনজীবি আল আমিন রিজভী, জেলা তাতী লীগের আহবায়ক ইরানী শেখ, বঙ্গবন্ধু আইন ছাত্র পরিষদ মিরপুর কলেজ শাখার সভাপতি সুমি জামান, ইউপি সদস্য মো. সোহাগ মিয়া ও ইউপি সদস্য মো. বাবুল বাহাদুরসহ দলীয় নেতাকর্মী ও অন্যান্য ইউপি সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



সবসময় সত্য কথা বলা যায় না: শামীম ওসমান

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ১০ জানুয়ারী ২০২২ | ৪৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াত আইভীর বক্তব্য ও মন্তব্যে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে পুরোনো বিভেদ ফের নতুন করে সামনে এলো। মূলত নাসিক নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াত আইভী শামীম ওসমানকে গডফাদার আখ্যায়িত করার পরেই বিভেদ সামনে এসেছে।

এ নিয়ে আজ সোমবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে তিনি সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আজকে আমার সংবাদ সম্মেলন করার কথা না। কিন্তু এরপরও আমি সংবাদ সম্মেলন করছি। আমি সত্য কথা বলতে পছন্দ করি। কিন্তু সব সময় সত্য কথা বলা যায় না। এখানেও বলতে পারবো না।

তিনি বলেন, অনেকে আওয়ামী লীগের ক্ষতি করার চেষ্টা করছে। অন্যদিকে কেউ কেউ দলে থেকে আমার ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করছে। আবার কেউ বাইরে থেকে করছে। আমি মানসিকভাবে শকড। নির্বাচন এলেই আমাকে নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। নির্বাচনের সময় আমি কেনো সাবজেক্ট ম্যাটার (আলোচনার বিষয়) হবো, জানতে চাই। এখন আমার অবস্থা গরীবের ভাবির মতো। ও বলে আমি তার, সে বলে আমি তার।

শামীম ওসমান বলেন, নারায়ণগঞ্জ নৌকার ঘাঁটি, শেখ হাসিনার ঘাঁটি। এখানে অন্য কোনো খেলা খেলার চেষ্টা করবেন না। কে প্রার্থী who cares? প্রার্থী আম গাছ হোক আর কলাগাছ হোক। সবসময় নৌকার প্রতি সাপোর্ট।

স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকারের উদ্দেশে শামীম বলেন, আমার মনে হয় না নারায়ণগঞ্জে বিএনপি-জামায়াতের ওই ক্ষমতা আছে যে নৌকাকে ডুবায়ে দেবে। হাতি সাইজে বড় হতে পারে; আমরা হাতি কাঁধে নিয়ে দৌড় দেব, কিন্তু নৌকার ওপর উঠতে দেবো না।


আরও খবর



মৎস্যসম্পদ ধ্বংসকারী অবৈধ জাল অপসারণে বিশেষ কম্বিং অপারেশন শুরু

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জানুয়ারী 2০২2 | হালনাগাদ:রবিবার ০২ জানুয়ারী 2০২2 | ৪০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশের মৎস্যসম্পদ ধ্বংসকারী অবৈধ জাল অপসারণে বিশেষ কম্বিং অপারেশন শুরু করেছে সরকার। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় চলতি বছর ১৭টি জেলায় বেহুন্দী জাল, কারেন্টজালসহ মৎস্য সম্পদ ধ্বংসকারী সকল প্রকার অবৈধ জাল অপসারণে ৩০ দিনব্যাপী বিশেষ এ অভিযান পরিচালনা করছে। জাটকা ও সামুদ্রিক মাছের ডিম, লার্ভী ও পোনা রক্ষায় গত ৩০ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখ থেকে থেকে শুরু হওয়া এ অভিযান চার ধাপে চলবে ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২২ পর্যন্ত।

বিশেষ কম্বিং অপারেশনের আওতাভুক্ত ১৭টি জেলা হচ্ছে পিরোজপুর, ঝালকাঠি, পটুয়াখালী, বরগুনা, ভোলা, বরিশাল, নোয়াখালী, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, মুন্সিগঞ্জ, লক্ষ্মীপুর, শরিয়তপুর, মাদারীপুর ও চাঁদপুর।

উল্লেখ্য, দি প্রটেকশন অ্যান্ড কনজারভেশন অব ফিশ রুলস্, ১৯৮৫ অনুযায়ী সরকার ২০১৩ সালে মৎস্য সম্পদ ধ্বংসকারী বেহুন্দি জাল, মশারি জাল, চরঘেরা জাল, বেড়/জগৎবেড় জাল, কারেন্ট জাল প্রভৃতি ক্ষতিকারক জালের ব্যবহার নিষিদ্ধ করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে এবং ইলিশ আহরণের জালের ফাঁস ৬ দশমিক ৫ সেন্টিমিটার বা ২ দশমিক ৬ ইঞ্চি নির্ধারণ করেছে। মৎস্যসম্পদের জন্য ক্ষতিকর এসব জালের ব্যবহার বৃদ্ধি পেলে জাটকাসহ সামুদ্রিক ও উপকূলীয় বিভিন্ন প্রজাতির মাছের ডিম, রেণু ও পোনা বিনষ্ট হবে এবং উন্মুক্ত জলাশয়ে মাছের উৎপাদনে বিরূপ প্রভাব পড়ার পাশাপাশি জলজ জীববৈচিত্র্য নষ্ট হবে। সরকার কর্তৃক নিষিদ্ধঘোষিত এসব জাল ব্যবহারকারীকে সর্বোচ্চ ৫ হাজার টাকা জরিমানা অথবা ১ বছর থেকে সর্বোচ্চ ২ বছরের কারাদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দন্ডিত করার বিধান রয়েছে।


আরও খবর