আজঃ মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১
শিরোনাম

টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের হালনাগাদ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৫ নভেম্বর ২০২১ | ৩০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সদ্যসমাপ্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও তার পরবর্তী টি-টোয়েন্টি সিরিজের পারফরম্যান্সের ছাপ পড়েছে আইসিসির সদ্য প্রকাশিত ব়্যাঙ্কিংয়ে। টি-টোয়েন্টিতে পুরুষ ব্যাটারদের মধ্যে এক নম্বরে আছেন বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে সেমিফাইনালে তোলা বাবার আজম।

এছাড়া ভারতের কে এল রাহুল একধাপ উপরে উঠে এসেছেন। আইসিসির টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে প্রথম দশে একমাত্র ভারতীয় খেলোয়াড় হিসেবে জায়গা হয়েছে ভারতীয় ওপেনার রাহুলের। ৫ নম্বর স্থান পেয়েছেন তিনি।

অন্যদিকে লাগাতার খারাপ পারফরম্যান্সের জেরে প্রথমে দশে জায়গা হল না বিরাট কোহলির। নিউজিল্যান্ড বিরুদ্ধে না খেলা বিরাটের ব়্যাঙ্কিংয়ে ছাপ ফেলেছে। প্রায় আঠারো মাস বাদে টি-টোয়েন্টি ব়্যাঙ্কিংয়ের প্রথম দশ থেকে বাদ পড়লেন কোহলি। বর্তমান ব্যাটারদের মধ্যে ১১ নম্বরে স্থান হয়েছে তার।

এছাড়া টি-টোয়েন্টি বোলিং র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে আছেন শ্রীলঙ্কার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। আর অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়ে এক নম্বরে আছেন আফগানিস্তানের মোহাম্মদ নবী।

 


আরও খবর
হারের শঙ্কায় টাইগাররা

সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১




আইফোন হ্যাক করার অভিযোগে ইসরাইলি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ২৪ নভেম্বর ২০২১ | ১৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ইসরাইলের তৈরি কুখ্যাত হ্যাকিং সফটওয়্যার পেগাসাসের বিরুদ্ধে এবার মামলা করেছে মার্কিন বহুজাতিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপল। পেগাসাস হ্যাকিং সফটওয়্যার প্রস্তুতকারী ইসরাইলি প্রতিষ্ঠান এনএসওর বিরুদ্ধে মার্কিন আদালতে শনিবার এ মামলা করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে অ্যাপল বলেছে, ইসরাইলের কুখ্যাত এই হ্যাকিং সফটওয়্যার বিভিন্ন দেশের রাজনীতিক, সাংবাদিক, আইনজীবী ও মানবাধিকারকর্মীসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের স্মার্টফোনে আড়িপাতার ঘটনা ফাঁস হয়েছে।  

বর্তমানে ইসরাইলি প্রতিষ্ঠান এনএসওর হ্যাকিং সফটওয়্যার পেগাসাস আইফোনের গ্রাহকদের মোবাইলও হ্যাক করার চেষ্টা করছে।  এটি মার্কিন নীতির স্পষ্ট লঙ্ঘন।  এর আগে গত অক্টোবারে হোয়াটসঅ্যাপ এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকও ইসরাইলি প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করে। এ কারণে গত ৩ অক্টোবর কুখ্যাত ওই ইসরাইলি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

ব্রিটিশ প্রভাবশালী দৈনিক গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, পেগাসাস ব্যবহার করে বিভিন্ন দেশের কর্তৃত্ববাদী সরকারগুলো 'টার্গেট' করে নিজ দেশের বিভিন্ন ব্যক্তির ওপর নজরদারি চালাচ্ছিল যাদের তারা হুমকি বলে মনে করে।

এসব সরকার কোনো না কোনো সময় নাগরিক অথবা বিরোধী রাজনৈতিক নেতা অথবা সামাজিক আন্দোলনের সঙ্গে জড়িতদের ওপরে গোপন নজরদারির জন্য অভিযুক্ত হয়েছে। এই দেশগুলোর মধ্যে বেশ কিছু দেশের সরকার আবার পেগাসাস অ্যাপের নির্মাতা সংস্থা এনএসওর কাছ থেকে মিলিটারি ইন্টেলিজেন্সির প্রযুক্তি কেনার গ্রাহক।

ইসরাইলি প্রতিষ্ঠান এনএসও গ্রুপ পেগাসাস নামে ওই স্পাইওয়্যারের নির্মাতা সংস্থা এবং এই অ্যাপটিকে মিলিটারি ইন্টেলিজেন্সের লাইসেন্সও দিয়েছে ইসরাইল সরকার। এটি দিয়ে আইফোন কিংবা অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ঢুকে ব্যবহারকারীর অজান্তে তার বার্তা, ছবি, ইমেইল পাচার; কল রেকর্ড, মাইক্রোফোন চালু রাখা সক্ষম।

এনএসও গ্রুপ অবশ্য বলছে, অপরাধী ও সন্ত্রাসীদের ওপর নজরদারি চালানো তাদের ওই স্পাইওয়্যার তৈরির লক্ষ্য। কিন্তু গোপনে ব্যবহার করতে বিভিন্ন দেশের সরকার এনএসওর গ্রাহক হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।


আরও খবর



৮ দফা দাবি দিয়ে সড়ক ছাড়ল শিক্ষার্থীর

প্রকাশিত:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | হালনাগাদ:রবিবার ২১ নভেম্বর 20২১ | ৩০০০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

হাফ ভাড়া দেওয়াকে কেন্দ্র করে ঠিকানা পরিবহনের একটি বাসে ছাত্রীকে ধর্ষণের হুমকি দিয়েছে চালকের সহকারী। এই হুমকির প্রতিবাদে বকশীবাজারে সড়ক অবরোধ করে বদরুন্নেসা কলেজের শিক্ষার্থীরা। ঘণ্টা দুই অবস্থানের পর ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে সড়ক ছেড়ে দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এসময়ের মধ্যে বাসের সহকারীকে আইনের আওতায় আনাসহ ৮ দফা দাবি ঘোষণা করেছেন তাঁরা।

শিক্ষার্থীদের উত্থাপিত দাবিগুলো-

শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া নিশ্চিত করা, ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে হয়রানিমূলক আচরণ না করা, শিক্ষার্থীদের বাস থেকে নামানোর সময়ে বাস থামাতে হবে, শিক্ষার্থীদের বাসে উঠতে দেওয়া, বাসে নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, ধর্ষণের হুমকি প্রদানকারীকে আইনের আওতায় আনা, রায়েরবাগ, শনিআখড়া, কাজলা, সাইনবোর্ড এলাকায় সব ধরনের বাস থামাতে হবে এবং শিক্ষার্থীদের উঠতে বাধা দেওয়া যাবে না।

দাবি আদায় না হলে আগামীকাল আবারও রাস্তায় নামার ঘোষণা দিয়ে আজকের বিক্ষোভ শেষ করেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে, আজ রোববার সকাল ১০টার দিকে রাজধানীর বকশীবাজার মোড়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন বদরুন্নেসা কলেজের কয়েকশ শিক্ষার্থী।

হুমকির শিকার ওই ছাত্রী জানান, রাজধানীর শনিরআখড়া থেকে কলেজে আসার জন্য ঠিকানা পরিবহনের বাসে উঠেন তিনি। শনিরাখড়া থেকে কলেজের ভাড়া ১০ টাকা। কিন্তু ওই ছাত্রীর কাছ থেকে ১৫ টাকা ভাড়া রাখা হলে তিনি নিজেকে স্টুডেন্ট বলে ১০ টাকা ফেরত চাইলে চালকের সহকারী তাঁর সঙ্গে খারাপ ভাষায় কথা বলেন। পরে কলেজের সামনে বাস থেকে নেমে যাওয়ার সময়ে তাঁকে ৫ টাকা দিয়ে ধর্ষণ ও শারীরিক নির্যাতনের হুমকি দেন।

ওই ছাত্রী আরো বলেন, বাসটি চলন্ত অবস্থায় থাকায় বাসটির নম্বর মনে রাখতে পারিনি। তাঁদের এই ভোগান্তি প্রতিদিনের জানিয়ে বলেন, বাসগুলো তাঁদের তুলতেও চায় না।


আরও খবর
মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৪৬

সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১




ফাইজারের কোভিড পিল ৮৯ শতাংশ কার্যকর

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ০৬ নভেম্বর ২০২১ | ৪৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কোভিড চিকিৎসার জন্যে যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ফাইজারের তৈরি পিল বা বড়ি করোনায় আক্রান্ত হয়ে গুরুতর অবস্থায় চলে যাওয়া বয়স্কদের মৃত্যু এবং হাসপাতালে ভর্তি হওয়া এড়াতে ৮৯ শতাংশ কার্যকরী বলে প্রমাণ মিলেছে। প্যাক্সলোভিড নামের ক্ষুদ্রাকৃতির পিলটি ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে এমন কার্যকারিতা দেখিয়েছে। সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে এসব তথ্য দেওয়া হয়েছে।

ফাইজার গতকাল শুক্রবার তাদের কোভিড পিলের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তথ্য জানিয়েছে। প্রতিদিন দুই বারে তিনটি করে পিল টানা পাঁচদিন খাওয়ানো হয়েছে ট্রায়ালে। ভালো ফলাফল আসায় ট্রায়াল শেষ না করেই, তা স্থগিত রেখেছে বলে জানিয়েছে ফাইজার।

যা তথ্য পাওয়া গেছে, সেগুলো মার্কিন নিয়ন্ত্রণ সংস্থাগুলোতে জমা দেবেন বলে জানিয়েছেন ফাইজারের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা অ্যালবার্ট বৌরলা। তিনি বলেছেন, পিলটি রোগীদের জীবন বাঁচাতে, কোভিড-১৯ সংক্রমণের তীব্রতা কমাতে এবং ১০ জনের মধ্যে নয় জনের হাসপাতালে ভর্তি ঠেকিয়ে দিতে সহায়তা করতে সক্ষম।

উপসর্গ দেখা দেওয়ার পরই রোগীকে ফাইজারের প্যাক্সলোভিড খাওয়ানোর কথা বলা হয়েছে।

ভাইরাসের বৃদ্ধির জন্য যে এনজাইম দরকার পড়ে, তা আটকে দেয় ফাইজারের পিল। এ কারণে একে প্রোটিজ ইনহিবিটর বলা হচ্ছে।

যুক্তরাজ্যের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অপর ওষুধ প্রস্তুতকারক কোম্পানি মার্ক সার্প অ্যান্ড ডোমের (এমএসডি) একই ধরনের ট্যাবলেটের অনুমোদন দেওয়ার পরদিনই ফাইজার তাদের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের তথ্য জানাল।

যুক্তরাজ্য ফাইজারের অনুমোদন না পাওয়া এই প্যাক্সলোভিডের আড়াই লাখ কোর্স এবং এমএসডির তৈরি মলনুপিরাভির ট্যাবলেটের চার লাখ ৮০ হাজার কোর্সের ক্রয়াদেশ দিয়েছে।

অন্যদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও জানিয়েছেন, তাঁর দেশ এরই মধ্যে লাখ লাখ কোভিড ট্যাবলেট মজুদ করেছে।

উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা এক হাজার ২১৯ জন কোভিড রোগীকে প্যাক্সলোভিড দেওয়া হয়। এর মধ্যে শূন্য দশমিক ৮ শতাংশ রোগীকে হাসপাতালে নিতে হয়েছে। অন্যদিকে, একই অবস্থায় থাকা যেসব কোভিড রোগীদের ডামি পিল খাওয়ানো হয়েছিল, তাঁদের সাত শতাংশকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে।

ট্রায়ালে কোভিড উপসর্গ দেখা দেওয়ার তিন দিনের মধ্যেই রোগীদের পিল খাওয়ানো শুরু করা হয়েছে।

ডামি পিল খাওয়ানো রোগীদের সাত জন করোনায় মারা গেছেন। কিন্তু, আসল পিল খাওয়ানো রোগীদের কেউ মারা যাননি।

এ ছাড়া উপসর্গ দেখা দেওয়ার পাঁচ দিনের মধ্যে প্যাক্সলোভিডের মাধ্যমে চিকিৎসা শুরু করা রোগীদের এক শতাংশকে হাসপাতালে নিতে হয়েছে। তবে, তাঁদের মধ্যে কেউ মারা যাননি। আর ডামি পিল খাওয়ানোদের ৬ দশমিক ৭ শতাংশকে হাসপাতালে নিতে হয়েছে এবং তাঁদের মধ্যে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

তবে, ফাইজার কম ঝুঁকিপূর্ণ কোভিড রোগীদের বেলায় তাদের ট্যাবলেটের কার্যকারিতা নিয়েও গবেষণা করছে।

যুক্তরাজ্যের লিডস ইউনিভার্সিটির স্কুল অব মেডিসিনের সহযোগী অধ্যাপক ড. স্টিফেন গ্রিফিন বলেন, অ্যান্টিভাইরালের এসব সাফল্য সার্স-কোভ২-এর আক্রমণ প্রতিরোধে নতুন যুগের সূচনা করবে। গুরুতর অবস্থা নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কোভিড রোগীদের জন্য এটি ব্যাপক উপকারী উপাদান হিসেবে বিবেচিত হবে।


আরও খবর
করোনায় ২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২২৭

সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১




ইকবাল মানসিক ভারসাম্যহীন নয়, সুচতুর : সিআইডি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ নভেম্বর 2০২1 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ০২ নভেম্বর 2০২1 | ৫৬৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

কুমিল্লায় ধর্ম অবমাননার মামলায় অভিযুক্ত প্রধান আসামি ইকবাল হোসেন মানসিক ভারসাম্যহীন নয়, সে একজন সুচতুর সুস্থ মস্তিষ্কের মানুষ।

মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) দ্বিতীয় দফা রিমান্ডের পঞ্চম দিনে এসব কথা বলেন সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার খান মুহাম্মদ রেজোয়ান।

তিনি বলেন, ইকবাল মানসিক ভারসাম্যহীন নন। তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ ও সুচতুর। কোনো কিছুর প্রতি তার প্রবল বিশ্বাস আছে। ১১ দিনের রিমান্ডে তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ, স্বাভাবিক আচরণ করেছেন।

গত ১৩ অক্টোবর নগরীর নানুয়ারদিঘির পাড় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখার ঘটনায় কুমিল্লা নগরের কয়েকটি পূজামণ্ডপে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এ ছাড়া জেলার সদর দক্ষিণ ও দাউদকান্দির দুটি মণ্ডপে হামলা হয়। এর জেরে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ, নোয়াখালীর চৌমুহনী ও রংপুরের পীরগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে।

গত ২১ অক্টোবর ইকবালকে কক্সবাজার সমুদ্রসৈকত থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।


আরও খবর



৩০ নভেম্বরের পর ডিশ দেখতে সেট টপ বক্স লাগবে

প্রকাশিত:রবিবার ৩১ অক্টোবর ২০২১ | হালনাগাদ:রবিবার ৩১ অক্টোবর ২০২১ | ৪৩৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

ডিশ ক্যাবল ব্যবহারকারীদের সেট টপ বক্স না বসালে আর স্যাটেলাইট চ্যানেল দেখতে পারবেন না। আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে ঢাকা ও চট্টগ্রাম শহরের কেবল নেটওয়ার্ক ডিজিটাল করা হবে।

এই সময়ের মধ্যে গ্রাহকেরা সেট টপ বক্স না বসালে আর টেলিভিশন দেখতে পারবেন না। ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে সব বিভাগীয় ও মেট্রোপলিটন শহরের সঙ্গে পুরোনো ১১টি জেলা শহরের কেবল নেটওয়ার্ক ডিজিটাল করা হবে।

সচিবালয়ে আজ রোববার কেবল অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন, অ্যাসোসিয়েশন অব টিভি চ্যানেল ওনার্স (অ্যাটকো) এবং ড্রিস্ট্রিবিউটরদের নিয়ে সভার পর তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী হাছান মাহমুদ এ তথ্য জানান।

৩০ নভেম্বরের মধ্যে ঢাকা ও চট্টগ্রাম শহরের সব কেবল নেটওয়ার্কিং সিস্টেম ডিজিটালাইজড করার সিদ্ধান্ত গত ২ সেপ্টেম্বর নেওয়া হয়। তথ্যমন্ত্রী বলেন, বৈঠকে সর্বসম্মতভাবে নির্ধারিত সময়েই ঢাকা ও চট্টগ্রাম শহরের কেবল নেটওয়ার্ক ডিজিটাল করা করা হবে। কেবল অপারটেররা জানিয়েছেন, তাঁরা ডিজিটাল ডিভাইস বসিয়েছেন। এখন গ্রাহকদের সেট টপ বক্স সরবরাহ করা হবে। গ্রাহকেরা এই সেট টপ বক্স না বসালে ৩০ নভেম্বরের পর টেলিভিশন দেখার ক্ষেত্রে ব্যত্যয় হবে।

আগামী ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে বিভাগীয় ও মেট্রোপলিটন শহর ছাড়াও কুমিল্লা, বগুড়া, দিনাজপুর, কুষ্টিয়া, রাঙ্গামাটি ও কক্সবাজার জেলা শহরে কেবল নেটওয়ার্ক ডিজিটালাইজ করার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। এসব অঞ্চলের সঙ্গে যশোর, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, টাঙ্গাইল, পাবনাসহ সব পুরোনো জেলা শহরের কেবল নেটওয়ার্কও ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ডিজিটাল করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এ বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, দেশ ডিজিটাল হলেও এখনো কেবল নেটওয়ার্কিং সিস্টেম ডিজিটাল হয়নি। ভারতে হয়ে গেছে, নেপালে ব্যাপক আকারে হয়ে গেছে। আমাদের দেশে এটি করলে সবার জন্যই সুবিধা। গ্রাহকরা ভালোভাবে টেলিভিশন দেখতে পাবেন। কেবল নেটওয়ার্ক ডিজিটাল না হওয়ায় সরকার প্রতিমাসে ১২৫ থেকে ১৫০ কোটি টাকা ট্যাক্স পাচ্ছে না। কেবল অপারেটিংয়ের সঙ্গে যারা যুক্ত তারাও কিন্তু গ্রাহকদের কাছ থেকে যেটুকু পাওয়ার কথা তা পায় না। কারণ কেবল অপারেটরেরা ফিড অপারেটরের মাধ্যমে পরিচালনা করে। দেখা যায় ফিড অপারেটরের গ্রাহক আছে ১০ বা ৫ হাজার কিন্তু তাঁরা হিসাব দেয় ১ হাজারের। এভাবে তাঁরাও বঞ্চিত হচ্ছেন। আমাদের টিভি কর্তৃপক্ষও নানাভাবে বঞ্চিত হচ্ছে। তারাও জানছে না, কত দর্শক তাদের টেলিভিশন দেখছে। যখন নেটওয়ার্কিং সিস্টেম ডিজিটালাইজড হয়ে যাবে তখন কোনো চ্যানেল যদি পে-চ্যানেল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে চায় তাঁদের পক্ষে সেটা সম্ভব হবে।

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, সেট টপ বক্সের দাম কেবল অপারেটরেরা একসঙ্গে নেবে না, সেটি ১২ থেকে ৩০ কিস্তিতে নেবেন বলে জানিয়েছেন। এটা গ্রাহকদের সঙ্গে তাঁদের বিষয়, এটা সরকার ঠিক করে দেবে না। সরকার থেকে মনিটরিংয়েরও প্রয়োজন নেই। চাহিদা বাড়লে দাম বাড়ার কোনো সুযোগ নেই। চাহিদা বাড়লে দাম কমার সম্ভবনা রয়েছে। গ্রাহক যদি চান, কেবল অপারেটরের কাছ থেকে না নিয়ে নিজেই বাজার থেকে কিনে নিতে পারবেন। সেপ টপ বক্স নিয়ে কাউকে মনোপলি করতে দেব না।


নিউজ ট্যাগ: সেট টপ বক্স

আরও খবর