আজঃ শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
শিরোনাম

উড়ে এসে জুড়ে বসারা ক্ষমতাকে ভোগের জায়গা বানায়: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৫০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ যখন দেশের ক্ষমতায় আসে তখন উন্নতি হয়। উড়ে এসে জুড়ে বসারা ক্ষমতাটাকে ভোগের জায়গা বানায়। অর্থ-সম্পদ বানানোর একটা মেশিন হিসাবে পায়। 

বুধবার ভূমি মন্ত্রণালয়ের ভূমি ভবন, উপজেলা ও ইউনিয়নের ভূমি অফিস ভবন, অনলাইন ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ কার্যক্রম এবং ভূমি ডাটা ব্যাংকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।  ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যোগ দেন।  অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা ক্ষমতায় থাকলে দেশের মানুষ সেবা পায়, দেশের উন্নতি ও ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়।

আমরা যখন সরকারে আসি তখন আন্তরিকতা, আদর্শ, নীতি ও সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করি। কারণ এদেশের মানুষের মুক্তির জন্য সংগ্রাম করেছে আওয়ামী লীগের কর্মীরা, পাশে থেকেছে জনগণ। কিন্তু উড়ে এসে জুড়ে যারা ক্ষমতায় বসে, তাদের সেই দায়বদ্ধতা থাকে না।  দেশের মানুষের প্রতি তাদের কোনো খেয়ালই থাকে না। এটা হলো বাস্তবতা।

শেখ হাসিনা বলেন, পঁচাত্তরে জাতির পিতাকে হত্যার পরে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলের পালা যখন শুরু হল তখন থেকে দেশের ভাবমূর্তি বিদেশে নষ্ট হতে শুরু করে। বাংলাদেশ নাম শুনলে মনে করতো দুর্ভিক্ষ, ঝড়, বন্যা, জলোচ্ছ্বাস ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের দেশ। এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত অসম্মানজনক। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর আমরা মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নতি করতে চেষ্টা করেছি।

তিনি বলেন, বিএনপি সামরিক শাসকের হাতে তৈরি করা একটা সংগঠন। তাই মানুষের প্রতি, দেশের প্রতি তাদের কোনও দায়িত্ববোধও নেই। ক্ষমতা আর ক্ষমতায় থেকে টাকা বানানো, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস এবং দুর্নীতি তাদের কাজ। সেটাই তারা করেছে।

এসময় হাতের মুঠোয় ভূমিসেবা নিশ্চিত করতে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, আমরা ভূমি ব্যবস্থাপনাকে আরও উন্নত করতে চাই। সারাদেশের ভূমি অফিসগুলোর যে জীর্ণ দশা, আমাদের আগে তো অনেকই ক্ষমতায় ছিল; কেন এগুলো সংস্কার করেনি এটা বড় প্রশ্ন। দেশে ডিজিটাল টেলিফোন ছিল না। ১৯৯৬ সালে ক্ষমতায় আসার পর আমরাই সেটা করি। মোবাইল ফোন উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। এখন আমরা ফোর জি চালু করেছি। ফাইভ জিও চালুর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এখন কম্পিউটার, ল্যাপটপ বা ট্যাব ব্যবহারের প্রয়োজন হয় না, মোবাইলের মাধ্যমেও অনেক কাজ সহজে করতে পারেন। ট্যাক্স, খাজনা দিতে পারেন সেই ব্যবস্থাও নেওয়া হয়েছে। ভূমি মালিক এখন অফিসে না গিয়ে ডিজিটাল পদ্ধতিতে কর দিতে পারেন।



আরও খবর



ভারতে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ভারতে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে শতাধিক। তবে আগের দিনের তুলনায় কমেছে নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হওয়া মানুষের তুলনায় সুস্থ হয়েছেন বেশি মানুষ। ফলে মঙ্গলবার দেশটিতে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা আরও কমেছে, সঙ্গে বেড়েছে সুস্থতার হারও।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন ২৫ হাজার ৪০৪ জন মানুষ। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় দেশটিতে নতুন সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা কমেছে প্রায় ২ হাজার। সর্বশেষ এই সংখ্যাসহ মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৩২ লাখ ৮৯ হাজার ৫৭৯ জনে।

অন্যদিকে সোমবারের তুলনায় মঙ্গলবার ভারতে প্রাণহানির সংখ্যা বেড়েছে শতাধিক। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মারা গেছেন ৩৩৯ জন। অর্থাৎ গত এক দিনে প্রাণহানির সংখ্যা বেড়েছে ১২০ জন। মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৪ লাখ ৪৩ হাজার ২১৩ জন।

এদিকে দৈনিক সুস্থতা ও সংক্রমণের ক্ষেত্রে মঙ্গলবারও ভারতে বজায় রয়েছে স্বাভাবিক চিত্র। অর্থাৎ সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হওয়া মানুষের তুলনায় সুস্থ হয়েছেন বেশি মানুষ। ফলে মঙ্গলবার দেশটিতে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমেছে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে।

গত একদিনে ভারতে সুস্থ হয়েছেন বা হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৩৭ হাজার ১২৭ জন মানুষ। অন্যদিকে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ২৫ হাজারের বেশি। ফলে দেশটিতে মোট সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৬২ হাজার ২০৭ জনে।

ভারতের মোট শনাক্ত রোগীর ১ দশমিক ০৯ শতাংশ বর্তমানে সক্রিয় রোগী। সোমবারের তুলনায় মঙ্গলবার এই হার কমেছে। এদিকে ভারতে সুস্থতার হার আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৫৮ শতাংশ।


আরও খবর



জেএসসি-জেডিসি নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত আসছে!

প্রকাশিত:সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০21 | হালনাগাদ:সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০21 | ৩১৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

সময় স্বল্পতার কারণে এ বছর জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) এবং জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। তবে বিষয়ে শিক্ষার্থীদের দ্রুত সময়ের মধ্যে সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেবেন শিক্ষামন্ত্রী।

করোনা মহামারির কারণে সঠিক সময়ে এ বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়নি। এজন্য সিলেবাস সংক্ষিপ্ত করে আগামী নভেম্বরের শুরুতে এসএসসি এবং ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। শুধুমাত্র গ্রুপ ভিত্তিক তিনটি বিষয়ে এসএসসি ও এইচএসসির পরীক্ষা নেওয়া হবে। আবশ্যিক বিষয়ের উপর কোনো পরীক্ষা নেওয়া হবে না।

এসএসসি ও এইচএসসির বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসলেও শঙ্কা দেখা দিয়েছে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা নিয়ে। যদিও বছরের শেষ দিকে এসব পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু চলতি বছর এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ায় এ সময়ে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এক্ষেত্রে তারা শিক্ষার্থীদের অটোপাস দেওয়ার চিন্তাভাবনা করছে। এ বিষয়ে অক্টোবরের যে কোনো দিন ঘোষণা দেবেন শিক্ষামন্ত্রী।

আন্তঃশিক্ষা সমন্বয়ক বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১০ থেকে ১২ নভেম্বরের মধ্যে এসএসসি সমমান পরীক্ষা শুরু করতে একটি খসড়া রুটিন তৈরি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। সেটি অনুমোদন দিলে পরীক্ষা শুরুর ১৫ দিন আগে সে রুটিন প্রকাশ করা হবে। আগামী ১৫ ডিসেম্বর থেকে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু করতেও খসড়া রুটিন তৈরি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে নভেম্বর মাসে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা আয়োজন করা সম্ভব হবে না।

এ বিষয়ে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এসএম আমিরুল ইসলাম বলেন, এসএসসি পরীক্ষার সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। প্রশ্নপত্র ট্রেজারিতে পাঠানো হয়েছে। এখন শুরু করার অপেক্ষায়।

জেএসসি ও জেডিসির বিষয়ে বিষয়ে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ বলেন, এটি পাবলিক পরীক্ষা নয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি চিঠির আদেশে এ পরীক্ষা আয়োজন করা হয়। আমরা এখনো এ পরীক্ষার কিছুই জানি না। জেএসসির প্রস্তুতি বোর্ড নিজ থেকে নিতে পারে না। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে যে নির্দেশনা দেওয়া হবে সেটি তারা বাস্তবায়ন করবেন। এ বিষয়ে অক্টোবরের মধ্যে ঘোষণা আসতে পারে বলেও জানান তিনি।


আরও খবর
১৪ নভেম্বর থেকে দাখিল পরীক্ষা শুরু

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




বিশ্বে করোনায় আরও ৯ হাজার মানুষের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শনিবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৪৭৫জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

মহামারি করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে ৯ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে প্রায় ৬ লাখ লোকের।

আন্তর্জাতিক জরিপকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ‌্য মতে, শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৪৬ লাখ ৩০ হাজার ৭৭১ জন। আর এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে ২২ কোটি ৪৬ লাখ ৪৫ হাজার ৪৬১ জনের। সারাবিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়েছেন ২০ কোটি ১১ লাখ ৮৪ হাজার ৩১০ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৯ হাজার ৮ জন। এর আগের দিন করোনায় মারা যান ৯ হাজার ৮৬২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫ লাখ ৯৩ হাজার ৪৫৫ জনের। এর আগের দিন করোনা শনাক্ত হয় ৬ লাখ ২১ হাজার ২০২ জনের।

করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৪ কোটি ১৭ লাখ ৪১ হাজার ৬৯৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ৬ লাখ ৭৭ হাজার ১৭ জন মানুষ মারা গেছেন। এছাড়া, ভারতে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৩ কোটি ৩২ লাখ ৮৭৭ জনের। মারা গেছেন ৪ লাখ ৪২ হাজার ৩৫০ জন।

বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৬ হাজার ৮৩২ জন। এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৫ লাখ ২৭ হাজার ২১৫ জন। আর সুস্থ হয়েছেন ১৪ লাখ ৭২ হাজার ৬৭ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর গত বছরের ১১ মার্চে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে বৈশ্বিক মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে।


আরও খবর



২২ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বিপাকে নিউজিল্যান্ড

প্রকাশিত:বুধবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:বুধবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৫৯০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

বাংলাদেশ দলকে আবারও ব্রেক থ্রু উপহার দেন মেহেদি হাসান। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ইনিংসের প্রথম ওভারের তৃতীয় বলেই সাফল্য পান এ স্পিনার। তার বলে তার হাতেই ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরে ফেরেন রাচিন রবিন্দ্র।

মিরপুর শেরেবাংলায় টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে বিপাকে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম খেলায় ৬.৪ ওভারে মাত্র ২১ রান সংগ্রহ করতেই প্রথম সারির ৪ ব্যাটসম্যানের উইকেট হারিয়ে কোণঠাসা হয়ে পড়েছে সফরকারী দলটি।

ইনিংসের প্রথম ওভারের তৃতীয় বলেই সাফল্য পান স্পিনার মেহেদি হাসান। তার বলে তার হাতেই ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরে ফেরেন এই ম্যাচে অভিষেক হওয়া রাচিন রবিন্দ্র। 

প্রথম ওভারে ১ রানে নিউজিল্যান্ডের নেই এক উইকেট। তৃতীয় ওভারে বোলিংয়ে এসে সাকিব আল হাসান তুলে নেন ওয়ান ডাউনে ব্যাটিংয়ে নামা উইলি ইয়ংকে। চতুর্থ ওভারের তৃতীয় বলে নাসুম আহমেদের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন কলিন ডি গ্রান্ডহোম।

মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলাটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

অতীত সমীকরণে বাংলাদেশের চেয়ে একধাপ এগিয়ে নিউজিল্যান্ড। টি-টোয়েন্টির সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে অতীতে উভয় দল ১০ ম্যাচে মুখোমুখি হয়। সব ম্যাচে একক আধিপত্য বিস্তার করে জয় ছিনিয়ে নেয় নিউজিল্যান্ড।


আরও খবর
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের থিম সং প্রকাশ

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

মেসিকে পেছনে ফেললেন সিআর সেভেন

বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১




করোনাভাইরাসে দেশে সর্বনিম্ন মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৬৬০জন দেখেছেন
দর্পণ নিউজ ডেস্ক

Image

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যু আরও কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ৭০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এটি গত ৭২ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন মৃত্যু, এর চেয়ে কম ৬৯ জনের মৃত্যু হয়েছিল গত ২২ জুন। এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যু হয়েছে ২৬ হাজার ৪৩২ জনের।

শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় নতুন শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ১৬৭ জন। এ নিয়ে দেশে করোনায় মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৫ লাখ ১০ হাজার ২৮৩ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ২৯ হাজার ৪৭৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। আর নমুনা পরীক্ষা করা হয় ২৯ হাজার ৪৩৮ জনের। পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১০ দশমিক ৭৬ শতাংশ। এ পর্যন্ত মোট ৯০ লাখ ২১ হাজার ১০২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। মোট নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৭৪ শতাংশ।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম তিনজনের শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। এর দশদিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম একজনের প্রাণ কেড়ে নেয় ভাইরাসটি। সেই বছর সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছিল ৬৪ জনের। কিন্তু এবার সবচেয়ে বেশি মৃত্যু দেখেছে দেশ। গত ৭ জুলাই প্রথমবারের মতো দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে যায়। বেশকিছু দিন ২ শতাধিক মৃত্যু হয়। এরপর গত ১৩ আগস্ট মৃত্যুর সংখ্যা ২০০ এর নিচে নামা শুরু করে। দীর্ঘদিন পর গত ২৮ আগস্ট মৃত্যু ১০০ এর নিচে নেমে আসে। এরপর থেকে আজ (২ সেপ্টেম্বর) টানা ছয় দিন ধরে মৃত্যু ১০০ এর নিচে রয়েছে।



আরও খবর
করোনায় আরও ৩১ জনের মৃত্যু

শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১